বিরোধী দলের আন্দোলনে সহিংসতা থাকলে বাধা আসবেই: কাদের



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বিরোধী দলের আন্দোলনে সহিংস তৎপরতা, সন্ত্রাস যদি যুক্ত হয়, তাহলে বাধা আসবেই বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকালে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, বিরোধী দলের আন্দোলনে কোনো রকম বাধা সরকারের পক্ষ থেকে দেওয়া হবে না। এখন নির্বাচন শেষ, সে ক্ষেত্রে কি কোনো বাধা দেওয়া হতে পারে, এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাধা দেওয়ার মতো সহিংস তৎপরতা, সন্ত্রাস এসব উপাদান যদি আন্দোলনে যুক্ত হয়, তাহলে বাধা আসবেই। তারা যদি শান্তিপূর্ণ রাজনৈতিক কর্মসূচি দিয়ে এগিয়ে যায়, সেখানে আমরা বাধা দেবো কেন!

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, 'আন্দোলন' শব্দটা বিরোধী দলের ভাষা। বাস্তবে আন্দোলন না হলেও মুখে তাদের বলতে হবে। নেতাকর্মীদের চাঙ্গা রাখতে হয় আর পাবলিককেও বোঝাতে হয়, সমমনাদের বোঝাতে হয় যে, আমরা আছি।

দলের বিভিন্ন পর্যায়ে কমিটি করার বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, আমাদের পার্টির ওয়ার্কিং কমিটির যে মিটিং অতি সম্প্রতি হয়েছে, সাংগঠনিক বিষয়ে সেখানে আমাদের সভাপতির একটা নির্দেশনা আছে। সেটা হচ্ছে, দলের সাংগঠনিক শৃঙ্খলা, কোথাও কোথাও অন্তর কলহ, কোথা কোথাও মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটি, কোথাও কোথাও অভ্যন্তরীণ কিছু সংকট এসব বিষয়ে আমাদের আটটি ডিভিশনে গঠিত কমিটি আছে। সে কমিটিগুলো পর্যায়ক্রমে জেলা, উপজেলা পর্যায়ে আমাদের পার্টির প্রয়োজনে আমাদের সহযোগী ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতাদেরও ডেকে আনা হবে। এসব বিষয়ে সমাধানের জন্য আমরা বৈঠক করবো। এটা আমাদের সিদ্ধান্ত। খুব শিগগিরই হয়ত আমরা শুরু করছি।

তিনি বলেন, ৫৪টা দল নিয়ে তারা (বিএনপি) সরকারবিরোধী ঐক্যজোট করেছে। এর মধ্যে সমমনাও আছে। এই ঐক্যজোটের শরিকরা এখন কোথায়! বিএনপি নেতাদের কাছে আমি জানতে চাই, সে ঐক্য এখন কোথায়! এখন সরকারের ঘাড়ে দোষ দিয়ে কি পার পাওয়া যাবে!

সরকার বিএনপির সিনিয়র নেতাদের নির্বাচন করার জন্য কারাগারে নিয়েছিল কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, মোটেও না। ২৮ অক্টোবরের ঘটনায় তাদের কারাগারে নেওয়া হয়েছে। পুলিশ হত্যা, প্রধান বিচারপতির বাড়িতে হামলা, সাংবাদিকদের ওপর হামলা, জাজেস কমপ্লেক্সে হামলা, পুলিশের হাসপাতালে হামলা এসব অভিযোগে তাদের আটক করা হয়েছিল। বিএনপি বলেছিল, আমরা নাকি পালিয়ে যাবো! তাহলে তারা পালিয়ে গেল কেন! পালিয়ে গেল মানে তারা কোনো অপরাধ করেছে; অন্যথায় তো তারা পালায়নি। সেদিন কিছু অপরাধ তারা করেছে। সে জন্য তাদের পালাতে হয়েছে। পালানো অবস্থায় তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তারপর বিষয়টা বিচারাধীন বিষয়, আদালতের বিষয়। আদালত যখন জামিন দিয়েছেন তখন তারা মুক্ত হয়েছেন।

ছাত্রলীগের বার বার সংঘর্ষ ও অপকর্ম রোধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে- এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এসব ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে যত কঠোর হওয়া দরকার আমরা হবো।

এমআরটি ট্রেন লাইন ৬টি থেকে বাড়ানো হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ট্রেন তো হবে ছয়টা। দুইটা 'অলরেডি আন্ডার কন্সট্রাকশনে' আছে। এমআরটি লাইন ৫ ও এমআরটি লাইন ১, যেটা হলো সেটা এমআরটি লাইন ৬ ব্যবহারে যদি কোনো ত্রুটি বা সমস্যা দেখা দেয়,তখন সেটা অবশ্যই বানানোর পথ আছে। সেটা অবশ্যই আমাদের চিন্তাভাবনায় আছে, সংকটমুক্ত বা ত্রুটিমুক্ত কীভাবে হবে!

