তীব্র গরমে অসুস্থ হয়ে পড়ছে মানুষ



গুলশান জাহান সারিকা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ভ্যাপসা গরম ও তীব্র তাপদাহের মধ্য দিয়ে চৈত্রের বিদায়। বৈশাখের শুরু থেকেই রাজধানীতে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত ওঠানামা করছে। মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) রাজধানীসহ আশেপাশে একপশলা বৃষ্টি হলেও কমেনি তাপদাহ। আজ সকাল থেকে আবার তীব্র তাপদাহ বইছে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বেশিরভাগ অঞ্চলে।

অতিরিক্ত গরমে অসুস্থ হয়ে পড়ছে মানুষ। বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধরা। রোদ ও গরমে দেহে পানিশূন্যতা, মাংসপেশিতে টান ধরা, ক্লান্তি, অসার ভাব, হিটস্ট্রোক, ডায়রিয়াসহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন মানুষ। এগুলো সবই খরতাপের প্রভাবে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) সকালে রাজধানীর মহাখালী ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ডাইরিয়াল ডিজিজ রিসার্চ (আইসিডিডিআর, বি) হাসপাতালে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত এক সপ্তাহে প্রায় সাড়ে তিন হাজার রোগী ভর্তি হয়েছেন ডায়রিয়া ও অন্যান্য উপসর্গ নিয়ে।

হাসপাতালের তথ্য অনুসারে, সাড়ে তিন হাজার রোগীর তিন ভাগের দুই ভাগই ডায়রিয়ায় আক্রান্ত। প্রচণ্ড গরমে শরীরে পানিস্বল্পতা ও ফুড পয়জনিংয়ের কারণে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ। বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধের আক্রান্তের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য। অতিরিক্ত রোদ, তাপ থেকে নিরাপদ থেকে সচেতনতা অবলম্বন করে চলার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা।

ডায়রিয়া নিয়ে হাসপাতাল ভর্তি হয়েছেন বেসরকারি চাকরিজীবী খলিলুর রহমান। তিনি বলেন, বাইরের খাবার খেয়ে আমার এ অবস্থা। গরমে কয়েকদিন রাস্তার ধারের আখের জুস, লেবুপানি খেয়েছি। গতকাল রাত থেকে খারাপ অবস্থা শুরু হয়েছে, আজ সকালে ভর্তি হয়েছি।

চার বছরের ছেলেকে নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি আসমা বেগম। তিনি জানান, ফুড পয়জনিং থেকে ছেলের ডাইরিয়া হয়েছে। হঠাৎ অতিরিক্ত গরমে আর বাইরের খাবারের জন্য সম্ভবত এমন হয়েছে।

আইসিডিডিআর বি হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. ফারজানা আফরোজ বার্তা২৪.কমকে বলেন, প্রতিদিন প্রায় ৫০০ রোগী ভর্তি হচ্ছে পানিশূন্যতা ও ডায়রিয়া নিয়ে। মার্চের শেষ থেকে গরমের প্রভাব বাড়ার কারণে হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। আক্রান্তদের মধ্যে বয়স্ক ও শিশুর সংখ্যা বেশি বলে জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, তীব্র তাপদাহে সুস্থ থাকতে প্রথমত সচেতন হতে হবে। প্রাত্যহিক রুটিনে কিছু পরিবর্তন আনতে হবে। পর্যাপ্ত ঘুম ও বিশ্রাম নিতে হবে। অতিরিক্ত তাপে হিটস্ট্রোক থেকে বাঁচতে বাইরে কম বের হতে হবে। বেশি করে নিরাপদ বিশুদ্ধ পানি পান করতে হবে। ডিহাইড্রেশন হতে দেওয়া যাবে না। বাইরের খাবার, বোতলজাত ফলের জুস, ফুটপাতের খাবার, ভাজাপোড়া, তেলযুক্ত খাবার পরিহার করতে হবে, কম মশলাযুক্ত ও পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। চা, কফি কম খেতে হবে। পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে বারবার সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে, নিয়মিত গোসল করতে হবে।

বাচ্চাদের ঘরের বাইরে যেতে দেওয়া যাবে না। মানসিক চাপ মুক্ত রাখতে হবে। গরমে হালকা পোশাক পরতে হবে। ডায়রিয়া হলে সঠিক নিয়মে স্যালাইন খেতে হবে।

এছাড়া বেশি অসুস্থ বোধ করলে দ্রুত নিকটস্থ হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

   

খাবারে রাসায়নিক ব্যবহারে ইহকাল পরকাল নষ্ট হচ্ছে: বিভাগীয় কমিশনার



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজশাহী
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর বলেছেন, খাবারে রাসায়নিক ব্যবহারের ফলে এক দিকে যেমন পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে অপর দিকে যে ব্যবহার করছে তার ইহকাল পরকাল সবই নষ্ট হচ্ছে। এ থেকে আমাদের সকলকে বিরত থাকতে হবে|

সোমবার (২০ মে) রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ে বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন (বিএসটিআই)-এর এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, পৃথিবীতে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো সময় এবং মানুষের সেবা করা। সব ধর্মেই এর গুরুত্ব অপরিসীম। আমরা সেবা করতে গিয়ে অনেক সময় অধিক মুনাফার আশায় মানুষকে ওজন বা পরিমাপে কম দেই, যেটা চরম অপরাধ। মানুষ অনেক কষ্ট করে টাকা উপার্জন করে। সেই কষ্টের টাকা আমরা কোনোভাবেই বিনষ্ট হতে দিবো না।

