বাংলাদেশকে তুলে ধরতে মিলানস্থ কনস্যুলেটের উদ্যোগে আলোকচিত্র প্রদর্শনী আয়োজন



ইসমাইল হোসেন স্বপন, ইতালি প্রতিনিধি
বাংলাদেশকে তুলে ধরতে মিলানস্থ কনস্যুলেটের উদ্যোগে আলোকচিত্র প্রদর্শনী আয়োজন

বাংলাদেশকে তুলে ধরতে মিলানস্থ কনস্যুলেটের উদ্যোগে আলোকচিত্র প্রদর্শনী আয়োজন

  • Font increase
  • Font Decrease

“Celebrating Colours of Bangladesh” প্রতিপাদ্যে মিলানস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল মিলনায়তনে ৬ দিনব্যাপী একটি আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হচ্ছে। ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর রাষ্ট্রদূত মো. শামীম আহসান, এনডিসি ১৮ জানুয়ারি ২০২৩ তারিখে এই আলোচিত্র প্রদর্শনীর শুভ উদ্বোধন করেন। দিনব্যাপী কনস্যুলার সেবার পাশাপাশি এই প্রদর্শনী ১৯-২৫ জানুয়ারি ২০২৩ পর্যন্ত সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছে।

প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, মিলানের বিভিন্ন কনস্যুলেটের কনস্যুলার প্রতিনিধিবর্গ, স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী, মিলান ও পার্শবর্তী এলাকার বিভিন্ন শ্রেণি পেশার নেতৃস্থানীয় প্রবাসী বাংলাদেশি এবং বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গ। এছাড়াও এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সম্মানিত সদস্য, মিলান মিউনিসিপালিটির নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, সম্মাননাপ্রাপ্ত বাংলাদেশি আলোকচিত্রগ্রাহক মুস্তাফিজ মামুন এবং বাংলাদেশ ভ্রমণকাহিনী লেখক সংগঠনের সভাপতি জনাব আশরাফুজ্জামান উজ্জ্বল। এই প্রদর্শনীতে বাংলাদেশের ৬৪টি জেলায় তোলা বাংলাদেশ-ইতালির দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের সাথে সংশ্লিষ্ট প্রায়৭০ টির মতো আলোকচিত্র প্রদর্শনের জন্য রাখা হয়েছে। ১৮ তারিখের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কূটনীতিক কোরের প্রধান ও পেরুর কনসাল জেনারেল Mr. Augusto Salamanca বক্তব্য রাখেন। এসময় তিনি বলেন যে, এই প্রদর্শনীর ফলে ইতালিয় জনগণ ও বিদেশিদের মধ্যে বাংলাদেশ সম্পর্কে উৎসাহ ও উদ্দীপনা তৈরি হবে। তিনি আরও বলেন যে, তার কখনো বাংলাদেশে যাওয়ার সুযোগ না হলেও এই প্রদর্শনীর ছবিগুলো দেখে তিনি বাংলাদেশ সম্পর্কে একটি গভীর ইতবাচক ধারণা লাভ করেছেন।

রাষ্ট্রদূত মো. শামীম আহসান, এনডিসি তার সমাপনী বক্তব্যে উল্লেখ করেন যে, একজন বিদেশির জন্য বাংলাদেশ ভ্রমণের জন্য অনেক উপলক্ষ্য রয়েছে। এর মধ্যে প্রধানতম কারণ হলো বাংলাদেশের বৈচিত্র্য ও অপার সম্ভাবনাময় উদ্যোগী জনগোষ্ঠীর কর্মতৎপরতা। তার মতে, আলোকচিত্র হলো এমন একটি মাধ্যম যার দ্বারা একটি দেশের উৎকর্ষতাকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরা যায়। তিনি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ উন্নয়নের যে মাইলফলক স্থাপন করেছে, তা বিশ্বগণমাধ্যমের সামনে সঠিকভাবে তুলে ধরতে হবে।

