ফটিকছড়িতে জিপ-অটোরিকশা সংঘর্ষে একজনের মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে জিপ-অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষের মো. একরাম উদ্দিন (৪৫) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এসময় আরও দুজন আহত হন।

রোববার (১ অক্টোবর) বিকেল ৩টার দিকে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়কে উপজেলা পাইন্দং পেলাগাজী দিঘীর মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

নিহত মো. একরাম হোসেন উপজেলার সুন্দরপুর ইউনিয়নের আজিমপুর এলাকার ছালেহ আহমদের ছেলে। আহতরা হলেন, হারুয়ালছড়ি ইউনিয়নের লম্বাবিল এলাকার মো. মুছার ছেলে অটোরিকশা চালক মো.শহীদুল (৩০) ও ফটিকছড়ি পৌরসভার ধুরুং এলাকার মৃত হাফিজুর রহমানের ছেলে মো. হারুন (৬৫)। তারা অটোরিকশার যাত্রীর ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকেলে বিবিরহাট বাজারমুখী যাত্রীবাহী একটি অটোরিকশা পেলাগাজী দিঘির মোড়ে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি জিপ গাড়ির সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে অটোরিকশাটি দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং ভেতরে থাকা যাত্রীরা গুরুত্বর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা ঘটনাস্থল থেকে আহত তিনজনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এদের মধ্যে একরাম নামে একজনের অবস্থা খারাপ হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আরেফিন আজিম বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুত্বর আহত অবস্থায় তিনজনকে ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয়রা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়া তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করা হয়। আহত বাকি দুইজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

নাজিরহাট হাইওয়ের থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আদিল মাহমুদ বার্তা২৪.কম-কে বলেন, অটোরিকশা সঙ্গে জিপে মুখোমুখি সংঘর্ষে একরাম নামের একজনের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনার পরপর জিপ গাড়িটি আটক করা হলেও চালক পালিয়ে যায়৷ এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন।



বেরোবিতে কোটাবিরোধীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা, আহত ১৫



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,বার্তা২৪.কম, রংপুর
বেরোবিতে ছাত্রলীগের হামলা

বেরোবিতে ছাত্রলীগের হামলা

  • Font increase
  • Font Decrease

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) সামনের সড়কে অবস্থন নেয়া কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে। এসময় কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন।

সোমবার (১৫ জুলাই) সন্ধ্যার পর রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা থেকে কোটাবিরোধীদের বিতাড়িত করে অবস্থান নেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। গোলযোগের আশঙ্কায় ওই এলাকায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বিকাল পৌনে ৫টার দিকে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা কোটাবিরোধীদের একটি অংশকে ধাওয়া করে সরিয়ে দেন।

এ ব্যাপারে কোটাবিরোধী শিক্ষার্থী সায়েম বলেন, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়সহ পুরো এলাকার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। তার পরেও আমরা মিছিল-সমাবেশসহ কর্মসূচি চালিয়ে যাবো।

এর আগে সকালে ছাত্রলীগ বেরোবি, মহানগর ও জেলা শাখা প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করাসহ বিভিন্ন অভিযোগে দুপুর ৩টায় রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক পার্কের মোড়ে সমাবেশ আহ্বান করে। কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীরাও বিকাল ৪টায় একই স্থানে সমাবেশ আহ্বান করে। বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা পার্কের মোড়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকেন। এ নিয়ে সকাল থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়সহ আশেপাশের এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছিল।

;

৪০০ কোটি টাকা প্রসঙ্গে যা বললেন সেই পিয়ন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
জাহাঙ্গীর আলম/ছবি: সংগৃহীত

জাহাঙ্গীর আলম/ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চীন সফর নিয়ে রোববার (১৪ জুলাই) গণভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমার পিয়নও ৪০০ কোটি টাকার মালিক ছিল। হেলিকপ্টার ছাড়া সে চলতো না। তাকে ধরা হয়েছে।’ পরে এ বিষয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়।

সংবাদ প্রকাশের পর প্রধানমন্ত্রীর সাবেক ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলম, তার স্ত্রী এবং তাদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যাংক হিসেব জব্দ করার নির্দেশ দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

তবে, এক সাক্ষাৎকারে জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, তিনি মনে করেন না যে, প্রধানমন্ত্রী তাকে ইঙ্গিত করে কথাগুলো বলেছেন। তিনি বলেন, ‘আমার পুরো বংশের মিলেও তো এত টাকা হবে না। আর আমার কী আছে, তাতো ট্যাক্স ফাইলেও উল্লেখ করেছি। আমি দুর্নীতি করিনি।’

২০১৩ সালের ৬ ডিসেম্বর রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা বাসস জানায়, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে জাহাঙ্গীর আলম সম্পর্কে সবাইকে সতর্ক করা হয়েছে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে নিজেকে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী হিসেবে পরিচয় দিয়ে অনৈতিক কর্মকাণ্ড করে আসছেন। প্রধানমন্ত্রী বা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সঙ্গে জাহাঙ্গীর আলমের কোনো সম্পর্ক নেই।’

