খালিদকে স্মরণ করে শুরু হচ্ছে টিএমএম বাংলা সংগীত প্রতিযোগিতা



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
খালিদকে স্মরণ করে শুরু হচ্ছে টিএমএম বাংলা সংগীত প্রতিযোগিতা

খালিদকে স্মরণ করে শুরু হচ্ছে টিএমএম বাংলা সংগীত প্রতিযোগিতা

  • Font increase
  • Font Decrease

টিভি মেট্রো মেইল কানাডার ব্যানারে সংগীত শিল্পী খালিদকে স্মরণ করে অনলাইনে শুরু হচ্ছে 'টিএমএম বাংলা সংগীত প্রতিযোগিতা ২০২৪'। উত্তর আমেরিকায় বসবাসরত ১৬ বছরের ঊর্ধ্বে যে কোনো প্রতিযোগী রেজিস্ট্রেশন করে নিজের গানের ভিডিও পাঠাতে পারবেন। প্রতিযোগী সেরা দশজনকে নিয়ে অনলাইনে অনুষ্ঠিত হবে তিন পর্বের ফাইনাল রাউন্ড। 

এই প্রতিযোগিতায় বিচারক হিসেবে থাকবেন বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় সংগীত শিল্পীরা। প্রতিযোগিতার বিভিন্ন পর্বে বিচারক হিসাবে থাকবেন সংগীত শিল্পী তপন চৌধুরী , সামিনা চৌধুরী, আশিকুজ্জামান টুলু, সাইদ হাসান টিপু (অবসকিউর), তানভীর তারেক, এবং তরুণ মুন্সী। আগামী ২৫-২৬ মে এবং জুনের ১ তারিখ টরন্টো/নিউইয়র্ক সময় দুপুর ১২টা আর ঢাকা সময় রাত ১০টায় যথাক্রমে অনুষ্ঠিত হবে এই তিনটি পর্ব।

সেরা ১০ জনকে পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হবে বিশেষ সনদপত্র এবং সেরা ৩ জনকে সনদপত্রসহ পুরস্কার হিসাবে টিভি মেট্রো মেইলের ব্যানারে দেশের স্বনামধন্য সংগীত শিল্পীদের তত্ত্বাবধানে ১টি করে মৌলিক গান সুর ও কম্পোজে করে দেয়া হবে।

প্রতিযোগিতাটির আয়োজক টিভি মেট্রো মেইলের নির্বাহী সম্পাদক ইমামুল হক জানান, "অনলাইনে বাছাইপর্ব অনুষ্ঠিত হলেও মূল তিনটি পর্ব হবে সরাসরি লাইভ। এই প্রতিযোগিতাটির মাধ্যমে আমরা উত্তর আমেরিকাতে বাংলা সংগীতের জন্যে প্রতিভাবান সংগীতশিল্পীদের উৎসাহিত করতে চাই। টিএমএম এর পুরো আয়োজনটি সদ্য প্রয়াত সংগীত শিল্পী খালিদকে স্মরণ করে করা হচ্ছে।"

বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ১৬ বছরের ঊর্ধ্বে উত্তর আমেরিকার অধিবাসী যে কেউ এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী শিল্পীরা কেবল মাত্র একটি বাংলা গান, আধুনিক, ব্যান্ড সঙ্গীত অথবা লোক সঙ্গীত, ১৫ মে এর মধ্যে পাঠাতে পারবেন।

অনলাইন এ রেজিস্ট্রেশন শুরু হয়েছে। বাদ্যযন্ত্র ছাড়া, কিংবা বাদ্যযন্ত্র সহ কিংবা মিউজিক ট্র্যাক ব্যবহার করে নিজকণ্ঠে গাওয়া যে কোনো বাংলা গানের (cover song) ভিডিও ক্লিপ ‘টিভি মেট্রো মেইলের’ নির্দিষ্ট ঠিকানায় পাঠাতে হবে।

