কানাডার উচিত নাৎসি সদস্যকে বিচারের মুখোমুখি করা : ক্রেমলিন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ইয়ারোস্লাভ হুঙ্কা। ছবি : সংগৃহীত

ইয়ারোস্লাভ হুঙ্কা। ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গত সপ্তাহে কানাডার পার্লামেন্টের স্পিকার কর্তৃক প্রশংসা করা নাৎসি বাহিনীর প্রবীণ সদস্যকে বিচারের আওতায় আনা উচিত এবং তাকে প্রত্যর্পণ করা উচিত বলে বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) মন্তব্য করেছে ক্রেমলিন।

এনডিটিভি জানিয়েছে, কানাডার পার্লামেন্টের স্পিকার ওই ঘটনার পর পদত্যাগ করেছেন, যেখানে আইনপ্রণেতারা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় নাৎসিদের পক্ষে লড়াই করা ৯৮ বছর বয়সি ইউক্রেনের নাগরিক ইয়ারোস্লাভ হুঙ্কার প্রকাশ্যে প্রশংসা করেছেন।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘কানাডিয়ান কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব হলো এই অপরাধীকে বিচারের আওতায় আনা অথবা যারা বিচার করতে চায় তাদের হাতে তুলে দেওয়া।’

পোল্যান্ড গত মঙ্গলবার বলেছে, তারা ইয়ারোস্লাভ হুঙ্কাকে প্রত্যর্পণ করার দিকে নজর দিচ্ছে। এ ছাড়াও এসএস ইউনিটের জন্য লড়াই করা হুঙ্কা পোলিশ ইহুদিদের বিরুদ্ধে অপরাধের জন্য ওয়ান্টেড কিনা তা-ও তদন্ত করছে তারা।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি ইহুদি হওয়া সত্ত্বেও এবং হলোকাস্টে পরিবারের সদস্যদের হারানো সত্ত্বেও ইউক্রেনের নেতৃত্বের বিরুদ্ধে নাৎসিদের আশ্রয় দেওয়ার অভিযোগ করেছে রাশিয়া।

পেসকভ বলেন, ‘এটি দ্ব্যর্থহীন যে, আমরা একজন নাৎসি সম্পর্কে কথা বলছি। ’

উল্লেখ্য, কানাডা হলো ইউক্রেনীয় সম্প্রদায়ের জন্য বিশ্বে দ্বিতীয় বৃহত্তম আবাসস্থল।

জেলেনস্কি, যিনি গত সপ্তাহে কানাডার পার্লামেন্টে বক্তৃতা করেছিলেন, তিনি গত বছর ইউক্রেনের বিরুদ্ধে মস্কো পূর্ণ মাত্রায় যুদ্ধ শুরুর পর থেকে অটোয়ার সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

নাইজেরিয়ায় ক্লাস চলাকালীন স্কুল ধস, নিহত ২২



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নাইজেরিয়ার মধ্য মালভূমি রাজ্যের একটি স্কুলে ভবন ধসের ঘটনা ঘটেছে। এতে এখন পর্যন্ত ২২ শিশুর মারা যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এছাড়াও আহত হয়েছেন ১৩০ জনেরও বেশি শিশু।

শুক্রবার (১২ জুলাই) সকালে রাজ্যের রাজধানী জোসের সেন্ট একাডেমিতে এমন ঘটনা ঘটে। ওইসময় শিশুরা ক্লাস রুমেই ছিল। ধ্বংসস্তূপের নিচে অনেক শিশু আটকে রয়েছেন বলেও দেশটির স্থানীয় কর্মকর্তারা জানান।

শনিবার (১৩ জুলাই) ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে আসে।

নাইজেরিয়ার জাতীয় জরুরি ব্যবস্থাপনা সংস্থা জানিয়েছে, উদ্ধাকারী, স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের ঘটনাস্থলে মোতায়েন করা হয়েছে। তারা জানিয়েছে, বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন।

স্বেচ্ছাসেবকরা খননকারীযন্ত্র, হাতুড়ি ব্যবহার করে কংক্রিটের স্তূপ ভেঙ্গে এবং পেঁচানো লোহার রড দিয়ে আটকে থাকা শিশুদের কাছে পৌঁছাতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এদিকে রাজ্য সরকার এই ঘটনায় স্কুলের ‘দুর্বল কাঠামো এবং নদীর পাশে অবস্থিত’ হওয়ার বিষয়টিকে দোষারোপ করেছে। যেসব স্কুলের কাঠামো দুর্বল হয়ে পড়েছে সেগুলো বন্ধ করে দিতে আহ্বান জানিয়েছে তারা।

