Barta24

বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

English

পাখির চোখে ভিন্নমাত্রায় দৃষ্টিনন্দন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

পাখির চোখে ভিন্নমাত্রায় দৃষ্টিনন্দন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
তিন নেতার মাজার, ছবি: জাবির জামান
ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
লাইফস্টাইল


  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আনাচে কানাচে ঘুরে বেড়াননি, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে কি!

কী ভীষণ ভালোবাসা, ভালোলাগা, মায়া ও স্মৃতির মিশেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্ত এলাকাটি দাঁড়িয়ে রয়েছে।

প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সৌন্দর্যটাকে এতোদিন দেখেছেন একমাত্রিকভাবে। চোখে যে রূপটি ফুটে উঠেছে, সেই ধরণটাকেই ধারণ করেছেন মস্তিষ্কে। কিন্তু প্রাণের বিশ্ববিদ্যালয়কে একেবারে ভিন্ন মাত্রা থেকে উপস্থাপন করে ইতোমধ্যে বেশ সাড়া ফেলে দিয়েছেন জাবির জামান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ছাপচিত্র বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র জাবির নিজের প্রিয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণকে তুলে এনেছেন ‘পাখির চোখে’। ‘বার্ডস আই ভিউ’ থেকে তুলে এনেছেন পুরো ক্যাম্পাসের অপূর্ব সব ছবি।

প্রায় পুরো বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণকেই কভার করে ফেলেছেন জাবির। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে কাজ করার এই পুরো পরিকল্পনাটি করেছেন প্রায় চার-পাঁচ মাস ধরে। যে কারণে পুরো একদিনের মাঝেই সবগুলো ছবি তুলে শেষ করতে পেরেছেন তিনি।

জাবির জামান তার এই ছবিগুলো প্রকাশ করেন তার ফটোগ্রাফি পেইজ H A W K থেকে। পেইজের এই নামকরণের কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘HAWK এর বাংলা হলো বাজপাখি। আমরা সবাই জানি যে এই পাখি আকারে অনেক ছোট, কিন্তু তার চোখ অনেক শার্প হয়। আমার ড্রোনের সাইজটাও অনেক ছোট এবং আমি ছোট ড্রোনই পছন্দ করি। এখান থেকেই এই নাম’।

ড্রোন ব্যবহার নিয়ে যেহেতু নিষেধাজ্ঞা, তার কাজ নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। সেক্ষেত্রে জাবির জানান, অনুমতি সাপেক্ষেই ছবি তোলার কাজ করেছেন তিনি।

পরবর্তি সময়ে এমন কাজ আরও করার পরিকল্পনা আছে কিনা জানতে চাইলে জানান, পুরো বাংলাদেশকেই এক ভিন্ন রূপে তুলে ধরার ও প্রকাশ করার ইচ্ছা আছে তার। যদিও কাজটি সময় সাপেক্ষ, তবুও কাজটি তিনি করতে চান।

জাবিরের কাজ সম্পর্কে তো ধারণা পাওয়া গেলো। এখন দেখে নিন জাবিরের তোলা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপূর্ব ও মনোমুগ্ধকর কিছু ছবি।

ছবি ০১ - দোয়েল চত্ত্বর ও তৎসংলগ্ন তিন নেতার মাজার

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549542640219.jpg

ছবি ০২ - জাতীয় শহীদ মিনার

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549542718513.jpg

ছবি ০৩ - নাট্যমঞ্চ

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549542774606.jpg

ছবি ০৪ - টিএসসি, রাজুভাস্কর্য, সড়কদ্বীপ ও মিলন চত্ত্বর

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549542809461.jpg

ছবি ০৫ - বিজয় একাত্তর হল

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549542870889.jpg

ছবি ০৬ - রেজিস্ট্রার ও সিনেট ভবন

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549542914313.jpg

ছবি ০৭ - স্যার সলিমুল্লাহ মুসলিম হল

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549542979462.jpg

ছবি ০৮ - ফজলুল হক মুসলিম হল

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549543034847.jpg

ছবি ০৯ - ডক্টর এম শহীদুল্লাহ হল

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549543082755.jpg

ছবি ১০ - শহীদুল্লাহ হল পুকুর

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549543127392.jpg

ছবি ১১ -  শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549543228710.jpg

ছবি ১২ - কলাভবন

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549543284138.jpg

ছবি ১৩ - হেরিটেজ বিল্ডিং, চারুকলা

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549543392792.jpg

ছবি ১৪ - শাহবাগ থেকে টিএসসি রোড

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549543438715.jpg

ছবি ১৫ - টিএসসি চত্বর

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549543497799.jpg

ছবি ১৬ - সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও স্বাধীনতা স্তম্ভ

