বাংলাদেশের জয়ে ফেরার দিনে সাকিবের অনন্য কীর্তি



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা ২৪
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরুর আগে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটে সাকিব আল হাসানের উইকেট সংখ্যা ছিলো ৬৯৪ টি। সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে নেমেই চার উইকেট। পরের ম্যাচে একটা। ৬৯৯ তে গিয়ে লম্বা একটা অপেক্ষা। ইউএসের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে উইকেট শূন্য। পরের ম্যাচেও তাই। অবশেষে তৃতীয় ম্যাচে অপেক্ষার প্রহর  ফুরালো। আন্দ্রেস গাউসকে প্যাভিলিয়েন ফিরিয়ে সাকিব শিকার করলেন ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটে তার ৭০০তম উইকেট।

গাউসের উইকেট নেওয়ার সাথে সাথে সাকিব বনে গেলেন ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট ইতিহাসের প্রথম এবং একমাত্র অলরাউন্ডার যার নামের পাশে আছে ৭০০ উইকেট এবং ১৪ হাজার রান। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ৭০০ বা তার বেশি উইকেট সতেরোজন বোলারের। যেখানে সর্বশেষ নাম সাকিবের। বাংলাদেশি হিসেবে একমাত্র। ইনিংস লেগেছে ৪৭৪ ইনিংস।

সাতশ উইকেট শিকারি কারোই নেই আট হাজার রানও। সেখানে সাকিবের রান ১৪ হাজার ৫১৫। ৭০০ উইকেট শিকারদের মাঝে সর্বোচ্চ রান শন পোলকের ৭৩৮৬। এই পেসারের উইকেট অবশ্য ৮২৯ টি।

সাকিবের নেওয়া সাতশ উইকেট তিন ফরম্যাট মিলিয়ে স্পিনারদের মধ্যে সপ্তম সর্বোচ্চ। বাঁ-হাতি স্পিনারদের মধ্যে দ্বিতীয় মধ্যে দ্বিতীয় এই স্পিনার। এক থাকা ড্যানিয়েল ভেট্টোরির উইকেট ৭০৫ টি।

ম্যাচ খেলা কিংবা উইকেট নেওয়া দুটোতেই বাংলাদেশিদের মধ্যে সাকিবের আশেপাশে নেই কেউ। সাকিবের পর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট মাশরাফির ৩৯০ টি। তিনে থাকা মুস্তাফিজের উইকেট ৩০৯।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাকিবের রান ৪৭৭ ইনিংসে ১৪৫১৫। যেটা বাংলাদেশি ব্যাটারদের মাঝে তৃতীয়। একে থাকা তামিমের রান ৪৪৮ ইনিংসে ১৫১৯২। ৫০৯ ইনিংসে মুশফিকের রান ১৪৯৬৮।

সাকিবের সামনে সুযোগ অবসরের আগে নিজেকে অনন্য উচ্চতায় রেখে যাওয়ার। অবশ্য যেটা করেছেন, সেটাও কম কিসে?

   

অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগে সাকিবকে সুখবর দিল আইসিসি

  ক্রিকেট কার্নিভাল



স্পোর্টস ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বকাপে সময়টা ভালো কাটছিল না সাকিব আল হাসানের। পারফরম্যান্সের কারণে সমালোচিত হতে হচ্ছিল তাকে। বাজে পারফরম্যান্সের প্রভাব পড়েছিল অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়েও। এক ধাক্কায় শীর্ষস্থান থেকে ৫ নম্বরে নেমে গিয়েছিলেন দেশের ক্রিকেটের এই পোস্টার বয়। অবশেষে সমালোচনার জবাবটা মাঠেই দিয়েছেন সাকিব। গ্রুপপর্বের শেষ দুই ম্যাচে পারফরম্যান্সে নজরটা টেনে এনেছেন নিজের দিকে। তাতেই আইসিসির কাছ থেকে সুখবর পেয়েছেন সাকিব।

