ঘুষ দাবি করে ক্লোজ হলেন এস আই, ওসি বলছেন রুটিন ওয়ার্ক



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম কুড়িগ্রাম
এস আই আইয়ুব আলী। ছবি : সংগৃহীত

এস আই আইয়ুব আলী। ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঘুষ চাওয়ার অভিযোগে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী থানার এস আই আই আইয়ুব আলীকে ক্লোজ করা হয়েছে। মঙ্গলবার(৩ সেপ্টেম্বর) রাতে তাকে কুড়িগ্রাম পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়।

মামলার রেকর্ড ও ওয়ান্টেভুক্ত আসামী না হলেও এক ব্যক্তিকে আটক করে থানায় এনে ছেড়ে দেয়ার জন্য এক লাখ টাকা ঘুষ দাবির অভিযোগ উঠেছে ক্লোজ হওয়া এস আই আইয়ুব আলীর বিরুদ্ধে।

ক্লোজের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রাণকৃষ্ণ দেবনাথ।

তবে ঘুষ দাবির অভিযোগে ওই এস আইকে ক্লোজ করা হয়েছে কিনা, এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘এটা রুটিন ওয়ার্ক।’

অপরদিকে ওসি(তদন্ত) নাজমুস সাকিব সজীব বলছেন, ওই এস আইকে প্রশাসনিক কারনে কুড়িগ্রাম পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। এরপর যেটা হবে সেটা উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিষয়।

কিন্তু একাধিক বিশ্বস্ত সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের ভুরিয়ারকুটি গ্রামের মৃত গমির উদ্দিনের ছেলে মজিদুল হকের (৫০) সঙ্গে একই এলাকার বছির উদ্দিনের জমি-জমা সংক্রান্ত বিষয়ে ঝগড়া হয়।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত সেপ্টেম্বর মাসের ১৯ তারিখে ফুলবাড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন বছির উদ্দিন। পরে ঘটনাটি স্থানীয় জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে মিমাংসার সিদ্ধান্ত করা হয়।

এটি জানার পরেও অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই আইয়ুব আলী বিভিন্ন সময় বিবাদীকে নানাভাবে হয়রানিসহ নগদ ছয় হাজার টাকা ঘুষ গ্রহন করেন এবং আরও মোটা অংকের টাকা দাবী করেন।

এক পর্যায়ে পুলিশের এস আই আইয়ুব আলী মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮ টায় মজিদুল হককে তার বাড়ী থেকে তুলে এনে থানার একটি কক্ষে আটক রাখেন এবং তাকে ছেড়ে দেওয়া হবে বলে তার পরিবার ও জনপ্রতিনিধি লায়লা বেগমের কাছে এক লাখ টাকা দাবী করেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

পরে বিষয়টি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম রব্বানী সরকারকে অবগত করা হলে তিনি বিষয়টি নিয়ে মঙ্গলবার রাত ৯ টার দিকে ফুলবাড়ী থানায় গিয়ে চ্যালেঞ্জ করেন।

এক পর্যায়ে অভিযুক্ত এসআই আইয়ুব আলীকে ফুলবাড়ী থানা অফিসার ইনচার্জের সামনে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি সদুত্তর দিতে পারেননি।

শিমুলবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত আসনে ইউপি সদস্য লায়লা বেগম জানান, ‘তিনি আমার নিকট থেকে ইতিপূর্বে মজিদুলের বিষয়ে মামলা হবে না এই মর্মে ছয় হাজার টাকা ঘুষ নেন। এরপর মামলার মিমাংসা এবং আটক মজিদুল হককে ছেড়ে দেয়ার কথা বলে এক লাখ টাকার দাবি করেন।’

শিমুলবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শরিফুল আলম মিয়া সোহেল জানান, ‘অবৈধভাবে আমার ইউনিয়নের মজিদুল হককে এসআই আইয়ুব থানায় এনে আটক করে রাখেন। বিষয়টি পুলিশ সুপার মহাদয়কে জানানো হলে ১৪ ঘন্টা পরে মজিদুলকে ছেড়ে দেওয়া হয় এবং রাতেই অভিযুক্ত এস আইকে ক্লোজ করা হয়।’

এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বীরমুক্তিযোদ্ধা গোলাম রব্বানী সরকার জানান, ‘ক্ষমতার অপব্যবহার করে একজন গরীব অসহায় মানুষকে থানার একটি রুমে আটক করে রাখা হয়েছে এবং আমার সঙ্গেও অসৌজন্যমূলক আচরণ করা হয়েছে। আমি বিষয়টি পুলিশ সুপারকে জানিয়েছি।’

   

মেহেরপুর-২ আসনের এমপি সাহিদুজ্জামানের সম্পদ বেড়েছে ৩ গুণ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
মেহেরপুর-২ আসনের এমপি সাহিদুজ্জামানের সম্পদ বেড়েছে ৩ গুণ

মেহেরপুর-২ আসনের এমপি সাহিদুজ্জামানের সম্পদ বেড়েছে ৩ গুণ

  • Font increase
  • Font Decrease

গেল ৫ বছরে মেহেরপুর-২ আসনের (গাংনী) সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামান খোকন এর আয় ও সম্পদ বেড়েছে কয়েকগুণ। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে (২০২৪) দেওয়া হলফনামা অনুযায়ী তার অস্থাবর সম্পদ ৫১ লাখ ৬৪ হাজার টাকার। যা ২০১৮ সালের নির্বাচনের আগের তুলনায় তিনগুণ বেশি।

একইসাথে তার বার্ষিক আয় বেড়েছে চারগুণ। তবে জমির পরিমাণের বিষয়টি হলফনামায় ধোঁয়াশা সৃষ্টি করেছে। 

২০১৮ সালের নির্বাচনের আগে তাঁর বার্ষিক আয় ছিল ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এখন তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯ লাখ ৫০ হাজার টাকায়।

২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে জয়লাভ করেন মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামান। তিনি গাংনী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন চেয়ে পাননি। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে তিনি মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। যাচাই-বাছাইয়ে তাঁর মনোনয়নপত্র বৈধতা পেয়েছে। এ নির্বাচনের হলফনামায় তার বার্ষিক আয়, অস্থাবরও অস্থাবর সম্পদের যে বিবরণী পাওয়া গেছে তা বিশ্লেষণ করে এসব তথ্য মিলেছে।

বর্তমানে মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামানের বার্ষিক আয় ৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা। এর মধ্যে কৃষি জমি থেকে ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা, ব্যবসা থেকে ২ লাখ ৮০ হাজার টাকা ও মৎস্য খাত থেকে ৫ লাখ টাকা।

২০১৮ সালের নির্বাচনের আগে তাঁর বার্ষিক আয় ছিল ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা। আয়ের খাত ছিল কৃষি জমি থেকে ৭০ হাজার টাকা এবং ব্যবসা থেকে ১ লাখ ৭০ হাজার টকা। বর্তমানে তার বার্ষিক আয় ৯ লাখ ৫০ হাজার টাকার মধ্যে কৃষিখাত থেকে ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা, ব্যবসা থেকে ২ লাখ ৮০ হাজার টাকা এবং মৎস্যখাত থেকে ৫ লাখ টাকা।

মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামানের বর্তমান অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ প্রায় ৫২ লাখ টাকার এবং ২৫ ভরি স্বর্ণ। অস্থাবর সম্পদের মধ্যে নগদ টাকা ২ লাখ, ব্যাংকে জমা ৪২ লাখ, ১টি গাড়ি যার মূল্য ৫ লাখ টাকা, গৃহস্থলির ইলেকট্রনিক্স ও আসবাবপত্র ২ লাখ টাকার।

২০১৮ সালের নির্বাচনী হলফনামায় অস্থাবর সম্পদ ১৭ লাখ ৭০ হাজার টাকার মধ্যে নগদ ছিল ২ লাখ, ব্যাংকে জমা ১৪ লাখ, গৃহস্থলির ইলেকট্রনিক্স ও আসবাবপত্র ১ লাখ ২০ হাজর টাকার এবং ১৫ ভরি স্বর্ণ ৫০ হাজার টাকার।

সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামানের স্থায়ী সম্পদের মধ্যে কৃষি জমির পরিমাণ নিয়ে ধোয়াসা সৃষ্টি হয়েছে। ২০১৮ সালের নির্বাচনের আগে তার কৃষি জমি ছিল ১০ বিঘা। অকৃষি জমি ৫ বিঘা ৫ কাঠা। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হলফনার স্থাবর সম্পদের ছককৃত ঘরে লেখা আছে ৯.৩৩। তবে তা বিঘায় না একরে তা স্পৃষ্ট করা হয়নি। যদি এটা একরে হয়ে থাকলে তাহলে জমির পরিমাণও বাড়বে কয়েকগুণ।

সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামানের স্ত্রীর সম্পদও বেড়েছে। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাঁর স্ত্রীর অস্থাবর সম্পদ ৩৭ লাখ টাকার এবং স্বর্ণ ২৫ ভরি। ২০১৮ সালের নির্বাচনের আগে স্ত্রীর অস্থাবর সম্পদ ছিল ১০ লাখ ৫০ হাজার টাকার। সে হিসেবে স্ত্রীর সম্পদ বেড়েছে প্রায় চার গুণ।

তাঁর স্ত্রীর নামে জমির পরিমাণও বেড়েছে। ২০১৮ সালের নির্বাচনের আগে জমির পরিমাণ ছিল ৭ কাঠ। এখন তার পরিমাণ কৃষি জমি ২.২৯। তবে এখানেও তা বিঘা, শতাংশ না একরে হিসেব দেওয়া হয়েছে তা উল্লেখ করা হয়নি।

এদিকে জমির পরিমাণ স্পষ্ট হওয়ার বিষয়ে এমপি সাহিদুজ্জামানের কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

;

‘যানবাহনে আগুন দেয়া কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি হতে পারে না’



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

হরতাল- অবরোধের নামে যানবাহনে আগুন দেওয়া কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি হতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।

তিনি বলেন, বিএনপিসহ সমমনা দলগুলো নয় দফায় ১৮ দিন অবরোধ আর তিনদিন হরতাল ডেকেছে। তারা অবরোধ ডেকে রাস্তায় না নেমে পালিয়ে থেকে ভাড়া করা লোকজন নিয়ে যানবাহনে অগ্নিসংযোগ করছে। এটা তো কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি হতে পারে না।

মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে দুপুরে রাজধানীর মিন্টু রোডে ডিবি কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেন, হরতাল-অবরোধ ডেকে রাস্তায় নামা রাজনৈতিক দলগুলোর গণতান্ত্রিক অধিকার। তারা তাদের সমাবেশ করবে। কিন্তু আমরা আগেও দেখেছি ২০১৪ সালে একই রকমভাবে তারা হরতাল-অবরোধ ডেকে বোম নিক্ষেপ করেছে। পুলিশের ওপর হামলা করার চেষ্টা করেছে। জনগণ কিন্তু এমন কর্মসূচিতে সারা দেয়নি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে ডিবি প্রধান বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নির্বাচন কমিশনের দিক নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করছে। পাশাপাশি আমাদের রুটিমাফিক কাজও করছি। যারা প্রতারণা করে, ডাকাতি করে, ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি তাদের গ্রেফতার আমাদের রুটিন ওয়ার্ক। পাশাপাশি সরকারের সম্পত্তি রক্ষার দায়িত্ব কিন্তু পুলিশের।

তিনি বলেন, মানুষের জানমাল নিরাপত্তা, সম্পত্তি রক্ষা করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা রাস্তায় থেকে রাতদিন কাজ করছে। উদ্দেশ্য একটাই স্বাভাবিক যান চলাচলের কেউ যেন বাধা সৃষ্টি না করে। সাধারণ মানুষ ঘর থেকে বের হবে কাজ করবে। কোন দুষ্কৃতকারী যেন হামলা করতে না পারে।

