রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে নিরাপত্তা প্রধানকে বরখাস্ত করলেন জেলেনস্কি

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত


আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইউক্রেনের নিরাপত্তা সংস্থার (এসবিইউ) প্রধান এবং শীর্ষ প্রসিকিউটর জেনারেলকে বরখাস্ত করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। ক্ষমতাধর সংস্থা দুইটিতে রাষ্ট্রদ্রোহের বহু ঘটনার কথা উল্লেখ করে এই সিদ্ধান্তের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

জেলেনস্কি জানান, ৬০ জনের বেশি সাবেক কর্মী এখন রাশিয়ার অধিকৃত এলাকায় ইউক্রেনের বিরুদ্ধে কাজ করছে। তিনি আরও জানান, আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মোট ৬৫১টি সহযোগিতা ও রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা শুরু করা হয়েছে।

সোমবার (১৮ জুলাই) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে একথা জানানো হয়েছে।

বরখাস্তকৃত কর্মকর্তারা হলেন- ইভান বাকানভ এবং ইরিনা ভেনেডিক্টোভা এখন পর্যন্ত প্রেসিডেন্টের আদেশের বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেননি।

রোববার (১৭ জুলাই) রাতের ভিডিও বার্তায় জেলেনস্কি বলেন, রাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তার ভিত্তির বিরুদ্ধে এমন অপরাধের বিন্যাস... সংশ্লিষ্ট প্রধানদের (দুটি সংস্থার) বিরুদ্ধে অত্যন্ত গুরুতর প্রশ্ন উঠেছে। এর প্রতিটি প্রশ্নের যথাযথ উত্তর দেওয়া হবে।

বরখাস্ত হওয়া এসবিইউ প্রধান ইভান বাকানভ প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কির শৈশবের বন্ধু। এর আগে ক্রিমিয়ায় এসবিইউ এর আঞ্চলিক প্রধান ওলেহ কুলিনিচকে গ্রেফতার করা হয়। তাকে বিশ্বাসঘাতকতায় সন্দেহভাজন বিবেচনা করা হচ্ছে।

এদিকে ইউক্রেন বলেছে, রোববার রাশিয়ার বেশ কয়েকটি যুদ্ধ জাহাজ ক্রিমিয়ার কৃষ্ণ সাগর থেকে আরও পূর্বে নভোরোসিয়স্ক বন্দরে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।কিয়েভ তার পশ্চিমা মিত্রদের কাছ থেকে আরও বেশি দীর্ঘ পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার পাওয়ার পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাশিয়া।

এছাড়া ক্রিমিয়ায় হামলা চালানোর বিষয়ে ইউক্রেনকে হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন রাশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ। ক্রিমিয়ায় হামলা হলে ইউক্রেনকে ‘চূড়ান্ত দিনের’ মুখোমুখি হতে হবে বলে সতর্ক করেন রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের উপপ্রধান মেদভেদেভ।

   

মেক্সিকোতে নির্বাচনী প্রচারণার মঞ্চ ভেঙে নিহত ৯, আহত ৫০



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: রয়টার্স

ছবি: রয়টার্স

  • Font increase
  • Font Decrease

মেক্সিকোতে একটি নির্বাচনী প্রচারণার মঞ্চ ভেঙে ৯ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আর ৫০ জন। নিহতদের মধ্যে আটজন প্রাপ্তবয়স্ক এবং একজন শিশু ছিল।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) মেক্সিকোর উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্য নুয়েভো লিয়নে সেন্ট্রিস্ট সিটিজেনস মুভমেন্ট পার্টির নির্বাচনী প্রচার মঞ্চ ভেঙে এ ঘটনা ঘটে।

বার্তাসংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন এ তথ্য জানা গেছে।

উত্তর মেক্সিকান রাজ্যের গভর্নর স্যামুয়েল গার্সিয়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক বার্তায় জানান, নুয়েভো লিওনে সিটিজেনস মুভমেন্ট পার্টির সমাবেশে মঞ্চ ভেঙে ৯ জন নিহত হয়েছে। এতে আহত হয়েছে আরও প্রায় ৫০ জন। আহতদের স্থানীয় ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। নিহতদের মধ্যে আটজন প্রাপ্তবয়স্ক এবং একজন শিশু ছিল।

