Alexa

ব্রুনাইয়ের জাতীয় মসজিদ পরিদর্শন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ব্রুনাইয়ের জাতীয় মসজিদ পরিদর্শন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ব্রুনাইয়ের জাতীয় মসজিদ পরিদর্শন করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ছবি: ফোকাস বাংলা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্রুনাই সফরের দ্বিতীয় দিন দেশটির দু’টি জাতীয় মসজিদের একটি জামে আসর হাসান আল বলকিয়া মসজিদ (Jame' Asr Hassanal Bolkiah Mosque) পরিদর্শন ও সেখানে আসরের নামাজ আদায় করেছেন।

সোমবার (২২ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্রুনাইয়ের বন্দর সেরি বেগওয়ানে অবস্থিত এই বৃহত্তম মসজিদ পরিদর্শন করেন এবং সেখানে আসরের নামাজ আদায় করেন।

নামাজ শেষে তিনি দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করেন। মোনাজাতে তিনি মুসলিম উম্মাহর শান্তি এবং ঐক্য কামনা করেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মসজিদের ২৯টি স্বর্ণের গম্বুজ এবং ১৯০ ফুট উঁচু চারটি মিনারসহ মসজিদের বিভিন্ন অংশ ঘুরে দেখেন। মসজিদ পরিদর্শনের সময় তিনি মসজিদে অবস্থানরত মুসল্লিদের সঙ্গে মতবিনিময় এবং পরিদর্শন বইয়ে স্বাক্ষর করেন।

ব্রুনাইয়ের জাতীয় মসজিদ পরিদর্শন শেষে নামাজ আদায় ও মুসল্লিদের সঙ্গে মতবিনিময় করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ছবি: ফোকাস বাংলা
ব্রুনাইয়ের জাতীয় মসজিদ পরিদর্শন শেষে নামাজ আদায় ও উপস্থিত মুসল্লিদের সঙ্গে মতবিনিময় করছেন প্রধানমন্ত্রী, ছবি: ফোকাস বাংলা

প্রধানমন্ত্রী ব্রুনাইয়ের সুলতান হাজী হাসান আল বলকিয়ার আমন্ত্রণে তিনদিনের সরকারি সফরে ব্রুনাইতে রয়েছেন।

হাসান আল বলকিয়া মসজিদ বিশ্বের হাতেগোণা কয়েকটি দৃষ্টিনন্দন মসজিদের একটি। এটি সুলতানের সিংহাসন আরোহনের ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে ব্রুনাইবাসিদের প্রতি সুলতানের উপহার ছিল। মসজিদটিতে একসঙ্গে ৩০ হাজার মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারেন।

মসজিদটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় ১৯৮৮ সালে। ৫ বছর পর ১৯৯৪ সালের ১৪ জুলাই সুলতানের জন্মদিনের আগের রাতে মাগরিবের নামাজের সময় উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। উদ্বোধনের দিন সুলতান মাগরিব ও এশার নামাজে অংশ নেন।

মসজিদের ভেতরের কারুকাজ অনেক দৃষ্টিনন্দন। প্রতিদিন প্রচুর দর্শনার্থী আসেন মসজিদটি দেখতে।

ব্রুনাইয়ের জাতীয় মসজিদ ঘুরে ঘুরে দেখছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ছবি: ফোকাস বাংলা
ব্রুনাইয়ের জাতীয় মসজিদ ঘুরে ঘুরে দেখছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ছবি: ফোকাস বাংলা

উল্লেখ্য, ইসলাম ব্রুনাইয়ের রাষ্ট্র ধর্ম। ১৯৫৯ সালে ইসলামকে দেশটির রাষ্ট্রধর্ম হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

২০১৪ সালের ৩০ এপ্রিল সুলতান হাসানা আল বলকিয়া ১ মে ২০১৪ সাল থেকে ব্রুনাইয়ে প্রথম ধাপে শরিয়া আইনকানুনকে বাস্তবায়ন এবং প্রয়োগের ঘোষণা দেন।

আপনার মতামত লিখুন :