হারুন অর রশীদ বলেন, আনুপাতিক হারে বাংলাদেশ একটি ঘনবসতি দেশ। ১৮ কোটির কাছাকাছি মানুষ। সেই তুলনায় আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংখ্যা আনুপাতিক হারে অনেক কম। তারপরও প্রত্যেকটা পুলিশ সদস্য রাতদিন পরিশ্রম করছে। আমাদের ওসি থেকে শুরু করে সিনিয়র কর্মকর্তাগণ সার্বক্ষণিক মাঠে থেকে কাজ করে যাচ্ছেন।

;

তাপমাত্রা কমে ঢাকায় বৃষ্টির সম্ভাবনা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঘূর্ণিঝড় মিগজাউম আরও শক্তিশালী হয়ে উঠছে। এটি দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। এর প্রভাবে রাজধানী ঢাকা ও এর আশপাশের এলাকায় তাপমাত্রা কমে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুর ১টা থেকে পরবর্তী ৬ ঘণ্টার জন্য ঢাকা ও এর আশপাশের এলাকার জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আকাশ মেঘলা থাকতে পারে ও হালকা বৃষ্টি হতে পারে। উত্তর-উত্তর-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৫-১০ কিমি বেগে বাতাস প্রবাহিত হতে পারে। ফলে দিনের তাপমাত্রা প্রায় ১ থেকে ২ সেলসিয়াস হ্রাস পেতে পারে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় মিগজাউমের প্রভাবে রাজধানীসহ একাধিক স্থানে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি শুরু হয়েছে।
মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) ভোর রাত থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি শুরু হয়, যার প্রভাবে ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে বাইরে বের হওয়া কর্মজীবী মানুষের।

এদিন সকালে আবহাওয়া অধিদপ্তরের দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঘূর্ণিঝড় ‘মিগজাউম’ গত মধ্যরাত ৪ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১৫৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১৫১০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১৩৬০ কিলোমিটার, দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১৩৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি আরও উত্তর-উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে ৫ ডিসেম্বর ভোররাত নাগাদ নিলর ও মাসুলিপট্টমের কাছ দিয়ে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরসমূহকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় মিগজাউম বাংলাদেশে প্রভাব পড়বে না জানিয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. বজলুর রশীদ জানিয়েছেন, ৫ ডিসেম্বর ভোরে অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূলে আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় মিগজাউম। তবে বাংলাদেশে এর তেমন কোনো প্রভাব পড়বে না।

তবে এর প্রভাবে ৫ ও ৬ ডিসেম্বর দেশের উপকূলীয় এলাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টি হতে পারে। এতে তাপমাত্রা কমে আসবে। শীতের আমেজও পাওয়া যাবে।

;

বিশ্ব মানবিক মর্যাদা দিবসে দলিত সম্প্রদায়ের ৮ দফা দাবি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুড়িগ্রাম
ছবি: বার্তা ২৪

ছবি: বার্তা ২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্ব মানবিক মর্যাদা ও মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে ৫ ডিসেম্বর 'বাংলাদেশ দলিত ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠী অধিকার আন্দোলন (বিডিইআরএম)' কুড়িগ্রাম জেলা শাখার উদ্যোগে সকাল ১১ টায় কুড়িগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে ৮ দফা দাবিতে এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

কর্মসূচিতে বিভিন্ন উপজেলার রবিদাস, হরিজন ও অন্যান্য দলিত সম্প্রদায়ের শতাধিক নারী-পুরুষ অংশগ্রহণ করেন। মানববন্ধন থেকে সংগঠনের জেলা সভাপতি পরেশ রবিদাস ৮ দফা দাবি ঘোষণা করেন।

এসব দাবির মধ্যে রয়েছে জাতীয় সংসদে সাধারণ ও সংরক্ষিত আসনে দলিত জনগোষ্ঠীর সংখ্যানুপাতে প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত, জাতীয় সংসদে উত্থাপিত বৈষম্য বিরোধী বিল-২০২২ অবিলম্বে পাশ, পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের পেশাগত স্বাস্থ্যঝুঁকি সুরক্ষা, বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারি চাকুরিতে ভর্তি কোটা চালু ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ঝড়ে পড়া রোধ ও উপবৃত্তির পরিমাণ বৃদ্ধি।

মানবন্ধনে সংগঠনটির জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

;