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/07/1549543595937.jpg

আরও পড়ুন: ড্রোনে তোলা বিস্ময়কর তিনটি ছবি

আপনার মতামত লিখুন :

সাদামাটা নিমকিমাখা

সাদামাটা নিমকিমাখা
ছবি: নিমকিমাখা

হুটহাট করেই হাবিজাবি কোন খাবার খেতে ইচ্ছা করে।

এই হাবিজাবিটা আসলে কি, সেটা বুঝতে পারা দুষ্কর। এমন খাবার খাওয়ার ইচ্ছাকে অনেকে কাব্যিকভাবে ছোটখাটো ক্ষুধা নামেও ডেকে থাকে।

হুট করে কোন কিছু খেতে ইচ্ছা করলে ঘরে থাকা অল্প জিনিস কীভাবে মুখরোচক ও নতুন খাবার তৈরি করা যায় এইটাই যেন চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। মন অবস্থায় ঘরে থাকা নিমকি ও অল্প পেঁয়াজ-মরিচেই তৈরি করে নেওয়া যাবে নিমকিমাখা। কীভাবে তৈরি করবেন? চটজলদি দেখে নিন রেসিপিটি।

নিমকিমাখা তৈরিতে যা লাগবে

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566394524865.JPG

১. ২০০ গ্রাম নিমকি।

২. একটি পেঁয়াজ কুঁচি।

৩. একটি টমেটো কুঁচি।

৪. দুইটি কাঁচামরিচ কুঁচি।

৫. অর্ধেকটি শসা কুঁচি।

৬. অর্ধেকটি ক্যাপসিকাম কুঁচি।

৭. একমুঠো ধনিয়াপাতা কুঁচি।

৮. এক টেবিল চামচ লেবুর রস।

৯. দুই টেবিল চামচ সরিষার তেল।

১০. স্বাদমতো লবণ।

নিমকিমাখা যেভাবে তৈরি করতে হবে

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566394543339.JPG

১. প্রথমে সরিষার তেলে পেঁয়াজ ও কাঁচামরিচ কুঁচি চটকে নিতে হবে। এতে টমেটো, শসা, ক্যাপসিকাম ও ধনিয়া কুঁচি দিয়ে মাখিয়ে লবণ দিতে হবে।

২. সকল উপাদান মাখানো হয়ে গেলে নিমকি দিয়ে পেঁয়াজ-কাঁচামরিচের সাথে মাখিয়ে তার উপরে লেবুর রস ছড়িয়ে দিতে হবে।

আরও পড়ুন: বাড়িতেই তৈরি করুন ভেজিটেবল মমো

আরও পড়ুন: চুলাতেই তৈরি হবে গরম নান

হাড়ের সুস্বাস্থ্যে পাঁচ নিয়ম

হাড়ের সুস্বাস্থ্যে পাঁচ নিয়ম
ছবি: সংগৃহীত

সম্পূর্ণ শারীরিক সুস্বাস্থ্যে হাড়ের ভূমিকা অনেকখানি।

আমাদের শরীরের পুরো গঠন ও কাঠামো নির্ভর করে হাড়ের উপরে। ফলে হাড়ে যদি কোন সমস্যা দেখা দেয়, তার প্রভাব পরে সামগ্রিকভাবে। তরুণ বয়সে হাড় সবচেয়ে বেশি শক্ত ও সুস্থ থাকে, যদি সঠিক খাদ্যাভ্যাস গড়ে তোলা যায় ও যত্ন নেওয়া হয়। তবে বয়স যত বৃদ্ধি পেতে থাকে, হাড়ের শক্তি কমতে থাকে এবং হাড় ক্ষয় হতে থাকে। ফলে ৪৫-৫০ বছর পর থেকেই হাড়জনিত নানাবিধ সমস্যা দেখা দেওয়া শুরু হয়। এ কারণেই হাড়ের প্রতি আলাদাভাবে যত্নবান হওয়া প্রয়োজন। জেনে নিন হাড়ের যত্নে কোন বিষয়গুলোর প্রতি নজর দিতে হবে।

