রাত্রির নতুন গান ‘রসের হতা'



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
রাত্রির নতুন গান ‘রসের হতা'

রাত্রির নতুন গান ‘রসের হতা'

  • Font increase
  • Font Decrease

গায়িকা রাত্রির নতুন গান প্রকাশ হয়েছে। গানের শিরোনাম ‘রসের হতা (কথা)’ । এই গানটি চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষার। গানটি লিখেছেন চট্টগ্রামের গীতিকার সমীরণ চৌধুরী। সংগীতায়োজন করেছেন ডিজে শাহরিয়ার।

গায়িকা রাত্রি চৌধুরী গানটি নিয়ে উচ্ছ্বসিত। তিনি এটির সাফল্য নিয়ে ভীষণ আশাবাদী। রাত্রি বলেন, ‘অসাধারণ একটি গান হয়েছে এটি। এরই মধ্যে আমি ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পাচ্ছি। আমার বিশ্বাস, গানটি বিশাল সাফল্য অর্জনে সক্ষম হবে।’

রাত্রি চৌধুরী ইতিপূর্বে নটি বয়, তোর আহ্লাদে, স্বপ্নটা ছুঁয়ে, ব্যস্ত অচেনা শহর, মন কী যে চায় বলো, শুধু তুইসহ আরো অনেক গান গেয়েছেন।

উল্লেখ্য, ‘রসের হতা’ গানে রাত্রির সহশিল্পী হিসেবে কণ্ঠ দিয়েছেন এই গানের সংগীত পরিচালক ডিজে শাহরিয়ার। মিউজিক ভিডিও পরিচালনা করেছেন নাসিমুল মুরসালিন স্বাক্ষর। এতে মডেল হয়েছেন জয়শ্রী দেবী।

   

‘টাইগার ভার্সেস পাঠান’-এর শুটিং ২০২৬ সালে



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
শাহরুখ খান ও সালমান খান

শাহরুখ খান ও সালমান খান

  • Font increase
  • Font Decrease

‘টাইগার ভার্সেস এবং পাঠান’ ছবিটির জন্য মুখিয়ে আছেন ভক্তরা। দুই সুপার স্পাই ‘টাইগার’ আর ‘পাঠান’ মুখোমুখি হবেন ‘টাইগার ভার্সেস পাঠান’-এ। সম্প্রতি পাওয়া গেল সিদ্ধার্থ আনন্দের এই ছবির নতুন আপডেট।

ভারতীয় গণমাধ্যম বলিউড হাঙ্গামাকে সিনেমার এক কাছের সূত্র জানিয়েছেন, এই ছবিতে সালমান ও শাহরুখের লড়াই দেখানো হবে। ছবির শুটিং হবে টানা ১০০ দিন। শুটিং শুরু হবে ২০২৬ সালে।

আরও জানা গেছে, ছবির এখনও অনেক প্রস্তুতি বাকি। এক ছবিতে সালমান ও শাহরুখকে নেয়া মানে প্রত্যাশাও বেশি। তাই কোনো কিছুতে কমতি রাখতে চান না আদিত্য চোপড়া। এত কম সময়ে এত বড় বাজেটের ছবির শুটিং করা সহজও হবে না। তাই আদিত্য চোপড়া তার ওয়াইএফএক্স টিমকে শুটিং শুরুর আগে ‘টাইগার ভার্সেস পাঠান’-এর প্রি-ভিজুয়ালাইজেশন তৈরি করতে বলেছেন।

সূত্র আরও জানিয়েছেন, প্রি-প্রোডাকশনের কাজ শুরু হয়ে গেছে। সিনেমাটি ২০২৭-এ মুক্তি পাবে।

তথ্যসূত্র : কইমই

 

;

পিছিয়ে গেলেন রবার্ট প্যাটিনসন



Masid Rono
রবার্ট প্যাটিনসন /  ছবি : সংগৃহীত

রবার্ট প্যাটিনসন / ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

না, ব্যক্তিগত জীবন কিংবা ক্যারিয়ারে পিছিয়ে নেই বিশ্বের অন্যতম আবেদনময় পুরুষ তারকা রবার্ট প্যাটিনসন। তবে তার সিনেমা মুক্তির তারিখ পিছিয়ে গেলো!

