বাণিজ্য মেলা চলবে ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার সময় ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আব্দুল লতিফ বকসী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, এবার ব্যবসায়ীরা অনেক লোকসান করছেন। এজন্য তারা একটি আবেদন করেছেন। আমরা তাদের আবেদন বিবেচনায় নিয়ে মেলার সময় বাড়ানোর জন্য প্রস্তাব দিয়েছি।'

এর আগে ২৭ জানুয়ারি বাণিজ্য মেলার সময় ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাড়ানো হয়। 

এ বছর বাণিজ্য মেলায় ২১টি দেশের ৪৯০টি প্যাভিলিয়ন ও স্টল অংশ নিয়েছে। মেলায় প্রবেশে প্রাপ্ত বয়স্কদের টিকিটের মূল্য ৪০ টাকা ও অপ্রাপ্ত বয়স্কদের টিকিটের মূল্য ২০ টাকা। 

   

ডেপুটি গভর্নর হলেন খুরশীদ আলম ও হাবিবুর রহমান



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন ডেপুটি গভর্নর হলেন মো. খুরশীদ আলম ও ড. হাবিবুর রহমান। তাদের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এক বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানানো হয়।

খুরশীদ আলম বর্তমানে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক-১ হিসেবে কর্মরত আছেন। ড. হাবিবুর রহমান বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান অর্থনীতিবিদ। এখন দু’জনকেই নিয়মিত চাকরি থেকে স্বেচ্ছা অবসর নিয়ে ডেপুটি গভর্নরের চুক্তিভিত্তিক পদে যোগদান করতে হবে।

গত ২ ফেব্রুয়ারি একেএম সাজেদুর রহমান খান এবং ২৩ ফেব্রুয়ারি আবু ফরাহ মো. নাছেরের ডেপুটি গভর্নর হিসেবে চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়। এরপর এ দু’টি পদ খালি হয়। আবু ফরাহ মো. নাছের পলিসি অ্যাডভাইজার হিসেবে আগামী এক বছরের জন্য নিয়োগ পাচ্ছেন।

;

মুডি’স মূল্যায়নে সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের অবস্থান সুদৃঢ়



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

আন্তর্জাতিক রেটিং এজেন্সি মুডি’স ইনভেস্টর সার্ভিস সাম্প্রতিক মূল্যায়নে সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের আউটলুক স্থিতিশীল হিসেবে প্রকাশ করেছে।

এই রেটিংয়ের মাধ্যমে পরবর্তী ১২ থেকে ১৮ মাসে ব্যাংকের সম্পদের গুণগত মান, ভারসাম্যপূর্ণ স্থিতিশীল তারল্যের প্রতি মুডির আস্থা প্রতিফলিত হয়েছে। বাংলাদেশে চ্যালেঞ্জিং তারল্য পরিস্থিতি সত্ত্বেও, ২০২৩ এর জুন এবং সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক স্থায়ী আমানত বৃদ্ধিতে স্থিতিশীলতা প্রদর্শন করেছে, যা আমানতকারীদের আস্থা বৃদ্ধির ইঙ্গিত বহন করে।

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের রেটিং উন্নতিতে যেসব বিষয়গুলো ভূমিকা রেখেছে তার মধ্যে অন্যতম হলো বৈদেশিক মুদ্রার তারল্য বৃদ্ধি, যা প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিপুল পরিমাণ রেমিট্যান্স প্রেরণের মাধ্যমে অর্জিত হয়েছে। উপরন্তু, রিটেইল সেবাকে বহুমুখী করে সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের জন্য ব্যাংকটি বৈচিত্রপূর্ণ আমানত প্রকল্প চালু করে আমানতের ভিত্তিকে করেছে মজবুত। এর ফলে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলনের ঝুঁকি হ্রাস পেয়েছে। এতে ব্যাংকের আর্থিক অবস্থানকে আরও দৃঢ় করেছে।

তাছাড়া, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক আগের বছরের তুলনায় আর্থিক সক্ষমতা সূচকে স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে। ২০২৩ সালের ডিসেম্বর নাগাদ, ব্যাংকের নন-পারফর্মিং বিনিয়োগের পরিমাণ ৪.৭ শতাংশ থেকে ৪.৬ শতাংশে হ্রাস পেয়েছে। একই সময়ে কমন ইক্যুইটি টায়ার-১ রেশিও ৭.০ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ৭.১ শতাংশে পৌঁছেছে। এর পাশাপাশি ২০২৩ এর ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ব্যাংকের সম্পদের বিপরীতে ০.৪ শতাংশ আয়ের ধারাবাহিকতা অব্যাহত ছিল।

