প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তি: রাজবাড়ীতে মহিলা দলের নেত্রী গ্রেফতার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজবাড়ী
সোনিয়া আক্তার স্মৃতি

সোনিয়া আক্তার স্মৃতি

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কটুক্তি করে নিজের ফেসবুক আইডিতে পোস্ট করার অভিযোগে সোনিয়া আক্তার স্মৃতি নামে রাজবাড়ী জেলা মহিলা দলের সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রাজবাড়ী সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মো. সামসুল আরেফিন চৌধুরীর এজাহারের প্রেক্ষিতে রাজবাড়ী সদর থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

সোনিয়া আক্তার স্মৃতি রাজবাড়ী পৌরসভার ৩নং বেড়াডাঙ্গা এলাকার মো. খোকনের স্ত্রী। তিনি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘রাজবাড়ী ব্লাড ডোনার্স ক্লাব’ নামে একটি সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা। নিজের ফেসবুক আইডিতে বিভিন্ন সময় সরকারের বিপক্ষে লেখালেখি করেন বলে অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।। তার স্বামী মো. খোকন আহম্মেদ একজন প্রবাসী।

মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) দিবাগত মধ্যরাতে রাজবাড়ী পৌরসভার বেড়াডাঙ্গা এলাকার নিজ বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে রাজবাড়ী সদর থানা পুলিশ।

মো: সামসুল আরেফিন চৌধুরীর এজাহারের প্রেক্ষিতে রাজবাড়ী সদর থানার পুলিশ দন্ডবিধি ১৫৩ ও ৫০৫ ধারায় মামলা গ্রহণ করে। রাজবাড়ী জেলা পুলিশের এক পরিদর্শক মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, আসামি উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সুনাম ও ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করিবার লক্ষ্যে উল্লেখিত মিথ্যা, বানোয়াট ও মানহানীকার ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত বক্তব্য সামজিক যোগাযোগ মাধ্যম/ডিজিটাল মাধ্যমে প্রচার করেন।

গ্রেফতারের আগে ফেসবুক লাইভে আসেন সোনিয়া আক্তার স্মৃতি। সেখানে পুলিশকে উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, আমাকে মধ্যরাতে কেন ধরতে আসছেন? আমি তো পালিয়ে যাচ্ছি না। আমার ছোট ছোট দুইটা বাচ্চা আছে। আমি তাদের রেখে আসছি। আমাকে ১০-১৫ মিনিট সময় দেন। আমি স্বেচ্ছায় বের হচ্ছি। তিনি ভাল আছেন, সুস্থ্য আছেন বলে ফেসবুকে সবার উদ্দেশ্যে জানান।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রাজবাড়ী সদর থানার উপ-পরিদর্শক আলেয়া আক্তার বলেন, সদর থানায় মামলার প্রেক্ষিতে রাতে তাকে নিজ বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জেলা মহিলা দলের এই সদস্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিএনপির পক্ষে লেখালেখি করেন এবং বিভিন্ন সময়ে সরকারের কঠোর সমালোচনা করেন। ফেসবুকে সরকারবিরোধী পোস্ট করার কারণে তিনি অনেক সময় প্রতিপক্ষের রোষাণলে পড়েছেন। সম্প্রতি রাজবাড়ী বিএনপির দলীয় কার্যালয় থেকে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে লাঞ্ছিত হয়েছিলেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় থাকা নারী সোনিয়া আক্তার স্মৃতি।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন। তিনি বলেন, সোনিয়া আক্তারের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা রয়েছে। রাতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ বুধবার (৫ অক্টোবর) তাকে আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

এর আগে গত সোমবার সন্ধ্যায় সামসুল আরেফিন চৌধুরী নামের স্থানীয় এক আওয়ামী লীগের নেতা ফেসবুক পোস্টের বিষয়ে রাজবাড়ী সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দেন। পরে অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়। প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তি করে প্রায় এক মাসে আগে ফেসবুকে ওই পোস্ট তিনি দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ সূত্রে জানা যায়।

