সুরসম্রাজ্ঞীকে বিনম্র চিত্তে স্মরণ পাকিস্তান-আমেরিকা-ইসরায়েল-ফ্রান্সের



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
লতা মঙ্গেশকর

লতা মঙ্গেশকর

  • Font increase
  • Font Decrease

রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে ভারতীয় উপমহাদেশের প্রখ্যাত কণ্ঠশিল্পী লতা মঙ্গেশকর ৯২ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

সুরসম্রাজ্ঞী লতার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন পাকিস্তানের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী। সেইসঙ্গে শোকজ্ঞাপন করেছে ভারতেন অবস্থিত আমেরিকা, ইসরায়েল ও ফ্রান্সের দূতাবাসগুলোও।

পাকিস্তানের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ফাওয়াদ নিজের টুইটারে টুইট করে মেলোডি কুইন লতা মঙ্গেশকরের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

তার টুইট বার্তায় জানান,’লতার প্রয়াণের সঙ্গে শেষ হল একটি অধ্যায়ের। দশকের পর দশক ধরে বিশ্বকে তিনি তাঁর কণ্ঠমাধুর্যে মাতিয়ে রেখেছিলেন। তিনি চলে গেলেও বিশ্ব মনে রাখবে তার গলায় গাওয়া সেই গান। পাকিস্তানের তরফ থেকে এই শিল্পীর প্রতি রইল বিনম্র শ্রদ্ধা।’

দিল্লির মার্কিন দূতাবাস থেকেও ভারতরত্নের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। দূতাবাস তাদের টুইটার হ্যান্ডেলে শিল্পীর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে বলেন, ‘এই শোকের দিনে ভারতের সঙ্গে সামিল আমেরিকাও। দেশের তরফ থেকে ভারতের এই সংগীতশিল্পীর প্রতি রইল শ্রদ্ধা।’

পাকিস্তান, আমেরিকার পাশাপাশি ইসরায়েল, ব্রিটেনসহ একাধিক দেশ এই শিল্পীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে। ভারতের ইসরায়েল দূতাবাসের তরফ থেকে এই শিল্পীর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করতে গিয়ে বলা হয়েছে, ’কোকিলকণ্ঠী লতা মঙ্গেশকরের প্রয়াণের খবরে আমরা শোকে মূহ্যমান। সংগীত জগতে তার অবদানের কথা মনে রাখবে এই দেশ এই বিশ্ব। আজ এই দুঃখের দিনে ভারতের পাশে ইসরায়েল। তার আত্মার চিরশান্তি কামনা করি।

মুম্বাইয়ে ইসরায়েল দূতাবাসের কনসাল জেনারেল তার টুইটার হ্যান্ডেলে লতার একটি গান পোস্ট করেছেন।

ফরাসি দূতাবাসও এই শিল্পীর প্রয়াণের খবরে ব্যথিত।

ভারতে নিযুক্ত ফরাসি রাষ্ট্রদূত ইমানুয়েল লেনেইন। নিজের টুইটারে তার টুইট, ‘অত্যন্ত দুঃখজনক। ওনার আত্মার শান্তিকামনা করি।’

আফগানিস্তান: শাসক, পলাতক, কেউ ভালো নেই!



কনক জ্যোতি, কন্ট্রিবিউটিং করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
কেউ ভালো নেই আফগানিস্তানে। সংগৃহীত।

কেউ ভালো নেই আফগানিস্তানে। সংগৃহীত।

  • Font increase
  • Font Decrease

আফগানিস্তানে তালেবানদের পুনঃক্ষমতা দখলের এক বছর পূর্তি হলো কদিন আগে। আমেরিকা ও মিত্ররা ক্ষমতাসীন তালেবানদের হটিলে দিলেও প্রায়-ধূলিসাৎ তালেবানরা আবার ক্ষমতা কেড়ে নিয়ে দেশছাড়া করেছে বিদেশি সৈন্যদের। এতো কিছুর পরেও আফগানিস্তানে শাসক, পলাতক, কেউ ভালো নেই। মোটেও ভালো নেই সাধারণ জনতা।

