এই সরকার ‘পরাজিতদের জোট’ সরকার : পিটিআই



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দেড় শতাধিক ফৌজদারি ও দেওয়ানি মামলার আসামি পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। একাধিক মামলায় সাজা মাথায় নিয়ে তিনি এখন কারাগারে।

এ অবস্থায় দেশটির সাধারণ নির্বাচনের পর গঠিত হয়েছে নতুন সরকার। বিবিসিজানিয়েছে, এই সরকারকে ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) ‘পরাজিতদের জোট’ সরকার বলে অভিহিত করেছে।

ইমরান খান কারাগারে থাকলেও গত ৮ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনের তার দলের সমর্থক স্বতন্ত্র প্রার্থীরা চমক দেখিয়েছেন। প্রযুক্তির ব্যবহার করে ইমরান যেভাবে নির্বাচনী প্রচার চালিয়ে বিজয় ছিনিয়ে এনেছেন, এর মাধ্যমেই প্রমাণিত হয়েছে তিনি শীর্ষ জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ। তিনি এখন পুরো দেশের মধ্যে বিখ্যাত বন্দিও বটে, যার নম্বর ৮০৪।

নির্বাচনের আগে এই নম্বরটি হয়ে উঠেছিল পিটিআই সমর্থক প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারের অন্যতম স্লোগান। এর মানে ইমরানের জনপ্রিয়তা পুরোপুরি কাজে লাগাতে পেরেছেন দলটির নেতাকর্মীরা। এ জন্য এক দল তথ্যপ্রযুক্তি জ্ঞানসম্পন্ন নেতাকর্মীর ভূমিকাও উল্লেখযোগ্য।

কারণ, তারাই বন্দি ইমরানের বক্তব্যকে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) ব্যবহার করে নির্বাচনী প্রচারে ছড়িয়ে দিয়েছিলেন। খোলা হয়েছিল হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ আর ওয়েবসাইট। এর মাধ্যমে তারা খানের বক্তব্য কৃত্রিমভাবে তৈরি করে তাঁকে পৌঁছে দিয়েছেন কোটি কোটি ভোটারের কাছে। বিশেষ করে যুবকদের কাছে।

এর সুফল ঘরেও তুলেছেন তারা। কিন্তু ভোটে ব্যাপক জালিয়াতির কারণে পুরো সুফল তোলা সম্ভব হয়নি বলে অভিযোগ পিটিআইয়ের।

শেহবাজ শরীফকে প্রধানমন্ত্রী করে পাকিস্তানের যে নতুন সরকার রবিবার (৩ মার্চ) যাত্রা শুরু করেছে, সেটিকে নড়বড়ে সরকার বলছেন বিশ্লেষকরা।

পাকিস্তানের লেখক ও সাংবাদিক মোহাম্মদ হানিফ লিখেছেন, সাম্প্রতিক নির্বাচনগুলো স্থিতিশীলতা নিয়ে আসার কথা ছিল। দেশের মুদ্রাস্ফীতি ও তিক্ত রাজনৈতিক বিভাজন মোকাবিলা করার জন্য এটা খুবই প্রয়োজন ছিল। কিন্তু, এর পরিবর্তে একটি সংখ্যালঘু সরকার এসেছে, যা মোটেই শক্তিশালী নয়। যারা জোট করেছেন, তারাও জোট করতে অনিচ্ছুক ছিলেন।

এই নির্বাচনে গেরিলা ধাঁচের প্রচারণা চালিয়েছিলেন ইমরান সমর্থকরা। প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও তারা ভোটের মাঠে এতোটাই শক্তিশালী ছিলেন যে, কারচুপির মাধ্যমে তাদের আটকে রাখা কঠিন হয়ে পড়ে।

নির্বাচনে সেনাবাহিনীর কৌশলের বিষয়ে ভোটারদের প্রতিক্রিয়া ছিল অভূতপূর্ব। তারা বলেছিলেন, ‘আপনারা যতোটা ভাবছেন যে, আমরা কিছু বুঝি না, আসলে আমরা ততোটা বোকা নই। আমাদের হাতে ব্যালট আছে।’

পাকিস্তানের অধিকাংশ রাজনীতিবিদকে কোনও না কোনও সময়ে কারাগারে থাকতে হয়েছে। তবে ইমরান খানের চেয়ে বেশি মজা আর কেউ পেয়েছেন বলে মনে হয় না। কারণ তিনি জেলে থেকেই নির্বাচনী বিজয় অর্জন টেনে এনেছেন।

অন্যদিকে, তাকে খেলতে হয়েছে সেনাবাহিনীর কৌশলের সঙ্গেও। সেনাবাহিনী বোঝাতে চেয়েছিল ইমরান খান এবং তার দল শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু, সেই কৌশলও ভেস্তে গেছে। কারণ, নির্বাচনের আগে দলটি দ্বিতীয় সারির নেতা এবং স্থানীয় বিশ্বস্তদের দিয়ে টিম গঠন করে বিপর্যস্ত দলের বিজয়ের প্রচারাভিযান পরিচালনা করেছে।