আইসিসির সাপ্তাহিক র‌্যাঙ্কিং হালনাগাদে ৫ নম্বর থেকে এগিয়ে অলরাউন্ডার রাঙ্কিংয়ের ৩ নম্বরে অবস্থান করছেন সাকিব। তার বর্তমান রেটিং ২১৮। ২ ধাপ এগিয়ে সাকিব পেছনে ফেলেছেন সিকান্দার রাজা ও মোহাম্মদ নবীকে। র‌্যাঙ্কিংয়ে এক ধাক্কায় শীর্ষস্থান খুইয়ে ৪ নম্বরে নেমে গেছেন নবী। তার জায়গা নিয়েছে অস্ট্রেলিয়ান পেস বোলিং অলরাউন্ডার মার্কাস স্টয়নিস। স্টয়নিসের রেটিং ২৩১।

সবশেষ দুই ম্যাচে ব্যাট হাতে উজ্জ্বল ছিলেন সাকিব। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ৬৪ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে ম্যাচসেরা হওয়ার পর নেপালের বিপক্ষে দলীয় ১০৬ রানে অলআউট হওয়ার ম্যাচে দলীয় সর্বোচ্চ ১৭ রান আসে সাকিবের ব্যাট থেকে।

এরপর বোলিংয়ে ৯ রান খরচায় ২ উইকেট শিকার করে বাংলাদেশকে ম্যাচ জেতাতে ভূমিকা রাখেন সাকিব। এমন পারফরম্যান্সের পুরষ্কারটাও সাকিব পেলেন হাতেনাতে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে র‌্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে তার। এখন সুপার এইটে দারুণ পারফরম্যান্সে বাংলাদেশের জয়ে ভূমিকা রেখে র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থান ফিরে পাওয়ার লড়াই সাকিবের। যেই লড়াইয়ে সাকিবকে নামতে হবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। যেই ম্যাচটি মাঠে গড়াবে আগামী ২১ জুন সকাল সাড়ে ৬ টায়।

;

‘সেমিতে খেলার সুযোগ আছে বাংলাদেশেরও’

  ক্রিকেট কার্নিভাল



স্পোর্টস ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

২০ দলের বিশ্বকাপে এখন টিকে আছে ৮টি দল। সেই আট দলের একটি বাংলাদেশও। গ্রুপপর্বে দারুণ ক্রিকেট খেলে সুপার এইট নিশ্চিত করেছে নাজমুল শান্তর দল। স্বাভাবিকভাবেই সমর্থকদের এখন চাওয়া সেমিতে খেলুক বাংলাদেশ দল। তবে বাস্তবতা কি বলছে? বাংলাদেশের কি সেই সুযোগ আছে সেমিতে খেলার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিংবদন্তি স্যার কার্টলি অ্যামব্রোস অবশ্য সেমিতে খেলার সুযোগ দেখছেন সুপার এইটের আটটি দলেই। তবে বাংলাদেশকে সেমিতে খেলতে কি করতে হবে জানিয়েছেন সেটিও।

বিশ্বকাপের সেমিতে উঠবে কোন দল এমন প্রশ্নে অ্যামব্রোস বলেন, ‘এ প্রশ্নের উত্তর দেওয়া খুবই কঠিন। টি-টোয়েন্টিতে ভবিষ্যদ্বাণী করা খুবই কঠিন কাজ। আমার অভিজ্ঞতা বলে নিজেদের দিনে যেকোনো দলই একে অন্যকে হারিয়ে দিতে পারে। এ কারণে কে কে সেমিফাইনাল খেলবে, এটা ভবিষ্যদ্বাণী করা কঠিন। আমরা এরই মধ্যে সেটা দেখেছি। আমি কোনো ভবিষ্যদ্বাণী করতে পারছি না।’