;

সব শঙ্কা উড়িয়ে বাইডেন জানালেন ‘আমি কোথাও যাচ্ছি না’



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সব শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন দেশটিতে আসন্ন নির্বাচনেও লড়াইয়ে থাকছেন। নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিসেবে এবারও প্রতিনিধিত্ব করার ঘোষণা দিয়েছেন এই নেতা।

যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় শুক্রবার (১২ জুলাই) সন্ধ্যায় মিশিগান অঙ্গরাজ্যের ডেট্রয়েটের এক নির্বাচনী প্রচারসভায় বাইডেন এসব কথা বলেন।

বাইডেন বলেন, ‘রাজনীতির প্রতি বিনোদন বা রিয়্যালিটি টিভি শো-র মতো আচরণ বন্ধ করার এটাই উপযুক্ত সময়। আমি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছি এবং আমরা জিততে চলেছি। আমি কোথাও যাচ্ছি না, আমিই ডেমোক্রেটিক পাটির প্রার্থী।’ 

শনিবার (১৩ জুলাই) এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

জিমের প্রেস এলাকার দিকে ইঙ্গিত করে বাইডেন বলেন, তারা আমাকে আরও শক্তিশালী করছে। অনুমান করুন, ডোনাল্ড ট্রাম্প বিনামূল্যে পাস পেয়ে গেছেন।

বক্তব্যে ট্রাম্পকে মার্কিন জাতির জন্য হুমকি হিসেবে ঘোষণা করেন বাইডের। এ সময় উপস্থিত সমর্থকদের ‘হাল ছেড়ো না’ বলে তাকে সমর্থন দিতে দেখা যায়।

গত মাসে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে প্রথম টিভি বিতর্কে ধরাশায়ী হবার পর থেকেই প্রেসিডেন্ট প্রার্থিতা থেকে সরে দাঁড়াতে চাপে রয়েছেন বাইডেন। নিজ দল ডেমোক্রেটিক পার্টির বেশ কয়েকজন আইনপ্রণেতাও বাইডেনকে সরে দাঁড়াতে আহ্বান জানিয়েছেন।

;

সেনা প্রত্যাহারের পর গাজার দুই শহরে ৬০ মৃতদেহ উদ্ধার



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসরায়েলি সেনা প্রত্যাহারের পর গাজা উপত্যকার দুটি শহরে প্রাথমিক অনুসন্ধানে অন্তত ৬০টি মৃতদেহ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার (১২ জুলাই) হামাস পরিচালিত গাজার বেসামরিক প্রতিরক্ষা সংস্থা এ তথ্য জানায়।

এদিকে গাজার তাল আল-হাওয়া এলাকায় হত্যাকাণ্ডের জন্য আন্তর্জাতিক জবাবদিহিতার আহ্বান জানিয়েছে হামাস। কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার খবর।

হামাস এক বিবৃতিতে বলছে, ‘দক্ষিণ-পশ্চিম গাজা শহরের তাল আল-হাওয়া থেকে দখলদার ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর প্রত্যাহারের পর কয়েকদিন দূর থেকে তীব্র বোমা হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া ইসরায়েলি সেনারা অনুপ্রবেশ করে ছোট ছোট হামলা চালাচ্ছে। এটি নিশ্চিত গণহত্যা ও জাতিগত নির্মূলের চেষ্টা।’ ওই বিবৃতিতে হামাস জাতিসংঘ এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে অবিলম্বে যুদ্ধ বন্ধের পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানায় হামাস।

হামাসের বেসামরিক প্রতিরক্ষা মুখপাত্র মাহমুদ বাসাল বলেন, ‘তাল আল-হাওয়া ও আল-সিনা জেলায় মৃতদেহগুলো পাওয়া গেছে। ইসরায়েলি সেনারা হামাস যোদ্ধাদের সঙ্গে কয়েক দিনের লড়াইয়ের পর সেখান থেকে চলে গেছে ‘