অস্কারজয়ী দক্ষিণ কোরিয়ান নির্মাতা বং জুন হোর পরবর্তী চলচ্চিত্রের কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন রবার্ট প্যাটিনসন। ‘মিকি সেভেনটিন’ নামের এই সায়েন্স ফিকশন চলচ্চিত্রটি চলতি বছর মুক্তির কথা ছিল। তবে সিনেমাপ্রেমীদের অপেক্ষা আরও বাড়লো। মুক্তি পিছিয়ে গেল ছবিটির।

 ‘মিকি সেভেনটিন’ সিনেমায় রবার্ট প্যাটিনসন 

চলতি বছরের ২৯ মার্চ মুক্তির কথা ছিল ছবিটির। কিন্তু আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম ভ্যারাইটি জানিয়েছে, ২০২৫-এর ৩১ জানুয়ারি মুক্তি পাবে ‘মিকি সেভেন্টিন’।
গত বছর দীর্ঘ সময় ধরে হলিউড ছিল উত্তাল। সেই আন্দোলনের প্রভাবেই পিছিয়ে গেছে ‘মিকি সেভেন্টিন’।

ভ্যারাইটি-তে আরো বলা হয়েছে জানুয়ারিতে সাধারণত বড় কোনো ছবি মুক্তি দেয়া হয় না। বেশিরভাগ বড় ছবি ডিসেম্বরেই মুক্তি পেয়ে যায়। তাই ফাকা মাঠে গোল দেয়ার সুযোগ পেয়ে যেতে পারে ‘মিকি সেভেন্টিন’। এই ছবি মুক্তির দুই সপ্তাহ পরে মুক্তি পাবে মার্ভেলের ‘ক্যাপ্টেন আমেরিকা: ব্রেভ নিউ ওয়ার্ল্ড।’ অর্থাৎ দুই সপ্তাহ চুটিয়ে ব্যবসা করার সুযোগ পাচ্ছে বং জুন হো-এর ছবি।

রবার্ট প্যাটিনসন 

এডওয়ার্ড অ্যাশটনের ২০২২ সালে লেখা ‘মিকি সেভেন’ বইয়ের ওপর ভিত্তি করে বং জুন হো চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য লিখেছেন। একটি দূরবর্তী গ্রহের উপনিবেশ স্থাপনের মিশন নিয়ে লেখা হয়েছে বইটি। প্রতিটি উপনিবেশে একজন ক্রু সদস্য থাকে যারা মিশনে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ কাজগুলো করে। কাজগুলো তাদের নিশ্চিত মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়। তাদের স্মৃতিগুলোর ‘ব্যাকআপ’ রাখা হয় এবং তাদের মৃত্যুর পরে ক্লোন করা দেহে সেই স্মৃতি ‘রিস্টোর’ করা হয়।

রবার্ট প্যাটিনসন ছাড়াও ছবির অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করছেন মার্ক রাফালো, নোপ চলচ্চিত্রের স্টিভেন ইউন, হেরেডিটারি চলচ্চিত্রের টনি কোলেত্তে এবং স্টার ওয়ার্স: দ্য রাইজ অফ স্কাইওয়াকার্সের নাওমি অ্যাকি।

রবার্ট প্যাটিনসন ও অস্কারজয়ী দক্ষিণ কোরিয়ান নির্মাতা বং জুন হো

তথ্যসূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

;

মামলা থেকে রেহাই পেলেন না পরীমণি



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
পরীমণি /  ছবি : ফেসবুক

পরীমণি / ছবি : ফেসবুক

  • Font increase
  • Font Decrease

আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণির বিরুদ্ধে দায়ের করা মাদক মামলা বাতিলের আবেদন পর্যবেক্ষণসহ নিষ্পত্তি করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। ফলে তার বিরুদ্ধে মাদক মামলা চলবে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা। আজ ২২ ফেব্রুয়ারি বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আমিনুল ইসলামের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।

২০২২ সালের ৫ জানুয়ারি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত ১০-এর বিচারক নজরুল ইসলাম এ মামলায় তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে আদেশ দেন। বিচার শুরু হওয়া অপর দুই আসামি হলেন পরীমনির সহযোগী আশরাফুল ইসলাম দিপু ও মো. কবীর হাওলাদার।
চার্জ শুনানিকালে তিন আসামি আদালতে উপস্থিত হন। আসামিপক্ষে আইনজীবীরা অব্যাহতি চেয়ে শুনানি করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জগঠনের প্রার্থনা করা হয়।