তারা নিশ্চিত ছিল, তাদের নেতাকে ক্ষমতায় ফিরে যেতে দেওয়া হবে না। কিন্তু তারা ভোটের মাধ্যমে দেখিয়েছেন, সেনাবাহিনীর চাপ থাকলেও তারা ইমরানকে ছেড়ে যাননি।

ইমরান খান পদচ্যুত হওয়ার পর তিনি শুধু রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের ওপরই নয়, সেনাবাহিনীর প্রতিও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এটিও তার জনপ্রিয়তা বাড়িয়েছে।

পিটিআই সমর্থকরা বিরোধী দলে বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কিন্তু, ইমরান খান তার রাজনীতি সংসদে নয়, বরং রাজপথে, জনসভা এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে খেলতে পছন্দ করেন। নতুন সরকারকে ‘পরাজিতদের জোট’ হিসেবে আখ্যায়িত করছে পিটিআই। আসলে এটি এমন দলগুলোর জোট, যারা নির্বাচনে ইমরানের কাছে পরাজিত হয়েছে।

অনেকে মনে করেন, কারাগারে থাকা ইমরান আরও পরিণত রাজনীতিবিদ হয়ে উঠেছেন।

   

আফগানিস্তানে আকস্মিক বন্যা, নিহত অন্তত ৩৩



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

আফগানিস্তানে আকস্মিক বন্যায় অন্তত ৩৩ জন নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ২৭ জন।

রোববার (১৪ এপ্রিল) আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশিত হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রবল ভারী বর্ষণে আফগানিস্তানে আকস্মিক বন্যা দেখা দিয়েছে। এতে অন্তত ৩৩ জন নিহত হয়েছেন এবং ২৭ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। মূলত বাড়ির ছাদ ধসে পড়ার কারণে বেশিরভাগ হতাহতের ঘটনা ঘটেছে বলে জানানো হয়েছে।

এছাড়াও ব্যাপক বৃষ্টিপাতের জেরে শত শত বাড়িঘর ধ্বংস ও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে দেশটির সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ জানিয়েছে।

বিভাগের মুখপাত্র জনান সায়েক রোববার বলেন, বেশিরভাগ হতাহতের ঘটনা ঘটেছে ছাদ ধসে, প্রায় ৬০০টি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত বা ধ্বংস হয়ে গেছে। এছাড়াও, ২০০টি গবাদি পশু মারা গেছে, প্রায় ৬০০ কিলোমিটার (৩৭০ মাইল) রাস্তা ধ্বংস হয়ে গেছে এবং প্রায় ৮০০ হেক্টর (১৯৭৫ একর) কৃষি জমি ‘বন্যায় ভেসে গেছে’।

সর্বশেষ বৃষ্টি ও বন্যায় অন্য প্রদেশগুলোর মধ্যে পশ্চিম ফারাহ, হেরাত, দক্ষিণ জাবুল এবং কান্দাহার সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে সায়েক জানিয়েছেন।

এদিকে কর্তৃপক্ষ সতর্ক করেছে, আফগানিস্তানের বেশিরভাগ প্রদেশে আগামী দিনে আরও বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

;

তিন দেশের রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে ইরান



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবিঃ সংগৃহীত

ছবিঃ সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাজ্য, জার্মান ও ফরাসি রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। দেশটির পশ্চিম ইউরোপ বিভাগের মহাপরিচালক তাদেরকে তলব করেন।

রোববার (১৪ এপ্রিল) ইরানের সংবাদ সংস্থা ইরনার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইরানের পশ্চিম ইউরোপ বিভাগের মহাপরিচালক রোববার ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত সাইমন শেরক্লিফ, জার্মান রাষ্ট্রদূত হ্যান্স-উডো মুজেল এবং ফরাসি রাষ্ট্রদূত নিকোলাস রোচেকে জাতিসংঘের ৫১ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী ইসরায়েলের সামরিক ঘাঁটিতে হামলার বিষয়টি জানান।

মহাপরিচালক সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে ইরানের কনস্যুলেট প্রাঙ্গণে হামলার তীব্র নিন্দা জানান এবং তিনটি দেশের ‘দ্বিমুখী আচরণের’ সমালোচনা করেন।

তিনি আরো বলেন, ইরান তাদের সার্বভৌমত্ব, আঞ্চলিক অখণ্ডতা ও জাতীয় স্বার্থ রক্ষায় সবসময় যেকোন শক্তির বিরুদ্ধে প্রস্তুত রয়েছে।

যুক্তরাজ্য, জার্মানি ও ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতেরা বলেছেন, শিগগিরই তাঁরা নিজ দেশের রাজধানীতে এই বার্তা পৌঁছে দেবেন।

