শান্ত ঝড়ে বাংলাদেশের দুর্দান্ত জয়



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে দুর্দান্ত জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। টসে হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ৪৫ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩১৯ রান করে আইরিশরা। জবাবে ৪৪.৩ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। টাইগারদের পক্ষে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত শতক হাঁকান শান্ত। শেষদিকে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান মুশফিকুর রহিম। এই জয়ের ফলে সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ।

আয়ারল্যান্ডের দেওয়া ৩২০ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে চাপে পড়ে বাংলাদেশ। টাইগার অধিনায়ক তামিম ইকবাল এদিন দলকে ভালো শুরু এনে দিতে ব্যর্থ হন। ইনিংসের চতুর্থ ওভারেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। ব্যাট হাতে বড় রান আসে নি লিটন-সাকিবের ব্যাট থেকেও। দলের তিন তারকা ক্রিকেটারের বিদায়ের পর ব্যাট হাতে শক্ত প্রতিরোধ গড়ে তুলেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও তাওহীদ হৃদয়। চাপ সামলে খেলতে থাকেন দারুণ সব শট। শান্ত ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির দেখা পান, হাফ সেঞ্চুরি করেন হৃদয়ও। তাদের বিদায়ে ম্যাচ কিছুটা জমে উঠলেও অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিমের ব্যাটে চড়ে শেষ অবধি দুর্দান্ত এক জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে টাইগাররা।

এর আগে, টস জিতে বোলিংয়ে নামা বাংলাদেশকে প্রথম ওভারেই সাফল্য এনে দেন হাসান মাহমুদ। প্রথম ওভারে দুর্দান্ত ডেলিভারিতে স্টার্লিংকে ফেরান তিনি। টাইগাররা নিজেদের দ্বিতীয় সাফল্য পায় হাসানের হাত ধরেই। এবার তিনি ফেরান আরেক উদ্বোধনী ব্যাটার স্টিফেন ডোহানিকে। ২১ বলে ১২ রান করা এই ব্যাটার মেহেদী মিরাজের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। এরপর হ্যারি টেক্টরের সঙ্গে শুরুর চাপ সামলে দুর্দান্ত জুটি গড়েন অধিনায়ক বালবার্নি। ১০৪ বলে তাদের ৯৮ রানের জুটি ভাঙেন শরিফুল ইসলাম।

৫৭ বলে ৪২ রান করে মুশফিকের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন আইরিশ অধিনায়ক। মাঝে লরকান টাকারকে শরিফুল ও কার্টিস ক্যাম্পারকে আউট করেন তাইজুল ইসলাম। কিন্তু তখনও ক্রিজের একপাশে ছিলেন হ্যারি টেক্টর। এক পর্যায়ে তিনি বাংলাদেশের বোলারদের তুলোধোনা শুরু করেন।

একপ্রান্ত আগলে রাখা টেক্টরকে দারুণ সঙ্গ দেন জর্জ ডকরেল। দুই ব্যাটারের ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে দিশেহারা হয়ে পড়ে টাইগার বোলাররা। তাদের দুজনের জুটিতে ৬৮ বলে আসে ১১৫ রান। অবশেষে সেটি ভাঙেন এবাদত হোসেন। ৭ চার ও ১০ ছক্কায় ১১৩ বলে ১৪০ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে তার বলে বোল্ড হন টেক্টর।

টেক্টর বিদায় হলেও রানের চাকা সচল রাখেন ডকরেল। এই ব্যাটার ৩ চার ও ৪ ছক্কার ইনিংসে ৪৭ বলে ৭৪ রান করে শেষ অবধি অপরাজিত থাকেন। বাংলাদেশের পক্ষে ৯ ওভারে ৪৮ রান দিয়ে দুই উইকেট লাভ করেন হাসান মাহমুদ দুই। এছাড়া ৮৩ রান দিয়ে দুই উইকেট পান শরিফুলও।

   