মুডি'স মূল্যায়নে যে কোনো ঝুঁকি মোকাবিলায় সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের শক্ত অবস্থান প্রকাশ করে।

;

ইসলামী ব্যাংকের বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ইসলামী ব্যাংকের বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত

ইসলামী ব্যাংকের বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ পিএলসি-এর পরিচালনা পর্ষদের এক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে বোর্ড সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। ব্যাংকের চেয়ারম্যান আহসানুল আলম এতে সভাপতিত্ব করেন।

সভায় ভাইস চেয়ারম্যান ইউসিফ আবদুল্লাহ এ আল-রাজি ও ডা. তানভীর আহমেদ, অন্যান্য পরিচালকবৃন্দ, ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ও সিইও মুহাম্মদ মুনিরুল মওলা এবং অ্যাডিশনাল ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ও কোম্পানি সেক্রেটারি জে.কিউ.এম. হাবিবুল্লাহ, এফসিএস উপস্থিত ছিলেন।

;

গ্যাসের দাম বৃদ্ধির পরও ঘাটতি হবে ৬ হাজার কোটি টাকা



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মূল্য সমন্বয়ের ফলে এলএনজি’র বর্তমান বাজার মূল্য ও ডলার বিনিময় হার বিবেচনায় বিদ্যমান ভর্তুকি ৬ হাজার কোটি টাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা সম্ভব হতে পারে। প্রাকৃতিক গ্যাসের উৎপাদন, আমদানি, সরবরাহ মূল্যের সাথে বিক্রয়মূল্যের পার্থক্যের কারণে সরকারকে এ খাতে ২০২৩-২৪ অর্থবছরে আর্থিক ক্ষতি দিতে হবে প্রায় ৬ হাজার ৫৭০ কোটি ৫৪ লাখ টাকা।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিদ্যুৎ উৎপাদনে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির গেজেট প্রকাশের পর এক বিবৃতিতে এমন ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে। এতে স্বাক্ষর করেছেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপপ্রধান তথ্য অফিসার মীর মোহাম্মদ আসলাম উদ্দিন।

এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন আইন, ২০০৩ এর ধারা ৩৪ক-তে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে, জনস্বার্থে সরকার বিদ্যুৎ উৎপাদনে ব্যবহৃত গ্যাসের বিক্রয়মূল্য ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ বিলিং মাস থেকে সমন্বয় করা হয়েছে। প্রতি ঘনমিটার ১৪ টাকা থেকে ১৪.৭৫ টাকা (সমন্বয়ের হার ৫.৩৬ শতাংশ) এবং ক্যাপটিভ বিদ্যুৎ উৎপাদনে ব্যবহৃত গ্যাসের মূল্য প্রতি ঘনমিটার ৩০ টাকা হতে ৩০.৭৫ টাকা (সমন্বয়ের হার ২.৫০ শতাংশ) নির্ধারণ করেছে।

বাংলাদেশে গ্যাসের ব্যবহারকারীদের ৮টি গ্রাহক শ্রেণি রয়েছে। তারমধ্যে বিদ্যুৎ উৎপাদনে ৩৭ শতাংশ, শিল্পে ২৩ শতাংশ, ক্যাপটিভ বিদ্যুতে ১৮ শতাংশ, গৃহস্থালিতে ১০ শতাংশ, সার উৎপাদনে ৭ শতাংশ, সিএনজিতে ৪ শতাংশ এবং বাণিজ্যিক ও চা শিল্পে ১ শতাংশ গ্যাস ব্যবহৃত হয়।

কৃষি সেচ মৌসুম, রমজান মাস ও গ্রীষ্মকালে বিদ্যুৎ উৎপাদনে গ্যাসের চাহিদা আরও বেশি থাকে। শিল্প, গৃহস্থালি, সার উৎপাদন, সিএনজি, বাণিজ্যিক ও চা শিল্পে মূল্য সমন্বয় অপরিবর্তিত রয়েছে।

;