শিক্ষার্থীদের অধিকার রক্ষায় রাবিতে শিক্ষকদের প্রতীকী অনশন



রাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
প্রতীকী অনশন

প্রতীকী অনশন

  • Font increase
  • Font Decrease

শিক্ষার্থীদের ন্যায়সঙ্গত অধিকার রক্ষায়, নিপীড়ন এবং দখলদারিত্ব মুক্ত শিক্ষাঙ্গনের দাবিতে প্রতীকী অনশন করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষকরা।

রোববার (২৬ জুন) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের জোহা চত্বরে অবস্থান করেন তারা।

অনশনে অংশগ্রহণ করে অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন খান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিনিয়ত শিক্ষার্থীরা নিপীড়ন ও লাঞ্ছনার শিকার হচ্ছে। কিন্তু এ বিষয়ে প্রশাসনের কার্যকরী কোন পদক্ষেপ দেখা যাচ্ছে না। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের মুক্ত চিন্তার বিকাশ ঘটে, কিন্তু একশ্রেণির শিক্ষার্থী দ্বারা সেটা সম্ভব হচ্ছে না। স্বাধীনতার এতো বছর পরে এসে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এমন কার্যক্রম চলতে পারে না।

তিনি আরও বলেন, আবাসিক হলগুলোতে ছাত্রলীগের একক আধিপত্য ও দখলদারিত্বের ফলে শিক্ষার্থীবান্ধব পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। শিক্ষার্থীকে মারধর- লাঞ্ছনা, সিট বাণিজ্য ও দখলদারি মনোভাবের ফলে প্রতিনিয়ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মান ও মর্যাদার হানি হচ্ছে। এটা কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ঘটতে পারে না। বিশ্ববিদ্যালয় এমন ঘটনার কার্যকরী কোন পদক্ষেপে না নেওয়ায় আমরা অনশনে বসেছি।

অনশনে সংহতি জানিয়ে অধ্যাপক ড. ইফতিখারুল আলম মাসউদ বলেন, প্রশাসন থাকা সত্ত্বেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে একজন বন্ধু আরেকজন বন্ধুকে, একজন ছাত্র আরেকজন ছাত্রকে হল থেকে বের করার ঘটনা ঘটছে। এটা শুধু একটা কালচারের পরিবর্তনই নয় বরং মূল্যবোধের চরম অবক্ষয়। এটা এক প্রকার জঙ্গি আচরণ। এই কালচারের পরিবর্তন না হলে পরবর্তীতে এই সন্ত্রাসীরা পুরো বিশ্ববিদ্যালয়কে গিলে খাবে।

অনশনে বীর মক্তিযোদ্ধা মাহমুদ জামাল কাদেরী বলেন, একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে যেকোনো অন্যায়ের প্রতিবাদ করা নৈতিক দায়িত্ব। এই দায়িত্ব নিয়েই আমরা একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে গিয়েছিলাম। সেই চেতনা থেকে যেখানেই কোনো অন্যায়-অত্যাচার হয় সেখানেই তার প্রতিবাদে সামিল হই। এছাড়া শিক্ষপ্রতিষ্ঠানে চলমান এমন নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদগুলো সারা দেশব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়া উচিত। সবাই প্রতিবাদ করলে এমন অচলায়তন ভাঙবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

রাকসু আন্দোলন মঞ্চের আহবায়ক আব্দুল মজিদ অন্তর বলেন, হলে সাধারণ শিক্ষার্থীদেরকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা প্রতিনিয়ত নির্যাতন করে চলেছে বৈধভাবে হলে সিট পেলেও সেখান উঠতে দিচ্ছে না ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সেই সিটগুলো দখল করে সিট বাণিজ্য করছেন তারা। প্রতিনিয়ত ছাত্রদের কাছ থেকে পাওয়া অভিযোগ পেয়ে আমরা প্রশাসনের বরাবর জানাচ্ছি কিন্তু কোনো প্রতিকার পাচ্ছি না। তারই প্রতিবাদে আমরা প্রতীকী অনশন করছি।

