২৪ ঘণ্টায় ১ জনের মৃত্যু, শনাক্তের হার ১৬ শতাংশ

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা সংক্রমণ বেড়েছে দশমিক ১৬ শতাংশ। আর এই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন একজন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মঙ্গলবার জানানো হয়েছে, গতকাল করোনায় শনাক্তের হার ছিল ১০ দশমিক ৮৭ শতাংশ। আজ তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১ দশমিক ০৩ শতাংশে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ৭ হাজার ৯২৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ৮৭৪ জন। আগের দিন ৮ হাজার ২৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছিল ৮৭৩ জন।

দেশে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৪২ লাখ ৪১ হাজার ২৫৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় মোট শনাক্ত হয়েছে ১৯ লাখ ৫৮ হাজার ৭৪ জন। এ পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছে ১৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ। করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজন মারা গেছেন। এখন পর্যন্ত দেশে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা ২৯ হাজার ১৩৩ জন। মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

দেশে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়েছেন ৯৪ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ৫ হাজার ৯৮৩ জন। সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৩৪ শতাংশ। গতকাল এই হার ছিল ৯৭ দশমিক ৩৮ শতাংশ।

এদিকে রাজধানীসহ ঢাকা জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৬ হাজার ৩৪৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছে ৭৯০ জন। শনাক্তের হার ১২ দশমিক ৪৪ শতাংশ। আগের দিনেও এই হার ছিল ১১ দশমিক ৮৬ শতাংশ।

দেশে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত (কোভিড-১৯) প্রথম রোগী শনাক্ত হয় ২০১৯ সালের ৮ মার্চ। তার ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর অতিকথনে ক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশের মানুষ বেহেশতে আছে বক্তব্য দেওয়ার রেশ কাটতে না কাটতেই পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, শেখ হাসিনাকে টিকিয়ে রাখতে যা যা করা দরকার, তা করতে ভারত সরকারকে অনুরোধ করেছি। এমন বক্তব্যে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। রাজনৈতিক অঙ্গনসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্রে এখন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের একের পর এক বেফাঁস মন্তব্যে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছে সরকার। তার অতিকথনে ক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগও। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দেশের একজন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কথা বলার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকা উচিত। না হলে এসব কথায় মানুষের কাছে ভুল বার্তা যাবে।

তারা আরও বলেন, একজন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এমন বক্তব্য দেওয়ার এখতিয়ার নেই। এসব কথা বলে শুধু সরকার নয়, জনগণকেও বিব্রত করেছেন তিনি। তাদের মতে, একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের সরকার টিকিয়ে রাখে জনগণ। এতে অন্য কোনো দেশের কিছু করার সুযোগ নেই। তাই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এ ধরনের বক্তব্য লজ্জাজনক। কথা বলার ক্ষেত্রে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আরও সতর্ক থাকা উচিত।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য ভারতকে অনুরোধ আওয়ামী লীগ করে না, করেনি। শেখ হাসিনা সরকারের পক্ষ থেকেও কাউকে এমন দায়িত্ব দেওয়া হয়নি। যিনি (পররাষ্ট্রমন্ত্রী) এ কথা বলেছেন, সেটা তার ব্যক্তিগত অভিমত হতে পারে। সেটা আমাদের সরকারের বক্তব্য না, দলেরও না।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ভারত আমাদের সঙ্গে বন্ধুত্বের বন্ধনে আবদ্ধ। ভারত আমাদের দুঃসময়ের বন্ধু। ’৭১-এ রক্তের বন্ধনে আমরা আবদ্ধ। তাই বলে আমরা ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য ভারতকে অনুরোধ করব—এ ধরনের কোনো অনুরোধ আওয়ামী লীগ করে না, করেনি। শেখ হাসিনা সরকারের পক্ষ থেকেও কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হয়নি। আমাদের সমর্থন, ক্ষমতার উৎস বাংলাদেশের জনগণ।

যিনি এ কথা বলেছেন, সেটা তার ব্যক্তিগত অভিমত হতে পারে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, এটা আমি পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দিতে চাই। এতে ভারতও লজ্জা পায়। কীভাবে আমরা এ কথা বলি? বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কটা ভালো আছে। অহেতুক কথা বলে এটা (বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক) নষ্ট করবেন না।