 

বালিয়াকান্দিতে অনুমোদনহীন কীটনাশক জব্দ, দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বালিয়াকান্দিতে অনুমোদনহীন কীটনাশক জব্দ, দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ

বালিয়াকান্দিতে অনুমোদনহীন কীটনাশক জব্দ, দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দিতে অনুমোদনহীন দোকানে অভিযান চালিয়ে ৩০ হাজার টাকার কীটনাশক জব্দ ও দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন উপজেলা কৃষি অফিস।

রো্ববার (৪ ডিসেম্বর) একজন কৃষকের লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিকালে অভিযান চালান উপজেলা কৃষি অফিসার রফিকুল ইসলাম।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলার সদর ইউনিয়নের খোদ্দমেগচামীর সার ব্যবসায়ী কামরুল হাসানের দোকানে অভিযান চালালে তার দোকান বন্ধ পাওয়া যায। পরবর্তীতে ভীমনগর বাজারে অভিযান চালান  কামরুল শেখের দোকানে। কামরুল শেখের কীটনাশকের দোকান অনুমোদন না থাকায়  মালামাল জব্দ করেন উপজেলা কৃষি অফিসার।

সেখানে ভেজাল কীটনাশক পাওয়ায় ও দোকানের রেজিস্ট্রেশন না থাকায়  দোকানটি পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখারও নির্দেশ প্রদান করেন তিনি। এ সময়  উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শেখ আমিনুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

;

রংপুরে দুই পুলিশ কর্মকর্তার নেতৃত্বে বাড়ি দখলের চেষ্টা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুুুর
রংপুরে দুই পুলিশ কর্মকর্তার নেতৃত্বে বাড়ি দখলের চেষ্টা

রংপুরে দুই পুলিশ কর্মকর্তার নেতৃত্বে বাড়ি দখলের চেষ্টা

  • Font increase
  • Font Decrease

 

রংপুর নগরীর ধাপ জেল রোড এলাকায় একটি বাড়ি দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায মামলা দায়ের হলে ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে স্ব শরীরে আদালতে হাজির হবার জন্য সমন জারির আদেশ দিয়েছেন রংপুরের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এফ এম আহসানুল হক। মামলা দায়েরের পর নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে অভিযোগ করেছেন বাদী নাজনীন নাহার ও তার পরিবার।

মামলার বিবরণে জানা যায়, প্রায় ৩২ বছর থেকে রংপুর নগরীর ধাপ জেএল রোড এলাকায় বাদী নাজনীন নাহার বেগম ৭দশমিক ৭৯ শতাংশ জমিতে তৃতীয় তলা ভবন নির্মাণ করেন। ভবনের নিচতলায় ঔষধের দোকান, ইলেক্ট্রনিক্স দোকান ও দ্বিতীয় তলায় ডায়াগনষ্টিক সেন্টার ভাড়া দিয়ে তৃতীয় তলায় বাদিনী নিজে স্বপরিবারে বসবাস করে আসছেন। গত ৪ নভেম্বর ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশে কর্মরত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহসান খান,কর্মকর্তা আহসানুজ্জামানসহ অন্যান্য আসামিরা বাড়িতে প্রবেশ করে ওই বাড়ি কেনার জন্য বায়না দলিল করেছেন বলে দাবি করেন। বাদী নাজনীন নাহার ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা জানায় তারা কোন জমি বিক্রি করার উদ্দেশ্যে বায়না করেনি। এ কথা বলার সাথে সাথে আসামি আহসান খানের হুকুমে অন্যান্য আসামিরা বাদিনীর পরিবারের উপর চড়াও হয় এবং সকলকে মারধর করে। এ সময় আসামিরা সোনার গহনা ছিনিয়ে নেয় এবং লক্ষাধিক টাকার মালামাল ভাংচুর করে ক্ষতিসাধন করে। তারা বাদিনী ও তার স্বজনদের হুমকি দেয় এই জমি তারা কেনার জন্য বায়না দলিল রেজিস্ট্রারি করেছে। এ জায়গা ছেড়ে দিয়ে অনত্র চলে না গেলে বাড়ির সকলকে হত্যা করে লাশ গুম করে ফেলা হবে বলে হুমকি দিয়ে চলে যায়।

