‘মানবাধিকার লঙ্ঘনকারীরা মানবাধিকারের প্রেসক্রিপশন দেয়, এটিই দুর্ভাগ্য’



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম, ঢাকা 
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘আমাদের দুর্ভাগ্য যে, চরম মানবাধিকার লঙ্ঘনকারীরাই বেশি বেশি মানবাধিকারের কথা বলে, নানা প্রেসক্রিপশন দেয়।’

রোববার (১০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর তোপখানা রোডে জাতীয় প্রেসক্লাবে চিটাগাং জার্নালিস্ট ফোরাম ঢাকা (সিজেএফডি) আয়োজিত জাতীয় প্রেসক্লাবের স্থায়ী সদস্য ও সিজেএফডি’র সাবেক দুই প্রয়াত সভাপতি এম ওয়াহিদ উল্লাহ এবং শীলব্রত বড়–য়া’র স্মরণসভায় বিশ্ব মানবাধিকার দিবস প্রসঙ্গে তিনি এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, 'আজকে বিশ্ব মানবাধিকার দিবস। এখন দেখা যাচ্ছে যে, যারা মানবাধিকার লঙ্ঘন করে তারা মানবাধিকার নিয়ে বেশি কথা বলা শুরু করেছে। দেশে আগুনসন্ত্রাস চালিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা এবং অবরোধ ডেকে দিনের পর দিন মানুষকে যারা অবরুদ্ধ করে রাখতে চায়, মানুষ তাদেরকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে যখন স্বাভাবিক কাজকর্ম চালায়, তখন চোরাগোপ্তা হামলা চালিয়ে মানুষের অধিকার হরণ করে, মানবাধিকার হরণ করে তারা আবার প্রেসক্লাবের সামনে দাঁড়িয়ে মানবাধিকারের কথা বলে। এটিই আমাদের জন্য দুর্ভাগ্য।'

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘ফিলিস্তিনে চরম মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে, পাখি শিকার করার মতো করে মানুষ শিকার করছে, নারী ও শিশুদের হত্যা করা হচ্ছে ,১৮ হাজার নিহত মানুষের মধ্যে ১৩ হাজার নারী ও শিশু। সেখানে হত্যা বন্ধের বিপক্ষে যারা কথা বলে, সেখানে হত্যাযজ্ঞ চালানোর জন্য যারা ইসরাইলকে অস্ত্র সরবরাহ করে, তারা আবার বিশ্বব্যাপী মানবাধিকারের প্রেসক্রিপশন দেয়, এটিই বিশ্ববাসীর জন্য দুর্ভাগ্য।’

প্রয়াত সাংবাদিক এম ওয়াহিদ উল্লাহ ও শীলব্রত বড়ুয়া সাংবাদিক সমাজের উজ্জ্বল মুখ ছিলেন উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তারা গণমাধ্যমের জন্য আজীবন কাজ করে গেছেন। সাংবাদিক হিসেবে লোভ-লালসার ঊর্ধ্বে থেকে পেশাগতভাবে তারা অত্যন্ত দক্ষতার সাথে তাদের কাজ করে গেছেন।’

একটি রাষ্ট্রের বিকাশের জন্য ভালো সাংবাদিকতার প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করে সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, ‘অনেক সময় রাষ্ট্র পথ হারিয়ে ফেলে। রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্বে যারা থাকেন তারাও অনেক সময় পথ হারিয়ে ফেলে, সে ক্ষেত্রে একজন সাংবাদিক কিন্তু রাষ্ট্র যাতে সঠিকখাতে প্রবাহিত হয় এবং যারা দায়িত্বে থাকেন তারা যাতে খেই হারিয়ে না ফেলে সে ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। আজকে যারা সাংবাদিক সমাজে নেতৃত্ব দিচ্ছেন, তারা ভালো সাংবাদিক তৈরির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারবেন।’

   

ভিকারুননিসার ১৬৯ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ভর্তির ক্ষেত্রে বয়সের নীতিমালা না মানায় ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের স্কুল শাখার প্রথম শ্রেণির ১৬৯ জন শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল করেছে সরকার। তারা সবাই ২০২৪ সালে ভর্তি হয়েছিল।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) হাইকোর্টের একটি প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা অধিদফতর।

ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের একটি প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজ কর্তৃক ২০২৪ শিক্ষাবর্ষে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তির ঊর্ধ্বসীমা নির্ধারণ করে আবার তা অনুসরণ না করে ১ জানুয়ারি ২০১৭ সালের পূর্বে জন্মগ্রহণকারী (প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রেরিত সংযুক্ত তালিকায় বর্ণিত) শিক্ষার্থীদের ভর্তি করাটা ছিল বিধি বহির্ভূত।

এমতাবস্থায়, ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজে ২০২৪ শিক্ষাবর্ষে প্রথম শ্রেণিতে বিধি বহির্ভূত ১ জানুয়ারি ২০১৭ সালের পূর্বে জন্মগ্রহণকারী ভর্তিকৃত, প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রেরিত সংযুক্ত তালিকায় বর্ণিত ২০১৫ সালে জন্মগ্রহণকারী ১০ জন এবং ২০১৬ সালে জন্মগ্রহণকারী ১৫৯ জনসহ মোট ১৬৯ (একশত উনসত্তর) জন শিক্ষার্থীদের ভর্তি বাতিল করতে জরুরি ভিত্তিতে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরকে অবহিত করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