সংগীত শিল্পী তপন চৌধুরী, সামিনা চৌধুরী, আশিকুজ্জামান টুলু, সাইদ হাসান টিপু, তানভীর তারেক, মালিহা চৌধুরী মালা এবং ইমামুল হক গত শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) এক অনলাইন প্রস্তুতি সভায় মিলিত হয়ে আয়োজনের নানান বিষয় সিদ্ধান্ত নেন। প্রতিযোগিতার বিস্তারিত নিয়মাবলী ও শর্তের জন্যে আয়োজকরা TV Metro Mail এর ফেসবুক পেজ, ইভেন্ট পেজ ও ইউটিউবে নজর রাখবার জন্যে সবাইকে অনুরোধ জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত তথ্য জানতে চাইলে ইমেইল করতে পারেন।

   

লোপেজের পাশে বেনের অনুপস্থিতিতে সন্দিহান ভক্তরা



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
অ্যাটলাসের প্রিমিয়ারে জেনিফার লোপেজ

অ্যাটলাসের প্রিমিয়ারে জেনিফার লোপেজ

  • Font increase
  • Font Decrease

নেটফ্লিক্সের আসন্ন প্রজেক্ট ‘অ্যাটলাস’ এ কাজ করেছেন জেনিফার লোপেজ। বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী নির্মিত এই সিনেমায় প্রধান এবং নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন তিনি। সিনেমায় প্রধান খল চরিত্রে সিমু লিউ ছাড়াও স্টার্লিং কে. ব্রাউন, মার্ক স্ট্রং-সহ অনেক নামকরা অভিনয় শিল্পীরা কাজ করেছেন। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার এই সিনেমাটি প্রকাশ পাবে ২৪ মে।

ক্যালিফোর্নিয়ার মিশরীয় থিয়েটারে এর প্রিমিয়ার উপলক্ষে রেড কার্পেট অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ২০ মে রাতে সেখানে সিনেমা সংশ্লিষ্ট একগাদা হলিউড তারকা উপস্থিত হন।

এই অনুষ্ঠানে এসে আবারও ব্যকি্তগত  ব্যাপার নিয়ে  আলোচিত হন অভিনেত্রী এবং পপ সঙ্গীত শিল্পী জেনিফার লোপেজ। হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা বেন অ্যাফ্লেকের অর্ধাঙ্গিনী তিনি। তবে এই অনুষ্ঠানে একাই আসেন লোপেজ।

রেড কার্পেটে হেঁটে অনুষ্ঠানে প্রবেশ করার সময় সকলের নজর ছিল লোপেজের দিকে। পাপ্পারাজিরা অপেক্ষা করছিলেন বেনের আগমনের। সকলকে অবাক করে দিয়ে একাই এগিয়ে যান লোপেজ।

জেনিফার লোপেজ- বেন অ্যাফ্লেক দম্পতি

বেশ কিছুদিন ধরেই গুঞ্জন ছিল এই তারকা দম্পতির সংসারে চীর ধরতে শুরু করেছে। যদিও প্রিমিযার অনুষ্ঠানেও বিয়ের আংটি হাতে নিয়েই উপস্থিত হন লোপেজ। মেট গালাতেও একাই এসেছিলেন লোপেজ, বেন উপস্থিত ছিলেন না। পুরোটা সময় লোপেজ জেনডায়া-ব্যাড বানিদের সঙ্গে ঘুরছিলেন। আবারও সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি গুঞ্জনের আগুনে ঘি ঢেলে দিলো।

যদিও বেনের এই অনবরত অনুপস্থিতিতে লোপেজ বা বেন কেউই কোনো পোক্ত কারণ দেখাননি। তবে আগে এক সূত্র থেকে জানা গিয়েছিল,‘যদি সাময়িক উন্মাদনার কারণ দেখিয়ে বিবাহ বিচ্ছেদ সম্ভব হতো তবে অনেক আগেই বিচ্ছেদের পথে হাঁটতেন। গত ২ বছর যেন কোনো জ্বরের ঘোরে কাটাচ্ছিলেন তিনি। এখন ধীরে ধীরে তার জ্ঞান ফিরতে শুরু করেছে। তাই তিনি অনুভব করতে পারছেন কোনো ভাবেই এই সম্পর্ক নিয়ে দীর্ঘ পথ অতিক্রম করা সম্ভব নয়!’