পরীমণি /  ছবি : ফেসবুক

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত অব্যাহতির আবেদন নাকচ করেন। এর পর আসামিদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ পড়ে শোনানো হয়। এর পর তাদের জিজ্ঞাসা করা হয়, তারা দোষী না নির্দোষ। এ সময় আসামিরা নিজেদের নির্দোষ দাবি করে ন্যায়বিচার চান। এর পর আদালত চার্জ গঠনের আদেশ দেন।
পরে পরীমনি হাইকোর্টে মামলা বাতিলের আবেদন করেন। হাইকোর্ট একই সালের ১ মার্চ মামলার কার্যক্রমের ওপর স্থগিতাদেশ দিয়ে রুলসহ আদেশ দেন। রুলে এ মামলা কেন বাতিল করা হবে না তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

পরীমণি /  ছবি : ফেসবুক

এ রুলের ওপর গত বছরের ২৪ আগস্ট শুনানি শেষ হয়। আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জেডআই খান পান্না, সৈয়দা নাসরিন ও মো. শাহীনুজ্জামান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি মো. সারওয়ার হোসেন বাপ্পি।

২০২১ সালের ৪ আগস্ট বিকালে রাজধানীর বনানীর ১২ নম্বর সড়কে পরীমনির বাসায় অভিযান চালায় র্যাব। এ সময় ওই বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়। মাদকের মামলায় পরীমনির ৫ আগস্ট চার দিন ও ১০ আগস্ট দুদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ১৩ আগস্ট রিমান্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

পরীমণি /  ছবি : ফেসবুক

এর পর ১৯ আগস্ট আরও একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড শেষে গত ২১ আগস্ট আবার তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। একই বছরের ৩১ আগস্ট ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েশ তার জামিন মঞ্জুর করেন। পরের দিন তিনি কারামুক্ত হন।
২০২১ সালের ৪ অক্টোবর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক কাজী গোলাম মোস্তফা পরীমনিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দেন।

পরীমণি /  ছবি : ফেসবুক
;

সুচিত্রা সেনের প্রয়াণ দিবসে ঢাকায় কেন ঋতুপর্ণা?



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪. কম, ঢাকা
ফেরদৌস আহমেদ ও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত /  ছবি: বার্তা২৪

ফেরদৌস আহমেদ ও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত / ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

দুই বাংলার সিনেমাপ্রেমীরা জানেন, বাংলাদেশের চিত্রনায়ক ও এমপি ফেরদৌস আহমেদ আর কলকাতার প্রখ্যাত অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত বেস্ট ফ্রেণ্ড। কিন্তু পেশাগত কারণে তাদের দীর্ঘদিন দেখা সাক্ষাৎ হয়নি। অবশেষে এই দুই বন্ধুকে মিলিয়ে দিলেন মহানায়িকা সুচিত্রা সেন।

রূপালী পর্দায় সাদা-কালো জীবনের রঙ্গিন স্বপ্নগুলোকে অসাধারণভাবে ফুটিয়ে তোলার মহানায়িকা সুচিত্রা সেনের নবম প্রয়াণ দিবস আজ। ২০১৪ সালের এই দিনে কলকাতার বেসরকারি একটি হাসপাতালে মারা যান তিনি। মহানায়িকার প্রয়াণ দিবসে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে স্মরণ করছেন ভক্তরা।

সুচিত্রা সেন

তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশে ঘোষণা করা হলো দারুণ এক আয়োজনের। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে আসছে এপ্রিলে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘সুচিত্রা সেন আন্তর্জাতিক বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব।’ জ্যামাইকা পারফরমিং আর্টস সেন্টারে ২০ ও ২১ এপ্রিল সকাল ১১টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত চলবে উৎসবটি।

আজ ২২ ফেব্রুয়ারি জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন উৎসবের আয়োজকরা। সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দুই বাংলার জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সংসদ সদস্য ফেরদৌস আহমদ। উপস্থিত ছিলেন ভারত ও বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, চলচ্চিত্র নির্মাতা রেশমী মিত্র এবং ভারতের সুপরিচিত বিনোদন সাংবাদিক শর্মিলা মাইতি।