উল্লেখ্য, গত ১ এপ্রিল সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে ইরানের কনস্যুলেট প্রাঙ্গণে ইসরায়েলের হামলায় ১৩ জন নিহত হয়েছেন। এর জবাবে গতকাল শনিবার ইসরায়েলের ভূখণ্ডে তিন শতাধিক ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে হামলা চালায় ইরান।

;

বাংলাদেশি জাহাজ ছিনতাই: উপকূল থেকে ৮ জলদস্যু গ্রেপ্তার  



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

 

বাংলাদেশি জাহাজ এমভি আব্দুল্লাহ ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িত ৮ জলদস্যুকে সোমালিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্য প্যান্টল্যান্ডের উপকূল থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রোববার (১৪ এপ্রিল) সকালে তাদের গ্রেফতারের খবর জানিয়েছে সোমালিয়ার সংবাদমাধ্যম ‘গারোই অনলাইন’। সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, জাহাজটি মুক্তি পাওয়ার পরপরই স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল পুন্টল্যান্ডের পূর্ব উপকূল থেকে দস্যুদের গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে শনিবার (১৩ এপ্রিল) রাতে জাহাজ ও এতে থাকা ২৩ নাবিককে মুক্তি দেয় দস্যুরা।

পুন্টল্যান্ডের এক উচ্চপদস্থ পুলিশ কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমটিকে জানিয়েছেন, বাংলাদেশি জাহাজ ও নাবিকদের জিম্মির সঙ্গে জড়িত এই ৮ দস্যুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে তাদের কাছ থেকে মুক্তিপণের কোনো অর্থ উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে কি না সে বিষয়টি স্পষ্ট করেননি তিনি।

এদিকে, ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে দুই দস্যু জানিয়েছে, দুই দিন আগে মুক্তিপণ হিসেবে তাদের ৫০ লাখ ডলার দেওয়া হয়। এই অর্থগুলো নকল কি না পরবর্তীতে সেটি যাচাই-বাছাই করে তারা। এরপর নিজেদের মধ্যে অর্থগুলো ভাগ করে তারা জাহাজ থেকে চলে যায়।

হাজটির মালিকপক্ষ করিম স্টিল রি-রোলিং মিলসের (কেএসআরএম) মিডিয়া উপদেষ্টা মিজানুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, রাত ১২টায় মুক্তিপণের অর্থ পাওয়ার পর দস্যুরা জাহাজ থেকে নেমে যায়। রাত ১২টায় জাহাজটি মুক্ত হওয়ার পর দুবাইয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়।

গত ১২ মার্চ কয়লা নিয়ে আফ্রিকার দেশ মোজাম্বিক থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের দিকে যাওয়ার সময় ভারত মহাসাগরে ওই জলদস‍্যুদের কবলে পড়ে ‘এমভি আবদুল্লাহ’। ২৩ নাবিকসহ বাংলাদেশের পতাকাবাহী জাহাজটিকে জিম্মি করে নিয়ে যায় দস্যুরা। এক মাসেরও বেশি সময় ধরে মোজাম্বিকের কাছাকাছি অবস্থান করছিল জাহাজটি।

;

ইরানের হামলার পর আকাশসীমা খুলল জর্ডান, ইরাক ও লেবানন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসরায়েলে ইরানের ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলার কারণে নিরাপত্তা ঝুঁকির কারণে বন্ধ হওয়া আকাশসীমা আবারও খুলে দিয়েছে জর্ডান, ইরাক এবং লেবানন।

এর আগে শনিবার (১৩ এপ্রিল) গভীর রাতে এসব দেশ তিনটি আকাশসীমা বন্ধ করে দেয়। খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

জর্ডানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের বরাতে জানিয়েছে, দেশটিতে বিমান চলাচল পুনরায় শুরু হয়েছে। নির্ধারিত সময়ের তিন ঘণ্টারও আগে আকাশসীমা খুলে দেয় জর্ডান।

এছাড়া ইরাকের বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নিরাপত্তা ঝুঁকি কাটিয়ে উঠেছে তারা। লেবাননের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জানায়, রাতভর বন্ধ থাকার পর দেশটিতে পুনরায় চালু হচ্ছে বিমানবন্দর।

দুটি আঞ্চলিক নিরাপত্তা সূত্র জানিয়েছে, ইরান ও ইসরায়েলের মধ্যবর্তী জর্ডান তার ভূখণ্ড লঙ্ঘনকারী যে কোনো ড্রোন বা ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিহত করতে আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা প্রস্তুত রেখেছে।

গত ১ এপ্রিল সিরিয়ায় তেহরানের কনস্যুলেটে হামলার পর ইরান প্রতিশোধ নেওয়ার প্রতিজ্ঞা করে। ইরান হামলার জন্য ইসরায়েলকে দায়ী করে। হামলায় একাধিক ইরানি কমান্ডার নিহত হন। সেই হামলার জবাবে এসব ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন ছুড়ল ইরান।

;