হুমায়ূন কবীর বলেন, ফল পরিপক্ক হওয়ার আগে নামিয়ে ফেলে মানব দেহের জন্য ক্ষতিকারক রাসায়নিক ব্যবহার করে বাজারজাত করা হচ্ছে। এতে মানুষের চরম ক্ষতি হচ্ছে। এটা বিএসটিআই বা প্রশাসনের পক্ষে একাই নির্মূল করা সম্ভব নয়। আপনাদের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। আপনাদের বাড়ির আশেপাশে যদি এই ধরনের ঘটনা ঘটে তবে আমাদের জানান, আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

এছাড়া অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন অভিযোগ সমাধানের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন বিভাগীয় কমিশনার।

বিএসটিআই’র উপপরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে র‌্যাব-৫ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ মুনীম ফেরদৌস, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এণ্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাসুদুর রহমান রিংকু, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল এণ্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মোঃ আরিফুল ইসলাম নাহিদসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।

;

ছেলেকে ফাঁসির দড়িতে ঝুলতে দেখে মায়ের বিষপান



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলায় নিজ সন্তানকে ফাঁসির দড়িতে ঝুলতে দেখে তাহমিনা আক্তার (৫১) নামের এক মা বিষপানে আত্নহত্যার চেষ্টা চালিয়েছেন।

রবিবার (১৯ মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডস্থ মধ্যম মিরেরখীল মাইজপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, স্থানীয় কৃষক দিদারুল আলমের মানসিক ভারসাম্যহীন পুত্র মো. তারেক (২২) রবিবার সন্ধ্যার দিকে নিজ ঘরের বিমের সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন। পরে নিজ সন্তানকে ফাঁসির দড়িতে ঝুলতে দেখে মা তাহমিনা আক্তার নিজেও বিষপান করে আত্নহত্যার চেষ্টা চালান।

এ সময় স্থানীয়রা এগিয়ে এসে ফাঁসির দড়িতে ঝুলতে থাকা তারেককে নামিয়ে নেন। পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তারেককে মৃত ঘোষণা করেন এবং তার মাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

প্রতিবেশী সমাজসেবক ও সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য শুক্কুর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তারেক ছেলেটি একটি দোকানে সেলসম্যানের কাজ করতো। সে মানসিক ভারসাম্যহীন। এর আগেও একবার সে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছিলো।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রশ্মি চাকমা জানান, হাসপাতালে আনার আগেই ছেলের মৃত্যু হয়। আর বিষপান করা মায়ের অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় তাকে চমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

হাটহাজারী মডের থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হবে। তদন্ত রিপোর্ট হাতে এলে কিভাবে কি হয়েছে তা জানা সম্ভব হবে।

;

বাজেট অধিবেশন বসছে ৫ জুন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশন বসছে আগামী ৫ জুন; যে অধিবেশনে আগামী ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপনের সূচি রয়েছে।

এদিন বিকাল ৫টায় সংসদের বৈঠক বসবে। আর আগামী ৯ জুন বাজেট পেশ করা হবে।

রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন সাংবিধানিক ক্ষমতাবলে এ অধিবেশন আহ্বান করেছেন।

সোমবার (২০ মে) জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের জনসংযোগ শাখার যুগ্মসচিব কর্মকর্তা মো. তারিক মাহমুদ এই তথ্য জানিয়েছে।

সংসদ সচিবালয় এরইমধ্যে বাজেট অধিবেশনের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে।

;

ঘুরে ঘুরে শিশু অপহরণ, মুক্তিপণ না দিলেই বিক্রি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে শিশু অপহরণ করতেন সুমাইয়া (৪৫)।এরপর ওই শিশুদের অভিভাবকদের কাছে দাবি করা হতো মোটা অংকের মুক্তিপণ।পরিবার মুক্তিপণ দিতে ব্যর্থ হলে শিশুদের বিক্রি করে দিতেন।

সম্প্রতি রাজধানীর বাড্ডা থেকে মরিয়ম নামের দুই বছরের এক শিশুকে অপহরণের পর পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন সুমাইয়া। সোমবার (২০ মে) ডিএমপির বাড্ডা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) রাজন কুমার সাহা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, শনিবার সকাল ১১টার দিকে শিশু মরিয়মকে অপহরণ করেন শিশু বিক্রি চক্রের মূলহোতা সুমাইয়া। পরবর্তীতে শিশুটিকে চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ থানা এলাকায় নিয়ে যায়। সেখান থেকে টেলিফোনের মাধ্যমে ভিকটিমের পরিবারের কাছে মুক্তিপণের জন্য টাকা দাবি করলে বাড্ডা থানায় লিখিত অভিযোগ করে শিশুটির পরিবার। তাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার করে আসামি সুমাইয়ার অবস্থান শনাক্ত করা হয়। পরবর্তীতে বাড্ডা থানার এসআই সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়া, শাহ আলম খলিফা, এএসআই রুহুল আমিন ও নারী পুলিশ সাথী আক্তারের সমন্বয়ে একটি আভিযানিক দল দ্রুত সময়ের মধ্যে চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলা থেকে সুমাইয়াকে গ্রেফতার করে এবং মরিয়মকে উদ্ধার করে।

গ্রেফতার সুমাইয়াকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাতে পুলিশ জানায়, দেশের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে শিশুদের অপহরণ করে বিক্রি করেন বলে স্বীকার করেছেন সুমাইয়া।

বাড্ডা জোনের এসি রাজন কুমার সাহা বলেন, বর্তমানে পুলিশ তথ্যপ্রযুক্তি ও আধুনিক প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষিত। তাই যে কোনো ধরনের অপরাধ চক্রকে খুঁজে বের করে রহস্য উৎঘাটন করার জন্য আমরা সর্বদা প্রস্তুত আছি। একই সঙ্গে এ ধরনের চক্রের থেকে সতর্ক থাকতে অভিভাবকদের সচেতন হওয়ার আহবানও জানান তিনি।

;