রংপুরে দুই পুলিশ কর্মকর্তার নেতৃত্বে বাড়ি দখলের চেষ্টা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুুুর
রংপুরে দুই পুলিশ কর্মকর্তার নেতৃত্বে বাড়ি দখলের চেষ্টা

রংপুরে দুই পুলিশ কর্মকর্তার নেতৃত্বে বাড়ি দখলের চেষ্টা

  • Font increase
  • Font Decrease

 

রংপুর নগরীর ধাপ জেল রোড এলাকায় একটি বাড়ি দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায মামলা দায়ের হলে ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে স্ব শরীরে আদালতে হাজির হবার জন্য সমন জারির আদেশ দিয়েছেন রংপুরের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এফ এম আহসানুল হক। মামলা দায়েরের পর নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে অভিযোগ করেছেন বাদী নাজনীন নাহার ও তার পরিবার।

মামলার বিবরণে জানা যায়, প্রায় ৩২ বছর থেকে রংপুর নগরীর ধাপ জেএল রোড এলাকায় বাদী নাজনীন নাহার বেগম ৭দশমিক ৭৯ শতাংশ জমিতে তৃতীয় তলা ভবন নির্মাণ করেন। ভবনের নিচতলায় ঔষধের দোকান, ইলেক্ট্রনিক্স দোকান ও দ্বিতীয় তলায় ডায়াগনষ্টিক সেন্টার ভাড়া দিয়ে তৃতীয় তলায় বাদিনী নিজে স্বপরিবারে বসবাস করে আসছেন। গত ৪ নভেম্বর ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশে কর্মরত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহসান খান,কর্মকর্তা আহসানুজ্জামানসহ অন্যান্য আসামিরা বাড়িতে প্রবেশ করে ওই বাড়ি কেনার জন্য বায়না দলিল করেছেন বলে দাবি করেন। বাদী নাজনীন নাহার ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা জানায় তারা কোন জমি বিক্রি করার উদ্দেশ্যে বায়না করেনি। এ কথা বলার সাথে সাথে আসামি আহসান খানের হুকুমে অন্যান্য আসামিরা বাদিনীর পরিবারের উপর চড়াও হয় এবং সকলকে মারধর করে। এ সময় আসামিরা সোনার গহনা ছিনিয়ে নেয় এবং লক্ষাধিক টাকার মালামাল ভাংচুর করে ক্ষতিসাধন করে। তারা বাদিনী ও তার স্বজনদের হুমকি দেয় এই জমি তারা কেনার জন্য বায়না দলিল রেজিস্ট্রারি করেছে। এ জায়গা ছেড়ে দিয়ে অনত্র চলে না গেলে বাড়ির সকলকে হত্যা করে লাশ গুম করে ফেলা হবে বলে হুমকি দিয়ে চলে যায়।

এ ঘটনায় বাদী ৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে পুলিশ এসে ঘটনা প্রত্যক্ষ করে। পরে পুরো বিষয়টি লিখিত আকারে ধাপ পুলিশ ফাঁড়ি ও মেট্রোপলিটান কোতয়ালী থানায় অভিযোগ করা হয়। কিন্তু পুলিশ কোন পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। পরে বাদিনীর জবানবন্দি গ্রহণ করে ১০ আসামির বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণ করে তাদের আদালতে হাজির হবার জন্য সমন জারির আদেশ দেন।

এবিষয়ে পুলিশ কর্মকর্তা আহসান খান বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ মিথ্যা। আমরা কয়েকজন মিলে জমিটির ক্রয় করার উদ্দেশ্যে প্রকৃত মালিকের সাথে বায়না দলিল সম্পূর্ণ করেছি। জমি দখলের সাথে আমাদের কোন সম্পর্ক নাই।

   

ভোজ্যতেলের মজুদ ও বিপণন পর্যবেক্ষণ চলছে: ভোক্তার ডিজি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

১ মার্চ থেকে ভোজ্য তেল লিটারে ১০ টাকা কমিয়ে ১৬৩ টাকায় বিক্রি হওয়ার কথা থাকলেও সেই দামে বিক্রি হচ্ছে না। তাই রূপগঞ্জ, কেরানীগঞ্জ, চট্টগ্রামসহ ৭টি রিফাইনারিতে তেলের উৎপাদন ও মজুদ পর্যবেক্ষণের জন্য ভোক্তা অধিকারের টিম কাজ করছে বলে জানিয়েছেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক এ. এইচ. এম সফিকুজ্জামান।

