৪৩৫ দিন পর ফিরছেন আর্চার



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা ২৪
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চোটাঘাতে অনেকটা সময় ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে দূরে ছিলেন জফরা আর্চার। চোটের সে অধ্যায় কাটিয়ে প্রায় ৪৩৫ দিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে যাচ্ছেন, আর ইংল্যান্ডের মাটিতে দেশের জার্সিতে প্রায় ৪ বছর পর আবার বল হাতে দেখা যাবে তাকে। আজ পাকিস্তানের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের চার ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে তার খেলার কথা রয়েছে।

পাকিস্তানের বিপক্ষে তার খেলার বিষয়টি ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার নিশ্চিত করেছেন। তবে চোট থেকে ফেরা বাটলারের কাছে এখনই দল খুব বেশি কিছু আশা করছে না বলেও জানিয়ে দেন বাটলার, ‘আশায় লাগাম দিতে হবে। দীর্ঘ সময় ধরে সে (আর্চার) আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে রয়েছে, আগের সে ফর্ম ফিরিয়ে আনা সহজ নয়।’

তবে দীর্ঘদিন পর জাতীয় দলের সেটআপে ফিরে যে আর্চার অনেক খুশি তা জানাতে ভোলেননি ইংল্যান্ড অধিনায়ক, ‘ওর মুখে এখন চওড়া হাসি। তার ফিট হয়ে দলে ফেরা এবং গতিতে বোলিং করতে দেখে ভালো লাগছে।’

পাকিস্তানের বিপক্ষে চার ম্যাচের সিরিজে তাকে বুঝেশুনে খেলানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইংল্যান্ড। যেহেতু মাত্রই চোট থেকে সেরে উঠেছেন, তাই তাকে নিয়ে ইংল্যান্ডের সাবধানী পরিকল্পনার কথাও জানিয়েছেন বাটলার, ‘সে এখন সম্পূর্ণ ফিট। মেডিক্যাল টিম তাকে ফিটনেস ম্যানেজ করার ব্যাপারে পরামর্শ দিচ্ছে। যতগুলো ম্যাচে সম্ভব হবে, তাকে খেলানো হবে।’

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য ইংল্যান্ডের ১৫ জনের প্রাথমিক দলে রয়েছেন আর্চার। আগামী শনিবারের (২৫ মে) মধ্যে স্কোয়াড চূড়ান্ত করে আইসিসির কাছে পাঠাতে হবে।

   

ফুটবল ছাড়তে আমার আর বেশিদিন নেই: রোনালদো



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

২০২২ কাতার বিশ্বকাপই জাতীয় দলের জার্সিতে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর শেষ আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট, এমনটা ধরে নিয়েছিলেন অনেকেই। তবে সবাইকে অবাক করে দিয়ে তিনি আরো খেলা চালিয়ে যাবেন বলে জানালেন। চলতি বছরে হতে চলা ইউরোই খুব সম্ভবত দেশের জার্সি গায়ে তার শেষ টুর্নামেন্ট হতে যাচ্ছে। শেষবারের মতো পর্তুগালের হয়ে মাঠ মাতাতে নামবেন তিনি।

বয়সটা বাড়লেও নিজের ফর্ম ও খেলার ধার এতটুকু কমতে দেননি পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী এই মহাতারকা। ক্লাব ও জাতীয় দল, উভয়ের জার্সি গায়েই সমানতালে গোল করে যাচ্ছেন তিনি। দলের সবচেয়ে বড় ভরসার নামই হচ্ছেন এই রোনালদো।

আসন্ন ইউরোর প্রস্তুতিটা বেশ ভালোমতোই সম্পন্ন করেছেন রোনালদো এবং তার দল পর্তুগাল। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ প্রীতি ম্যাচে ৩-০ গোলের জয় তুলে নিয়েছে পর্তুগাল, সেখানে জোড়া গোল করে জয়ের মূল নায়ক ছিলেন রোনালদোই। এই জোড়া গোলের মাধ্যমে তার আন্তর্জাতিক গোলের সংখ্যা এখন ১৩০টি।

