স্বপ্নের পদ্মা সেতু নিয়ে গর্ব করছেন ক্রিকেটাররা



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
পদ্মা সেতু

পদ্মা সেতু

  • Font increase
  • Font Decrease

স্বপ্নের পদ্মা সেতু পেয়ে সারা দেশ আজ আনন্দের জোয়ারে ভাসছে। সেই খুশির জোয়ার ছুঁয়ে গেছে দেশের ক্রিকেটারদেরও। গর্বের পদ্মা সেতু পেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ক্রিকেট তারকারা। 

খুলনার ছেলে সাকিব আল হাসান প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ, বিশেষ করে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের পক্ষ থেকে। কারণ আমার কাছে মনে হয়, এটা দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নের জন্য সবচেয়ে বড় অবদান। এবং এটা পুরো বাঙালি জাতির একটা স্বপ্ন ছিল, যেটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্য সম্ভব হয়েছে।’

সাকিব আরও বলেন, ‘সে কারণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই। আর আশা করি এই পদ্মা সেতু বাংলাদেশের অর্থনীতিকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’

দেশের বিশাল অর্জন পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর তামিমও ধন্যবাদ দিলেন প্রধানমন্ত্রীকে, ‘আমার মনে হয় বাংলাদেশের জন্য বিশাল বড় একটা অর্জন। একটা সময় এমন ছিল যখন আমরা নিশ্চিত ছিলাম না যে পদ্মা সেতু হবে কি হবে না। কিন্তু মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। ওনার নিবেদনের কারণে, ওনার চেষ্টার কারণে আজকে আমরা পদ্মা সেতু পেয়েছি।’

তামিম আরও যোগ করেন, ‘সাথে এটাও বলব, পদ্মা সেতুর প্রকল্পের সঙ্গে যারাই যুক্ত ছিল, তাদেরকেও অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ। বিশেষ করে যারা কর্মী ছিলেন, আপনাদের একটা কথাই বলতে চাই যে আপনারা এমন একটা কাজ করেছেন, যেটা বাঙালি জাতি আজীবন মনে রাখবে। আমার ও বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।’

উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে মুশফিকুর রহিম ফেসবুকে লিখেছেন, 'আমরা দীর্ঘদিন ধরে যা স্বপ্ন দেখছিলাম তা অবশেষে বাস্তবে পরিণত হয়েছে। আমাদের নিজস্ব পদ্মা সেতু নিয়ে গর্ববোধ করছি। মাশাল্লাহ।' 

স্বপ্নের পদ্মা সেতু পেয়ে যারপরনাই খুশি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, 'স্বপ্নের পদ্মা সেতু, আমাদের গর্বের পদ্মা সেতু। অসংখ্য ধন্যবাদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্বপ্নকে বাস্তবে পরিণত করার জন্য।'

তারকা ক্রিকেটার জাহানারা আলম ফেসবুকে লিখেছেন,' স্বপ্নের পদ্মা সেতু। আমার দেশ, আমার গর্ব।'

বিয়ে করলেন ক্রিকেটার শামীম



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
স্ত্রীর সঙ্গে শামীম হোসেন পাটোয়ারী

স্ত্রীর সঙ্গে শামীম হোসেন পাটোয়ারী

  • Font increase
  • Font Decrease

জীবনের নতুন ইনিংস শুরু করেছেন ক্রিকেটার শামীম হোসেন পাটোয়ারী। সহপাঠী ইউসরা জাহান নূরকে বিয়ে করে নাম লিখেছেন সংসার জীবনে। 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করে খুশির খবরটি দেন তিনি নিজেই। ভক্তদের জানাতে লেখেন, 'সহপাঠী থেকে গেমমেট, এবং অবশেষে, আত্মার বন্ধু। আলহামদুলিল্লাহ! আপনাদের প্রার্থনায় আমাদের রাখুন।'

মোবাইলে শামীম পাটোয়ারীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও বিয়ে নিয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি এ ব্যাটসম্যান।

নববধূর সঙ্গে শামীমের ছবি ফেসবুকে দিয়ে বিপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজি চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স জানিয়েছে শুভেচ্ছা বার্তা, 'আপনাকে বিবাহিত জীবনের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি, চ্যালেঞ্জার শামীম হোসেন পাটোয়ারী। নতুন আশা নতুন চ্যালেঞ্জ। তোমাদের দুজনকেই অভিনন্দন।'

;

আমিরাতে সিরিজ জিতে আত্মবিশ্বাস বেড়েছে: সোহান



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ট্রফি নিয়ে ফ্রেমবন্দি টাইগাররা

ট্রফি নিয়ে ফ্রেমবন্দি টাইগাররা

  • Font increase
  • Font Decrease

সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ২-০ ব্যবধানে নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। এই সিরিজ ট্রফি দিয়েই অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অনুষ্ঠিতব্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি পর্ব শুরু করল লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।

বিশ্বকাপের আগে দুবাইতে জয় করা সিরিজ দলের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে বলে মনে করেন অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান।

বুধবার সকালে সিরিজ ট্রফি ও সতীর্থদের নিয়ে দেশে ফিরে সোহান বলেন, ‘কোন আসরের আগে এ রকম ক্যাম্প এবং এরকম সুযোগ সুবিধা অবশ্যই আমাদের সকলের কনফিডেন্ট অনেক বাড়িয়ে দিয়েছে। কারণ ওখানে আমরা পর্যাপ্ত অনুশীলনের সুবিধা পেয়েছি। আমার কাছে মনে হয় প্রিপারেশনটা ভালো হয়েছে, আলহামদুলিল্লাহ।’