সেন্ট্রিস্ট সিটিজেনস মুভমেন্ট পার্টির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হোর্হে আলভারেজ মেনেজ বলেছেন, সান পেড্রো গারজা গার্সিয়া শহরের নির্বাচনি প্রচারণার সময় দমকা হাওয়া শুরু হয়। এতে সমাবেশের মঞ্চটি ভেঙে পড়ে। তিনি নিজেই এ ঘটনায় আহত হয়ে চিকিসৎসা নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন।

দুর্ঘটনার সময় করা ভিডিওতে দেখা গেছে, মঞ্চটি হঠাৎ ভিড়ের মধ্যে পড়ে যাচ্ছে, আতঙ্কিত হয়ে অনেকেই দৌড়ে আত্মরক্ষার চেষ্টা করছেন।

বিদায়ী রাষ্ট্রপতি আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাডর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক বার্তায় নিহতদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, মেক্সিকোতে আগামী ২ জুন প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এতে আলভারেজ মেনেজ প্রেসিডেন্ট পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

রাইসিকে বিদায় জানাতে ইরানে ৬৮ দেশের প্রতিনিধি



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইরানে হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত দেশটির প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন আজ। বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুরে জন্মস্থান মাশহাদে জানাজা শেষে সমাহিত করা হবে তাকে। তাকে বিদায় জানাতে অংশ নিয়েছেন ৬৮ দেশের প্রতিনিধি। 

বুধবার (২২ মে) আনাদোলু এজেন্সির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশিত হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বৃহস্পতিবার সকালে প্রিয় প্রেসিডেন্টকে শেষ বিদায় জানাতে রাস্তায় নেমে এসেছেন সর্বস্তরের মানুষ। এর আগে বুধবার তেহরানে ৫০ দেশের ৬৮ জন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা মরদেহের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। এতে অংশ নেন কাতার, ইরাক, পাকিস্তান ও সিরিয়া, তুর্কমেনিস্তানের জাতীয় নেতাসহ বিশিষ্টজনেরা। এ সময় তাদেরকে অভ্যর্থনা জানান ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ মোখবার, ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলী বাগেরি কানি এবং অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তারা।

অনুষ্ঠানে যারা উপস্থিত ছিলেন তাদের মধ্যে ছিলেন কাতারের আমির তামিম বিন হামাদ আল থানি, ইরাকের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শিয়া আল-সুদানী, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফ এবং আজারবাইজানের প্রধানমন্ত্রী আলি আসাদভ।

তিউনিসিয়ার প্রেসিডেন্ট কাইস সাইদ, সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ, তাজিকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ইমোমালি রহমান এবং লেবানন, আলজেরিয়া, কাজাখস্তান, ইথিওপিয়া, মালি, রাশিয়া ও উজবেকিস্তানের পার্লামেন্ট স্পিকাররাও উপস্থিত ছিলেন এবং তাদের শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

অনুষ্ঠানে তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট সেভদেত ইলমাজ এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাকান ফিদানও অংশ নেন। এছাড়াও অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে লেবানন, মিশর, তিউনিসিয়া, সৌদি আরব, কুয়েত, উজবেকিস্তান, তাজিকিস্তান, বেলারুশ, আর্মেনিয়া, আজারবাইজান, শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান, পাকিস্তান, ভেনিজুয়েলা এবং জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরাও ছিলেন।

হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়াহও অনুষ্ঠানে অংশ নেন এবং জানাজা অনুষ্ঠানের ফাঁকে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনির সঙ্গে বৈঠক করেন।

প্রসঙ্গত, রোববার (১৯ মে) আজারবাইজানের সীমান্তের কাছে দুটি বাঁধ উদ্বোধন করে ফেরার পথে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে মারা যান প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি। এ দুর্ঘটনায় রাইসি ছাড়াও ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির আব্দোল্লাহিয়ান, পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশের গভর্নর মালেক রহমাতি, পূর্ব আজারবাইজানে ইরানের সর্বোচ্চ নেতার প্রতিনিধি মোহাম্মদ আলি আলে-হাশেম ও প্রেসিডেন্ট গার্ডের প্রধান মেহেদি মুসাভি ছিলেন হেলিকপ্টারটিতে। এ ছাড়া হেলিকপ্টারের পাইলট, কো-পাইলট ও ক্রুও মারা গেছেন।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