এই তথ্য প্রকাশিত হওয়ার পর অনেকরেই সন্দেহ ছিল। তবে যত দিন যাচ্ছে ততই যেন গুঞ্জনের সত্যতা মিলতে শুরু করেছে।

;

কানে গিয়ে আন্তর্জাতিক সিনেমায় সুযোগ পেলেন ভাবনা



মাসিদ রণ, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর, বার্তা২৪.কম
কান চলচ্চিত্র উৎসবে ভাবনা /  ছবি : ফেসবুক

কান চলচ্চিত্র উৎসবে ভাবনা / ছবি : ফেসবুক

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্ব চলচ্চিত্রের অন্যতম মর্যাদাপূর্ণ `কান চলচ্চিত্র উৎসব'-এ প্রথমবার অংশ নিয়ে বর্তমানে বেশ আলোচনায় রয়েছেন অভিনেত্রী ভাবনা। নিত্য নতুন পোশাক পরে ছবি দিচ্ছেন, তা নিয়ে মেতে উঠছে নেটিজেনরা।

তবে ভাবনার এবারের কানযাত্রা শুধুমাত্র ফ্যাশনের মধ্যেই আটকে নেই। বিশ্ব চলচ্চিত্রে নিজেকে দেখতে চান, এমন ইচ্ছা থেকেই নিজ উদ্যোগে তার এই উৎসবে যাওয়া। এমন দারুণ একটি জায়গায় গিয়ে তিনি ঘোষণা দিলেন নিজের ৭ম সিনেমার।

কান চলচ্চিত্র উৎসবে ভাবনা /  ছবি : ফেসবুক

মালয়েশিয়া বংশোদ্ভূত বাংলাদেশি নির্মাতা  জাফর ফিরোজের ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। ছবির নাম ‘জেনুবিয়া’।

পরিচালক জাফর ফিরোজ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা সাহিত্যে স্নাতক সম্পন্ন করে ১২ বছর আগে মালয়েশিয়া যান। বর্তমানে সেখানে পিএইচডি করছেন। এর আগে ‘রিবর্ণ’ নামের একটি চায়নিজ চলচ্চিত্রের সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন। এবারই প্রথম ভাবনাকে মূল চরিত্রে রেখে পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা নির্মাণ করতে যাচ্ছেন ফিরোজ। ছবিটি বাংলা, ইংরেজি ও চায়নিজ ভাষায় তৈরি এবং মুক্তির পরিকল্পনা রয়েছে।

আর এই ছবির নির্বাহী প্রযোজক হিসেবে আছেন কিয়াও লি, যিনি একজন ব্রিটিশ চায়নিজ প্রযোজক। একই সঙ্গে তিনি ইউনেসকো ফিল্ম সিটির সঙ্গেও যুক্ত আছেন।

‘জেনুবিয়া’ ছবির প্রথম পোস্টার

কান থেকে ভাবনা বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘‘অভিনয়শিল্পী হিসেবে আমার চাওয়া থাকে প্রতিনিয়ত নিজেকে নতুন চরিত্রে দেখার। ‘জেনুবিয়া’র চরিত্রটি ঠিক তেমনি, যা নিয়ে গর্ব করা যায়। এখনই বিস্তারিত বলতে পারছি না। কিন্তুগল্পটা শোনার পর মনে হয়েছে, সত্যি অসাধারন। যেদিন ছবিটা সবাই দেখবেন সেদিন বুঝতে পারবেন আমি কেন এই কথাগুলো বললাম।’

প্রথমবার একা কানে যাওয়ার অভিজ্ঞতা নিয়ে ভাবনা বলেন, ‘আমি একা এসেছি বলে প্রথমদিকে বেশ নার্ভাস ছিলাম। কিন্তু আস্তে আস্তে ভয়কে জয় করতে শিখেছি। আমার সঙ্গে কান উৎসবে আসার পর যা কিছু ঘটছে, সবই কল্পনাতীত।’

কান চলচ্চিত্র উৎসবে ভাবনা /  ছবি : ফেসবুক

‘জেনুবিয়া’ ছবিটি নিয়ে নির্মাতা গণমাধ্যমকে বললেন, ‘‘এ বছরের নভেম্বরে মালয়েশিয়াতে আমরা একটি চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করছি। তারই মার্কেটিংয়ের জন্য কান উৎসবে যাই। শুনলাম, বাংলাদেশ থেকে ভাবনা এসেছেন সেখানে। তার সঙ্গে যোগাযোগ করে গল্প শোনাই। তিনি রাজি হয়ে যান। আমরাও সিদ্ধান্ত নিলাম একসঙ্গে কাজটি করবো। আগামী তিন মাসের মধ্যে ছবির কাজ শুরু করতে চাই। পুরো শুটিং মালয়েশিয়াতেই হবে। অন্যান্য অভিনয়শিল্পীও এরমধ্যে চূড়ান্ত করা হবে।’