পালিয়ে যাওয়া আমেরিকান সৈন্য ও কর্মকর্তাগণ পরাজয়ের জন্য উপর্যুপরি জেরার সম্মুখীন নিজের দেশের বিভিন্ন সংস্থার কাছে। আমেরিকানদের পেছনে পেছনে পালিয়ে যাওয়া আফগান নেতারা রয়েছেন করুণ দশায়। আর খোদ আফগানিস্তান নানা সমস্যায় পর্যুদস্ত। সাধারণ মানুষের প্রাত্যহিক জীবনে চলছে সঙ্কটের ঘূর্ণাবর্ত।

আমেরিকার সেনা এবং আফগানিস্তানের স্বাধীনতাকামী তালিবান বিরোধী শক্তির সঙ্গে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ থামলেও সম্পূর্ণ ভাবে ভেঙে পড়েছে দেশেটির অর্থনীতি। মানবাধিকার ও নারীমুক্তির যে প্রতিশ্রুতি তালেবান নেতাদের মুখে এক বছর আগে লেগে থাকত, তা ইতিহাসের নথিতে মুখ গুঁজেছে । শাসকরা এখন ভেতর ও বাইরের চাপে দিশেহারা। পশ্চিমা মিডিয়ার প্রচারণায় নয়, বাস্তব তথ্য-প্রমাণে আফগানিস্তানের করুণ হাল সুস্পষ্ট।

জনতা ও শাসকদের মতো না হলেও ভালো নেই আফগানিস্তানের পলাতক নেতারাও। বিশেষ করে, আমেরিকার সমর্থক প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি এবং প্রাক্তন আফগান ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লা সালেহ রয়েছেন প্রায়-উদ্বাস্তু পরিস্থিতিতে।

কিছু দিন আগে খবর পাওয়া যায়, গনি জমানায় আফগানিস্তানের অর্থমন্ত্রী খালিদ পায়েন্দা আমেরিকায় ট্যাক্সি চালিয়ে সংসার চালাচ্ছেন। আফগানিস্তানের তালেবান শাসনের বর্ষপূর্তির মধ্যেই জানা গেল প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট গনি আরব আমিরাতে তার নির্বাসিত জীবন কাটাচ্ছেন। তবে সেখানে তার কোনো নাগরিকত্ব নেই।

মধ্য আগস্টে একটি টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানে তাকে দেখা গিয়েছে। সেখানে আফগানিস্তান থেকে আমেরিকান সেনা প্রত্যাহারের ‘সমালোচনা’ করতে শোনা যায় তাকে। গনিকে বলতে শোনা যায়, ‘‘আমি আমার দেশকে সুস্থ করতে চাই। আমি আশা করি, যে জায়গায় আমার শরীরের প্রতিটি কোষ রয়েছে, যাকে ছাড়া আমি বিজাতীয় বোধ করি, সেই দেশকে আবার রক্ষা করতে পারব।’’

অন্য দিকে, প্রাক্তন আফগান ভাইস প্রেসিডেন্ট সালেহ তালেবান বিরোধী জোট নর্দার্ন অ্যালায়্যান্সের ( ‘ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্ট অব অফ আফগানিস্তান’ বা এনআরএফও) নেতা আহমদ মাসুদ ও আফগান সেনাবাহিনীর প্রাক্তন লেফটেন্যান্ট জেনারেল সামি সাদাতের সহযোগিতায় শক্তি সঞ্চয়ের চেষ্টা করেও বিশেষ কোনো সুবিধা করতে পারছেন না। আত্মগোপনে দেশের নানা প্রান্তে পলাতক জীবন কাটাচ্ছেন তিনি।

