এখন মহানন্দে চোখের পলকে হোন পদ্মাপার!

  ‘স্বপ্ন ছুঁয়েছে’ পদ্মার এপার-ওপার


মানসুরা চামেলী, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
এখন মহানন্দে চোখের পলকে হোন পদ্মাপার!

এখন মহানন্দে চোখের পলকে হোন পদ্মাপার!

  • Font increase
  • Font Decrease

বর্ণিল রঙে রঙিন পদ্মার আকাশ, চারিদিকে উল্লাস ধ্বনি। স্বপ্ন ছুঁয়ে যাচ্ছে শিরদাঁড়া! গর্ব ও অর্জনে উদ্বেলিত হৃদয়। শিবচর, জাজিরায় মানুষের স্রোতের ঢেউ উঠেছে। সবার কণ্ঠে জয়গান।

এ যেন পরম মহেন্দ্রক্ষেণ। টোল প্লাজায় ধীর পায়ে এগিয়ে গেলেন পদ্মা সেতুর স্বপ্ন কারিগর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একজন যাত্রী হয়ে পরিশোধ করেন টোল। মাওয়া প্রান্তের ফলক উন্মোচন করে প্রবেশ করলেন স্বপ্ন সেতু পদ্মায়। তিনি হয়ে গেলেন ইতিহাসের সাক্ষী। উন্মোচিত হলো দক্ষিণের দ্বার, খুলে গেল সম্ভাবনার দুয়ার।

ঘড়ির কাটায় যখন ঠিক বেলা ১২টা, পদ্মা সেতু উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর সেতু পাড়ি দেন তিনি।


স্বপ্ন ছোঁয়ার এই ক্ষণে একটাই কথাই মনে হলো অনেক হয়েছে অপেক্ষা, আর না, এবার কবি নির্মলেন্দু গুণের কবিতার ভাষায় গেয়ে উঠি- ‘এখন আর অপেক্ষা কিসের?/যান, জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু বলে/ এখন --মহানন্দে,-- মহাসুখে,/ চোখের পলকে হোন পদ্মাপার।’

গোটা দেশ আজ পদ্মা সেতুর উৎসবে মাতোয়ারা। ঐতিহাসিক এ দিনে লাখো জনতা পদ্মার পাড় শিবচরে গিয়ে মিলিত হয়েছেন। রোদ-বৃষ্টি মাথায় নিয়ে ভাগ্য পরিবর্তনের এই সেতুর উৎসবে যোগ দিয়েছেন। সকাল ৮টার মধ্যে জাজিরা ও শিবচরের অন্তত চারটি ইউনিয়নের সড়ক লোকে-লোকারন্য হয়ে যায়। গ্রামের বিভিন্ন সড়ক ধরে মানুষ সমাবেশ স্থলে আসতে থাকেন। আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী ও বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষে পদ্মার তীরের ৬ কিলোমিটার এলাকা ভরে যায়।

পদ্মা সেতু নির্মাণ যেন এক মহাকাব্য। নানা সমালোচনা বাধা পেরিয়ে নিজস্ব অর্থায়নে এই সেতু নির্মাণ। পদ্মা সেতু সাথে জড়িয়ে আছে জাতির আবেগ। দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়নের স্বপ্ন। এর মধ্যে দিয়ে দীর্ঘ দিনের ভোগান্তি লাঘাব হলো তাদের।


শনিবার পদ্মা সেতুর উদ্বোধন হলেও রোববার সকাল ৬টা থেকে পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে যান চলাচল শুরু হবে। দক্ষিণের জেলা ফরিদপুরের বাসিন্দা আজিজুল বিশ্বাস। পদ্মা সেতু চালু হওয়া ঈদের আনন্দে হচ্ছে তার। উন্মুখ হয়ে আছেন সেতু পাড়ি দিয়ে বাড়ি যাওয়ার জন্য।

আজিজুল বিশ্বাস বলেন, কি আনন্দ হচ্ছে বলে বোঝানো যাবে না। কালকেই সকালে সেতু পাড়ি দিয়ে বাড়ি যাব।

পদ্মা সেতু শুধু যোগাযোগ খাত নয়, পরিবর্তন আসবে কৃষিতে, গড়ে উঠবে শিল্প কলকারখানা। তাই কৃষকরা দিন গুণছেন তাদের নতুন দিনের। শিবচরে সমাবেশে যোগ দিতে এসে কৃষক বজলুর রহমান জানান, শিবচর থেকে পণ্য নিতে কি যে কষ্ট করতে হয়েছে বলে বোঝানো যাবে না। আজ পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় এক ঘণ্টায় ঢাকা ভেতরে সবজি নিয়ে যাব। এতে খরচ বাঁচবে, লাভ বেশি হবে।