বাংলাদেশ বিশ্বকাপ জিতলে ‘মিরাকল’ হবে, বলছেন জাভেদ ওমর



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সেই ১৯৯৯ বিশ্বকাপ থেকে শুরু। এরপর থেকে বিশ্বক্রিকেটের শীর্ষ মঞ্চে বাংলাদেশ খেলেছে একে একে ৫টি বিশ্বকাপ। সঙ্গে এশিয়া কাপ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি মিলিয়ে বহুজাতিক টুর্নামেন্টে কম খেলেনি দল। তবে তার একটিতেও কখনো শিরোপার স্বাদ পায়নি বাংলাদেশ। আরও একটা বিশ্বকাপ দুয়ারে কড়া নাড়ছে। যা আগে কখনো হয়নি, তা কি এবার হবে? এ প্রসঙ্গে বর্তমান নির্বাচক, সাবেক ক্রিকেটার ও সাংবাদিকরা জানালেন তাদের মত।
২০০৭ বিশ্বকাপের এদিক ওদিকে সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ যখন বাংলাদেশের ক্রিকেটে আসেন, তখন দলটা মোটাদাগে ছিল ছোট দলই। কিন্তু শেষ দেড় দশকে সে তকমাটা মুছে গেছে, তাতে বড় অবদান আছে সাকিব-মুশফিক আর রিয়াদের। বিশেষ করে ওয়ানডে ফরম্যাটে, যে ফরম্যাটের বিশ্বকাপ শুরু হতে যাচ্ছে এই আগামী সপ্তাহেই।
এই তিনজন, সঙ্গে তামিম ইকবাল আর মাশরাফি বিন মুর্তজা একসঙ্গে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের জার্সি গায়ে নেমেছিলেন ২০০৭ সালে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইটে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। তার আগ পর্যন্ত সব ফরম্যাট মিলিয়ে ২১৮ ম্যাচের ভেতর জিতেছিল মোটে ৪০টিতে। তার ভেতর হাতে গোণা কয়েকটাই কেবল ছিল র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দলগুলোর বিপক্ষে।
তবে শেষ দেড় দশকে বাংলাদেশ প্রায় ৪০ শতাংশ মাচে জিতেছে। শীর্ষ অনেক দলের বিপক্ষে আছে অন্তত পাঁচটি করে জয়। টি-টোয়েন্টির বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ জয়ে আরও একটা বক্সে টিক দিয়েছে বাংলাদেশ, যে কোনো ফরম্যাটে সব দলের বিপক্ষে এখন অন্তত একটি করে হলেও সিরিজ জয় আছে দলের।
তবে এই সিরিজ জয়গুলো পূর্ণতা পাবে দল যদি বড় কোনো প্রতিযোগিতার শিরোপা ঘরে তোলে। যা এখনো বাংলাদেশ পারেনি। ২০১৯ বিশ্বকাপের ঠিক আগে আয়ারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজটা একপাশে রাখলে আর কোনো বহুজাতিক টুর্নামেন্টও জেতা হয়নি বাংলাদেশের। সর্বোচ্চ সাফল্যটা এশিয়া কাপ ফাইনালে খেলা। ২০১২, ২০১৬ আর ২০১৮ সালের আসরে ফাইনালে খেলে হেরেছিল সবকটিতে।
আর আইসিসি টুর্নামেন্টে দলের সর্বোচ্চ সাফল্য ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে খেলা। সেখানেও ভারতের কাছে হেরে দেশে ফিরতে হয়েছিল বাংলাদেশকে। সাফল্যের কাছে গিয়েও বারবার এমন বঞ্চনাই যেন নিয়তি।
যদিও দলটির সাবেক অধিনায়ক হাবিবুল বাশার জানালেন, এই দলটার আরও ভালো কিছুই প্রাপ্য ছিল। তিনি বলেন, ‘দল হিসেবে এই গ্রুপটার আরও বড় কিছু প্রাপ্য ছিল। এই খেলোয়াড়রা বাংলাদেশ ক্রিকেটে এমন কিছু করেছে, যা অতীতে কখনো হয়নি। তারা অনেক কিছু অর্জন করেছে, নিঃসন্দেহে। কিন্তু বড় কোনো শিরোপা এখনো জিততে পারেনি, এটা আফসোসের বিষয়।’
বাংলাদেশ বর্তমানে আছে ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের সাতে। দলের পরিস্থিতিটাও খুব একটা ভালো নয়। এবারের বিশ্বকাপেও সে খরা কাটাবে দল, তার পক্ষে বাজি ধরার লোকও একেবারেই মিলবে না এখন।
বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সেরা সাফল্য ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলা।
তবে সে সাফল্য এবার গ্রুপ পর্ব পেরোলেই পেছনে ফেলতে পারবে বাংলাদেশ, দ্বিতীয় রাউন্ডটাই যে সেমিফাইনাল! যদিও সে সম্ভাবনা ক্ষীণ বলেই মনে করেন সাংবাদিক ও ক্রিকেট বিশ্লেষক এম এম কায়সার। তার ভাষ্য, ‘বিশ্বকাপের ঠিক আগে দলের যে বিল্ড আপ আমরা দেখেছি, তাতে আমি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সম্ভাবনা নিয়ে খুব বেশি আশাবাদী হতে পারছি না।’
বিশ্বকাপের তিন মাস আগে বাংলাদেশের অধিনায়ক করা হয় সাকিব আল হাসানকে। এরপর বিশ্বকাপের ঠিক আগে সাবেক অধিনায়ক তামিম ইকবালের সঙ্গে শীতল সম্পর্কের বিষয়টি আরও স্পষ্টভাবে চলে এসেছে জনসম্মুখে। যার ফলে দলের পরিবেশটা আরও খারাপের দিকেই গিয়েছে বৈকি!
এমন পরিস্থিতি থেকেও বাংলাদেশ বিশ্বকাপটা জিতে যেতে পারে, বিশ্বাস সাবেক ওপেনার জাভেদ ওমর বেলিমের। তবে এক্ষেত্রে তিনি একটা শর্ত জুড়ে দিয়েছেন। বিশ্বকাপে ঘটাতে হবে ‘অলৌকিক’ কিছু।
তার কথা, ‘এখানে সবাই ভালো খেলোয়াড়। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আমরা তাদের সীমাটা আমরা দেখে ফেলেছি। পরের পর্যায়ে যেতে হলে, যেমন ধরুন বিশ্বকাপ জেতা… সেটা করতে হলে তাদের অসাধারণের চেয়েও বেশি ভালো খেলতে হবে, কিংবা অলৌকিক কিছু ঘটিয়ে ফেলতে হবে।’
আগামী ৭ অক্টোবর ধর্মশালায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে মাচ দিয়ে নিজেদের এবারের বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে বাংলাদেশ।

