রমজানে সরকারিভাবে ইফতার পার্টি না করার সিদ্ধান্ত



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ব্যয় সংকোচনের অংশ হিসেবে রমজানে সরকারিভাবে ইফতার পার্টি না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অন্যদেরকেও নিরুৎসাহিত করার কথা বলা হয়েছে।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বৈঠক শেষে বিকেলে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন কারোর এ ধরনের অনুষ্ঠান করার ইচ্ছা থাকলে খাদ্য কিনে গরিবদের বিতরণ করতে পারে। এর মূল বার্তা হচ্ছে, অপচায় যেন না করি, লোক দেখানো কার্যক্রমে যেন নিজেদের নিবেদিত না করি।

খাদ্য ও অর্থের অপচয় হলে ধর্মীয় দিক থেকে কোনো যৌক্তিকতা থাকে না. বলেন সচিব।

   

পর্যটকের বেশে ইয়াবা কারবার, আটক ২



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
পর্যটকের বেশে ইয়াবা কারবার, আটক ২

পর্যটকের বেশে ইয়াবা কারবার, আটক ২

  • Font increase
  • Font Decrease

 

ঈদের ছুটি কাটাতে রাজধানীতে বেড়াতে আসার পথে ইয়াবা বহনের অভিযোগে দুইজনকে আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ঢাকা মেট্রো: (দক্ষিণ)।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- চোকোথাইন তনচংগ্যা (৩৫) ও মংকেথাইন তনচংগ্যা (৩৫)। তাদের দুজনের বাড়ি কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায়।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ডিএনসির মেট্রো: দক্ষিণ কার্যালয়ের সূত্রাপুর সার্কেলের উপপরিদর্শক আব্দুল মতিন মিয়া।

তিনি বলেন, চলমান ঈদ-উল-ফিতরের ছুটিতে মাদক ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্য রুখতে তিনটি ভিজিলেন্স ও টহল টিম গঠন করেছে ঢাকা মেট্রো দক্ষিণ। শনিবার ভোরে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার এর টোল প্লাজায় খাগড়াছড়ি থেকে ঢাকায় আসা শান্তি পরিবহনের দুটি বাসে তল্লাশি চালানো হয়। এসময় দুটি বাস থেকে পাঁচ হাজার পিস ইয়াবাসহ দুইজনকে আটক করা হয়।

প্রথমে তিন হাজার পিস ইয়াবাসহ চোকোথাইন তনচংগ্যা (৩৫) আটক করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যমতে একই পরিবহনের আরেকটি বাসের যাত্রীবেশে আসা মংকেথাইন তনচংগ্যাকে (৩৫) দুই হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা জানায়, টেকনাফ থেকে ইয়াবা নিয়ে তারা গাজীপুরের জয়দেবপুর এলাকায় পৌঁছে দিতে যাচ্ছিল। প্রতি চালানে তারা বিশ হাজার টাকা করে পেত। ঈদের ছুটিতে ঢাকা শহরে ঘুরতে আসার পাশাপাশি নগদ অর্থের লোভে তারা ইয়াবা পাচারে জড়ায় বলে জানায়।

পরিচয় লুকাতে এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাত থেকে বাঁচতে তারা কক্সবাজার থেকে প্রথমে বান্দরবান যায়। বান্দরবান থেকে নৌপথে রাঙামাটি পৌঁছায় এবং রাঙামাটি থেকে বাসে করে ফেনী আসে। পরে ফেনী থেকে বাস বদল করে খাগড়াছড়ির বাসে উঠে ঢাকায় আসে।

;

গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে পুড়ল প্রায় ৩০ দোকান-ঘর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

 

চট্টগ্রাম নগরীর সিটি গেটে গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে প্রায় ৩০টি ভাড়া ঘর ও দোকান পুড়ে গেছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বাদামতলী মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ১০টা ৫০ মিনিটে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নির্বাপণ করে।

কিশোর আচার্য নামের এক স্থানীয় চিকিৎসক বলেন, আমার চেম্বারের পাশে ৮ থেকে ১০টি দোকান ও ২০টির ও বেশি ভাড়ার ঘর আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের জ্যেষ্ঠ স্টেশন অফিসার খান খল্লিলুর রহমান বলেন, অগ্নিকাণ্ডটি সকাল ১০টা ২০ মিনিটে ঘটে। পরে আমাদের দুইটি ইউনিট ১১টা ৩০ মিনিটের মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে সেখানে একটি হোটেলের গ্যাস সিলিন্ডার থেকে আগুনের সূত্রপাত। এ ঘটনায় প্রায় ৯ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে ১৮ লাখ টাকার মালামাল।