গাজায় মসজিদে ইসরায়েলি হামলায় ১০ শিশুসহ নিহত ১৬



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজায় একটি মসজিদে ইসরায়েলি হামলায় ১০ শিশুসহ অন্তত ১৬ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, উত্তর গাজার ফাতিমা আল-জাহরা মসজিদে হামলা চালায় ইসরায়েলি সেনা বাহিনী। এতে ১০ শিশুসহ অন্তত ১৬ জন নিহত হন। রাতভর হামলার কারণে শিশুদের নিয়ে অনেক নারীও ওই মসজিদে আশ্রয় নিয়েছিলেন। এছাড়া দারাজের আশপাশের আল-সাহাবা স্ট্রিটের মসজিদ এবং আশপাশের ভবনগুলোও ইসরায়েলি হামলার মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এদিকে মধ্য গাজার নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরের একটি বাড়িতে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর বোমা হামলায় অন্তত আটজন নিহত হয়েছেন বলে ওয়াফা নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে। নিহতদের বেশিরভাগই নারী ও শিশু। এছাড়াও জেইতুন এলাকায় কিছু সংখ্যক মানুষের ওপর ড্রোন হামলা চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। এ ঘটনায় নারী ও শিশুসহ আরও ১৫ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও বহু মানুষ।

উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর থেকে চলমান সহিংসতায় গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী হামাসের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের প্রতিশোধমূলক আক্রমণে গাজায় কমপক্ষে ৩৫ হাজার ৭০৯ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। এদের বেশিরভাগই নারী এবং শিশু। হামলায় আরও প্রায় ৮০ হাজার মানুষ আহত হয়েছেন বলেও এক বিবৃতিতে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

তাইওয়ানের চারপাশে চীনের ব্যাপক সামরিক মহড়া



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

তাইওয়ানের চারপাশে চীনের দুই দিনের সামরিক মহড়া শুরু হয়েছে। তাইওয়ানের বিচ্ছিন্নতাবাদী কর্মকাণ্ডের জন্য কঠোর শাস্তি হিসেবে আকাশ ও জলপথে চীনের সামরিক মহড়া চলবে বলে জানিয়েছে চীনা রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশিত হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, তাইওয়ানের নতুন প্রেসিডেন্ট লাই চিং-তে শপথ নেওয়ার তিন দিন পরই স্বায়ত্ত্বশাসিত দ্বীপটির চারপাশে সামরিক মহড়া শুরু করল চীন। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে তাইওয়ান প্রণালীর পাশাপাশি তাইওয়ানের উত্তর, দক্ষিণ ও পূর্ব এবং সেইসাথে কিনমেন, মাতসু, উকিউ এবং ডংগিন দ্বীপের চারপাশের এলাকায় মহড়া শুরু করে।

চীনের সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র লি শি বলেছেন, ‘তাইওয়ানের স্বাধীনতা’ বাহিনীর বিচ্ছিন্নতাবাদী কর্মকাণ্ডের জন্য কঠোর শাস্তি এবং বহিরাগত শক্তির হস্তক্ষেপ ও উস্কানির বিরুদ্ধে কঠোর সতর্কতা’ হিসেবে যৌথ এই মহড়া চালানো হচ্ছে।

চীনা রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম শিনহুয়ার প্রতিবেদন অনুযায়ী, জয়েন্ট সোর্ড-২০২৪এ নামের মহড়াটিতে সমুদ্র ও আকাশপথের যুদ্ধের প্রস্তুতি, যুদ্ধক্ষেত্র নিয়ন্ত্রণ এবং নির্ভুল হামলার ওপর জোর দেওয়া হবে। চাইনিজ পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) ইস্টার্ন থিয়েটার কমান্ড তাইওয়ান দ্বীপকে ঘিরে যৌথ সামরিক মহড়া শুরু করে। কিনমেন, মাতসু, উকিউ এবং ডংগিন দ্বীপের আশপাশেও এই মহড়া অনুষ্ঠিত হবে।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;