এ বিষয়ে মাউশি মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ বলেন, ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী যে বয়সসীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে সে অনুযায়ী ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজ একটি বয়সসীমা নির্ধারণ করে দেয়। কিন্তু নীতিমালার বিষয়টি শেষ পর্যন্ত তারা মানেনি। যার কারণে আদালত থেকে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা আসে মাউশির কাছে। ওই নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে ১৬৯ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল করা হয়েছে।

;

রামেবির সিন্ডিকেট সদস্য হলেন রাজশাহীর ২ সংসদ সদস্য



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, রাজশাহী
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (রামেবি) সিন্ডিকেটে সদস্য মনোনীত হয়েছেন রাজশাহী-১ আসনের সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরী ও রাজশাহী-৫ আসনের সংসদ সদস্য আবদুল ওয়াদুদ।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বিভাগে প্রকাশিত সিনিয়র সহকারী সচিব রেহানুল হকের স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানা যায়।

রাজশাহীর দুই সংসদ সদস্য ছাড়াও রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য মনোনীত হয়েছেন, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগ, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্পিকারের একান্ত সচিব, ডেপুটি স্পিকারের একান্ত সচিব, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ, সিনিয়র সচিব, অতিরিক্ত সচিব (মাস) এর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা, উপসচিব (মাস) এর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা।

;

ছাত্রীকে আটকে রেখে উত্যক্ত করায় শিক্ষকসহ আটক ৪ 



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট,বার্তা২৪.কম,সিরাজগঞ্জ
ছবি: বার্তা ২৪

ছবি: বার্তা ২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

সিরাজগঞ্জে শিক্ষার্থীকে ঘরে আটকে রেখে উত্যক্ত করায় এক কলেজ শিক্ষকসহ ৪ ইভটিজারকে আটক করেছে পুলিশ। 

আটককৃতরা হলেন, জেলার এনায়েতপুর থানার খামারগ্রাম কলেজের প্রভাষক রাসেদুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম, নাজমুল হক এবং আজিজুল হক হৃদয়।

এ ঘটনায় বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১২টার দিকে আটক খামারগ্রাম কলেজের প্রভাষক রাসেদুল ইসলামের শাস্তির দাবিতে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী এনায়েতপুর থানার সামনের বিক্ষোভ মিছিল করে। বর্তমানে ওই এলাকায় উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে। 


মেয়ের বাবা মানবজমিন পত্রিকার স্থানীয় প্রতিনিধি খোরশেদ আলম ওরফে বাবু মির্জা জানান, মঙ্গলবার বিকেলে আইসিএল স্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্রী কোচিং শেষে বাড়ি ফেরার সময় কেজিরমোড় এলাকায় তাকে আটকে রেখে উত্যক্ত করে। খবর পেয়ে তিনি এগিয়ে গেলে এবং মেয়েকে ছেড়ে দিতে বললে তাকে মারধর করে। খবর পেয়ে এনায়েতপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্তদের আটক করে। 

এনায়েতপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, মেয়ের বাবা বাদি হয়ে ৭ জনসহ অজ্ঞাত আরও কয়েক জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার পর আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ করে স্থানীয় এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীরা।

তিনি আরও জানান, মামলার অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। সেইসাথে ইভটিজিং রোধে আমাদের নিয়মিত অভিযান অব্যাহত থাকবে।

;

২৩ দিন পর খুলল ঘুমধুম সীমান্তের ৫ স্কুল



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কক্সবাজার
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্ত এলাকার পাঁচটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় খুলেছে আজ। ২৩ দিন বন্ধের পর সীমান্তের পরিস্থিতি বিবেচনায় স্কুলগুলো খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ত্রিরতন চাকমা বার্তা২৪.কমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ঘুমধুম সীমান্তের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় সাময়িকভাবে বন্ধ থাকা বিদ্যালয়গুলোতে নিয়মিতভাবে শ্রেণি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ মাসের শুরুতে বাংলাদেশের কয়েকটি সীমান্ত ঘেঁষা ওপারে মিয়ানমারে সংঘাত দেখা দেয়। দেশটির সরকারি বাহিনী ও বিদ্রোহীদের সংঘাত তীব্র হতে থাকলে ৫ ফেব্রুয়ারি ঘুমধুম সীমান্ত এলাকার পাঁচটি স্কুল বন্ধের ঘোষণা দেওয়া হয়।

স্কুলগুলো হলো- বাইশপারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ভাজাবনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তুমব্রু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পশ্চিমকুল তুমব্রু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও দক্ষিণ ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

সকাল থেকে স্কুলগুলোতে শিক্ষার্থীরা ক্লাস করতে আসে। কিন্তু ২৩ দিন বন্ধের পর প্রথম দিনে শিক্ষার্থীর সংখ্যা তুলনামূলক কম উপস্থিত হয়েছে।

;