;

গুম-নির্যাতন নিয়ে কাল্পনিক মিথ্যাচার করছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

  • Font increase
  • Font Decrease

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বাংলাদেশের সর্বস্তরের জনগণ যখন পবিত্র ঈদ উৎসব উদযাপন করছে, নিরাপদ ও আনন্দময় পরিবেশে প্রতিটি গৃহকোণ পরিবার-পরিজন নিয়ে উৎসবে মাতোয়ারা ঠিক সে সময়ে বিএনপি তথাকথিত 'গুম-নির্যাতনের' কাল্পনিক তথ্য দিয়ে বাংলাদেশের জনগণকে বিভ্রান্ত করছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মিথ্যা, বানোয়াট ও বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে একথা বলেছেন ওবায়দুল কাদের।

বিবৃতিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, মির্জা ফখরুলের দেওয়া নেতাকর্মীদের গুম, হত্যার ঘটনা সব মিথ্যা এবং দায়েরকৃত মামলার সংখ্যার তথ্য সম্পূর্ণ বানোয়াট। বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও নির্বাচনী প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করতে বিএনপির সকল ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হওয়ার পর তারা এখন মনগড়া তথ্য দিয়ে নির্লজ্জ মিথ্যাচার করছে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, তথাকথিত গুম, খুন ও মামলার সংখ্যা নিয়ে বিদেশি প্রভুদের কাছ থেকে করুণা ও রাজনৈতিক সমর্থন লাভের আশায় বিএনপি নেতারা ধারাবাহিকভাবে সরকার বিরোধী এ অপপ্রচার চালাচ্ছে। মির্জা ফখরুল ইসলাম ঢালাওভাবে অপপ্রচার না চালিয়ে রাজনৈতিক কারণে তথাকথিত নিপীড়ন-নির্যাতনের কোন ঘটনা ঘটলে সুনির্দিষ্ট তথ্যসহ বিএনপি নেতাদের সম্পূর্ণ তালিকা জনসম্মুখে প্রকাশের দাবি জানান।

তিনি বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ে মৃত্যুবরণকারী যুবদল নেতা একজন স্থানীয়ভাবে চিহ্নিত মাদকসেবী এবং তার বিরদ্ধে মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে একাধিক মামলা বিচারাধীন রয়েছে। কোন প্রকার আইনের ব্যত্যয় ঘটলে সরকার গুরুত্বসহকারে বিষয়টি খতিয়ে দেখবে। কিন্তু মির্জা ফখরুল একজন মাদকাসক্ত এবং মাদক ব্যবসায়ীর মতো একজন অপরাধীর স্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনাকে 'বিরোধীদলের উপর সরকারের নির্যাতন'-এর অভিযোগ এনে অপপ্রচার চালিয়ে রাজনৈতিকভাবে ফায়দা নেয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি যখন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় ছিল তখন ২০০৪ সালের ২১ শে আগস্ট নারকীয় গ্রেনেড হামলা চালিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে সম্পূর্ণভাবে নিশ্চিহ্ন করার ষড়যন্ত্র চালায়। ২০০১ থেকে ২০০৬ সালে অপারেশন ক্লিনহার্টসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর মাধ্যমে মোট এক হাজার ২২৩ জন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীকে ক্রস ফায়ার এবং পুলিশ হেফাজতে হত্যা করে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ প্রতিহিংসার রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না। আওয়ামী লীগ সরকার দেশে যেকোন মূল্যে দেশে গণতন্ত্র, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বদ্ধ পরিকর।

;