কনসাল জেনারেল এম জে এইচ জাবেদ এসময় প্রদর্শনীতে আসার জন্য উপস্থিত সকল অতিথিদেরকে বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে আমন্ত্রিত অতিথি ও দর্শনার্থীবৃন্দ একটি নেটওয়ার্কিং অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

   

সংযুক্ত আরব আমিরাতে ঈদুল আজহা উদযাপিত



সংযুক্ত আরব আমিরাত করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হয়েছে।

রোববার (১৬ জুন) আমিরাতজুড়ে ঈদগাহ ও মসজিদগুলোতে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। ঈদের নামাজে বিভিন্ন দেশের লাখ লাখ মুসল্লিদের সঙ্গে হাজার হাজার প্রবাসী বাংলাদেশিও ঈদের নামাজ আদায় করেন। নামাজে মুসলিম বিশ্বের সুখ-শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।

শুক্রবার (১৪ জুন) আমিরাতের সরকার কর্তৃক ঘোষণা অনুযায়ী আমিরাতে ৭টি রাজ্যে ভিন্ন ভিন্ন সময়ে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। আবুধাবিতে সকাল ৫টা ৫০ মিনিট, দুবাই ৫টা ৪৫ মিনিট, শারজাহ ৫টা ৪৪ মিনিট, আজমান ৫টা ৪৪ মিনিট, ফুজাইরাহ ৫টা ৪১ মিনিট, উম্মে আল কুইন ৫টা ৪৩ মিনিট, রাস আল খাইমা ৫টা ৪১ মিনিট ও আল-আইনে ৫টা ৪৪ মিনিটে ঈদ জামাত শুরু হয়।


নামাজ শেষে প্রবাসীরা সবাই একে-অপরের সঙ্গে কোলাকুলি ও কুশল বিনিময় করেন। পরে যার যার সামর্থ্য অনুযায়ী প্রবাসীরা পশু কোরবানি করেন। অনেকে আবার কাজে ডিউটি থাকাতে নিজ নিজ কাজে যোগদান করেন।

উল্লেখ্য, আরাফাতের দিন এবং ঈদুল আজহা উদযাপন উপলক্ষে আগামী ১৫ থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত আমিরাতে ছুটি ঘোষণা করেছে ফেডারেল অথরিটি অব হিউম্যান রিসোর্স। ঈদের ছুটিতে প্রবাসীরা নিজেদের পরিকল্পনা ও সুযোগমত ঈদের ছুটি নানাভাবে উদযাপন করেন।

;

দুবাইতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ঈদ উৎসব



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশের সীমানা পেরিয়ে এবার সুদূর আরব আমিরাতে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে এক ঝাঁক তারকাদের মিলন মেলা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ঈদ পরবর্তী এই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ও ভারতের জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী এবং চিত্র তারকাদের নিয়ে ঈদ উৎসব করতে যাচ্ছে এসএন এন্টারটেইনমেন্টের স্বত্বাধিকারী সাচিনুর সাচি। আগামী ২১ জুন ২০২৪ তারিখে দেরা দুবাইয়ের পাঁচ তারকা হোটেল রেডিসন ব্লুতে অনুষ্ঠিত হবে "দুবাই কনসার্ট-২০২৪"। এ উপলক্ষে গতকাল ৩১ মে দুবাইয়ের আল কেসিসের একটি রেঁস্তোরায় সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে "দুবাই কনসার্টের" আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন উদযাপন কমিটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আবু জাফর। এ সময় উপস্থিত ছিলেন এস এন এন্টারটেইনমেন্টের অর্গানাজার মোঃ ফখরুদ্দীন মুন্না, কো-অর্গানাজার সিরাজুল হক, উদযাপন কমিটির যুগ্ম আহবায়ক কাজী মোহাম্মদ আলী, সদস্য সচিব হাজী শফিক, যুগ্ম সদস্য সচিব কামাল হোসেন সুমন, নির্বাহী সদস্য (সাংস্কৃতিক) মোঃ জাহিদ পারভেজ, মোঃ সফিক, মাহাবুবা সিদ্দিকা শিপু, এস এন এন্টারটেইনমেন্ট স্থায়ী কমিটির সদস্য সামসুর রহমান সোহেল, সরোয়ার উদ্দিন রনি, সাগর দেব, মামুনুর রশিদ, শরীফ মাহমুদ, মোঃ আলম, মোঃ কামাল হোসেন, মোঃ ইফতেখার, আমিরাতে বসবাসরত ব্যবসায়ী শিল্পপতি ও গণমাধ্যম কর্মীরা।

