এ কেমন প্রামাণ্যচিত্র উৎসব!



আশরাফুল ইসলাম পরিকল্পনা সম্পাদক, বার্তা২৪.কম
উৎসবের আমন্ত্রণপত্র। ছবি: সংগৃহীত

উৎসবের আমন্ত্রণপত্র। ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের আয়োজনে ‘১২তম লিবারেশন ডক্ ফেস্ট বাংলাদেশ’ শিরোনামে ৫ দিনব্যাপি আন্তর্জাতিক প্রামাণ্যচিত্র উৎসবের শেষ দিন ছিল সোমবার। ঘোষিত অনুষ্ঠানসূচি অনুযায়ী এ দিন নির্বাচিত তথ্যচিত্র প্রদর্শনী শুরুর কথা ছিল বেলা ১১টায়। 

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের মিলনায়তনে এ প্রদর্শনী দেখতে এই প্রতিবেদক সকাল পৌনে ১১টায় জাদুঘর প্রাঙ্গনে পৌছে দেখতে পান কয়েকজন নিরাপত্তাকর্মী ছাড়া সেখানে কেউ নেই। তবে জাদুঘর ভবনের দেওয়ালে বেমানানভাবে পেচিয়ে থাকা এ সংক্রান্ত তথ্য সম্বলিত কয়েকটি হ্যাংগিং ব্যানার উৎসবের দৈন্যতাকেই যেন জানান দিচ্ছিল।   

নিরাপত্তাকর্মীদের কাছ থেকে উৎসব সম্পর্কিত কোন আপডেট না পেয়ে জাদুঘর সচিবালয়ে গিয়ে ফারহাত নামে দায়িত্বরত একজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তিনি উৎসব সমন্বয়ের দায়িত্ব পালন করছেন। ফারহাত জানান, বেলা ১১টায় উৎসবের পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী তথ্যচিত্র প্রদর্শনী শুরু হবে।  

মিলনায়তনে গিয়ে দেখা যায়, ফাঁকা মিলনায়তনটিতে শুধুমাত্র একজন কর্মী প্রজেক্টরে প্রদর্শনের জন্য তথ্যচিত্র চালিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন। কিছুক্ষণ বসে অপেক্ষার পর মৃন্ময় ব্যানার্জী নামে কলকাতা থেকে আসা একজন তথ্যচিত্র নির্মাতা উপস্থিত হন সেখানে। তিনি জানালেন, তাঁর তথ্যচিত্র এই উৎসবে প্রদর্শনের জন্য নির্বাচিত হয়েছে এবং ইমেইল ও ফোন করে তাকে উৎসবে যোগ দেওয়ার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

বেলা ১১টার কিছু পরে কোন দর্শনার্থীর উপস্থিতি এবং ঘোষণা ছাড়াই মৃন্ময় ব্যানার্জীর ‘বিপ্লবের ধ্বজা হাতে যাঁরা এনে দিল স্বাধীনতা’ শীর্ষক তথ্যচিত্রটির প্রদর্শন শুরু করেন ওই জাদুঘর কর্মী।

৪০ মিনিট দীর্ঘের এই তথ্যচিত্র প্রদর্শন শেষ হলে ফাঁকা মিলনায়তনে এক শুভানুধ্যায়ী নিয়ে নিজের নির্মাণ করা তথ্যচিত্র দেখতে আসা মৃন্ময় হতাশা ব্যক্ত করে বার্তা২৪.কম-কে বলেন, ‘কোন দর্শনার্থী যদি এই এটি না-ই দেখলো তবে তা আন্তর্জাতিক প্রামাণ্যচিত্র উৎসব নাম দিয়ে এখানে প্রদর্শনের কি গুরুত্ব থাকতে পারে! এমন উৎসবে আমন্ত্রণ জানানোরইবা কি প্রয়োজন ছিল?’

তরুণ এই নির্মাতা বলেন, ‘উৎসবে অংশগ্রহণের অনুরোধ জানিয়ে আয়োজকদের পক্ষ থেকে ইমেইল করা হয়, তাতে আমার টিমের জন্য ২টি পাশ ইস্যু করার কথা উল্লেখ থাকলেও বাস্তবে উপস্থিত হয়ে সংশ্লিষ্টদের জিজ্ঞেস করলে কেউই এ বিষয়ে কিছু জানাতে পারেননি। ইতিহাস ও ঐতিহ্যের প্রতি দায়বদ্ধ থেকেই সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত ব্যয়ে এই তথ্যচিত্র নির্মাণ করেছি। আগ্রহীরা যদি দেখতেই না পারলো তবে এ এধরণের আয়োজনে অংশগ্রহণ অর্থহীন।’