নববর্ষকে ঘিরে তিনস্তরের নিরাপত্তা থাকবে: সিএমপি কমিশনার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায় জানিয়েছেন, নববর্ষকে ঘিরে আমাদের তিনস্তরের নিরাপত্তা থাকবে। পর্যাপ্ত পোশাকের পুলিশ এবং সাদা পোশাকের পুলিশ থাকবে। সুনির্দিষ্ট কোনো হুমকি নেই। এরপরও যে কোনো ধরনের খারাপ পরিস্থিতি মোকাবিলায় পুলিশ প্রস্তুত আছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে চট্টগ্রামে বর্ষবিদায় ও বর্ষবরণের বড় আয়োজন স্থলের নিরাপত্তা প্রস্তুতি পরিদর্শনে শিরিষতলা ঘুরে ডিসি হিলে এসে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

বাংলা নববর্ষ উদযাপনে যারা বিশ্বাস করে না, তাদের তৎপরতার প্রসঙ্গে সিএমপি কমিশনার বলেন, নানা ধরনের কথাবার্তা আছে। আমরা সোশ্যাল মিডিয়াতে দেখি। তবে আমি এটা বলতে চাই, আমাদের কাছে সুনির্দিষ্ট কোনো থ্রেট নেই। তবে যে কোনো ধরনের খারাপ পরিস্থিতি মোকাবিলায় সর্বোচ্চ প্রস্তুতি আছে। আমাদের তিনস্তরের নিরাপত্তা থাকবে। পর্যাপ্ত পোশাকের পুলিশ এবং সাদা পোশাকের পুলিশ থাকবে। সংখ্যাটা আমরা বলতে চাই না।

নিরাপত্তার প্রস্তুতি বিষয়ে তিনি বলেন, অতীতে আমাদের যে গৃহীত ব্যবস্থা সেটা পর্যালোচনায় নিয়ে এবারও নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রণয়ন করা হয়েছে। পোশাকি ব্যবস্থা তো আছেই, সাদা পোশাকের ব্যবস্থাও প্রণয়ন করা হয়েছে। পাশাপাশি যে কোনো ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য আমাদের স্পেশালাইজড ইউনিট, বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট এবং সোয়াতের সদস্যরা প্রস্তুত থাকবে।

আয়োজকদের নিজস্ব নিরাপত্তা জোরদারের তাগিদ দেওয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, অনুষ্ঠানে নারী-পুরুষ যাতে আলাদাভাবে প্রবেশ করতে পারেন, সেই ব্যবস্থা আয়োজকদের রাখার জন্য বলা হয়েছে। ছিনতাই এবং ইভটিজিংয়ের মতো অপরাধ মোকাবিলায় আমাদের পোশাকি এবং সাদা পোশাকের ব্যবস্থা থাকবে। এর বাইরে আয়োজকদের নিজস্ব প্রস্তুতিও রাখার কথা বলা হয়েছে।

দর্শকদের অতিরিক্ত কিছু বহন না করার অনুরোধ করে সাংবাদিকদের মাধ্যমে সিএমপি কমিশনার বলেন, অনুরোধ করছি, আপনারা যখন আসবেন খালি হাতেই আসবেন। অতিরিক্ত কোনো ব্যাগ-পোটলা নিয়ে আসবেন না। যারা মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নেবেন, বিশেষ করে যারা বিভিন্ন ধরনের মুখোশ ধারণ করবেন, তারা যেন পূর্ব থেকে আয়োজকদের পরিচিত থাকেন। তাহলে এটার সুযোগ নিয়ে কেউ কোনো অঘটন ঘটানোর পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পারবে না।

তিনি আশা করে বলেন, নগরবাসীর সহযোগিতা নিয়ে এবং আমাদের সর্বোচ্চ সামর্থ্য দিয়ে আমরা যে নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রণয়ন করেছি, তাতে আশা করছি আগামীকালের দিনটি খুব ভালো যাবে। আমরা আশা করছি, আমাদের গৃহীত ব্যবস্থা এবং যারা দর্শক আসবেন, তাদের সহযোগিতার মধ্য দিয়ে নিরাপদ পরিবেশে উৎসবমুখরভাবে নববর্ষ উদযাপনের অনুষ্ঠানগুলো সম্পন্ন হবে।

এর আগে, গত ৮ এপ্রিল সিএমপি কমিশনারের সভাপতিত্বে নববর্ষ উদযাপন কমিটির প্রতিনিধিদের নিয়ে পহেলা বৈশাখের নিরাপত্তা সমন্বয় সভা হয়। এতে সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে পহেলা বৈশাখের আয়োজন শেষ করার নির্দেশনা দেন সিএমপি কমিশনার।

;