নাসুমের ফাইফার, মোহামেডানের সহজ জয়



স্পোর্টস ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সবশেষ ম্যাচে শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাবের বিপক্ষে হারতে হয়েছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে। আর তাতে পয়েন্ট টেবিলেও হোঁচট খেয়েছে দলটি। সেই ধাক্কা সামলে নিয়ে এদিন ডিপিএলে মিরপুরের ম্যাচে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে গুঁড়িয়ে দিয়েছে মোহামেডান। নাসুম আহমেদের ফাইফারে মাত্র ১৩৫ রানেই আলআউট ব্রাদার্স। যা ব্যাট হাতে ৫ উইকেট হাতে রেখে মাত্র ২৩.২ ওভারে টপকে গেছে মোহামেডান।

এদিন বল হাতে শুরু থেকেই প্রতিপক্ষের ব্যাটারদের ওপর চড়াও হন নাসুম। নিজের প্রথম ওভারেই সাজঘরে ফেরান রহমাতুল্লাহ আলিকে। এরপর একে একে সাজঘরে ফিরিয়েছেন ইমতিয়াজ, মাহমুদুল হাসান, রাহাতুল ও ব্রাদার্স অধিনায়ক মনির হোসাইনকে। তার বোলিং তোপের সামনে সুবিধা করতে পারেননি ব্রাদার্সের তেমন কেউই।

বল হাতে নাসুম দারুণ সঙ্গ পেয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজের থেকেও। তার শিকার ৩ উইকেট। মোহামেডানের স্পিনারদের দাপুটে দিনে মাঝে মাহমুদুল হাসান ও রাহাতুল ফেরদৌসের ৪৫ রানে ভর করে কোনো রকমে ৩৪.৩ ওভারে স্কোরবোর্ডে ১৩৫ রানের পুঁজি পায় ব্রাদার্স।

জবাব দিতে নেমে ওপেনিং জুটিতেই জয়ের ভিত গড়ে ফেলে মোহামেডান। দলীয় ৬৬ রানে প্রথম উইকেট হারায় মোহামেডান। সাজঘরে ফেরেন ১০ রানে থাকা রনি তালুকদার। এরপর অবশ্য নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট পড়েছে মোহামেডানের। তবে উইকেটের একপ্রান্ত আগলে রেখেছিলেন দলটির অধিনায়ক ইমরুল কায়েস। মিরাজকে সঙ্গে নিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন তিনি। শেষ পর্যন্ত ইমরুল অপরাজিত ছিলেন ৭১ বলে ৯২ রানে।

লিগে এটি মোহামেডানের ৮ম জয়। আর এ জয়ে ১১ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দলটির অবস্থান তালিকার তিন নম্বরে। অন্যদিকে শীর্ষে থাকা আবাহনী ১১ ম্যাচের সবকটিতেই জয় নিয়ে পয়েন্ট ২২।

   

এশিয়ান দলের বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা বেশি: দিলশান



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জুন থেকে শুরু হচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসরের। বরাবরের মতোই আইসিসির এই টুর্নামেন্টে ফেভারিট হিসেবে উপরের দিকেই আছে ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের মতো দলের নাম। শিরোপা কার দখলে যাবে এ বিষয়ে আসর শুরুর আগে কিছু না বলা গেলেও নিজের মতামত জানিয়েছেন লঙ্কান কিংবদন্তি ক্রিকেটার তিলকরত্নে দিলশান।

দিলশানের মতে এবারের আসরে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা আছে এশিয়ার কোনো দলের। কারণ স্বাগতিক দেশ হিসেবে আছে যুক্তরাষ্ট্র এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সেখানের উইকেটগুলো স্পিন সহায়ক। এশিয়ার দেশগুলোতে তুলনামূলক বিশ্বমানের স্পিনারের সংখ্যাটা বেশি। তাই এই যুক্তির খাতিরে এশিয়ার দলগুলোকে প্রাধান্য দিয়েছেন দিলশান।

ইন্দো-এশিয়ান নিউজ সার্ভিসের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে সাবেক এই লঙ্কান তারকা বলেন, ‘ক্যারিবিয়ান কন্ডিশন স্পিনারদের সহায়তা করায় এশিয়ার দলেরই এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতার সবচেয়ে বেশি সুযোগ রয়েছে। ভারতের স্পিনাররা যে ধরনের ছন্দে রয়েছে এবং আইপিএলে যেভাবে আধিপত্য বিস্তার করেছে তাতে ট্রফি উঁচিয়ে ধরার জন্য তারাই সবচেয়ে বেশি এগিয়ে।’