তিনি বলেন, ‘হয়তোবা আয়োজকরা এই উৎসব সম্পর্কে আগ্রহীদের কাছে তথ্য পৌছে দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। বৈরী আবহাওয়া সত্ত্বেও প্রকৃত অনুরাগীরা এই ধরণের আয়োজনে সব বাধা উপেক্ষা করেও ছুটে আসেন-অতীত অভিজ্ঞতা থেকে তা দেখে এসেছি আমরা।’  

নির্মাতা মৃন্ময় ব্যানার্জীর তথ্যচিত্র দেখতে আসা বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া জাদুঘর মিলনায়তনটি প্রদর্শনীর জন্য উপযোগি ছিল না বলে অভিযোগ করে বলেন, ‘মিলনায়তনে আধঘন্টার মতো বসে থেকে বুঝতে পারছি প্রদর্শনের আগে এটিতে স্বাভাবিক পরিচ্ছন্নতার কাজটিও করেননি জাদুঘর কর্মীরা। রীতিমতো দুর্গন্ধ পাচ্ছিলাম, এয়ারফ্রেশনার ব্যবহার করে একটি প্রেক্ষাগৃহকে যেভাবে প্রস্তুত করা হয়, এখানে তা করা হয়নি।’

এ রকম মিলনায়তনে এসে যে কেউ অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন বলেও মন্তব্য করেন এই বক্ষব্যাধি চিকিৎসক।  


মিলনায়তন থেকে বেরিয়েই জাদুঘর অভ্যন্তরে বিশ-পচিশজন স্বেচ্ছাসেবককে খোশগল্প করতে দেখা যায়। তাদের কেউই মিলনায়তনে কেন গেলেন না জানতে চাইলে-তারা কথা বলতে রাজি হননি। উৎসব সমন্বয়ে থাকা ফারহাতের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি দাবদাহের কারণে দর্শনার্থী না থাকার দায় এড়ান। তবে উৎসব সংশ্লিষ্ট জাদুঘর কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবকরাও কেন প্রদর্শনীতে থাকলেন না-এমন প্রশ্নের কোন সদুত্তর দেননি তিনিও।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জাদুঘরের এক কর্মীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ‘১২তম লিবারেশন ডক ফেস্ট বাংলাদেশ’ এর উদ্বোধন ও সমাপনী আয়োজনে কিছু অতিথি ও দর্শনার্থী ছাড়া এবারের আয়োজনে উপস্থিতি ছিল না বললেই চলে। গত ১৮ এপ্রিল জাদুঘর মিলনায়তনে এই উৎসবের উদ্বোধন করেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভারতীয় চলচ্চিত্র নির্মাতা নীলোৎপল মজুমদার এবং ভারতের জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র নির্মাতা হাওবাম পবন কুমার সেখানে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি আসাদুজ্জামান নূর এবং মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি ও উৎসব পরিচালক মফিদুল হক। অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য দেন মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি ও সদস্য সচিব সারা যাকের।

২০০৬ সাল থেকে প্রামাণ্য চিত্র উৎসব শুরু করে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর। এই উৎসবে বিশ্বের খ্যাতিমান নির্মাতাগণ তাদের তথ্যচিত্র নিয়ে অংশ নিয়ে এই উৎসবের মর্যাদা বৃদ্ধি করেছেন। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ভাবে স্বীকৃত জুরি বোর্ডের মাধ্যমে বিচারিক প্রক্রিয়া অনুসরণ করে সেরা তথ্যচিত্র নির্মাতাদের পুরষ্কৃতও করে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। কিন্তু এবার এই উৎসব আয়োজনে সেই ঐতিহ্যিক পরম্পরা বজায় রাখতে পারেনি মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর- এমন অভিযোগ তথ্যচিত্র নির্মাতাদের।  

   

হিট স্ট্রোক হয়েছে শাহরুখ খানের!



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান

বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান

  • Font increase
  • Font Decrease

আজ বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানের একমাত্র কন্যা সুহানা খানের জন্মদিন। মেয়ের জন্মদিনে শাহরুখের অসুস্থতার খবর ছড়িয়ে পড়েছে। আর তাতেই উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে কিং খানের ভক্তরা। অনেকেই সামাজিক মাধ্যমে প্রিয় অভিনেতার দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন।

কেননা, এটা যেনতেন অসুস্থতা নয়। একেবারে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে এই সুপারস্টারকে! আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচ শেষে হিট স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি।

ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গতকাল (২১ মে) নিজের দলের খেলা দেখতে আহমেদাবাদে হাজির ছিলেন কিং খান। সেখানে অসুস্থবোধ করায় শহরের কেডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। 