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম বলছে, প্রাক্তন আফগান ভাইস প্রেসিডেন্ট এখন পঞ্জশির উপত্যকায় রয়েছেন। তবে এটি তার স্থায়ী ঠিকানা নয়। নিরাপত্তার কারণে তিনি প্রতিনিয়ত জায়গা বদল করেন এবং কোনো স্থায়ী ঠিকানা প্রকাশ করেন না। এরই মধ্যে ১৫ আগস্ট একটি টুইট করেন সালেহ। দাবি করেন, ডজন খানেক তালেবান যোদ্ধাকে বন্দি করা হয়েছে। কয়েক জন এনআরএফের আক্রমণে নিহত হয়েছেন। শীঘ্রই তারা এই যুদ্ধের ফুটেজ প্রকাশ করবেন বলে জানান সালে। তার বার্তাকে আফগানিস্তান ও তার বন্ধুরা মোটেও আমলে নেয় নি।

মোটের উপর যারা আফগানিস্তান শাসন করছেন আর যারা পরাজিত হয়ে পালিয়ে গেছেন, সবার ভাগ্যই 'বিপন্ন দেশ আফগানিস্তান'-এর মতোই বিপদাপন্ন। সংঘাতের ধারাবাহিকতায় ভালো নেই কোনো পক্ষই।

;

পার্টিতে ফিনিশ প্রধানমন্ত্রীর উদ্দাম নৃত্যের ভিডিও ভাইরাল



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সান্না মারিনের (৩৬) একটি ভিডিও ফাঁস হয়েছে। যেখানে দেখা গেছে ৩৬ বছর বয়সী এই প্রধানমন্ত্রী বন্ধুদের সঙ্গে পার্টিতে উদ্দাম নৃত্য করছেন। এ নিয়ে ফিনল্যান্ডেই ওঠেছে সমালোচনার ঝড়।

অনেকে বলছেন, যখন ফিনল্যান্ড গত ৩৮ বছরের মধ্যে সবচেয়ে অর্থনৈতিক বিপর্যয় দেখা দিয়েছে এবং বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় সাধারণ মানুষ বিপাকে পড়েছেন তখন পার্টিতে প্রধানমন্ত্রীর এমন নৃত্য করার বিষয়টি সমীচীন নয়।

দেশটির বিরোধী দলগুলো সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রীর ড্রাগ পরীক্ষা করার দাবি করেছেন। কারণ তাদের শঙ্কা তিনি মাদকাসক্ত।

তবে ফিনিশ প্রধানমন্ত্রী মাদক গ্রহণের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেছেন, তিনি কেবলমাত্র মদ্যপান করেছিলেন এবং উদ্ধতভাবে পার্টি করেছিলেন।

ভিডিও ভাইরাল হওয়ার বিষয়ে ফিনিশ প্রধানমন্ত্রী আন্না মারিন বলেন, আমি জানতাম বিষয়টি ভিডিও করা হচ্ছে; কিন্তু এটি জনসম্মুখে প্রকাশ করা হয়েছে এজন্য আমি ব্যথিত হয়েছি।

ফিনিশ প্রধানমন্ত্রীর উদ্দাম নৃত্য

তিনি আরও বলেন, আমি নেচেছি, গেয়েছি এবং পার্টি করেছি। যা অবশ্যই বৈধ। আমি কোথাও যাইনি যেখানে মাদক বা মাদকাসক্ত ব্যক্তি আছে। আমার পারিবারিক জীবন আছে। আমার কাজের জীবন আছে এবং বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটানোর অলস সময় আছে। আমার বয়সী সবাই যে রকমটি করে।

তিনি জানান, নিজের মধ্যে কোনো পরিবর্তন আনবেন না। এবং তার আশা বাকিরা এটি স্বাভাবিকভাবে নেবে।

তবে ফিনল্যান্ডের বিরোধী দলীয় নেতা রিক্কা পুরা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর উচিত স্বেচ্ছায় ড্রাগ টেস্ট করা। কারণ তাকে নিয়ে সন্দেহ আছে। তবে আবার কয়েকজন বিরোধী দলের নেতা জানিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে মিডিয়া ও রাজনীতিবীদরা বেশি আলোচনা করছেন। যেটির কোনো প্রয়োজন নেই।