এশিয়ার দলগুলোর মধ্যেও ভারতকে তুলনামূলক বেশি শক্তিশালী মনে করেন দিলশান। ভারতের স্পিনারদের বাংলাদেশ, পাকিস্তান কিংবা নিজ দেশ শ্রীলঙ্কার চেয়েও এগিয়ে রাখছেন তিনি। তবে নিজে দেশের স্পিনারদের উপর প্রত্যাশা আছে তার, ‘শ্রীলঙ্কারও বেশ কয়েকজন ভালো স্পিনার আছে এবং তাদের স্কোয়াডও ভাল। আশা করি তারা ২০১৪ সালের স্মৃতির পুনরাবৃত্তি ঘটাতে পারবে।‘

;

আর্জেন্টিনার মার্তিনেজ হলেন সিরি আ-এর মৌসুমসেরা



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

২০২২ কাতার বিশ্বকাপ জয়ের পর থেকে আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার লাউতারো মার্তিনেজের সময়টা বেশ ভালই কাটছে। ক্লাবের জার্সি গায়ে নিয়মিত গোল পাওয়া ছাড়াও বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও রেখেছেন ভূমিকা। চলতি মৌসুমটা ইন্টার মিলানের বিগত দুই মৌসুমের তুলনায় ভাল কেটেছে। বেশ দাপটের সঙ্গে ইতালিয়ান লিগ সিরি আ-এর শিরোপা ঘরে তুলে নিয়েছে তারা।

ইন্টার মিলানের জয়ের এই মৌসুমে বেশ অবদান রেখেছেন বিশ্বকাপজয়ী তারকা ফরোয়ার্ড লাউতারো। যেমন গোল করেছেন তেমনি করিয়েছেনও। যার সুবাদে প্রথমবারের ইতালিয়ান লিগে মৌসুমের সেরা ফুটবলার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। শুক্রবার নিজেদের ওয়েবসাইটে মৌসুম সেরাদের তালিকা প্রকাশ করে বিষয়টি জানিয়েছে সিরি আ।

ক্লাবের হয়ে ৩৩ ম্যাচে ২৪টি গোল করেছেন লাউতারো। তালিকার দুইয়ে থাকা ভ্লাহোভিচের চেয়ে ৮ গোলে এগিয়ে আছেন তিনি। মৌসুমের সেরা মিডফিল্ডার ও ডিফেন্ডার হিসেবেও নির্বাচিত হয়েছেন লাউতারোর দুই সতীর্থ কালহানোগলু এবং বাস্তোনি।

লিগ শিরোপা আরও বেশ কয়েকদিন আগেই ঘরে তুলে নিলেও লিগ এখনও শেষ হয়নি। মৌসুমের নিজেদের শেষ ম্যাচে আগামীকাল রবিবার ভেরোনার বিপক্ষে মাঠে নামবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ইন্টার মিলান।

;

ধবলধোলাইয়ের লজ্জা এড়াতে মাঠে নামছে বাংলাদেশ



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলছে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে হারের পর সমালোচনা হলেও সেটাকে ‘অঘটন’ হিসেবেই ধরে নেয় বেশিরভাগ সমর্থক এবং ক্রিকেট বিশ্লেষকরা। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচেও শোচনীয় হারের পর যখন বাংলাদেশের হাত থেকে সিরিজটাই ফসকে যায়, তখন বাংলাদেশী সমর্থকরাই প্রচন্ড নিন্দা আর সমালোচনায় ভাসিয়ে দেন টাইগারদের।

ইতোমধ্যেই ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে সিরিজ হাতছাড়া হয়েছে বাংলাদেশ। আজ তৃতীয় ও সিরিজের শেষ ম্যাচে তাই মান বাঁচাতেই নামছে নাজমুল শান্তরা। কারণ আজকের ম্যাচেও পরাজয়ের মুখ দেখলে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা হজম করতে হবে টাইগারদের।