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, আইপিএলের ম্যাচ দেখতে আহমেদাবাদে গিয়েছিলেন শাহরুখ খান। গ্যালারিতে বসে দলের জয় উপভোগ করেন তিনি। একপর্যায়ে প্রচণ্ড গরমে হিটস্ট্রোক হয় তার! পরে তাকে আহমেদাবাদের কেডি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান

জানা গেছে, আহমেদাবাদের তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রির উপরে থাকায় গরম সহ্য হয়নি শাহরুখের। এরপরই সকাল থেকে অসুস্থ বোধ করায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে।

কেডি হাসপাতালের চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে ইন্ডিয়া টুডে জানিয়েছে, ডিহাইড্রেশনের কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েন কিং খান। আজ দুপুরে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

;

অনন্য মামুনকে ‘মি. এন্ড মিসেস মাহি’ আনতে বাধা ১৯ সংগঠনের



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
‘মিস্টার এন্ড মিসেস মাহি’ সিনেমায় রাজকুমার রাও ও জাহ্নবী কাপুর। (ডানে) অনন্য মামুন

‘মিস্টার এন্ড মিসেস মাহি’ সিনেমায় রাজকুমার রাও ও জাহ্নবী কাপুর। (ডানে) অনন্য মামুন

  • Font increase
  • Font Decrease

বিএফডিসি আবার সরগরম হয়ে উঠেছে। মিশা-ডিপজল প্যানেলের বিরুদ্ধে শিল্পী সমিতির নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনেছেন তাদের প্রতিপক্ষ চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তার। এর প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট ডিপজলকে সাধারণ সম্পাদক পদের দায়িত্ব পালন থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন।

এই ঘটনার প্রতিবাদে আজ সাধারণ শিল্পীরা বিএফডিসিতে নিপুণের বিরুদ্ধে মিছিল করে। নিপুণের ছবিতে জুতার মালা দিয়ে পোস্টার বানিয়ে মিছিল করা হয়। তাকে নির্লজ্জ ও বেহায়া বলে মিছিল করে শিল্পীরা!

এরপর বিকেলে বসে এক মত বিনিময় সভা। শিল্পী সমিতির নতুন কমিটি হওয়ার পর এটিই ছিল চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ১৯ সংগঠনের একসঙ্গে বসে কোন মত বিনিময় সভা। সভা শেষে শিল্পী সমিতির সহ সভাপতি ডি.এ তায়েব বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘আমরা নির্বাচিত হওয়ার পর এই প্রথম চলচ্চিত্র পরিবারের সব সংগঠনের সঙ্গে আলোচনা করেছি। নানা বিষয়ে মত বিনিময় হয়েছে। বিশেষভাবে গুরুত্ব পেয়েছে গুটি কয়েক শিল্পী যে চলচ্চিত্র শিল্পী ও চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রিকে ছোট করার জন্য আজেবাজে মন্তব্য করছে গণমাধ্যমে সেসব যাতে বন্ধ করা যায় তা নিয়ে।’

নিপুণের বিরুদ্ধে বিএফডিসিতে মিছিল

আর সংবাদ সম্মেলনে প্রযোজক ও পরিচালক মোহাম্মদ ইকবাল বলেন, ‘নানা বিষয়ে মত বিনিময় হলেও আমরা একটা বিষয়ে সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছি। তা হলো পরিচালক অনন্য মামুন তার অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্ট থেকে ‘মিস্টার এন্ড মিসেস মাহি’ নামে একটি হিন্দি ছবি দেশে আমদানির আবেদন করেছিল। কিন্তু সার্বিক বিবেচনায় আমরা সেই ছবি আনার অনুমতি দেইনি।’

প্রসঙ্গত, ‘মিস্টার এন্ড মিসেস মাহি’ সিনেমার কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা রাজকুমার রাও। এই ছবির জন্য তার শারীরিক গড়নের পরিবর্তন এরইমধ্যে দারুণ আলোচনায় এসেছে। ছবিটিতে তার বিপরীতে দেখা যাবে শ্রীদেবী কন্যা জাহ্নবী কাপুরকে।

;

কাল আসছে তৌসিফ-তিশার ‘বরযাত্রী’!