বাসাল বলেন, ‘কমপক্ষে ৬০টি মৃতদেহ গণনা করা হয়েছে। গাজার সিভিল ডিফেন্সের দলগুলো বেঁচে যাওয়া লোকদের উদ্ধারে এগিয়ে এসেছে। নিহতদের অধিকাংশই নারী ও শিশু। ধ্বংসস্তূপের নিচে এখনও অনেক লাশ রয়েছে। ইসরায়েলি বাহিনী কাছাকাছি অবস্থান করছে এবং উদ্ধার তৎপরতা নিয়মিত ব্যাহত হচ্ছে।’

অন্যদিকে গাজায় যুদ্ধবিরতি ও বন্দীদের মুক্তির আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। সংস্থাটি এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘সকল পক্ষেকে গণদুর্ভোগ লাঘব, প্রাণহানি রোধ করা এবং সমস্ত বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য যুদ্ধবিরতি দেওয়া উচিত।’

সংস্থাটি হামাস ও অন্যান্য সশস্ত্র গোষ্ঠীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলছে, ‘অবিলম্বে গাজায় জিম্মি হওয়া বেসামরিক নাগরিকদের মুক্তি দেওয়া প্রয়োজন। যেহেতু বন্দীদের পরিবার ইসরায়েলে বিক্ষোভ করেছে ‘

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের গবেষণা, নীতি ও প্রচারণার বিষয়ক জ্যৈষ্ঠ পরিচালক এরিকা গুয়েভারা-রোসাস বলেন, ‘জিম্মি করা একটি যুদ্ধাপরাধ। যারা এখনও বেঁচে আছে তারা তাদের প্রিয়জনদের থেকে দূরে জিম্মি হয়ে নয় মাসেরও বেশি সময় কাটিয়েছে। তাদের এবং তাদের পরিবারের ওপর এই ধরনের মানসিক যন্ত্রণা দেওয়ার কোন যৌক্তিকতা থাকতে পারে না।’

;

স্কুলে ‘মোবাইল গেম’ খেলায় চাকরি হারালেন শিক্ষক



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

উত্তর প্রদেশের অতিরিক্ত মোবাইল ব্যবহারের জন্য চাকরি হারালেন এক স্কুল শিক্ষক। তিনি স্কুল সময়ের সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার মধ্যে প্রায় তিন ঘণ্টা মেবাবাইল ব্যবহার করেন। বিষয়টি নজরে আসলে ওই সহকারী শিক্ষককে ছাঁটাই করে রাজ্যের শিক্ষা বিভাগ।

শুক্রবার (১২ জুলাই) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

চাকরি হারানো ওই শিক্ষকের নাম প্রিয়ম গোয়েল। তিনি স্কুলে পড়াতে এসেও মোবাইলে গেম খেলায় ব্যস্ত থাকতেন। ফলে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা নিয়ে খুব একটা মনোযোগ ছিল না তার। একদিন স্কুল ইন্সপেক্টর ও জেলা প্রশাসক (ডিসি) রাজেন্দ্র পানসিয়া ছয় ছাত্রের বাড়ির কাজের খাতা দেখে ৯৫টি ভুল খুঁজে পান।

এক পর্যায়ে প্রিয়ম গোয়েলে মেবাইলফোন খতিয়ে দেখন জেলা প্রশাসক রাজেন্দ্র পানসিয়া। সেখানে দেখা যায়, তিনি স্কুল সময়ের সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার মধ্যে ‘ক্যান্ডি ক্র্যাশ’ গেম খেলেছেন দুই ঘণ্ট, সামাজিক যোগযোগমাধ্যম ব্যবহার করেছেন ৩০ মিনিট ও কথা বলেছেন ২৬ মিনিট। পরে বিষয়টি রাজ্যের শিক্ষা বিভাগকে জানানো হলে ওই সহকারী শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়।

জেলা প্রশাসক রাজেন্দ্র পানসিয়া বলেন, একজন শিক্ষকের উচিৎ ছেলে-মেয়েরা যাতে উন্নত শিক্ষা পায়, তা নিশ্চিত করা। কিন্তু স্কুল চলাকালীন ব্যক্তিগত কারণে ঘণ্টার পর ঘণ্টা মোবাইল ব্যবহার করা কোনোভাবেই একজন শিক্ষকের থেকে কাম্য নয়।

;