জিম্বাবুয়ে সিরিজ থেকে শুরু হওয়া ব্যাটিং ব্যর্থতা যেন সামলেই উঠতে পারছে না বাংলাদেশ দলের ব্যাটাররা। প্রতিটি ম্যাচ হারের কারণ হিসেবেই বলা হচ্ছে বিভিন্ন ‘অজুহাত’। প্রথম ম্যাচ হেরে অধিনায়ক শান্ত দোষ দিয়েছিলেন উইকেটকে। দ্বিতীয় ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে সাকিব আল হাসান বলেছেন যে তারা পর্যাপ্ত সময় পাননি অনুশীলনের।

ভিন্নধর্মী অজুহাত, অভিযোগ ছাপিয়ে আজ বাংলাদেশ দলের একমাত্র লক্ষ্য ম্যাচটাতে জয় তুলে নেওয়া। তা না হলে বিশ্বকাপের মতো বড় টুর্নামেন্টের আগে যুক্তরাষ্টের মতো দলের সঙ্গে ধবলধোলাইয়ের শিকার হওয়ার লজ্জা বয়ে বেড়াতে হবে সাকিব-শান্তদের।

আগের দুই ম্যাচের ভেন্যু প্রেইরি ভিউ ক্রিকেট কমপ্লেক্সেই বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় শুরু হবে সিরিজের শেষ ম্যাচ। ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল নাগরিক টিভি।

;

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের থেকে আইপিএল কম নয়: গম্ভীর



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগ কোনটা? বেশিরভাগ ক্রিকেট দর্শক ও সমর্থকরাই বলবেন- ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। বিশ্বের অন্য যেকোনো ঘরোয়া ক্রিকেট লিগ আইপিএলের উদ্দীপনা এবং উন্মাদনার কাছে কিছুই না। এবার একই প্রসঙ্গে কথা বলতে যেয়ে ভারতের সাবেক ব্যাটার এবং কলকাতা নাইট রাইডার্সের বর্তমান মেন্টর গৌতম গম্ভীর বললেন যে, আইপিএলের জনপ্রিয়তা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চেয়ে কম কিছু নয়।

অর্থের বা খরচের কথাই ধরুন অথবা তারকা ক্রিকেটারদের মিলনমেলা বলুন, আইপিএল এসব ক্ষেত্রে সবার ওপরেই অবস্থান করছে। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের এই ঘরোয়া লিগকে অনেকদিকেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সঙ্গে তুলনা দেওয়া যেতেই পারে। এমনকি গম্ভীর তো এমনটাও মনে করেন যে, আইপিএলের জনপ্রিয়তা বিশ্বকাপের চেয়েও বেশি।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘এটিই আইপিএলের সৌন্দর্য। সেই কারণেই এই প্রতিযোগিতাকে বিশ্বের সবচেয়ে কঠিন প্রতিযোগিতা বলা হয়। আমার তো মনে হয় আইপিএল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের থেকে কোনো অংশেই কম নয়।‘

আইপিএলের প্রতি আসরেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষ প্লে-অফে জায়গা করে নেয় শীর্ষের চার দল। সেখানেও নিজেদের মধ্যে বেশ কঠিন প্রতিযোগিতার পরেই ফাইনালের টিকিট কাটে দুই দল যারা সবশেষে শিরোপার লড়াইয়ে মাঠে নামে। আইপিএলের চলতি আসরেও দেখা মিলেছে এরকম দুর্দান্ত কিছু প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচের। সব উন্মাদনা ছাপিয়ে এবারের ১৭তম আসরের শিরোপার জন্য ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে কলকাতা ও হায়দরাবাদ।

গম্ভীর বলেন, ‘আইপিএলের বেশির ভাগ দলই খুব ভাল। কারণ, যে দল পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে শেষ করেছে তার সঙ্গে তালিকার শেষে থাকা দলের খুব একটা পার্থক্য নেই। যে কোনো দিন যে কোনো দল অন্য দলকে হারাতে পারে। প্রতিটা দলেই ভাল ক্রিকেটার রয়েছে।'

আন্তর্জাতিক শিরোপার মূল্য ও মর্ম অবশ্যই যেকোনো ঘরোয়া লিগের শিরোপার চেয়ে বেশি। তারপরও বিগত ১৭ বছর ধরে ক্রিকেট প্রেমীদের জন্য আইপিএল এক আনন্দের নাম। ক্রিকেট খেলাটির সর্বোচ্চ বিনোদন এবং টানটান উত্তেজনা যে আইপিএল থেকেই দর্শকরা পেয়ে থাকেন এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

;