 

;

ইংল্যান্ডের বিপক্ষেও খেলবেন না সাকিব



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গতকাল প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে সাকিব আল হাসানকে পায়নি বাংলাদেশ। গোড়ালির চোটের কারণে তিনি মাঠে নামতে পারেননি। তাকে ছাড়াই অবশ্য বাংলাদেশ হেসেখেলে জিতেছে। তবে আগামী সোমবার দল নামবে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সে ম্যাচেও সাকিবকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ। 

তবে তার চোট আশঙ্কাজনক কিছু নয় আদৌ। মূলত বিশ্বকাপকে সামনে রেখে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবেই তাকে বিশ্রামে রাখছে বাংলাদেশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমাম।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচের ঠিক আগের দিন ফুটবল খেলতে গিয়ে গোড়ালিতে চোট পান সাকিব। এরপর তাকে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে দলে রাখা হয়নি। 

তবে সে চোট গুরুতর কিছু নয়, সেটা যদি হতোই, তাহলে বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরির শরণাপন্ন হতে হতো তাকে। সেটা হয়নি, তাই বিষয়টা আপাতত অত দুশ্চিন্তার নয় বলেই মনে করা হচ্ছে। 

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয়ের পর বাংলাদেশ আগামী ২ অক্টোবর নামবে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। সেই প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে দল শেষ করবে তাদের প্রাক বিশ্বকাপ পর্ব। এরপর ৭ অক্টোবর ধর্মশালায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে দলের বিশ্বকাপ মিশন।

;

প্রেমে ব্যর্থ হয়ে ব্রিজ থেকে ঝাঁপ দেয়ার চেষ্টা ফুটবলারের!