নিজের ফুটবল ক্যারিয়ারটা শেষ দিকে, এমনটাই মনে করেন রোনালদো। এতো বছর ধরে খেলতে পারা এবং প্রভাব বিস্তার করতে পারাটা তার জীবনে পাওয়া একটা বিশেষ উপহার। তিনি বলেন, 'আমি জানি, ফুটবল ছাড়তে আমার আর বেশিদিন নেই। বয়স ৩৫ হয়ে যাওয়ার পরও খেলতে পারাটা একটা উপহার। আমার বয়স এখন ৩৯ এবং এখন নিজের খেলা উপভোগের সময়।’

জাতীয় দলে খেলা প্রসঙ্গে রোনালদো বলেন, ‘আমার জন্য জাতীয় দলে খেলাটা আবেগের, ভালোবাসার। জাতীয় দলের জার্সিতে যে কোনো খেলাই স্পেশাল।  ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ স্পেশাল, এটা আমার ষষ্ঠ আসর, যেটি একটা রেকর্ডও বটে! জাতীয় দলের জন্য গোল করাটা বিশেষ অনুভূতির। জাতীয় দল আমার জীবনের ভালোবাসা, ইউরো জিততে পারলে একটা স্বপ্ন পূরণ হবে।’

এবারের ইউরোতে নিজের সেরাটাই মাঠে ঢেলে দিতে প্রস্তুত জানিয়ে রোনালদো বলেন, 'সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে, আমি শারীরিক ও মানসিকভাবে ভালো অবস্থায় আছি। আমি প্রস্তুত, আমি সবসময় সেরা প্রস্তুতিটা নিয়ে থাকি, আমি শতভাগ পেশাদার। আমি বরাবরের মতো প্রস্তুত আমার দেশকে সাহায্য করার জন্য।’

;

সাকিবের ফর্ম নিয়ে চিন্তিত নন শান্ত 

  ক্রিকেট কার্নিভাল



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সবশেষ পাঁচ টি-টোয়েন্টিতে কেবল একটি উইকেট নিয়েছেন সাকিব আল হাসান। বিশ্বকাপের দুই ম্যাচে পাননি একটিও। অথচ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ইতিহাসের সর্বোচ্চ ৪৭ উইকেট তারই। ব্যাট হাতেও তিনি নেই ছন্দে। এতেই একাদশে তার জায়গা নিয়ে শুরু হয়েছে সমালোচনা। তার এমন ফর্ম কি তবে দুশ্চিন্তায় ফেলে দিয়েছে দলকেও? এমনটা মোটেও ভাবছেন না দলের অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। আশা রাখছেন আজকের নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই ছন্দে ফিরবেন দেশসেরা এই অলরাউন্ডার। 

ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে সাকিবের ফর্ম নিয়ে প্রশ্নটা ছিল ঠিক এমন, সাকিবের কাছ থেকে আমরা যা চাই, তা পাচ্ছি না। তা অধিনায়ক হিসেবে আপনার কাছে কতোটা দুশ্চিন্তার? সেখানে শান্তর সোজাসাপ্টা উত্তর, ‘সাকিব ভাইয়ের পারফরম্যান্স নিয়ে আমাদের দলের কেউই চিন্তিত না। আমরা এটা নিয়ে কথা বলতেই চাই না। আমরা জানি তিনি বছরের পর বছর কতো ভালো পারফরম্যান্স করেছেন। মানুষের থেকে তিনি নিজে যেটা আশা করছেন সেটা গুরুত্বপূর্ণ। তিনি কঠোর পরিশ্রম করছেন। আমি বলবো না তিনি কামব্যাক করবেন। তিনি ভালো অবস্থানেই আছেন। আশা করবো কালকে আরও ভালো পারফরম্যান্স করতে পারবেন।’