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
‘বরযাত্রী’ নাটকে তৌসিফ মাহবুব ও তানজিন তিশা

‘বরযাত্রী’ নাটকে তৌসিফ মাহবুব ও তানজিন তিশা

  • Font increase
  • Font Decrease

আজকাল শোবিজ তারকারা কাজের চেয়ে নাকি ব্যক্তিগত কারণেই বেশি চর্চিত! তাই বলে শিরোনাম পড়ে ভাবার কিছু নেই যে, ছোটপর্দার জনপ্রিয় দুই তারকা তৌসিফ মাহবুব আর তানজিন তিশার মধ্যে আবার ব্যক্তিগত কোন সম্পর্ক তৈরী হয়েছে। 

তৌসিফ মাহবুব হ্যাপিলি ম্যারিড। আর তানজিন তিশা সিঙ্গেল লাইফ উপভোগ করছেন। এখন তিনি কাজে খুব মনোযোগী। এই দুই তারকা এবার আসছেন বর্তমান সময়ের গল্প নিয়ে। এ সময়কার সম্পর্কের গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে নাটক ‘বরযাত্রী’, যেখানে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন তৌসিফ মাহবুব ও তানজিন তিশা। এটি নির্মাণ করেছেন সুমন ধর।

জানা গেছে, মাস কয়েক আগে নারায়ণগঞ্জের মনোরম লোকেশন ও রাজধানী ঢাকার আশে পাশে নাটকটির দৃশ্যায়ন হয়। গল্পের সঙ্গে সামঞ্জস্যতা রাখতে আয়োজনে কমতি রাখেননি নির্মাতা। নাটকটির একটি দৃশ্যে তৌসিফ-তিশাকে পারফর্ম করতে দেখা যাবে বলেও জানা গেছে।

নির্মাতা বলেন, ‘বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটের গল্পেই এই নাটকটি। সম্পর্কে পাওয়া না পাওয়ার গল্প বলা যেতে পারে। প্রেমের গল্প। গল্প অনুযায়ী নিজের সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি দারুণভাবে উপস্থাপন করার। কাজটি দর্শকের পছন্দ হবে আশা করি।’

 ‘বরযাত্রী’ নাটকে তৌসিফ মাহবুব ও তানজিন তিশা

কেএস ফিল্মস এর কর্ণধার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান জানান, আগামীকাল ২৩ মে (বৃহস্পতিবার) দুপুর ১২টায় নাটকটি কেএস এন্টারটেইনমেন্ট ইউটিউব চ্যানেলে উন্মুক্ত হবে।

সুমন ধরের গল্প, চিত্রনাট্যে নাটকটিতে তৌসিফ মাহবুব-তানজিন তিশা ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন আজিজুল হাকিম, শিল্পি সরকার অপু, এস এন জনি, সুব্রত চক্রবর্তী ও মিলি মুন্সি প্রমুখ।

;

নিপুণের সঙ্গে এবার ডিপজলের আইনি লড়াই!



মাসিদ রণ, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর, বার্তা২৪.কম
ডিপজল ও নিপুণ আক্তার

ডিপজল ও নিপুণ আক্তার

  • Font increase
  • Font Decrease

এরইমধ্যে অনেকেই জেনে গেছেন, ঢাকাই সিনেমার খল নায়ক ডিপজলকে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদের দায়িত্ব থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ডিপজলের প্রতিযোগী চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তারের অভিযোগের ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে হাইকোর্ট। একইসঙ্গে এই নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির ঘটনা তদন্তের জন্য সমাজ কল্যাণ মন্ত্রনালয়কে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

বিষয়টি নিয়ে এবার মুখ খুললেন ডিপজল। তিনি বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘আমি বরাবরই আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। ফলে, আদালতের রায় আমি কিছুতেই আগ্রাহ্য করব না। তবে এটাই তো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নয়। আমি খুব তাড়াতাড়ি আমার পুরো প্যানেলের সঙ্গে কথা বলে একটি সিদ্ধান্তে আসব।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা নির্বাচনে কোন অন্যায় বা অনিয়ম করিনি। সুষ্ঠু সুন্দর পরিবেশে নির্বাচন হয়েছে। নির্বাচনের ফলাফল নিপুণ মেনে নিয়ে আমাদের বিজয়ের মালাও পরিয়েছে। এখন তার মনে হচ্ছে নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে। সে যেহেতু আইনের আশ্রয় নিয়েছে আমরাও আইনের পথে হাটব। আইন তো সবার জন্যই সমান। আশা করি আদালত সব বিচার বিবেচনা করে সঠিক রায় দেবেন।’

ডিপজল বিষয়টি নিয়ে সোহেল রানাসহ চলচ্চিত্রের সিনিয়র শিল্পীদের সঙ্গেও কথা বলেছেন। তারা সবাই নাকি এ নিয়ে খুব বিরক্ত। সবার পরামর্শে তিনি চেম্বার জজ আদালতে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন। এছাড়া তিনি নিপুণ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমার ধারণা এই ঘটনার পিছনে বড় কোন হাত আছে। নয়ত সে (নিপুণ) বিদেশে থেকে এসব কিছু করতে পারতো না। তার এই কর্মকাণ্ডে বোঝ যায় তার হাত কতো লম্বা।’

;