সংবাদ সম্মেলনে অতিথিরা /  ছবি: বার্তা২৪

উৎসবের প্রধান সমন্বয়কারী হাসানুজ্জামান সাকী বলেন, পাবনায় সুচিত্রা সেনের পৈত্রিক বাড়ি উদ্ধারে আন্দোলনের ইতিহাস-প্রেক্ষাপট এবং বরেণ্য অভিনেত্রীর প্রতি আবেগ-ভালবাসার স্থান থেকে আমাদের এ আন্তর্জাতিক উৎসবের প্র‍য়াস। আমাদের স্লোগান- বিশ্বজুড়ে বাংলা ছবি। আমাদের উদ্দেশ্য মূলত তিনটি। এক, বাংলা ছবির বিশ্বায়ন অর্থাৎ বিদেশে বাংলা চলচ্চিত্রের দর্শক সৃষ্টি; দুই, বিদেশে বাঙালি চলচ্চিত্র কর্মীদের কাজের স্বীকৃতি এবং তিন, অভিবাসী চলচ্চিত্র কর্মীদের সঙ্গে আমেরিকার মূলধারার চলচ্চিত্র কর্মীদের সেতুবন্ধন রচনা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফেরদৌস আহমেদ বলেন, 'বিশ্বজুড়ে বাংলা চলচ্চিত্র ছড়িয়ে দেয়ার এই প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানাই। ভাষার মাসে জীবন  উৎসর্গ করা শহীদদের স্মরণ করতে চাই। আমরা বাংলা ভাষার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আমাদের কাজের মাধ্যমে, বাংলা চলচ্চিত্রের মাধ্যমে।'

সুচিত্রা সেনকে স্মরণ করে তিনি বলেন, 'সুচিত্রা সেন বাংলা চলচ্চিত্রের প্রতিটি অভিনয়শিল্পীর জন্য অনুপ্রেরণা। তার চলচ্চিত্রগুলো কালজয়ী, মনে হয় এখনো কোন আধুনিক ছবিই দেখছি।'

ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত /  ছবি: বার্তা২৪

সুচিত্রা সেন আন্তর্জাতিক বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৪'এ বাছাইকৃত বেশ কয়েকটি ফিচার, শর্ট ও ডক্যুমেন্টারি ফিল্ম দেখানো হবে। ইতিমধ্যে ছবি জমা নেওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক রিকগনাইজইড প্ল্যাটফর্ম 'ফিল্মফ্রিওয়ে' ব্যবহার করা হচ্ছে। আগামী ৬ এপিল সুচিত্রা সেনের জন্মদিন। ওই দিনটি হবে ছবি জমা দেওয়ার শেষ দিন। বিস্তারিত উল্লেখিত (https://filmfreeway.com/Suchitra SenIBFF2024) এই লিংকটিতে নির্দেশনা দেওয়া আছে।

এসব ছবি থেকে বিভিন্ন ক্যাটাগরি অনুযায়ী মনোনয়ন দেওয়া হবে। আর জুরি সদস্যরা পুরস্কারের সিদ্ধান্ত নিবেন। বাংলাদেশ ও ভারতের বাংলা ছবি প্রদর্শিত হবে এবং পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন দেওয়া হবে। ছবি মনোনয়নের জন্য ক্যাটাগরিগুলো হল- ১. ফিচার ফিল্ম (শ্রেষ্ঠ ফিল্ম, সেরা পরিচালক, সেরা নারী ও পুরুষ অভিনয় শিল্পী, সেরা সিনেমাটোগ্রাফার) ২. সেরা শর্ট ফিল্ম ৩. সেরা ডক্যুমেন্টারি ফিল্ম। 

এছাড়াও অভিবাসীদের নির্মিত বাংলাদেশি ও ভারতীয় চলচ্চিত্র এবং পপুলার ক্যাটাগরিতে চলচ্চিত্রের বিভিন্ন শাখায় পুরস্কার দেওয়া হবে। প্রতিটি ক্যাটাগরিতে দুই দেশ- বাংলাদেশ ও ভারতের জন্য আলাদা পুরস্কারের ব্যবস্থা থাকবে।

ফেরদৌস আহমেদ ও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত /  ছবি: বার্তা২৪

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উৎসব আয়োজক কমিটির উপদেষ্টা একুশ পদকপ্রাপ্ত লেখক, বিজ্ঞানী ও মুক্তিযোদ্ধা ড. নূরুন নবী ও অভিনয়শিল্পী লুতফুন নাহনি লতা, উৎসবের সমন্বয়কারী মো. আবদুল হামিদ, অনুষ্ঠান সহযোগী স্বাধীন মজুমদার ও এলি বড়ুয়া এবং ঢাকা ও কলকাতা কো-অর্ডিনেটর যথাক্রমে পিয়াল হোসেন ও শর্মিষ্ঠা ঘোষ, জুরি সদস্য জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত বাংলাদেশের প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা মোরশেদুল ইসলাম।

;