সোহান আরও যোগ করেন, ‘টি-টোয়েন্টিতে আমার কাছে মনে হয় অনেক সময় বড় রান করা থেকে স্ট্রাইক রেট পরিস্থিতি অনুযায়ী রানটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ থাকে। আসলে আমাদের সবার লক্ষ্য ওটাই ছিল। প্রতিদিন একরকম হবে বিষয়টা এমন না। বিশ্বকাপের মতো বড় আসরের আগে এমন অনুশীলনের সুযোগ সুবিধা পেয়েছি যা দলের সবার জন্য বুস্ট আপ করবে এবং কনফিডেন্ট দেবে।’

আগামী ২ অক্টোবর আবারো নিউজিল্যান্ডের উদ্দেশে দেশ ছাড়বে টাইগাররা। সেখানে পাকিস্তানের সঙ্গে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ।

;

আমিরাত সিরিজ জিতল টাইগাররা



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
লিটন দাস ও মেহেদী হাসান মিরাজ

লিটন দাস ও মেহেদী হাসান মিরাজ

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রথম ম্যাচে জয় এসেছিল ৭ রানে। তবে দ্বিতীয় ম্যাচেও টাইগারদের হাতে ধরা দিল জয়। তবে একটু বড় ব্যবধানে। সংযুক্ত আরব আমিরাতকে দেশের ছেলেরা হারাল ৩২ রানে।

দুরন্ত এ জয়ে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ২-০ ব্যবধানে নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। এই সিরিজ ট্রফি দিয়েই অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অনুষ্ঠিতব্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি পর্ব শুরু করল লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।

জয়ের জন্য ১৭০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৩৭ রানে গুটিয়ে গেছে আমিরাত।

আমিরাতের হয়ে ফিফটি হাঁকান আমিরাত ক্যাপ্টেন চুনডাঙ্গাপোইল রিজওয়ান। অপরাজিত থেকে যান ৩৬ বলে ২ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় ৫১ রানের ইনিংস খেলে। ৪২ রান আসে বাসিল হামিদের ব্যাট থেকে। দুজনে মিলে ৭২ বলে লিখেন ৯০ রানের পার্টনারশিপ। 

বাংলাদেশের হয়ে দুটি উইকেট শিকার করেন মোসাদ্দেক হোসেন। একটি করে উইকেট নেন এবাদত হোসেন, নাসুম আহমেদ ও  তাসকিন আহমেদ।

টস হেরে শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে ৫ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের ছেলেরা গড়ে ১৬৯ রানের পাহাড়সম পুঁজি। 

ওপেনার সাব্বির রহমান (১২) সাজঘরে ফিরলেও অসাধারণ ব্যাটিং দৃঢ়তায় ব্যাটাররা দলকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন বড় সংগ্রহের পথে। ক্রিজের এক প্রান্ত আগলে রেখে ব্যাটিং ঝলক দেখান মেহেদী হাসান মিরাজ। ৩৭ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ৪৬ রানের চমৎকার এক ইনিংস খেলেন তারকা এ অলরাউন্ডার। তাকে সঙ্গ দেয়ার চেষ্টা করেন লিটন দাস।

তবে এ স্টার ব্যাটার ইনিংস বড় করতে পারেননি। বিদায় নেন ২০ বলে ৪ বাউন্ডারিতে দলীয় স্কোরে ২৫ রান যোগ করে। আর আফিফ হোসেন এনে দেন ২০ রান।

ম্যাচের সেরা মিরাজ আউট হলেও ব্যাট হাতে লড়াই করেন মোসাদ্দেক হোসেন। সাহস দেখালেও ব্যাক্তিগত ইনিংসটি বড় করতে পারেননি। মোসাদ্দেকের ব্যাট ছুঁয়ে ২২ বলে ২ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় আসে ২৭ রান। শেষ দিকে ঝড়ো ইনিংস খেলেন ইয়াসির আলী রাব্বী। অপরাজিত থেকে যান ১৩ বলে ২১* রান করে। নুরুল হাসান সোহান যোগ করেন ১৯* রান।

আমিরাতের জার্সি গায়ে ২ উইকেট শিকার করে আয়ান আফজাল খান। তার সঙ্গে একটি করে উইকেট নেন সাবির আলী, কার্তিক মেয়াপ্পন ও আরিয়ান লাকরা।

;

হিমালয়ের কাছে পরাস্ত জামাল ভূঁইয়ারা



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বাংলাদেশ-নেপাল

বাংলাদেশ-নেপাল

  • Font increase
  • Font Decrease

কম্বোডিয়ার বিপক্ষে জয়ের সুখস্মৃতি নিয়েই নেপাল জয়ের মিশনে নেমেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু নাহ। স্বপ্ন সত্যি হলো না। হিমালয়ের দেশে হারের তেতো স্বাদই হজম করতে হলো জামাল ভূঁইয়ারা। 

নেপালের একই স্টেডিয়ামে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ জিতে দেশে ফিরেছেন দেশের মেয়েরা। সেই অনুপ্রেরণা সঙ্গী করেছিল ছেলেরা। কিন্তু দিনটি বড়ই অপয়া। লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের হয়ে ভাগ্যটা কথা বলল না কিছুতেই। 

কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে প্রীতি ম্যাচে স্বাগতিক নেপালের কাছে ৩-১ গোলে হার মেনেছে বাংলাদেশ।

নেপালের জয়ের নায়ক হ্যাটট্রিকম্যান অঞ্জন বিস্তা। বাংলাদেশের জার্সি গায়ে এক গোল শোধ করেন সাজ্জাদ হোসেন।

;