এ ঘটনায় বাদী ৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে পুলিশ এসে ঘটনা প্রত্যক্ষ করে। পরে পুরো বিষয়টি লিখিত আকারে ধাপ পুলিশ ফাঁড়ি ও মেট্রোপলিটান কোতয়ালী থানায় অভিযোগ করা হয়। কিন্তু পুলিশ কোন পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। পরে বাদিনীর জবানবন্দি গ্রহণ করে ১০ আসামির বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণ করে তাদের আদালতে হাজির হবার জন্য সমন জারির আদেশ দেন।

এবিষয়ে পুলিশ কর্মকর্তা আহসান খান বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ মিথ্যা। আমরা কয়েকজন মিলে জমিটির ক্রয় করার উদ্দেশ্যে প্রকৃত মালিকের সাথে বায়না দলিল সম্পূর্ণ করেছি। জমি দখলের সাথে আমাদের কোন সম্পর্ক নাই।

;

রংপুরে নকল বীজ আলু উদ্ধার, ৬০ হাজার টাকা জরিমানা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
রংপুরে নকল বীজ আলু উদ্ধার, ৬০ হাজার টাকা জরিমানা

রংপুরে নকল বীজ আলু উদ্ধার, ৬০ হাজার টাকা জরিমানা

  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুরে নকল বীজ আলু হিমাগারে সংরক্ষণের অভিযোগে এপোলো ট্রেডার্স নামে একটি প্রতিষ্ঠানকে ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

রোববার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে রংপুর নগরীর কিষাণ হিমাগারে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন রংপুর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আরিফ। এ সময় জেলা বীজ প্রত্যয়ন কর্মকর্তাসহ মেট্রোপলিটন পুলিশ সদস্যরা সহযোগীতা করেন।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, চলমান আলু মৌসুমকে টার্গেট করে নকল আলু বীজ নিয়ে প্রতারণায় নেমেছে একটি প্রতারক চক্র। চক্রটি সুপ্রীম সীডের বীজ আলুসহ কয়েকটি কোম্পানীর নাম ব্যবহার করে খাবার আলুতে নকল ট্যাগ লাগিয়ে প্যাকেটে ভরে হিমাগারে রেখে এ ব্যবসায় করে আসছিল। নগরীর কিষাণ হিমাগারের বারান্দায় খাবার আলু বস্তায় ভরে সুপ্রিম সিড বীজ আলুর ট্যাগ লাগিয়ে সংরক্ষণ করার সময় হাতে নাতে আটক করা হয়।

এ সময় নকল বীজ আলু সংরক্ষণ ও ব্যবসার সাথে জড়িত এপোলো ট্রেডার্সকে ভোক্তা অধিকার আইনে ৬০ হাজার টাকা জরিমানাসহ নকল বীজ আলু উদ্ধার করা হয়।

এদিকে একই দিনে লালবাগ বাজারে রংপুর চাষি ঘরকে মেয়াদোত্তীর্ণ বীজ বিক্রয়ের অপরাধে ভোক্তা অধিকার আইনে দেড় হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আরিফ বলেন, আলুর মৌসুমকে টার্গেট করে একটি চক্র এই নকল বীজ আলুর ব্যবসা করার চেষ্টা করছে। প্রতারকদের বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

;

‘তোয়ারাল্লাই আঁর পেট পুরে’: চট্টগ্রামবাসীকে প্রধানমন্ত্রী



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
‘তোয়ারাল্লাই আঁর পেট পুরে’ চট্টগ্রামবাসীকে প্রধানমন্ত্রী