এসময় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, মির্জা আজম, এস এম কামাল হোসেন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

   

লাখো মানুষের ভালবাসায় সিক্ত ছাত্রদল সভাপতি রাকিব



নিউজ ডেস্ক
লাখো মানুষের ভালবাসায় সিক্ত ছাত্রদল সভাপতি রাকিব

লাখো মানুষের ভালবাসায় সিক্ত ছাত্রদল সভাপতি রাকিব

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল সভাপতি মো. রাকিবুল ইসলাম রাকিব বলেছেন, লাখো মানুষের ভালোবাসায় আমি সিক্ত হয়েছি। যেহেতু আমি মুক্তাগাছার সন্তান, তাই আপনাদের কাজে আমার একটা দাবি; আগামীতে স্বৈরাচারী সরকার পতনের যে আন্দোলন আসবে আপনারা দলমত নির্বিশেষে রাজপথে সর্বাত্মক ভূমিকা রাখবেন। মনে রাখবেন, বাংলাদেশের হারানো গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করা হবে। এ জন্য সবাইকে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার বানারপাড়ে এক পথসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল সভাপতি মো. রাকিবুল ইসলাম রাকিবের মুক্তাগাছায় আগমন উপলক্ষে উপজেলা ছাত্রদল, যুবদল ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ মনতলা বাজার সংলগ্ন ব্রিজ এলাকায় বিকাল ৪টায় ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়।

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় ও ময়মনসিংহ জেলার নেতৃবৃন্দের উপস্থিতি সহস্রাধিক মোটরসাইকেল শোডাউনের মাধ্যমে মিছিল ও স্লোগানে স্লোগানে রাকিবকে তার গ্রামের বাড়ি কাশিমপুরে নিয়ে যাওয়া হয়।

এ সময় রাস্তার দুপাশে হাজার হাজার সাধারণ মানুষ, শুভাকাঙ্ক্ষী ও দলীয় সমর্থকদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। এছাড়া উপজেলার নতুন বাজার, ভাবকীর মোড়, কালিবাড়ী এবং বানারপাড় এলাকায় একাধিক পথসভায় অংশ নেয় রাকিব।

এ সময় ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীসহ ময়মনসিংহ জেলা এবং মুক্তাগাছা উপজেলা বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

রাকিবের বাড়িতে স্থানীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ, মতবিনিময় ও গণভোজের আয়োজন করা হয়।

;

বিএনপি বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িকতার বিশ্বস্ত ঠিকানা: কাদের



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপি এদেশের সাম্প্রদায়িকতার বিশ্বস্ত ঠিকানা, জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষক, এরা বাঙালি সংস্কৃতিকে সহ্য করতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রোববার (১৪ এপ্রিল) সকালে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ উদযাপন উপলক্ষে বাহাদুর শাহ পার্কে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজন আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, কারা বৈশাখের চেতনা বিরোধী, তা আজ দেশে প্রতিষ্ঠিত সত্য। তারা বাঙালির সংস্কৃতিকে সহ্য করতে পারে না। তাদের চেতনা ও হৃদয়ে পাকিস্তান।

তিনি বলেন, বাংলাদেশকে ও বাঙালি সংস্কৃতিকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে, আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্যকে আমাদের চেতনায় ধারণ করে বাঁচিয়ে রাখতে হলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুরের স্মৃতি ধন্য এই বাংলায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাঙালি সংস্কৃতির বহমান ধারাকে আমরা বহমান নদীর মতো এগিয়ে নিয়ে যাবো বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলার অভিমুখে।

বিএনপি-জামায়াত হচ্ছে বাঙালি সংস্কৃতি চেতনার, মুক্তিযুদ্ধের শত্রু উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আজকে কোনো রাখঢাক নেই, আজকে যারা সাম্প্রদায়িক, জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষক তারা বিএনপি-জামায়াত। তারা বাঙালি সংস্কৃতি চেতনার, মুক্তিযুদ্ধের শত্রু। এই শত্রুকে আসুন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাঙালির ঐতিহ্যবাহী চেতনায় আমরা এই অপশক্তিকে প্রতিহত করি, পরাজিত করি। বিজয়ের অভিমুখে এগিয়ে যাই।