শনিবার (২ মার্চ) বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবসের প্রাক্কালে ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি’র আয়োজনে এক বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরন।

ভোক্তার ডিজি বলেন, দাম কমানোর সিদ্ধান্ত সহজে কার্যকর হয় না, অথচ দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত দ্রুত কার্যকর হয়। চারটি পণ্যের ট্যাক্স কমালেও বাজারে তার প্রভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছে না।

তিনি আরও বলেন, সঠিক সময়ে আমদানির সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে না পারলে বাজার নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন হয়ে যায়। ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণে আজ প্রয়োজন ভোক্তার সিন্ডিকেট। ভোক্তারা সমন্বিতভাবে কোন দ্রব্য কেনা কমিয়ে দিলে এক সপ্তাহ পরেই তার দাম কমে আসবে, যেমন গরুর মাংস।

এসময় এ. এইচ. এম সফিকুজ্জামান বলেন, বেইলি রোড ট্রাজেডিতে ভোক্তার অধিকার ক্ষুন্ন হয়েছে। একজন গ্রাহক রেস্টুরেন্টে যাবার আগে তার পক্ষে জানা সম্ভব হয় না উক্ত স্থাপনা বিল্ডিং কোড মেনে করা হয়েছে কি না। সেখানে অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা ও জরুরি নির্গমন সিড়িসহ অন্যান্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা সঠিক আছে কি না।

সভাপতির বক্তব্যে ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ বলেন, দুষ্টচক্রের কারণে ন্যায্য দামে পণ্য কিনতে না পারায় ভোক্তারা কষ্টে আছে। সিন্ডিকেটের কবল থেকে বের হতে পারছে না ব্রয়লার মুরগি, গরুর মাংস, চিনি, ছোলা, পেঁয়াজ, খেজুরসহ অন্যান্য নিত্যপণ্য। আসন্ন রমজানে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকবে কিনা তা ভাবিয়ে তুলছে ভোক্তাদের। তবে ভ্যাট ট্যাক্স সহনীয় রেখে উন্মুক্ত আমদানি, ডলার সংকট মোকাবিলা, ব্যাংক গুলোকে বাড়তি দামে ডলার বিক্রি না করা, পরিবহনে চাঁদাবাজি বন্ধ করাসহ সর্বোপরি সিন্ডিকেটের কালো হাত ভেঙে দিতে পারলে ভোক্তারা সঠিক দামে পণ্য কিনতে পারবে।

;

ফেনীতে আয়োজিত হলো পুষ্টিভাত উৎসব 



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা-২৪.কম, ফেনী
ছবি: বার্তা ২৪

ছবি: বার্তা ২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

'বসা ভাতে পুষ্টি বেশি, খেলে রোগপ্রতিরোধ হয়; মাড় ফেলে রান্না হলে চাল, ১৫ ভাগ হয় অপচয়' এ প্রতিপাদ্য নিয়ে ফেনীতে পুষ্টিভাত উৎসব আয়োজিত হয়েছে। 

খাদ্যের অপচয় রোধে বিজ্ঞানসম্মত বসাভাতের গুরুত্ব জাতীয় শিক্ষাক্রমের আওতায় মাধ্যমিক স্তরে পাঠ্যভুক্ত হওয়ায় জনসচেতনতা বাড়াতে গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে সংশ্লিষ্ট বিষয়ের গবেষক কবি ও বিজ্ঞানী গাজী রফিকের মতবিনিময় সভা ও পুষ্টিভাত উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

শনিবার (২ মার্চ) দুপুরে শহরের গ্র‍্যান্ড টেস্ট রেস্টুরেন্টে আয়োজিত এ সভায় বসাভাতের গুরুত্ব উল্লেখ করে বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞানী গাজী রফিক।

এসময় তিনি পুষ্টিভাতের বিভিন্ন গুরুত্ব উল্লেখ করে সবাইকে এ বিষয়ে সচেতন হয়ে ভাতের অপচয় রোধে এবং পুষ্টিমান রক্ষায় বসাভাত খাওয়ার অভ্যাস গঠনের আহ্বান জানান।

গবেষক কবি ও বিজ্ঞানী গাজী রফিক বলেন, ভাতের মাড়ে পুষ্টিগুণ বেশি। ভাতের মাড় ফেলে দিলে তার পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়। বসাভাত খেলে ১৫ শতাংশ চাল সাশ্রয় হয় আর মাড় ফেলে দিলে ১৫ শতাংশ অপচয় হয়। বাংলাদেশে এ অর্থবছরে ৩ কোটি ৯০ লাখ মেট্রিক টন চাল উৎপাদন হয়েছে যা আমরা ব্যবহার করব। এ চাল থেকে ১৫ শতাংশ অপচয় হলে প্রায় ৬০ মেট্রিক টন চাল অপচয় হবে। এবং এতে করে পুষ্টি, স্বাস্থ্যর দিকে মানুষ এবং অর্থনৈতিক ভাবে দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হবে৷