এসময় অনশনে সংহতি জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. সালেহ হাসান নকীব এবং অভিভাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্ষমতাসীন দল ছাত্রলীগের একক আধিপত্য, হলে সিট বাণিজ্য, আবাসিক শিক্ষার্থীকে হলে নির্যাতন ও নামিয়ে দেওয়ার ঘটনা আলোচনার শীর্ষে। আবাসিক হলে ছাত্রলীগের এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ এবং কার্যকরি পদক্ষেপ গ্রহণসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও প্রাধ্যক্ষ পরিষদ ও মুক্তিযোদ্ধা।

গুচ্ছ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির আবেদন শুরু ১৭ অক্টোবর



জবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গুচ্ছভুক্ত ২২ সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির আবেদন আগামী ১৭ অক্টোবর থেকে শুরুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আয়োজক কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেন উপাচার্যরা।

আবেদন শুরুর চার থেকে পাঁচদিন পূর্বে এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন।

তিনি বলেন, আগামী ১৭ অক্টোবর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য আবেদন গ্রহণ শুরু হবে। আগামী ১৩ অথবা ১৪ অক্টোবর পত্রিকায় ভর্তি সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। যারা গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় ৩০ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা আবেদন করতে পারবেন।

এছাড়া সভা সূত্রে জানা গেছে, এবার সব ধরনের কোটায় ভর্তির ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৩০ নম্বর। ৩০ নম্বর না পেলে কোটায় ভর্তি হওয়া যাবে না। এছাড়া প্রতি ইউনিটে আবেদন ফি ৫০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

এবারের গুচ্ছভুক্ত ২২ বিশ্ববিদ্যালয় হলো- জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়, শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়, কিশোরগঞ্জ এবং চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

;

চিন্তার চাষের আয়োজনে ক্ষুদে গবেষক সম্মেলন অনুষ্ঠিত



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
চিন্তার চাষের আয়োজনে ক্ষুদে গবেষক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

চিন্তার চাষের আয়োজনে ক্ষুদে গবেষক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) দিনব্যাপী ক্ষুদে গবেষক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। দিনব্যাপী সম্মেলনে বিভিন্ন স্কুলের ৭ম থেকে ১০ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা অংশ গ্রহণ করেন।

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) গবেষণা ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘চিন্তার চাষ’-এর উদ্যোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে ৭ম চিন্তার চাষ ক্ষুদে গবেষক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা গবেষণা পত্র, ধারণা পত্র ও পোস্টার উপস্থাপন করে।

‘চিন্তার চাষ’-এর চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট মুহাম্মদ শফিকুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান এই সম্মেলন আয়োজন করায় আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, গবেষণা ও উদ্ভাবন যে কোন দেশ ও জাতির উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তিনি বলেন, উদার ও মানবিক মূল্যবোধ ধারণ করে স্কুল পর্যায় থেকে শিক্ষার্থীদের গবেষণা কার্যক্রমে সম্পৃক্ত করলে তা অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ বিনির্মাণ, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনসহ বাংলাদেশকে উন্নত বিশ্বের কাতারে পৌঁছতে অবদান রাখবে। পড়াশুনার পাশাপাশি সহশিক্ষামূলক কার্যক্রমে অংশগ্রহণের উপর গুরুত্বারোপ করে পরিবেশ, প্রকৃতি ও বিজ্ঞান ভিত্তিক গবেষণা করার জন্য উপাচার্য ক্ষুদে গবেষকদের প্রতি আহ্বান জানান।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এ কে এম মাহবুব হাসান, ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মাহমুদুর রহমান এবং ফার্মেসী বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

;

ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজের প্রথম মেধাতালিকা প্রকাশ



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজের প্রথম মেধাতালিকা প্রকাশ

ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজের প্রথম মেধাতালিকা প্রকাশ

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত রাজধানীর সরকারি সাত কলেজের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের বিষয় ও কলেজ পছন্দের প্রথম মনোনয়ন তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে সকল এ বর্ষের সকল ভর্তি কার্যক্রম শেষ হবে ২৫ অক্টোবরের ভেতর।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাত ১১ টায় পর অধিভুক্ত কলেজগুলোর জন্য নির্ধারিত ওয়েবসাইটে এ তালিকা প্রকাশ করা হয়। মেধাতালিকা প্রকাশ ও কার্যক্রম শেষ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভর্তি পরীক্ষা কমিটির আহ্বায়ক এবং ঢাবির কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. মোস্তাফিজুর রহমান।

অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সাত কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষে ভর্তির জন্য কলেজ ও বিষয় পছন্দের মনোনয়ন তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এটি প্রথম মনোনয়ন তালিকা। এ বছরও অন্যান্যবারের মতো একাধিক মেধাতালিকা প্রকাশিত হবে। এরপর পর্যায়ক্রমে আরও দুটি তালিকা প্রকাশ করা হবে। আগামী ৫ ও ১৫ অক্টোবর যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় তালিকা প্রকাশ করা হবে। ১৮ অক্টোবর থেকে নতুন এ শিক্ষাবর্ষের (২০২১-২২) ক্লাস শুরু হবে।

একইসঙ্গে আগামী ২৫ অক্টোবরের মধ্যে মনোনীত কলেজে সশরীরে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের ভর্তি কার্যক্রম শেষ করতে হবে বলেও জানান তিনি।

গেল মাসের ১২ আগস্ট সাত কলেজের বিজ্ঞান ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা, ১৯ আগস্ট কলা ও সামাজিকবিজ্ঞান ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা এবং ২৬ আগস্ট বাণিজ্য ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জানা গেছে, চলতি বছর অধিভুক্ত এই সাতটি কলেজে স্নাতক শ্রেণিতে মোট আসন রয়েছে ২১ হাজার ৫১৩টি। যার মধ্যে বিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসনসংখ্যা ৬৫০০টি, বাণিজ্য ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসনসংখ্যা ৫৩১০টি এবং কলা ও সমাজবিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসনসংখ্যা ৯৭০৩টি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজগুলো হলো- ঢাকা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, সরকারি তিতুমীর কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, সরকারি বাঙলা কলেজ ও বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ।

;

ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা

ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসীকে রুম থেকে টেনেহিঁচড়ে বের করে নির্যাতনের অভিযোগে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক মোছা. রাজিয়া সুলতানাসহ আটজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

এ মামলার অন্য আসামিরা হলেন- ইডেন কলেজের নুজহাত ফারিয়া রোকসানা, নূরজাহান, আয়েশা ইসলাম মিম, আনিকা তাবাসুম স্বর্ণা ,ঋতু আক্তার ও কামরুন নাহার জ্যোতি। মামলাটি লালবাগ থানাকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সহসভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসীকে রুম থেকে টেনে-হিঁচড়ে বের করে নির্যাতনের অভিযোগে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মোস্তফা রেজা নুরের আদালতে এ মামলাটি করেন তিনি।বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে রাজধানীর লালবাগ থানাকে তদন্ত করে আগামী ২৩ অক্টোবর প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন আদালত।

বাদীপক্ষের আইনজীবী নূর-ই আলম জানান, মামলায় আরও ২৫-৩০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে।

জানা গেছে, ইডেন ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সিট বাণিজ্যসহ নানান বিষয়ে গণমাধ্যমে কথা বলেন ছাত্রলীগ নেত্রী জান্নাতুল ফেরদৌসী।

অনিয়ম নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলায় শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে জান্নাতুলকে তার হলের কক্ষ থেকে টেনে-হিঁচড়ে বের করে আনেন কলেজ ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী। পরে সভাপতি তামান্না ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার সামনে নির্যাতন করা হয়।

;