সংবাদ সম্মেলনে ইঞ্জিনিয়ার আবু জাফর বলেন, এই প্রথম বাংলাদেশের অনেকগুলো সংগীত শিল্পী এবং চিত্রশিল্পী একসাথে দুবাইয়ের মাটিতে পা রাখছেন। এই অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দেশের দর্শক উপস্থিত থাকবেন।

তিনি জানান, বাংলাদেশ থেকে আগত ফোক সম্রাজ্ঞী মমতাজ বেগম, অভিনয় শিল্পী পরিমণি, কণ্ঠশিল্পী ফকির শাহাবুদ্দিন, সুমি শবনম, তশিবা, সাচিনুর সাচি, উপস্থাপক শান্তা জাহান ও লাবিব সিনহা এবং ভারতের জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী অর্পিতা বিশ্বাস।

এ সময় এস এন এন্টারটেইনমেন্টের দুবাই অর্গানাইজার ফখরুদ্দীন মুন্না বলেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় শিল্পীদের সমন্বয়ে ঈদ উৎসব পালন করবে আমিরাতের প্রবাসীরা। তিনি সকলের সহযোগিতা চেয়ে বলেন, বিদেশের মাটিতেও সংগীত চর্চার দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে আমরা বদ্ধপরিকর। এতে করে বাংলাদেশের ঐতিহ্য ও কৃষ্টি-কালচার গানের মাধ্যমে বিশ্ব দরবারে সোনার বাংলাকে তুলে ধরব ইনশাআল্লাহ।

সংবাদ সম্মেলনের সমাপনী বক্তব্যে প্রকৌশলী আবু জাফর দুবাই কনসার্টের ১৫ সদস্যের উদযাপন কমিটি ঘোষণা করেন।

;

দুবাইয়ে ৫১ বাংলাদেশিকে রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড প্রদান



করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সংযুক্ত আরব আমিরাত
ছবি: বার্তা২৪

ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হয়েছে রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড-২০২৩।

পৃথিবীর অন্য দেশকে পেছনে ফেলে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্সধারী হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৫১ জন প্রবাসী বাংলাদেশিকে এই অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (২৫ মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় দুবাইয়ে বাংলাদেশ কনস্যুলেট প্রাঙ্গণে জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড ও সিআইপি সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী, এমপি।

বিশেষ হিসেবে উপস্থিত অতিথি ছিলেন আমিরাতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. আবু জাফর, দুবাই ও উত্তর আমিরাতের কনসাল জেনারেল বিএম জাসাল হেসেন, আল হারামাইন গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান নাসির।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমাদের প্রবাসী বাংলাদেশিদের মান-সম্মান বৃদ্ধি পেয়েছে। আমরা আজকে ওয়াদাবদ্ধ হতে হবে যে, আমরা বৈধপথে দেশে টাকা পাঠাবো ও সেইসঙ্গে মান-সম্মান গ্রহণ করবো। সেইসঙ্গে সম্মানের অধিকারী হবো। বৈধপথে টাকা পাঠালে প্রত্যেক স্তরে সম্মানিত হবো।

এ সময় তিনি প্রবাসীদের বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠানোর জোরালো আহ্বান জানান।

দুবাইয়ে বাংলাদেশের কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল বিএম জামাল হোসেন জানান, বিগত অর্থবছরে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে বাংলাদেশে রেমিট্যান্স পাঠানো হয়েছে প্রায় তিন বিলিয়ন ডলারেরও বেশি। আগামী অর্থবছরে রেমিট্যান্সের পরিমাণ চার বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবে বলে প্রত্যাশা করছেন সংশ্লিষ্টরা। এরই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে এ আয়োজন করা হয়েছে।