‘তোয়ারাল্লাই আঁর পেট পুরে’ চট্টগ্রামবাসীকে প্রধানমন্ত্রী

  • Font increase
  • Font Decrease

দীর্ঘ এক দশক পর চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের সমাবেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামের পলোগ্রাউন্ডে ভাষণের শুরুতেই চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় বললেন, 'অনরা ক্যান আছন? বিয়াগ্গুর গম আছন নি? তোয়ারাল্লাই আঁর পেট পুরে, তাই চাইতো আসসি’ (আপনারা কেমন আছেন? সবাই ভালো আছেন তো? আপনাদের জন্য মন জ্বলছে, তাই দেখতে আসছি।)

তখন পুরো পলোগ্রাউন্ডে উপস্থিত নেতাকর্মীরা সমস্বরে 'আঁরা ভালা আছি' বলে জবাব দেয়। এরপর প্রধানমন্ত্রী তাঁর ভাষণ শুরু করেন।

রোববার (৪ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টার পর চট্টগ্রাম নগরীর পলোগ্রাউন্ডে জনসভা মঞ্চে পৌঁছান শেখ হাসিনা। এসময় তাকে ফুল ও করতালির মধ্য দিয়ে তাকে বরণ করে নেন দলের নেতাকর্মীরা।

এর আগে আজ সকালে চট্টগ্রামের ভাটিয়ারিতে বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিতে রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন তিনি। সেখান থেকে হেলিকপ্টারে করে এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে নামেন। পরে সিআরবি হয়ে পলোগ্রাউন্ড মাঠে আসেন তিনি। মাঠে এসেই চট্টগ্রাম কলেজ, সিটি কলেজসহ জেলার বিভিন্ন স্থানের ২৯টি প্রকল্পের উদ্বোধন করেন এবং চার প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভাকে ঘিরে মিছিলের নগরীতে রূপ নিয়েছে চট্টগ্রাম। স্লোগানে স্লোগানে মুখর হয়ে ওঠেছে বন্দরনগরী। নেতাকর্মীদের গায়ে ছবি সম্বলিত নানা রঙয়ের গেঞ্জিতে পুরো জনসভাস্থল রঙিন হয়ে ওঠেছে। এছাড়া পলোগ্রাউন্ড মাঠের আশপাশ ছেয়ে গেছে ব্যানার আর পোস্টারে।

সমাবেশ শুরুর আগেই চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে পলোগ্রাউন্ডে জড়ো হতে থাকেন আওয়ামী লীগ ও এর বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় পুরো ময়দান। ময়দানের বাইরে আশাপাশের সড়কগুলোতেও বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী অবস্থান করছেন।

আওয়ামী লীগের জনসভা ঘিরে এদিন সকাল থেকেই বাদ্য বাজিয়ে চট্টগ্রামের বিভিন্ন সংসদীয় এলাকা থেকে নেতাকর্মীরা জনসভাস্থলের দিকে আসতে থাকেন। আর চট্টগ্রামের বাইরের উপজেলা থেকে বাস-ট্রাকে করে নগরীতে প্রবেশ করেন নেতাকর্মীরা। এরপর পায়ে হেঁটে মিছিল নিয়ে তারা জনসভাস্থলে যান। পুরো নগরীতে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।

পলোগ্রাউন্ড ময়দানের পশ্চিম প্রান্তে ১৬০ ফুট দৈর্ঘ্যের নৌকা প্রতিকৃতির ওপর নির্মাণ করা হয়েছে বিরাট মঞ্চ। লাল-নীল, সবুজ, সাদা, হলুদসহ নানা রঙের বেলুনে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে পুরো মাঠ।

নিরাপত্তার জন্য বাঁশের বেরিকেড দিয়ে কয়েক স্তরে ভাগ করা হয়েছে জনসভা মাঠকে। মঞ্চ ও মঞ্চের আশপাশের ব্লকগুলোতে নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

;