মাদারিপুরের বাসিন্দা পপি মন্ডল স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনে উচ্ছ্বসিত আনন্দ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, দুর্ভোগের ভয়ে কখনই আমি পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া হয়ে যেতে চাই না। মাওয়া হয়ে ঝুঁকি নিয়ে স্পিডবোট পার হতাম। কিন্তু আবহাওয়া খারাপ হলে কি যে ভয় লাগ বলে বোঝাতে পারব না। আজকে পদ্মা সেতু উদ্বোধন হয়ে, আমি আসলে বলতে পারব না এ অনুভূতি কেমন।    


আজকের দিনটা দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জন্য সত্যিই বিশেষ বলে জানালেন বরিশালের বাসিন্দা আব্দুল কাইয়ুম।

তিনি বললেন, নিজে যেমন ভোগান্তির শিকার হয়েছি। তেমন মানুষের ভোগান্তি দেখেছি। ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হত পদ্মা পাড়ি দিতে। পদ্মা সেতু হওয়ায় এই দুর্বিসহ কষ্টের লাঘাব হলো। আজকে তাই বিশেষ একটা দিন আমাদের জন্য।

প্রসঙ্গত, নানা অভিযোগ ও ষড়যন্ত্র উপেক্ষা করে ২০১৪ সালে নিজস্ব অর্থায়নে এই সেতুর কাজ শুরু হয়। গত বুধবার (২২ জুন) সেতুর নির্মাণকাজ শতভাগ শেষ করে তা সেতু বিভাগকে বুঝিয়ে দিয়েছে চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। যার মাধ্যমে দেশের মানুষের স্বপ্ন বাস্তবে দৃশ্যমান হয়।

   

জেলা প্রশাসক সম্মেলন ৩-৬ মার্চ



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

আগামী ৩-৬ মার্চ ঢাকায় ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক সম্মেলন-২০২৪ অনুষ্ঠিত হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩ মার্চ সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

এক তথ্যবিবরণীতে একথা জানানো হয়।

চার দিনব্যাপী সম্মেলনে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রীবর্গ এবং মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সিনিয়র সচিব-সচিববৃন্দ এবং সরকারের বিভিন্ন সংস্থার প্রধানগণ অংশগ্রহণ করবেন।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সাধারণ সেবা-১ অধিশাখা থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

  ‘স্বপ্ন ছুঁয়েছে’ পদ্মার এপার-ওপার

;

সুন্নতে খতনা করাতে গিয়ে এবার প্রাণ গেল আইডিয়াল শিক্ষার্থীর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সুন্নতে খতনা করাতে গিয়ে এবার মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাতে মালিবাগের জে এস ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড মেডিকেল চেকআপ সেন্টারে চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী আহনাফ তাহমিন আয়হামকে (১০) সুন্নতে খতনা করাতে অপারেশন থিয়েটারে নেওয়া হয়। এর ঘণ্টাখানেক পর তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

স্বজনদের অভিযোগ, লোকাল অ্যানেস্থেসিয়া দেওয়ার কথা থাকলেও ফুল অ্যানেস্থেসিয়া দেওয়া হয় আয়হামকে। পরে তার আর জ্ঞান ফেরেনি।

আয়হামের বাবা ফখরুল আলম বলেন, অ্যানেস্থেসিয়া দিতে নিষেধ করার পরও সেটি শরীরে পুশ করেন ডাক্তার মুক্তাদির। তার অভিযোগ, এই মৃত্যুর দায় মুক্তাদিরসহ হাসপাতাল কর্তপক্ষ সবারই।

ফখরুল আলম আরও বলেন, আমি বারবার পায়ে ধরেছি। আমার ছেলেকে যেন ফুল অ্যানেস্থেশিয়া না দেওয়া হয়।

ঘটনার পরই ডায়াগোনেস্টির সেন্টার থেকে উধাও হয়ে যান, অর্থোপেডিক ডা. মুক্তাদির। যিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গেও সংযুক্ত বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, গত ৮ জানুয়ারি রাজধানীর সাতারকুল বাড্ডার ইউনাইটেড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে খতনা করাতে গিয়ে লাইফ সাপোর্টে থাকা শিশু আয়ান মারা যায়। টানা সাত দিন লাইফ সাপোর্টে ছিলো আয়ান।

  ‘স্বপ্ন ছুঁয়েছে’ পদ্মার এপার-ওপার

;