আওয়ামী লীগ নেতারা বলেছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বেফাঁস মন্তব্যে সাধারণ মানুষের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হতে পারে। কারণ, তার দেশের সরকার টিকিয়ে রাখছে অন্য দেশের সরকার। এতে তারা (জনগণ) মনে করতে পারে তাদের ভোটের দাম নেই। তার (পররাষ্ট্রমন্ত্রী) এই বক্তব্য ঠিক হয়নি।

সাধারণ জনগণ বলছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন তা দেশের জন্য সম্মানজনক নয়। গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে আরও দায়িত্বশীল কথা বলা উচিত।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বক্তব্য নিয়ে চলছে তীব্র সমালোচনা। তারা বলছেন, আমাদের দেশ কারা চালাচ্ছে.? একটি দেশ ধ্বংস হওয়ার জন্য জঘন্য রাজা, ঘুমন্ত প্রজা এবং বিক্রিত মন্ত্রীরাই যথেষ্ট!

শামীম মল্লিক নামে একজন লিখেছেন, রাষ্ট্রবিরোধী এবং দেশদ্রোহী বিশ্বাসঘাতকতার জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করা উচিত। কেনো ভারতের সহায়তা চেয়েছে জানার জন্য, প্রয়োজনে বিচার বিভাগীয় তদন্ত সাপেক্ষে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

মতিউর রহমান নামে আরেকজন লিখেছেন, একটি স্বাধীন দেশের মন্ত্রীর বক্তব্য এমন হতে পারে! স্বাধীন দেশের স্বাধীন জনগণের প্রতি আস্থা বা বিশ্বাস নেই। মুজিবের আদর্শের ৩০ লাখ শহীদের রক্তের সঙ্গে বেইমানি করেছে এরা দেশদ্রোহী ।

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;

হাতিয়ার সঙ্গে সারা দেশের নৌ যোগাযোগ বন্ধ, ভোগান্তি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে সৃষ্ট লঘুচাপে ৩ নম্বর সর্তকতা সংকেতের কারণে সাগর উত্তাল ও দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার নলচিরা-চেয়ারম্যানঘাটসহ সকল রুটে নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সকল নৌ-যানকে উপকূলের কাছাকাছি থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার (১৯ আগস্ট) সকাল থেকে উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে নৌ-যান চলাচল বন্ধ রেখেছে কর্তৃপক্ষ।

হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, লঘুচাপের প্রভাবে হাতিয়ার মেঘনা ও পার্শ্ববর্তী বঙ্গোপসাগর উত্তাল রয়েছে, চলছে ৩ নম্বর স্থানীয় সর্তকতা সংকেত। ভোর থেকে উপজেলায় বৃষ্টি ও প্রচণ্ড বেগে বাতাস বইছে। একদিকে বৃষ্টি অন্যদিকে ধমকা হাওয়ার কারণে নদী পারাপারে ঝুঁকি থাকায় সকাল থেকে সাময়িকভাবে নৌ-চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

ইউএনও আরও জানান, লঘুচাপের কারণে উপকূলে বর্তমানে ৩ নম্বর সর্তকতা সংকেত চলছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলে এ নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;

কোথায় কখন লোডশেডিং



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জ্বালানি সংকটের কারণে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ঘাটতির জন্য দেশজুড়ে এলাকাভিত্তিক আজও লোডশেডিং শুরু হচ্ছে। সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী শনিবারের (২০ আগস্ট) তালিকা প্রকাশ করেছে বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিগুলো।

ঢাকা বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানি (ডিপিডিসি), ঢাকা ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (ডেসকো), নর্দান ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (নেসকো), ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউসন কোম্পানি (ওজোপাডিকো), বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (বিআরইবি) এবং বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি) এর ওয়েবাসাইটের নির্দিষ্ট লিংককে গিয়ে এই তালিকা দেখতে পারবেন গ্রাহকরা।

আজকে কোন এলাকায় কখন লোডশেডিং হবে, এর সূচি দেওয়া হয়েছে। দেখে নেওয়া যাক।

https://www.desco.org.bd/bangla/loadshed_b.php

http://www.wzpdcl.org.bd/

https://nesco.portal.gov.bd/site/page/13ccd456-1e1d-4b24-828d-5811a856f107

http://reb.portal.gov.bd/site/page/c65ac273-d051-416f-9a93-5cd300079047

https://bpdb.portal.gov.bd/site/page/cafea028-95e6-4fca-8fea-e4415aef9a60

https://www.desco.org.bd/bangla/loadshed_b.php

জ্বালানি সাশ্রয়ে উচ্চ ব্যয়ের ডিজেলচালিত বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ রাখার সরকারি সিদ্ধান্তের পর সরবরাহ সংকটে দেশজুড়ে প্রতিদিন সূচি ধরে কোথাও এক ঘণ্টা আবার কোথাও ২ ঘণ্টা করে লোডশেডিং করা শুরু হয় মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) থেকে।