বাংলাদেশের সেমিতে খেলার সম্ভাবনা নিয়ে অ্যামব্রোস বলেন, ‘বাংলাদেশও যেতে পারে সেমিফাইনালে, অবশ্যই (বাংলাদেশ খেলতে পারে সেমিফাইনাল)। কারণ, প্রতিটি দলের সমান সুযোগ আছে সেমিফাইনালে ওঠার। হ্যাঁ, (এই আট দলের মধ্যে) চারটা দল উঠবে। তবে এই আট দলের প্রতিটির সমান সুযোগ শেষ চারে ওঠার। কারণ, এরা সবাই একে অন্যকে হারিয়ে দেওয়ার সামর্থ্য রাখে। এটাই টি-টোয়েন্টির ধর্ম।’

সুপার এইটে গ্রুপ ১ এ বাংলাদেশ তাদের প্রথম ম্যাচ খেলবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। যেই ম্যাচটি মাঠে গড়াবে ২১ জুন ভোর ৬ টা ৩০ মিনিটে। এরপর পরদিন ২২ জুন রাত সাড়ে ৮টায় ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। সুপার এইটের শেষ ম্যাচ আফগানিস্তানের বিপক্ষে। ম্যাচটি মাঠে গড়াবে আগামী ২৫ জুন ভোর সাড়ে ৬ টায়।

;

সুপার এইটে দ. আফ্রিকার জন্য কি চমক রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র?

  ক্রিকেট কার্নিভাল



স্পোর্টস ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ক্রিকেট বিশ্বকাপে খেলতে পারাটাই একটা সময় পর্যন্ত স্বপ্ন ছিল যুক্তরাষ্ট্রের। সেই দলটিই এখন প্রথমবারের মতো আয়োজক হিসেবে টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করে একের পর এক চমক দেখাচ্ছে। গ্রুপপর্বে পাকিস্তানের মতো দলকে হারিয়ে এখন সুপার এইটে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামার অপেক্ষায় যুক্তরাষ্ট্র। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ হবে দক্ষিণ আফ্রিকা। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮ টায়। ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য কি চমক নিয়ে অপেক্ষা করছে যুক্তরাষ্ট্র সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা।

যুক্তরাষ্ট্র চমক দেখাতে পারে; এমনটা ভাবার কারণ, এবারের বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া ২০টি দলের মধ্যে ১২টি দল বাদ পড়লেও বেশ শক্তভাবেই টিকে আছে যুক্তরাষ্ট্র। বাদ পড়াদের মধ্যে নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার মতো শক্তিশালী দলও রয়েছে। অথচ, টিকে গেছে যুক্তরাষ্ট্র। আর সেটা তারা সম্ভব করেছে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে কানাডার বিপক্ষে রেকর্ড রান তাড়া করে ও দ্বিতীয় ম্যাচে পাকিস্তানকে নাটকীয়ভাবে হারিয়ে দিয়ে। এরপর ভারতের বিপক্ষে হারলেও তাদের লড়াই প্রশংসা কুড়িয়েছে সবার। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে গ্রুপের শেষ ম্যাচটি বৃষ্টির কারণে বাতিল হলে সুপার এইট নিশ্চিত হয় যুক্তরাষ্ট্রের।

শুধু যে গ্রুপপর্বে চমক দেখিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র তা নয়। বিশ্বকাপের মূল মিশনে নামার আগে এই দলটি বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ জিতেছিল ২-১ ব্যবধানে। এমন দলকে তাই ছোট বলার সুযোগ নেই খুব একটা। দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক এইডেন মার্করামও তেমন সাহস দেখালেন না। স্পষ্ট করে জানালেন, যুক্তরাষ্ট্র মোটেও ছোট দল নয়। তাদের বিপক্ষে জিততে হলে নিজেদের শতভাগই দিতে হবে তার দলকে।

ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে মার্করাম বলেন, ‘তারা বেশ ভালো ক্রিকেট খেলছে। অনেকে হয়তো তাদের ছোট দল বলবে। কিন্তু তারা মোটেও ছোট দল নয়। কাজেই আমাদের শতভাগ দিয়েই তাদের বিপক্ষে ম্যাচ জিততে হবে। আমি তাদের বিপক্ষে চ্যালেঞ্জ নেওয়ার জন্য রোমাঞ্চিত।’

যদিও যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে শক্তিমত্তা বা যেকোনো বিচারেই ঢের এগিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। গ্রুপপর্বের চার ম্যাচের চারটিতেই জয় পেয়েছে তারা। তাছাড়া দলটির সামর্থ্য আছে বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলারও। তবে প্রোটিয়াদের ভয় বড় ম্যাচে ছোট দলের বিপক্ষে হেরে যাওয়ার পূর্বের তিক্ত অভিজ্ঞতা। যা যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ম্যাচের আগেও সাবধানী করছে তাদের।

;

হাফিজের চাওয়া সেমিতে খেলুক বাংলাদেশ

  ক্রিকেট কার্নিভাল



স্পোর্টস ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইট নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। নাজমুল হোসেন শান্তর দলকে এখন লড়তে হবে সেমির জন্য। সেই লড়াইয়ে নামার আগে বাংলাদেশ দলকে শুভকামনা জানিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ও কোচ মোহাম্মদ হাফিজ। এশিয়ান দল হিসেবে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার মতো দল ছিটকে যাওয়ায় হাফিজের চাওয়া অন্তত সেমিতে খেলুক বাংলাদেশ।

গ্রুপপর্বে তিন জয়ে সুপার এইট নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। অথচ, বিশ্বকাপের মূল লড়াইয়ে নামার আগে বাংলাদেশ দলের অবস্থা ছিল সূচনীয়। হারতে হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে সিরিজ। হঠাৎ দলের এমন পারফরম্যান্সের রহস্য নিয়ে পিটিভি স্পোর্টসের অনুষ্ঠান ‘গেম অন হ্যাঁয়’ তে হাফিজ জানান বিশ্বকাপের আগে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে সিরিজ হারই বাংলাদেশের বদলে যাওয়ার কারণ।

বাংলাদেশ দলকে নিয়ে হাফিজ বলেন, ‘আমরা জানতাম তারা সেটা করতে পারবে। যদি আপনি তাদের যাত্রাটা লক্ষ্য করেন, তাহলে দেখবেন, তারা প্রত্যাশা মেটাতে পারেনি। কিন্তু এবার যুক্তরাষ্ট্রের কাছে সিরিজ হারের পর তারা শক্তিশালী হয়ে ফিরে এসেছে। তারা খেলাটার প্রতি সঠিক দেহভাষ্য আর চারিত্রিক দৃঢ়তা দেখিয়েছে।’

গ্রুপপর্বে কেবল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয় পায়নি বাংলাদেশ। তবে ওই ম্যাচেও শেষ বল পর্যন্ত লড়াই করেছে বাংলাদেশ। ম্যাচ হেরেছে ৪ রানের ব্যবধানে। তবে ম্যাচ হারলেও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে হারের পরও আত্মবিশ্বাস পেয়েছিল বাংলাদেশ বলে মনে করেন হাফিজ।

বলেন, ‘সে ম্যাচটা প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশকে দারুণ আত্মবিশ্বাস এনে দিয়েছে।’ বাংলাদেশ দলের সেমিতে খেলা নিয়ে হাফিজ বলেন, ‘আমি আশা করছি বাংলাদেশ ভালো করবে। এশিয়ান জায়ান্ট পাকিস্তান আর শ্রীলঙ্কা বাদ পড়ে গেছে প্রতিযোগিতা থেকে। ব্যক্তিগতভাবে আমি চাই তারা ভালো করুক। সেমিফাইনালে পৌঁছে যাক।’

;