Alexa

ইন্সটাগ্রামে বেফাঁস মন্তব্যে নিষিদ্ধ নেইমার  

ইন্সটাগ্রামে বেফাঁস মন্তব্যে নিষিদ্ধ নেইমার   

তিন ম্যাচ নিষিদ্ধ নেইমার ছবি : সংগৃহীত

ইনজুরি কাটিয়ে দিন কয়েক আগেই ফিরেছেন মাঠে। এখনও সেই আগের ছন্দের দেখা পাননি তিনি। তবে এরইমধ্যে অস্বস্তিকর এক খবর শুনতে হয়েছে নেইমারকে। তিন ম্যাচ নিষিদ্ধ প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের এই ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার।

ভুল করেছিলেন মাঠের বাইরে, গত মার্চে। শাস্তি মিলল এপ্রিলে। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পিএসজির এই তারকা রেফারির একটি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করতে গিয়ে নিজেকে সামলে রাখতে পারেন নি। ইন্সটাগ্রামে বেফাঁস মন্তব্য করে বসেন। এই জন্য তিন ম্যাচ নিষিদ্ধ হলেন তিনি। 

ঘটনা গত গত ৭ মার্চের। প্রতিপক্ষ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ইংলিশ জায়ান্টদের বিপক্ষে ম্যাচে ইনজুরি সময়ে ডি-বক্সে পিএসজির ডিফেন্ডার প্রেসনেল কিম্পেম্বের হাতে বল লাগলে ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। এরপর ইংলিশ ফরোয়ার্ড মার্কাস র‌্যাশফোর্ড গোল করেন পেনাল্টি থেকে। শেষ অব্দি ৩-১ গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ম্যানইউ। যদিও দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন ছিল ৩-৩। প্রতিপক্ষের মাঠে বেশি গোলই রেড ডেভিলদের নিয়ে যায় পরের রাউন্ডে।

সেই পেনাল্টি নিয়েই আপত্তি তোলে পিএসজির ফুটবলাররা। রেফারি দামির স্কোমিনা শুরুতে কর্নারের বাঁশি বাজালেও শেষ পর্যন্ত পর্যবেক্ষণ করে পেনাল্টি দেন। এরপরই সিদ্ধান্তটি ‘লজ্জাজনক’ বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মন্তব্য করেন নেইমার। ইনজুরিতে ম্যাচে না থাকলেও ইন্সটাগ্রামে পিএসজির এই তারকা লিখেছিলেন, ‘চারজন মানুষ যারা ফুটবল সম্পর্কে কিছু জানে না তারাই টেলিভিশনে স্লো-মোশনে রিপ্লে দেখেন।’ রেফারিকে এভাবেই খোঁচা দেন এই ব্রাজিলিয়ান!

ব্যস, তার এই মন্তব্য আমলে নেয় ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা উয়েফা। এই নিষেধাজ্ঞায় আসছে মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ পর্বে প্রথম তিন ম্যাচে খেলতে পারবেন না নেইমার।

 

আপনার মতামত লিখুন :