বার্তা২৪ স্পোর্টস
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রেমের মড়া জলে ডোবে না! তবে প্রবাদের এই ‘সাগর শুকিয়ে যাওয়া’য় অন্তত প্রাণটা বেঁচে গেছে অ্যালেক্সিস বেকা বেকার। প্রেমে ব্যর্থ হয়ে মনের দুঃখে ব্রিজ থেকে ঝাঁপ দিয়ে প্রাণ বিসর্জন দিতে গিয়েছিলেন, তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাঁড়াশি তৎপরতায় এই ফরাসি ফুটবলারের প্রাণ বাঁচানো গেছে।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম মার্কা জানিয়েছে, ফরাসি ক্লাব নিসে খেলা ২২ বছর বয়সী ফুটবলার অ্যালেক্সিস বেকা বেকা প্রেয়সীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ির পর আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন। সেজন্য নিসের ১০০ মিটার উঁচু মাগনান ব্রিজ থেকে ঝাঁপ দিতে চান তিনি।

তবে জরুরি সেবা সংস্থা, ফায়ার সার্ভিস এবং ঘটনাস্থলে উপস্থিত সেনাসদস্যদের প্রচেষ্টায় ব্রিজের উপর থেকে তাকে নিরাপদে নামিয়ে আনা হয়। সেখানেই ক্লাবের একজন মনোবিদ তাকে শুশ্রূষা দিচ্ছেন।

২০২২ সালে রশিয়ার ক্লাব লোকোমোটিভ মস্কো থেকে তাকে ১২ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে দলে টানে নিস। চলতি মৌসুমে এখনো ক্লাবের হয়ে মাঠে নামা হয়নি তার।

;

৩৪৫ করেও হারল পাকিস্তান



বার্তা২৪ স্পোর্টস
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পুরোপুরি ফিট না হয়েও খেল দেখালেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসন। পাকিস্তানের বিপক্ষে বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ম্যাচে খেললেন ৫০ বলে ৫৪ রানের ইনিংস। তার সঙ্গে রাচিন রবীন্দ্র, মার্ক চ্যাপম্যানদের ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে পাকিস্তানের দেয়া ৩৪৬ রানের লক্ষ্য ছুঁয়েছে কিউইরা।

শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর) হায়দরাবাদের রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। ব্যাট হাতে সে সিদ্ধান্ত যে একেবারে ভুল ছিল না তার প্রমাণ বাবর নিজেই। তিনে নেমে খেলেছেন ৮৪ বলে ৮০ রানের ইনিংস। চারে মোহাম্মদ রিজওয়ান ব্যাট হাতে ছিলেন্ আরও সপ্রতিভ। ৯৪ বলে ১০৩ রানের ইনিংস খেলে স্বেচ্ছা অবসরে যান তিনি।

বাবর-রিজওয়ানের পাশাপাশি এদিন ব্যাট হেসেছে সৌদ শাকিলেরও। ৫৩ বলে ৭৫ রানের মারকুটে ইনিংস এসেছে তার ব্যাট থেকে। তাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ৩৫৪ রান স্কোরবোর্ডে জমা করে পাকিস্তান।

জবাব দিতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই ওপেনার ডেভন কনওয়েকে হারায় নিউজিল্যান্ড। তবে অন্য ওপেনার রাচিন রবীন্দ্রের ব্যাট হয়ে ওঠে খাপখোলা তলোয়ার। পাকিস্তানি বোলারদের নাস্তানাবুদ করে ৭২ বলে ৯৭ রান করেন এই স্পিনিং অলরাউন্ডার।

এরপর উইলিয়ামসনের ৫৪, ডারিল মিচেলের ৫৯ এবং চ্যাপম্যানের ৪১ বলে হার না মানা ৬৫ রানের ইনিংসে ৩৪৫ রানের লক্ষ্যকে মামুলি বানিয়ে ফেলে নিউজিল্যান্ড। ৩৮ বল এবং ৫ উইকেট হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ব্ল্যাকক্যাপসরা।

শুক্রবার দিনের অন্য দুই প্রস্তুতি ম্যাচে মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান-দক্ষিণ আফ্রিকা। শ্রীলঙ্কাকে ৭ উইকেটে উড়িয়ে দিয়ে দাপুটে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। ওদিকে তিরুভানন্তপুরমে বৃষ্টিতে ভেসে গেছে আফগানিস্তান-দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ।

;