ফিনিশ প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, তিনি মাদক গ্রহণ করেননি এবং পরীক্ষা করাতে তার কোন সমস্যা নেই।

সান্না মারিনে ২০১৯ সালের ডিসেম্বর থেকে ক্ষমতায় আছেন এবং তার দলের সমর্থন ধরে রেখেছেন।

;

আলজেরিয়ায় ভয়াবহ দাবানলে নিহত ২৬



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

আলজেরিয়ায় ভয়াবহ দাবানলে অন্তত ২৬ জন প্রাণ হারিয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ডজন খানেক।

বুধবার (১৭ আগস্ট) দেশটির সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে। খবর বিবিসি।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কামেল বেলদজউদ বলেছেন, তিউনিসিয়ার সীমান্তবর্তী এল টারফে ২৪ জন এবং সেতিফে একজন মা ও মেয়ে মারা গেছেন।

দেশটির অগ্নিনির্বাপক কর্মীরা হেলিকপ্টার দিয়ে পানি ও রাসায়নিক ছিটিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। এরই মধ্যে বিভিন্ন প্রদেশের প্রায় ৩৫০ জন বাসিন্দাকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

আলজেরিয়ার উত্তরাঞ্চলে প্রতি বছর দাবানলের ঘটনা ঘটে। গত বছর দাবানলে ৯০ জন লোক মারা যান এবং এক লাখ হেক্টরের বেশি বনভূমি পুড়ে যায়।

আলজেরিয়া সরকার বলছে, উদ্দেশ্যমূলকভাবে আগুন লাগানো হয়েছে। তীব্র দাবদাহ ও শুষ্ক আবহাওয়ার কারণে তা দাবানলে রূপ নিয়েছে।

;

কাবুলে মসজিদে বিস্ফোরণ, বহু হতাহতের শঙ্কা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি মসজিদে প্রচণ্ড বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় বহু হতাহতের আশঙ্কা করছে পুলিশ। খবর বিবিসির।

বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, বুধবার (১৭ আগস্ট) সন্ধ্যার নামাজ চলাকালে কাবুলের ওই মসজিদে হামলার ঘটনা ঘটে। ইমারজেন্সি নামের একটি বেসরকারি সংস্থা জানিয়েছে, মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় অন্তত তিনজন প্রাণ হারিয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও কয়েক ডজন মানুষ।

তালেবানের কাবুল পুলিশের মুখপাত্র খালিদ জাদরানকে উদ্ধৃত করে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, রাজধানীর উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে একটি মসজিদে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। খবরে বলা হয়েছে, নিহতদের মধ্যে সিদ্দিকী মসজিদের ইমামও রয়েছেন।

তবে কারা হামলা করেছে এখনো তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এক সপ্তাহ আগে কাবুলে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণে তালেবানপন্থী একজন বিশিষ্ট আলেম নিহত হন। তখন ওই হামলার দায় স্বীকার করে ইসলামিক স্টেট (আইএস) গোষ্ঠী।

পুলিশের মুখপাত্র খালিদ জাদরান বলেন, রাজধানীর অদূরে ওই বিস্ফোরণস্থলে ইতিমধ্যে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের পাঠানো হয়েছে।

কাবুলে কার্যক্রম পরিচালনাকারী ইতালিভিত্তিক সংস্থা ইমারজেন্সি বলেছে, এখন পর্যন্ত তিনজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করা গেছে। বেসরকারি সংস্থাটি জানিয়েছে, বিস্ফোরণে ২৭ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে পাঁচটি শিশু রয়েছে। যার মধ্যে একজনের বয়স সাত বছর।

তালেবানের গোয়েন্দা বিভাগের একজন কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, বিস্ফোরণে ৩৫ জন আহত অথবা নিহত হয়েছে। এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, শক্তিশালী একটি বিস্ফোরণের শব্দ শুনেছেন তারা। এসময় আশেপাশের ভবনগুলোর জানালার কাঁচ ভেঙে যায়।

;