সাকিব কি সেই ওয়ানডে বিশ্বকাপের সময়ের চোখের সমস্যায় এখনো ভুগছেন এবং এতেই কি ছন্দহীন তার ব্যাটে বলে পারফর্ম? শান্ত অবশ্য মানছেন না এমনটা। ‘না, চোখের সমস্যা আমার কাছে মনে হয় না। সব ঠিকঠাকই আছে। অনুশীলনে ব্যাটিং কিংবা বোলিং বলেন, সবখানে স্বাচ্ছন্দ্যেই আছেন। এই ফরম্যাটে একটা দুইটা ইনিংস খারাপ হতেই পারে। অধিনায়ক হিসেবে আমি এটাকে চাপের মনে করছি না। আমি জানি তিনি নিজে তা বোধ করছেন না। কারণ তিনি অভিজ্ঞ। তিনি ভালোভাবেই কামব্যাক করবেন বলে আমার মনে হয়।’ 

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে সবশেষ ম্যাচের স্মৃতি অবশ্য খুব একটা সুখকর নয় বাংলাদেশের। ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপে ডাচদের দেওয়া ২৩০ রানের লক্ষ্যে কেবল ১৪২ রানেই গুটিয়ে যায় তারা। তবে সেই স্মৃতি ভুলে ম্যাচটা জিতে সুপার এইটের রাস্তা সহজ করার লক্ষ্যেই নামবে শান্ত-তাসকিনরা। এবং পরের রাউন্ডে নিজ দলের সুযোগটাই বেশি দেখছেন শান্ত। 

;

বাংলাদেশ-নেদারল্যান্ডসের ‘সুপার এইটের’ লড়াই 

  ক্রিকেট কার্নিভাল



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ভালো না থাকলেও ডালাস থ্রিলারে লঙ্কানদের হারিয়ে বিশ্বকাপে শুভ যাত্রা পেয়েছিল বাংলাদেশ। তবে নিজেদের পরের ম্যাচ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ের একদম দুয়ার থেকে ফিরে আসতে হয়েছে নাজমুল হোসেন শান্তর দলকে। এতে সুপার এইটের রাস্তা অবশ্য খুব একটা কঠিন হয়ে যায়নি তাদের। পরের ম্যাচে নেদারল্যান্ডস ও নেপালের বিপক্ষে ফেবারিট থাকছে শান্তরাই। 

যুক্তরাষ্ট্র পর্ব শেষ করে বাংলাদেশ দল এখন সেন্ট ভিনসেন্টে। বাকি দুই ম্যাচ খেলবে এখানেই। যার মধ্যে কিংসটাউনে আজ (বৃহস্পতিবার) ডাচদের বিপক্ষে নামবে নাজমুল হোসেন শান্তর দল। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টা ৩০ মিনিটে।   

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ম্যাচটি জিতলে সুপার এইটের টিকিট নিশ্চিত না হলেও পরের রাউন্ডের রাস্তা অনেকটাই সহজ হয়ে যাবে বাংলাদেশের। অবশ্য ডাচদের জন্যও সমীকরণটা একই। দুই দলেই ২ ম্যাচ খেলে পয়েন্ট সমান ২। এতে ম্যাচটিতে ইউরোপিয়ান দলটি জিতলে সুপার এইটে উঠার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে অনেকটাই। তাই ম্যাচটি কার্যত ‘সুপার এইট’ এর লড়াইয়ের। 

যুক্তরাষ্ট্র ব্যাট হাতে স্রেফ বাংলাদেশ দল নয়, কঠিন সময় পার করেছে অন্য দলগুলোও। তবে কিংসটাউনের পিচ অনেকটাই ব্যাটিং সহায়ক। তাই এই পর্বে বাংলাদেশের নজর থাকবে ব্যাটিংয়ে। তাওহিদ হৃদয় ও মাহমুদউল্লাহ বাদে বাকি কোনো ব্যাটারই এখন পর্যন্ত খুব একটা সুবিধে করতে পারেনি, তাই সুপার এইটের দিকে দলকে এগিয়ে ব্যাটারদের ফর্মের ফেরার এটিই আসরের শেষ সুযোগ।  