এর আগে ১৮ জুলাই লোডশেডিংয়ের সিদ্ধান্ত সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বিদ্যুৎ ও জ্বালানিবিষয়ক সমন্বয় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;

শাহবাজপুর গ্যাসক্ষেত্রের ষষ্ঠ কূপের খনন শুরু



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ভোলা
শাহবাজপুর গ্যাসক্ষেত্রের ষষ্ঠ কূপের খনন শুরু

শাহবাজপুর গ্যাসক্ষেত্রের ষষ্ঠ কূপের খনন শুরু

  • Font increase
  • Font Decrease

ভোলার শাহবাজপুর গ্যাসক্ষেত্রে ষষ্ঠ কূপ ‘টবগী-০১’ এর খনন শুরু হয়েছে।

শুক্রবার (১৯ আগস্ট) ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার টবগী ইউনিয়নে নতুন এ কূপ খনন কাজের উদ্বোধন করেন জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. মাহবুবর হোসেন। এসময় পেট্টোবাংলার চেয়ারম্যান ও বাপেক্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক উপস্থিত ছিলেন।

নুতন কূপ খননের মাধ্যমে ২০ থেকে ২৫ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস পাওয়ার আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা। দেশীয় গ্যাসের উৎপাদন বৃদ্ধির আশা বাপেক্সের।

জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, জ্বালানি সংকট দূর করার লক্ষে দেশীয় গ্যাসের উৎপাদনে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে সরকার। এর অংশ হিসেবে ভোলার শাহবাজপুর গ্যাসেক্ষেত্রে ৬ষ্ঠ কূপ খননের উদ্যোগ নেয় বাপেক্স।

বাপেক্সের নকশা ও লোকেশন অনুযায়ী আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান রাশিয়ার গ্যাসপ্রম কূপ খনন কাজ পরিচালনা করছে। নতুন গ্যাসের সন্ধানে কূপটির প্রায় ৩ হাজার ৫শ’ মিটার গভীর পর্যন্ত খনন করা হবে। সফল হলে এ কূপ থেকে প্রতিদিন ২০ থেক ২৫ মিলিয় ঘনফুট গ্যাস পাওয়া যাবে।

খনন কাজ উদ্বোধনের পর পেট্টোবাংলার চেয়ারম্যান নাজমুল আহসান জানান, দেশিয় গ্যাস উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। এ কূপটি ৩ হাজার ৫শ’ মিটার গভীর পর্যন্ত খনন করা হবে। আজকে যে খনন কাজ শুরু হলো তা থেকে প্রতিদিন ২০ থেকে ২৫ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস পাওয়ার আশা করেন তিনি। যা গ্যাস সংকট পূরণে সহায়তা করবে।

বাপেক্সের ব্যববস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আলী জানান, গ্যাসের উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এ কূপ খনন তার মধ্যে অন্যতম। খনন কাজের মধ্যদিয়ে গ্যাসের উৎপাদন বাড়ানোর প্রক্রিয়া আরও একধাপ এগিয়ে গেল।

শাহবাজপুর গ্যাসক্ষেত্রের আগে ৪টি কূপ ও শাজবাজপুর ইস্ট নামের আরও একটি কূপ খননের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ‘টবগী-০১’ ষষ্ঠ কূপ। এছাড়া সদর উপজেলায় ভোলা নর্থ নামের আরেকটি কূপ খনন করা হয়েছে। এর পরে সদর উপজেলার ইলিশা এলাকাসহ আরও ২টি কূপ খনন করা হবে বলে বাপেক্স এমডি জানিয়েছেন। এর মধ্যে শাহবাজপুরের ৪টি কূপ থেকে ভোলার বিদ্যুৎ প্লান্ট ও ৩ হাজার গ্রাহককে গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে। শাহবাজপুর ও ভোলা নর্থ কূপে দেড় টিসিএফ গ্যাস মজুদ আছে যা আরও বাড়বে বলে আশা বাপেক্সের।

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;