এসময় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মেহের আফরোজ চুমকি, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সজল কুন্ডু, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সভাপতি আক্তার হোসেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের উপ দফতর সায়েম খান। আলোচনা সভা পরিচালনা করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ুন কবির।

;

বিএনপি সন্ত্রাসের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে: হানিফ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুষ্টিয়া
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপি সন্ত্রাসের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ।

তিনি বলেন, যারা নাশকতা কর্মকাণ্ডে অভিযুক্ত তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আর বিএনপি সন্ত্রাসের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে বলে বলতে পারছে পুলিশী রাষ্ট্রের কথা।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হরিনারায়নপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মহাসম্মেলন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকায় তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে, নির্দোষ প্রমাণে ব্যর্থ হওয়ায় আদালত তাকে দণ্ড দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর উদারতায় তাকে বাসায় থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কিন্তু বিএনপি নেতারা বেগম খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে রাজনীতি করে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।

মাহবুব উল আলম হানিফ আরও বলেন, ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক বিএনপি নেতাদের সস্তা রাজনীতি ছাড়া আর কিছুই না, এতে কোনো সুফল আসে না বরং রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়াত্বের বহিঃপ্রকাশ ঘটে।

এসময় কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শেখ হাসান মেহেদী, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

;

ইসরায়েলের ফ্লাইট ঢাকায় অবতরণ রহস্যজনক: রিজভী



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ইসরায়েলের ফ্লাইট ঢাকায় অবতরণ রহস্যজনক: রিজভী

ইসরায়েলের ফ্লাইট ঢাকায় অবতরণ রহস্যজনক: রিজভী

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসরায়েলের সঙ্গে বাংলাদেশের কোনো কূটনীতিক সম্পর্ক নেই। তারপরও সেখান থেকে সরাসরি বাংলাদেশে ফ্লাইট অবতরণ করার বিষয়টি ‘রহস্যজনক’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, ইসরায়েলের একটি ফ্লাইট বাংলাদেশে অবতরণ করার কথা শুনেছি। তবে বিস্তারিত এখনো জানি না। এখন পর্যন্ত যতটুকু শুনেছি তাতে বিষয়টিকে খুবই রহস্যজনক মনে হচ্ছে।

বিশ্বের শীর্ষ দুর্নীতিগ্রস্ত তালিকায় এখন বাংলাদেশের নাম রয়েছে বলেও মন্তব্য করেছেন রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, বাংলাদেশ এখন ব্যাপকভাবে দুর্নীতি চাষের উর্বর ভূমি। বাংলাদেশ দুর্নীতির এমন একটি পাহাড় রচিত হয়েছে, সেই পাহাড়ের চূড়ায় এখন ক্ষমতাসীন শাসক গোষ্ঠীর লোকেরা অবস্থান করছে।

বিএনপির মুখপাত্র বলেন, আন্তর্জাতিক গবেষণা সংস্থার মতে, বর্তমানে দুর্নীতির শীর্ষ দশের মাঝামাঝি অবস্থায় বাংলাদেশ অবস্থান করেছে। এমনকি দুর্নীতির মাধ্যমে, লুটপাট করে টাকা পাচার করে বিশ্বের উন্নত দেশের শীর্ষ ধনীদের মাঝেও নাম লেখাতে সক্ষম হয়েছেন ক্ষমতাসীন গোষ্ঠী এবং তাদের আত্মীয়স্বজনরা।

দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, সমস্ত জরাজীর্ণতা ও সমস্ত গ্লানি মুছে নতুনভাবে দেশটাকে গড়ে তুলা, আমাদের যে লক্ষ্য গণতন্ত্রকে ফেরানো, সে আন্দোলনকে আরও বেশি তরান্বিত করবো, মানুষের হারানো অধিকার ফিরিয়ে আনবো সেটাই হোক আমাদের প্রত্যাশা।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, গত ১১ এপ্রিল ইসরায়েলের তেল আবিব থেকে স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় রওনা হয়ে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ঢাকায় অবতরণ করে ফ্লাইটটি। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের এনসিআর-৮০৬ নম্বর ফ্লাইটটি বোয়িং ৭৪৭-৪০০ মডেলের এয়ারক্রাফট দিয়ে পরিচালিত হচ্ছিল।

;