বাংলাকে জাতিসংঘের দাফতরিক ভাষা করা এখন লক্ষ্য: পররাষ্ট্রমন্ত্রী



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘের দাফতরিক ভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা বাংলাদেশের এখন লক্ষ্য বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলা পৃথিবীর অন্যতম ভাষা। ব্যাপক সংখ্যক মানুষ এ ভাষায় কথা বলে, সারা পৃথিবীতে ৩৫ কোটির বেশি বাংলা ভাষাভাষী মানুষ আছেন। সম্ভবত ৬ কিংবা ৭ নম্বর অবস্থানে আছে বাংলা ভাষা। আমাদের এখন লক্ষ্য হচ্ছে বাংলাকে জাতিসংঘের দাফতরিক ভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জেলখানায় বসে সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন ২১ ফেব্রুয়ারি প্রতিবাদ দিবসটি পালিত হবে। এরপর কানাডা প্রবাসী দুজন বাঙালির উদ্যোগ এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তে জাতিসংঘে প্রস্তাব পাঠানোর পর এটি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পায়।

  ‘স্বপ্ন ছুঁয়েছে’ পদ্মার এপার-ওপার

;

লেটুস চাষে সফলতা পেয়েছেন মিরপুরের সাইফুল



এসএম জামাল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুষ্টিয়া
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল বারুইপাড়া ইউনিয়নের বলিদাপাড়া গ্রামে বাণিজ্যিকভাবে চাষ হচ্ছে লেটুস। এ সবজি চাষে সফলতার স্বপ্ন দেখছেন সাইফুল ইসলাম নামের এক চাষি। ৮ হাজার টাকা খরচ করে প্রায় ৪৫ হাজার টাকা বিক্রি করার আশা করছেন এই তরুণ।

অত্যধিক পুষ্টি গুণাগুণ সমৃদ্ধ সবজি সম্পর্কে বলিদাপাড়া গ্রামের লেটুস চাষি সাইফুল ইসলাম জানান, যশোর অঞ্চলের টেকসই কৃষি সম্প্রসারণ প্রকল্পের আওতায় এবং উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের সহায়তায় ২০ শতাংশ জমিতে লেটুস চাষ করছেন কৃষক সাইফুল ইসলাম। লেটুস চাষে বাড়তি কোন ঝামেলা নেই। অন্যান্য ফসলের মতোই চাষ পদ্ধতি। গ্র্যান্ড র‍‍্যাপিডস জাতের লেটুসের বীজ রোপণ করা হয় গত ডিসেম্বর মাসে। ৬০ দিনের ফসল হিসেবে বর্তমানে এগুলো তোলার উপযুক্ত সময় চলছে।

কৃষক সাইফুল ইসলাম জানান, অনেকেই জমি থেকে নিয়ে যাচ্ছেন আবার বাজারেও গিয়ে বিক্রি করে থাকেন। জেলা শহরের সবজি বাজারের নিরাপদ সবজি কর্নারেও এ লেটুস পাওয়া যাচ্ছে।

লেটুস চাষ

চাইনিজ রেস্টুরেন্টগুলোতে ব্যাপক চাহিদা থাকায় লেটুস বিক্রিতে কোন সমস্যা হচ্ছে না এবং প্রতিটি লেটুস বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা বলে জানান কৃষক সাইফুল।

মিরপুর উপজেলার অতিরিক্ত কৃষি অফিসার মো. মতিয়র রহমান জানান, অত্যাধিক পুষ্টি গুণাগুণ সমৃদ্ধ লেটুস পাতায় রয়েছে বহুবিধ উপকারিতা। এ জন্য পুষ্টিবিদরা প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় লেটুস পাতা রাখার পরামর্শ প্রদান করেছেন। যার ফলে আমরাও উপজেলায় এই লেটুস আবাদের ওপর গুরুত্ব দিয়েছি।

উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মাহাবুল ইসলাম বলেন, লেটুস চাষে সার, বীজ প্রদানসহ কারিগরি সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, অত্যাধিক পুষ্টিগুণাগুণ সমৃদ্ধ সবজি লেটুস চাষে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করাসহ আর্থিক ও কারিগরি সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।

মিরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, মিরপুর উপজেলার বলিদাপাড়া গ্রামের কৃষক সাইফুল ইসলাম এবার ২০ শতাংশ জমিতে অত্যাধিক পুষ্টি গুণাগুণ সমৃদ্ধ সবজি লেটুস বাণিজ্যিকভাবে চাষ করে সফলতা অর্জন করেছে। লেটুস চাষে সফলতায় আশপাশের কৃষকরাও লেটুস চাষে এগিয়ে আসছেন বলে জানান তিনি।

  ‘স্বপ্ন ছুঁয়েছে’ পদ্মার এপার-ওপার

;