পারিবারিক ইতিহাস সম্পর্কে জানা

স্বাস্থ্যগত বিষয়ে ফ্যামিলি হিস্ট্রি অনেক বড় ভূমিকা পালন করে। যার বাবা-মা অথবা ভাই-বোনের অস্টিওপরোসিসের সমস্যা রয়েছে, তারও এই সমস্যাটি দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই পরিবারের মানুষদের হাড়ের স্বাস্থ্য ও সমস্যা সম্পর্কে খোঁজখবর করতে হবে এবং সেইভাবে নিজের হাড়ের যত্ন নেওয়ার বিষয়ে সচেতন হয়ে উঠতে হবে।

ক্যালসিয়াম গ্রহণ বৃদ্ধি

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566384501379.jpeg

হাড়ের বিষয়ে আলোচনা আসলে প্রথমেই যে শব্দটি মাথায় আসবে সেটা হলো ক্যালসিয়াম। প্রাকৃতিক এই মিনারেলটির সাহায্যে হাড় ও দাঁত গড়ে ওঠে ও দৃঢ়তা পায়। তবে ক্যালসিয়ামই শেষ কথা নয়। শরীরকে প্রস্তুত করতে হবে ক্যালসিয়াম শোষণের জন্য। নতুবা ক্যালসিয়ামযুক্ত খাবার খাওয়া হলেও, তার পুষ্টিগুণ শরীরে ঠিকভাবে শোষিত হবে না এবং ক্যালসিয়ামের অভাব তৈরি হবে।

ভোলা যাবে না ভিটামিন-ডি কে

ক্যালসিয়ামের সাথে সরাসরিভাবে সংযুক্ত হলো ভিটামিন-ডি। একইসাথে ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন-ডি হাড়কে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। ভিটামিন-ডি পাওয়া যাবে চিংড়ি, কমলালেবুর রস, ডিমের কুসুম, টুনা মাছ প্রভৃতি থেকে। এছাড়া রোদের আলো ভিতামিন-ডি এর অন্যতম বড় একটি উৎস। বর্তমান সময়ে অনেকেই রোদের আলোর অপর্যাপ্ততায় ভিটামিন-ডি এর অভাবে ভুগছেন। সেক্ষেত্রে প্রতিদিন অন্তত ১০-১৫ মিনিট শরীরে রোদের আলো লাগানোর চেষ্টা করতে হবে।

নিয়মিত শরীরচর্চা করা

শুধু স্বাস্থ্যসম্মত খাবার গ্রহণই যথেষ্ট নয়, শরীরচর্চার অভ্যাসও গড়ে তুলতে হবে হাড়কে সুস্থ রাখতে চাইলে। শরীরচর্চার বিভিন্ন কলাকৌশল হাড়কে দৃঢ় করতে কাজ করে। দৌড়ানো, দ্রুত হাঁটা, দড়িলাফ কিংবা সিঁড়িতে ওঠানামার মতো হালকা ঘরানার শরীরচর্চাগুলোই হাড়কে ভালো রাখতে উপকারী।

সীমিত মাত্রায় ক্যাফেইন গ্রহণ

ক্যাফেইনের বেশ কিছু স্বাস্থ্য উপকারিতা আছে বটে, তবে দুঃখজনকভাবে হাড়ের জন্য নয়। অতিরিক্ত মাত্রায় ক্যাফেইন গ্রহণ শরীরে ক্যালসিয়াম শোষণে বাধাদান করে। তাই প্রতিদিন দুই কাপ পরিমাণ কফি পান নিরাপদ। এর বেশি হয়ে গেলে তা হাড়ের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে।

আরও পড়ুন: ওয়ার্ল্ড অস্টিওপরোসিস ডে: হাড় থাকুক মজবুত

আরও পড়ুন: ভিটামিন ডি ঘাটতি: ঝুঁকি, উপসর্গ এবং বৃদ্ধির উপায়

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র