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার খিলপাড়া ইউনিয়নের নাহারখিল গ্রামের মৃত রহমত উল্লাহর ছেলে জাহাঙ্গীর আলমের ব্যাপারে প্রয়োজনে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সহায়তা নিতেও প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের পক্ষ থেকে সকলকে অনুরোধ করা হয়েছে বলে বাসসের ওই রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জাহাঙ্গীর আলম এখন চাটখিল উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এবং গত সংসদ নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। তবে দল থেকে তাকে নমিনেশন দেওয়া হয়নি।

জাহাঙ্গীর নিজেই জানিয়েছেন, তিনি আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার অনেক আগে থেকেই দলীয় সভানেত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী হিসেবে কাজ করে আসছিলেন। ২০০৯ সালের ডিসেম্বরে ক্ষমতায় আসার পর প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী হিসেবে কাজ করছিলেন তিনি।

এর মধ্যেই এলাকার রাজনীতিতে তার জড়িয়ে পড়া এবং হেলিকপ্টারে আসা-যাওয়ার খবরের পাশাপাশি হঠাৎ করে বিপুল অর্থবিত্ত অর্জনের খবর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নজরে আসে। এরপর গত বছরের শেষ দিকে তাকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী।

দুর্নীতির অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, ৪০০ কোটি টাকার বিষয়টি তাকে নিয়ে বলা হয়নি বলেই মনে করেন তিনি। জাহাঙ্গীর বলেন, ‘আমি দুর্নীতি করিনি। আমাকে অব্যাহতি দেওয়ার পর পরিচয়পত্রসহ আমার কাছে যা ছিল তা আনুষ্ঠানিকভাবে জমা দিয়ে এসেছি। আর চারশ কোটি টাকা আমার চৌদ্দ গোষ্ঠীর টাকা ও সম্পদ মিলালেও তো হবে না।’

;

কোটা আন্দোলনে সংঘর্ষে আহত ১২ জন ঢামেকে ভর্তি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
হামলায় আহত শিক্ষার্থী

হামলায় আহত শিক্ষার্থী

  • Font increase
  • Font Decrease

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষের ঘটনায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১২ জন। এ ঘটনায় আহত হয়ে এখন পর্যন্ত মোট চিকিৎসা নিয়েছেন ২৯৭ জন।

সোমবার (১৫ জুলাই) রাত সাড়ে আটটায় মেডিকেল কলেজ সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। দুপুর ১২টার দিকে ঢাবির রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এ কর্মসূচি শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ১টার দিকে তারা অবস্থান নেওয়া শুরু করেন। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীরাও বিক্ষোভে যোগ দেন।

বিকেল ৩টার দিকে বিজয় একাত্তর হলে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ শুরু হয়। পরে তা পুরো ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় ছত্রলীগের নেতাকর্মীরা আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা চালায়। এতে প্রায় দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী আহত হয়। সংঘর্ষ চলাকালীন সময়ে ১৫ বারেরও বেশি ককটেল বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া গেছে।

;

কোটা আন্দোলনের নামে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বরিশালে বিক্ষোভ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বরিশাল
ছবি: কোটা আন্দোলনের নামে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বরিশালে বিক্ষোভ

ছবি: কোটা আন্দোলনের নামে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বরিশালে বিক্ষোভ

  • Font increase
  • Font Decrease

কোটা আন্দোলনের নামে স্বাধীন দেশকে অচল করতে জনসাধারণকে জিম্মি এবং বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্র হিসাবে চিহিৃত করার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড বরিশাল মহানগর কমিটির নেতাকর্মীরা।

সোমবার (১৫ জুলাই) বিকেলে বরিশাল নগরীর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল করে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড বরিশাল মহানগর কমিটির নেতাকর্মীরা।

পরে তারা নগরীর সদর রোডের অশ্বিনী কুমার হলের সামনে গিয়ে সমাবেশ করে। সমাবেশে ৩০ লক্ষ শহীদের রক্তে রাঙানো জাতীয় পতাকা পদদলিত, মহান মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কটুক্তি, বীর মুক্তিযোদ্ধাকে রাজপথে লাঞ্ছিতের প্রতিবাদ জানানো হয়।

মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের আহ্বায়ক শেখ সাঈদ আহমেদ মান্না সভাপতিত্বে বক্তৃতা দেন, বরিশাল সদর উপজেলার সাবেক কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব, মহিউদ্দিন মানিক (বীর বিক্রম), শাজাহান হাওলাদার, আনসার উদ্দিন হাওলাদার, গিয়াস উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড সিনিয়র সদস্য খান মাহিদ, মো. ফয়সাল, ঝালকাঠি আহ্বায়ক মো. শামীম, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি আরিফ প্রমুখ।

;