গাজায় আকাশ থেকে ত্রাণ ফেলবে যুক্তরাষ্ট্র



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, গাজায় আকাশ থেকে ত্রাণ ফেলা শুরু করবে যুক্তরাষ্ট্র।

ত্রাণ বহরে হামলায় শতাধিক ফিলিস্তিনি নিহত হওয়ার একদিন পর শুক্রবার (১ মার্চ) এই ঘোষণা দেন বাইডেন।

হোয়াইট হাউসে ইতালির প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের শুরুতে সাংবাদিকদের বাইডেন আরও বলেন, ‘আমাদের আরও কিছু করা প্রয়োজন। যুক্তরাষ্ট্র আরও কিছু করবে।’

তিনি বলেন, ‘আগামী কয়েকদিনের মধ্যে আমরা জর্ডানসহ আমাদের অন্য বন্ধুদের সঙ্গে মিলিত হবো এবং অতিরিক্ত খাদ্যসহ অন্যান্য ত্রাণ গাজায় ফেলা শুরু করবো।’

উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর ফিলিস্তিনী সংগঠন হামাস ইসরায়েলে হামলা চালানোর পর থেকে ভূ-খন্ডটিতে তেল আবিব পাল্টা প্রতিশোধমূলক অভিযান শুরু করে। যে কারণে গাজায় এখন চলছে তীব্র মানবিক সংকট।

এদিকে গাজায় যুদ্ধবিরতির আলোচনাও অব্যাহত রয়েছে। বাইডেন আশা প্রকাশ করে বলেছেন, শিগগিরই পবিত্র রমজান মাসকে কেন্দ্র করে গাজায় ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করা হবে।

কিন্তু যুদ্ধবিরতির এই আলোচনায় জটিলতা তৈরি হয়েছে বৃহস্পতিবারের ঘটনার কারণে। এদিন মরিয়া ফিলিস্তিনিরা ত্রাণ বহরের দিকে ছুটে যাওয়ার সময়ে ইসরায়েলি বোমা হামলায় শতাধিক মানুষ নিহত হয়।

এদিকে জাতিসংঘ সতর্ক করে বলেছে, গাজা দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে। অন্যদিকে, গাজায় ক্রমবর্ধমান মানবিক বিপর্যয় সত্ত্বেও ইসরায়েলকে সামরিক সহায়তা প্রদান অব্যাহত রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র।

এই সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়েছেন হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের মুখপাত্র জন কিরবি।

তিনি বলেন, ‘আমরা এখনও ইসরায়েলকে তাদের আত্মরক্ষার স্বার্থে সাহায্য করছি।’

   

সিডনিতে শপিং মলে ছুরি হামলায় নিহত ৫



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলসের রাজধানী সিডনির একটি শপিং মলে ছুরি হামলায় ৫ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো অনেকে। তাদের বেশিরভাগের অবস্থা আশঙ্কাজনক। খবর- সিডনি মর্নিং হেরাল্ড।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) স্থানীয় সময় বিকেল ৪টার কিছু আগে বন্ডি জাংশন শপিং সেন্টারে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলাকারী একজন পুরুষ এবং তাকে থামাতে পুলিশকে গুলি করতে হয়েছে। তিনি এখনো বেঁচে আছে কি না নিশ্চিত নয়।

শপিং মলটির অবস্থান সিডনির ওয়েস্টফিল্ড এলাকায়। হামলা ঘটার পর পুলিশ মলটির আশপাশের এলাকায় যান চলাচল সীমিত রাখার পদক্ষেপ নিয়েছে।

এ ইস্যুতে আরো তথ্য জানতে পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম। কিন্তু পুলিশ কর্মকর্তারা বলেছেন, ‘আমাদের তদন্ত চলছে। এখন এ ব্যাপারে আর বেশি কিছু বলার সুযোগ নেই।’



;

ইসরায়েল-ইরান উত্তেজনা: বিশ্ব বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বেড়েছে



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসরায়েল-ইরান উত্তেজনায় আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম বেড়েছে। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) এ খবর জানিয়েছে সিএনবিসি।

গত বছরের ৭ অক্টোবর ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ শুরু পর লোহিত সাগরে হুতিদের হামলার পর বিশ্বজুড়ে জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে যায়।

গত ১ এপ্রিল সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে ইরানের কনস্যুলেট ভবনে হামলা করে ইসরায়েল। ওই হামলায় ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ডের দুই জেনারেলসহ বেশ কয়েকজন কমান্ডার নিহত হন। এরপর রাজনৈতিক উত্তেজনা আরও বেড়ে যায়। এমন অস্থিরতার মধ্যেই আবারও বাড়ল জ্বালানি তেলের দাম।

জানা গেছে, আগামী মে মাসে ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট (ডব্লিউটিআই) জ্বালানি তেল সরবরাহ করবে সেটির দাম বেড়েছে। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) প্রতি ব্যারেলের ১ দশমিক ১৪ ডলার বা ১ দশমিক ৩৪ শতাংশ বেড়ে ৮৬ দশমিক ১৫ মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে।

অন্যদিকে, পরের মাস জুনে যে ব্রেন্ট ক্রুড তেল সরবরাহ হবে, সেটির প্রতি ব্যারেলের দাম এদিন ১ দশমিক শূন্য ৪ ডলার বা ১ দশমিক ১৬ ডলার বেড়ে ৯০ দশমিক ৭৯ ডলারে উঠেছে।