;

অধিনায়ক হিসেবে এমন না প্রতিদিনই ভালো খেলতে হবে: শান্ত 

  ক্রিকেট কার্নিভাল



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বকাপের বাংলাদেশ খেলে ফেলেছে দুটি ম্যাচ। এর আগে যুক্তরাষ্ট্র ও ঘরের মাটিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ মিলিয়ে তারা খেলেছে আরও আট ম্যাচ। সবশেষ এই দশটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচের একটিতেও ফিফটির দেখা পাননি বাংলাদেশ অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। সেই ১০ ম্যাচের ৯ ইনিংসে ব্যাট করে তিনি করেছেন স্রেফ ১৪১, সর্বোচ্চ ইনিংসটা ৩৬ রানের। পরিসংখ্যানই বলে দিচ্ছে ব্যাট হাতে কতটা ছন্দহীন মোটেও এই বাঁহাতি ব্যাটার। তবে নিজের ব্যাটিং নিয়ে বাড়তি কোনো চাপ অনুভব  করছেন না তিনি। এমনকি অধিনায়ক হলেই যে প্রতিদিনই ভালো খেলতে হবে এমনটাও ভাবেন না শান্ত। 

সুপার এইটের রাস্তা সহজ করতে জয়ের উদ্দেশ্যে আজ নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে নামবে বাংলাদেশ। সেন্ট ভিনসেন্টের কিংসটাউনে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টা ৩০ মিনিটে শুরু হবে ম্যাচটি। 

সেই ম্যাচকে সামনে রেখেই সংবাদ সম্মেলনে আসেন শান্ত। সেখানে দলের টপ-অর্ডারদের ব্যাটিং ব্যর্থতার সূত্র ধরে প্রশ্ন আসে তার ব্যাটিং নিয়েও। তিনি দলের মূল ব্যাটারদের একজন অধিনায়ক, তার থেকে বাড়তি চাওয়া যেন থাকবেই। একটা প্রশ্ন এমন ছিল, অধিনায়ক হিসেবে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার বিষয়টা বলে এসেছিলেন? আপনার কি মনে হয় আপনার কাছ থেকে দলের বড় কিছু পাওনা হয়ে গেছে? এটাই রাইট টাইম টু ক্লিক? সেখানে শান্ত বলেন, ‘আমার ব্যাটিংটা ভালো হয়নি। রান করতে হবে ব্যাটার হিসেবে। কিন্তু এই নিয়ে বাড়তি কোনো চাপ অনুভব করছি না। যদি ভালো শুরু পাই, তাহলে অবদান রাখার চেষ্টা করব। অধিনায়ক হিসেবে এমন না প্রতিদিনই ভালো খেলতে হবে, কিন্তু ব্যাটার হিসেবে দায়িত্ব আছে যে আমি কতোটুকু অবদান রাখতে পারি। তো এটা নিয়ে পরিশ্রম করছি।’

ব্যাটাররা ছন্দে না থাকলেও বোলাররা আছেন বেশ ছন্দে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচটা একদম কাছে গিয়ে হারতে হয়েছে বাংলাদেশকে। তবে আজকের ম্যাচে জিতলে সুপার এইটের রাস্তা অনেকটাই সহজ জয়ে যাবে শান্ত-তাসকিনদের। এবং সুপার এইটে নিজেদের সুযোগটাকেই বেশি দেখছেন শান্ত। ‘আমাদের ভালো সুযোগ আছে। তবে আমাদের ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। আমরা জেতার জন্যই খেলব। আশা করছি ভালো একটা ম্যাচ হবে। প্রত্যেকটা খেলোয়াড় চিন্তাভাবনার দিক থেকে খুব ভালো অবস্থানে আছে। আশা করছি ভালো একটা ম্যাচই হবে।’ 

;