এবারের আয়োজনে বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠানো ৫১ জন প্রবাসী বাংলাদেশিকে রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।
এদের মধ্যে রয়েছেন- নিম্ন বেতনধারী, উচ্চ বেতনধারী, প্রবাসী ব্যবসায়ী, পেশাজীবী, কর্মজীবী নারী, নারী উদ্যোক্তা ও প্রবাসী সাংবাদিক। এছাড়াও সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে নির্বাচিত ৭৫ জন সিআইপিকে সংবর্ধিত করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০২২ সালে প্রথমবারের মতো বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠাতে উৎসাহিত করার জন্য দুবাই বাংলাদেশ কনস্যুলেট সাধারণ প্রবাসীদের রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়।

;

বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠানোর আহ্বান প্রতিমন্ত্রীর



করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সংযুক্ত আরব আমিরাত
ছবি: বার্তা২৪

ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রবাসীদের প্রতি বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠানোর আহ্বান জানিয়ে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী, এমপি বলেছেন, আজকে আমাদের ওয়াদাবদ্ধ হতে হবে, আমরা বৈধপথে দেশে টাকা পাঠাবো; মান-সম্মান গ্রহণ করবো এবং সম্মানের অধিকারী হবো। বৈধপথে টাকা পাঠিয়ে প্রত্যেক স্তরে সম্মানিত হবো।

শনিবার (২৫ মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে বাংলাদেশ কনস্যুলেট প্রাঙ্গণে দ্বিতীয়বারের মতো ‘রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড-২০২৩’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এ সব কথা বলেন।

রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড ও সিআইপি সংবর্ধনার জন্য এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর অন্য দেশকে পেছনে ফেলে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্সধারী হিসাবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৫১ জন প্রবাসী বাংলাদেশিকে রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আমিরাতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. আবু জাফর, দুবাই ও উত্তর আমিরাতের কনসাল জেনারেল বিএম জাসাল হেসেন, আল হারামাইন গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান নাসির।

দুবাইয়ে বাংলাদেশের কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল বিএম জামাল হোসেন জানান, বিগত অর্থবছরে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে বাংলাদেশে রেমিট্যান্স পাঠানো হয়েছে প্রায় তিন বিলিয়ন ডলারেরও বেশি। আগামী অর্থবছরে রেমিট্যান্সের পরিমাণ চার বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবে বলে প্রত্যাশা করেছেন সংশ্লিষ্টরা। এরই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে এ আয়োজন করা হয়েছে।

এবারের আয়োজনে বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠানো ৫১ জন প্রবাসী বাংলাদেশিকে রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়।

এদের মধ্যে রয়েছেন- নিম্ন বেতনধারী, উচ্চ বেতনধারী, প্রবাসী ব্যবসায়ী, পেশাজীবী, কর্মজীবী নারী, নারী উদ্যোক্তা ও প্রবাসী সাংবাদিক। এছাড়া সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে নির্বাচিত ৭৫ জন সিআইপিকে এই অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত করা হয়।

এ ধরনের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রবাসীদের উৎসাহ দেওয়ায় আগের তুলনায় রেমিট্যান্স প্রবাহ বেড়েছে বলে মনে করেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তবে রেমিট্যান্স পাঠানোর পদ্ধতি আরো সহজ করতে পারলে বৈধপথে টাকা পাঠাতে প্রবাসীরা আরো দ্বিগুণ উৎসাহিত হবেন বলে জানিয়েছেন তারা।

উল্লেখ্য, ২০২২ সালে প্রথমবারের মতো বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠাতে উৎসাহিত করার জন্য দুবাই বাংলাদেশ কনস্যুলেট সাধারণ প্রবাসীদের রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করে।

;