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের র‌্যাপিডান এনার্জির প্রেসিডেন্ট বব ম্যাকন্যালি বলেন, ইরান ইসরায়েলে সরাসরি সামরিক হামলা চালালে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতি ব্যারেল ব্রেন্ট ক্রুড অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে ১০০ মার্কিন ডলারে উঠে যেতে পারে। আর এ হামলায় যদি হরমুজ প্রণালিতে সরবরাহ ব্যবস্থায় ব্যাঘাত ঘটে, তাহলে প্রতি ব্যারেল ১২০ থেকে ১৩০ ডলারেও উঠতে পারে।

;

‘ইসরায়েলে কোনো হামলা নয়’ ইরানকে সতর্কবার্তা বাইডেনের



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
‘ইসরায়েলে কোনো হামলা নয়’ ইরানকে সতর্কবার্তা বাইডেনের

‘ইসরায়েলে কোনো হামলা নয়’ ইরানকে সতর্কবার্তা বাইডেনের

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসরায়েল ইস্যুতে ইরানকে সতর্কবার্তা দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ইরানকে সতর্ক করে বাইডেন বলেছেন, ‘শিগগিরই হামলা করবেন না।’ 

সেই সঙ্গে বাইডেন ইসরায়েলের ওপর যে কোনো প্রকার হামলা ঘটলে ইহুদি রাষ্ট্রটির পাশে থাকার প্রতিশ্রুতিও ব্যক্ত করেন।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) হোয়াইট হাউসে ইসরাইলে ইরানের হামলার হুমকি প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বাইডেন এসব কথা বলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা ইসরায়েলকে রক্ষা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা সব সময় ইসরায়েলকে সমর্থন করবো। তাদের রক্ষায় যুক্তরাষ্ট্র যে কোনো ধরনের সহায়তার জন্য প্রস্তুত। ইরান সফল হবে না। ইসরায়েলে কোনো হামলা নয়— ইরানের উদ্দেশে আমার বার্তা এটুকুই।

গত ১ এপ্রিল সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে ইরানের কনস্যুলেটে এক বোমা হামলায় ১৩ জন নিহত হয়েছিলেন। এরপর থেকেই ইরানের সম্ভাব্য প্রতিশোধমূলক হামলা নিয়ে উদ্বেগ চলছে। যদিও দাপ্তরিকভাবে ইসরায়েল এখনও এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন বলেছে, ইসরায়েল ওই হামলা চালিয়েছে।

এদিকে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি বলেছেন, এই কর্মকাণ্ডের জন্য ইসরায়েলকে অবশ্যই শাস্তি পেতে হবে। 

ইরানের হুমকির বিষয়ে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, ‘ইসরায়েল রাষ্ট্রের’ নিরাপত্তা নিশ্চিতে তাঁর সরকার প্রস্তুত রয়েছে।

;

ইরানের হামলার আশঙ্কা: শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন নেতানিয়াহু



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ইসরায়েলে ইরানের সম্ভাব্য হামলা মোকাবিলার প্রস্তুতির জন্য শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে শুক্রবার (১২ এপ্রিল) এই বৈঠক হতে পারে।

খবরে আরও বলা হয়েছে, নেতানিয়াহু ইসরায়েলের যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভার সঙ্গে বৈঠকে করতে যাচ্ছেন। বৈঠকে ইসরায়েলি প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োভ গ্যালান্ট ও প্রধান বিরোধী নেতা বেনি গান্তজও উপস্থিত থাকতে পারেন।

বিবিসির মার্কিন পার্টনার সিবিএস নিউজকে এক মার্কিন কর্মকর্তা বলেছেন, শুক্রবার ইরানি হামলা হতে পারে।

এক অজ্ঞাত কর্মকর্তা বলেছেন, এই হামলায় শতাধিক ড্রোন, কয়েক ডজন ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ও হয়ত ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে ইসরায়েলে সামরিক স্থাপনাকে নিশানা করা হতে পারে।

এক মার্কিন কর্মকর্তা ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে বলেছেন, মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদনে এখন ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে যে কয়েক দিনের মধ্যে ইসরায়েলি ভূখণ্ডে প্রতিশোধমূলক হামলা চালাতে পারে ইরান। তবে ইসরায়েলি ভূখণ্ডের বাইরে দেশটির স্বার্থসংশ্লিষ্ট অবস্থানেও হামলা করতে পারে তেহরান।

তিনি বলেছেন, পরবর্তী ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে এই হামলা হতে পারে। দেশের দক্ষিণ বা উত্তরে সম্ভাব্য হামলা মোকাবিলার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে ইসরায়েল।

উল্লেখ্য, ১ এপ্রিল সিরিয়ায় ইরানি কনস্যুলেটে হামলা চালায় ইসরায়েল। ওই হামলায় ১৩ জন নিহত হন। কনস্যুলেটে হামলায় বেশ কয়েকজন সামরিক কর্মকর্তা প্রাণ হারান। তাদের মধ্যে কুদস্ ফোর্সের একজন সিনিয়র কমান্ডার ছিলেন। সিরিয়া ও লেবাননে বাহিনীর কার্যক্রম দেখভাল করতেন তিনি। ইরান এর প্রতিশোধ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

;