তিনি বলেন, এখন যে মিনিকেট চাউল বলে বিক্রি করা হয় এ নামে কোন চাল নেই। চালকে কেটে মিনিকেট নাম দিয়ে বিক্রি করা হয়। এসব চালে কোন গুণাগুণ নেই। বসাভাতে পুষ্টি রয়েছে এতে স্বাস্থ্য ভালো থাকবে এবং দেশ অর্থনৈতিক ভাবে লাভবান হবে। স্বাস্থ্য সুরক্ষা এবং এ বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে এ পুষ্টিভাত উৎসব আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

আলোচনায় অংশ নিয়ে ফেনী সরকারি কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহাম্মদ মোক্তার হোসেইন বলেন, বসাভাতের বিষয়ে আমাদের জানার ঘাটতি রয়েছে। এর প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে মানুষ এখনও অবগত নয়। মানুষ সচেতন না হলে অদূর ভবিষ্যতে খাদ্য সংকটসহ নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে। বসাভাত খেলে খাদ্য সঞ্চয় হবে এটি দেশের উন্নয়নের ধারক হবে। এ বিষয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে বহুল প্রচার প্রচারণা বাড়াতে পারলে মানুষ এ বিষয়ে সতর্ক থাকবে এবং দেশের উন্নয়ন হবে একই সাথে স্বাস্থ্যগত দিক থেকে মানুষ ভালো থাকবে।

এসময় আলোচনায় অংশ নিয়ে বক্তব্য রাখেন প্রথম আলো ফেনী প্রতিনিধি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক আবু তাহের, দৈনিক ফেনীর সময় সম্পাদক মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, দৈনিক ফেনী সম্পাদক আরিফুল আমিন রিজভী, কবি ওবায়েদ মজুমদার।

পুষ্টিভাত উৎসব প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক সাংবাদিক আসাদুজ্জামান দারার সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় ফেনীর গণমাধ্যমকর্মী, শিক্ষক-শিক্ষিকা, আইনজীবী ও বিভিন্ন শ্রেণি প্রেশার মানুষ অংশ নেন। এতে বক্তারা পুষ্টিভাতের গুরুত্ব অনুধাবন করে এ বিষয়ে ব্যাপক প্রচার প্রচারণা বাড়ানোর আহ্বান জানান। 

;

চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ, বেড়েছে ২.২৬ শতাংশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশে মোট ভোটার সংখ্যা ১২ কোটি ১৮ লাখ ৫০ হাজার ১০০ জন। ফলে আগের তুলনায় ২ দশমিক ২৬ শতাংশ বেড়েছে।

শনিবার (২ মার্চ) মোট ভোটারের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন।

কমিশনের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, মোট ভোটারের ৫ কোটি ৯৭ লাখ ৪ হাজার ৬৪১ জন নারী আর ৬ কোটি ২১ লাখ ৪৪ হাজার ৫৮৭ জন পুরুষ ভোটার।

;

গাজীপুরে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, গাজীপুর
গাজীপুরে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

গাজীপুরে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

  • Font increase
  • Font Decrease

গাজীপুরে পৃথক স্থানে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (২ মার্চ) সকালে জেলার জয়দেবপুর-উত্তরবঙ্গ রেল পথের মহানগরীর কোনাবাড়ী থানাধীন খোলাপাড়া এলাকায় কালভার্টের পাশে অজ্ঞাত এক পুরুষের বিচ্ছিন্ন দেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

অপরদিকে একই সড়কের জেলার কালিয়াকৈর উপজেলাধীন রতনপুর রেলক্রসিং এর পূর্ব পাশে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রাজশাহীগামী একটি ট্রেনে কাটা পড়ে গোলাম রাব্বানী (২৫) নামে এক পোশাক শ্রমিকের মৃত্যু হয়। তিনি স্থানীয় পোশাক কারখানার শ্রমিক ছিলেন। খবর পেয়ে রেলওয়ে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠান।

জয়দেবপুর জংশনের রেলওয়ে পুলিশের উপ পরিদর্শক শহিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পৃথক দুই স্থান থেকে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

;