কান চলচ্চিত্র উৎসবে ভাবনা /  ছবি : ফেসবুক

ভাবনাকে কাস্ট করা নিয়ে নির্মাতা বলেন, ‘কানে দেখা হয়েছে বলেই হুট করে তাকে সাইন করানো হয়নি। গল্পের সঙ্গে মানানসই এমন কয়েকজন আমাদের তালিকায় ছিলেন। তারমধ্যে ভাবনাও একজন। যখন শুনলাম ভাবনা কান উৎসবে আসছেন, তখন ভাবলাম, হোয়াই নট তার সঙ্গে বসি। এরপর তো ব্যাটে বলে মিলেই গেল! আমার ছবিতে চরিত্রটি যেভাবে ডিজাইন করা হয়েছে, তাতে ভাবনার সঙ্গে কথা বলে মনে হয়েছে, তিনি খুব সুন্দরভাবে তা উপস্থাপন করতে পারবেন। তার আত্মবিশ্বাসও আমাদের অনেক বেশি আশ্বস্ত করেছে।’

কান চলচ্চিত্র উৎসবে ভাবনা /  ছবি : ফেসবুক
;

বেবি বাম্প আগলে দীপিকা, রণবীরের হাত ধরা মুহূর্ত ভাইরাল



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বেবি বাম্প আগলে দীপিকা, রণবীরের হাত ধরা মুহূর্ত ভাইরাল

বেবি বাম্প আগলে দীপিকা, রণবীরের হাত ধরা মুহূর্ত ভাইরাল

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারেত লোকসভা নির্বাচন চলছে। মহারাষ্ট্রে পঞ্চম দফা নির্বাচনে, বলিউডের অনেক তারকা তাদের ভোটকেন্দ্রে গেছেন ভোট দিতে।


ভোট দেওয়ার প্রমাণ হিসাবে তাদের হাতের কালিও তুলে ধরেছেন। তাদের মধ্যে ছিলেন নতুন মা-বাবা দীপিকা পাডুকোন এবং রণবীর সিংও। এসময় হবু মায়ের বেবি বাম্প দেখা গেছে ।


দীপিকা এবং রণবীর ভোটকেন্দ্রে যাওয়া মন কেড়েছে ভক্তদের। তাদের একসঙ্গে হেঁটে যেতে দেখে মুগ্ধ সবাই।

রণবীর, সব পরিস্থিতিতে দীপিকার হাত ধরে আগলে রাখেন। তিনি তাঁকে বুথেও নিয়ে যান। ভোট দিতে যাওয়ার সময় দু’জনেই সাদা শার্ট এবং নীল রঙের ডেনিম পরেন।

এখানেই দীপিকার প্রথমবার বেবি বাম্প দেখা গেল। ক্যামেরার সামনে হাসতে হাসতে তাদের পোজ দিতেও দেখা যায়।

;

সব গান সুপারহিট হতে হয় না: কনা



মাসিদ রণ, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর, বার্তা২৪.কম
দিলশাদ নাহার কনা /  ছবি : ফেসবুক

দিলশাদ নাহার কনা / ছবি : ফেসবুক

  • Font increase
  • Font Decrease

দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র, অডিও, জিঙ্গেল এবং ভয়েস ওভার ইন্ডাস্ট্রিতে দাপটের সঙ্গে কাজ করছেন দিলশাদ নাহার কনা। পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, মেরিল প্রথম আলো পুরস্কারসহ নানা সম্মাননা। তার ঝুলিতে তথাকথিত সুপারহিট গানের সংখ্যাও কম নয়। দুই-তিন ঘণ্টার স্টেজ শো আরামসে নিজের গান গেয়ে মাতিয়ে রাখতে পারেন এই শিল্পী। মা দিবসে এসেছে তার নতুন গান। সমসাময়িক বিষয়ে বার্তা২৪.কমের সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন মাসিদ রণ


কেমন আছেন?


আলহামদুলিল্লাহ বলতেই হবে। সবমিলিয়ে সৃষ্টিকর্তা ভালো রেখেছেন। এই তো বড় বোনের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলাম বিদেশে। দারুণ সময় কাটিয়েছি। দেশে ফিরে কক্সবাজারে একটি শো করতে গিয়েছিলাম। আসার পথে শরীরটা খারাপ হতে শুরু করে। এরপর বেশ কদিন ধরে শরীরটা একটু খারাপ। শিল্পীদের কণ্ঠ বসে গেলে তো মুশকিল। তারমধ্যেও বেশ কয়েকটি গানে কণ্ঠ দিতে হয়েছে।

দিলশাদ নাহার কনা /  ছবি : ফেসবুক

মা দিবসে ‘মা’ শিরোনামের একটি গান প্রকাশ করেছেন। সেটি নিয়ে জানতে চাই...


কদিন আগে চলে যাওয়া বিশ্ব মা দিবসে এই গানটির একটি মিউজিক ভিডিও কনা তার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করেছি। ‘আমি বুড়ো হয়ে গেলেও / মা’র কোলে গিয়ে শোবো / মা কপালে রাখবে হাত / সব ক্লান্তিগুলো ধোবো...’- এমন কথার গানটির গীতিকার ও সুরকার কিংবদন্তিতূল্য প্রিন্স মাহমুদ।


এই গানটিরতে কেমন সাড়া পাচ্ছেন?


একজন শিল্পীর গাওয়া সব গান সুপারহিট হতে হয় না। সব গান শ্রোতার মুখে মুখে থাকবে সেটাও আমি মনে করি না। একজন শিল্পী তার রূচি অনুযায়ি এমন কিছু গানও করবেন যা বিশেষ শ্রেণীর শ্রোতার জন্য, আবার এমন গানও করবেন যা সবাই সমানতালে শুনবে। এমনও গান গাইতে হবে যা একজন শ্রোতা তার বিশেষ অনুভূতির সময় সঙ্গী হিসেবে নেবে। তেমনি একটি গান ‘মা’। যারা গানটি শুনেছেন তারা তাদের ভালোলাগার কথা আমাকে জানিয়েছেন। তবে এটি এমন গান নয় যে অলিতে গলিতে বাজবে। এ ধরনের গান শ্রোতার একান্ত অনুভূতির সঙ্গী হবে বলেই আমার বিশ্বাস।

দিলশাদ নাহার কনা /  ছবি : ফেসবুক

প্রতিটি গান তৈরীর নেপথ্যে দারুণ সব গল্প থাকে। এই গানের পেছনে তেমন কোন গল্প আছে?


এই গানটি আসলে দুই বছর আগে ইমরান (জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী ইমরান মাহমুদুল) গেয়েছিলেন। শোনার পর আমার ভীষণ ভালোলাগে। সেকথা প্রিন্স মাহমুদ জানতে পেরে বলেন, তুইও একবার গাইতে পারিস গানটা। তার কথামতোই আমি গানটি গেয়েছি। এরপর তো এবারের মা দিবসে আমার ইউটিউব চ্যানেলে সেটি প্রকাশ করি।


সম্প্রতি একটি অ্যাওয়ার্ড পেলেন...


হ্যাঁ। সম্প্রতি ২০২২ সালের সেরা প্লেব্যাক গায়িকা হিসেবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি প্রবর্তিত প্রথম পুরস্কারটি পেয়েছি। আমি খুব আনন্দিত, কারণ এটি এসেছে চলচ্চিত্রের পরিচালকদের বিবেচনায়। ‘অপারেশন সুন্দরবন’ সিনেমার ‘তার হাওয়াতে’ গানের জন্য এই অর্জন। গানটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা।

পরিচালক সমিতির অ্যাওয়ার্ড হাতে কনা /  ছবি : ফেসবুক

বর্তমানে ব্যস্ততা কি নিয়ে?


একাধিক পণ্যের জিঙ্গেল নিয়ে ব্যস্ততা যাচ্ছে। সম্প্রতি আপন জুয়েলার্সের বিজ্ঞাপনে কণ্ঠ দিয়েছি। আজ গাইবো ফ্যাশন হাউজ দেশাল-এর বিজ্ঞাপনচিত্রের জন্য একটি গান। দুটি বিজ্ঞাপনই দর্শক নন্দিত হবে বলে আমার ধারনা।

;