একজন ‘রক্তযোদ্ধা’ রহিদের না বলা গল্প



এসএম জামাল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুষ্টিয়া
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বছরের পর বছর স্বেচ্ছায় মুমূর্ষু রোগীদের নিয়মিত রক্ত দান করে মানবতার সেবায় এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন কুষ্টিয়ার সাদিক হাসান রহিদ। এ পর্যন্ত প্রায় ৫ হাজার ব্যাগ রক্ত দিয়ে মুমূর্ষু রোগীকে বাঁচিয়ে তোলার কাজে এগিয়ে এসেছেন। এখানেই তিনি থেমে থাকেননি। এলাকার বন্ধু বান্ধবকে সাথে নিয়ে প্রতিষ্ঠা করেছেন “স্বপ্ন প্রয়াস যুব সংস্থা” নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। কুষ্টিয়াসহ বিভিন্ন জেলার মানুষ বিনামূল্যে রক্ত পাচ্ছেন এখান থেকে।

সাদিক হাসান রহিদ একজন রক্তযোদ্ধা। নিয়মিত রক্তদাতা। রক্ত প্রয়োজন, এমন কথা শুনলে সে অস্থির হয়ে যায় রক্ত সংগ্রহ করে দিতে। ছোট বেলায় বন্ধুদের নিয়ে সাইকেল নিয়ে ঘুরতে ভালোবাসতেন। এখন মোটরসাইকেলে ঘুরে বেড়ান সে। পরিবারের খুব পরিশ্রমী ছেলে। বাবা মারা যাওয়ায় নানী এবং মামার কাছেই মানুষ। বিভিন্নভাবে দক্ষতা ও সফলতা দেখিয়েছেন। মিষ্টভাষী ও ভদ্র। নিজ এলাকায় তাকে সবাই খুব পছন্দ করে। অন্যকে সাহায্য করতে কখনো দ্বিতীয়বার চিন্তা করেন না এই সাদিক হাসান রহিদ।

মানুষের রক্ত লাল। এই লাল ভালোবাসায় বিলিয়ে শান্তি পান সাদিক হাসান রহিদ।

কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়া ১৬ নং মুন্সী লেন সড়কের মৃত বাদশা মন্ডলের ছেলে সাদিক হাসান রহিদ। এখনও সে শিক্ষার্থী। পড়াশোনার পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠনও পরিচালনা করেন তিনি। কলকাকলি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করে কুষ্টিয়া ইনিস্টিটিউট অফ সাইন্স এন্ড টেকনোলজিতে টেক্সটাইল ৬ষ্ঠ পর্বে পড়ালেখা করছে সে। স্বপ্ন প্রয়াস যুব সংস্থা নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।


সে জরুরি প্রয়োজনে অসুস্থ ব্যক্তির রক্তের প্রয়োজন পড়লে তা সংগ্রহ করে দেয়ার চেষ্টা করেন। তিনি নিয়মিত একটি ডায়েরি সংরক্ষণ করেন। তার অধীনে শতাধিক শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন বয়সী মানুষ রয়েছে তার সংগঠনে।

সেখানে নিকটাত্মীয়-স্বজন, বন্ধু এমনকি পরিচিতজনদের রক্তের গ্রুপ মোবাইল নম্বরসহ অসংখ্য ব্যক্তির নাম রয়েছে। কারও জরুরি প্রয়োজনে রক্ত লাগলে রহিদের সঙ্গে মোবাইলে অথবা সরাসরি যোগাযোগ করেন। রহিদ তাৎক্ষণিক ওই ব্যক্তিকে কোনো টাকা ছাড়াই রক্ত সংগ্রহ করে দেন।

সাদিক হাসান রহিদ জানান, মানুষ যখন খুব বিপদে পড়ে তখন অন্যকারও শরণাপন্ন হয়। বিশেষ করে যখন রক্তের প্রয়োজন হয় তখন মানুষ দিশাহারা হয়ে ওঠে। কোথায় পাবে, কীভাবে পাবে, কার সঙ্গে যোগাযোগ করলে রক্ত পাওয়া যাবে? সেই চিন্তা যেন তখন আকাশ সমান হয়ে দাঁড়ায়।

এরই মধ্যে একটা অন্যরকম অনুভূতি হয় তখন, যখন কারও বিপদে পাশে দাঁড়াতে পারি। রক্তের পোস্ট বা মেসেজ পেলেই সাধ্যমতো চেষ্টা করি রক্ত জোগাড় করার জন্য। যখন রক্ত জোগাড় করে দিই তখন রক্ত গ্রহীতা ও তার আত্মীয়-স্বজনের হাসিমুখ দেখতে পাই। তখনকার অনুভূতি বোঝানোর মতো নয়। রক্ত জোগাড় করে দিলে মনে প্রশান্তি কাজ করে। কারও মুখে হাসি ফোঁটাতে পারার আনন্দ আসলেই অন্যরকম।

তিনি বলেন, প্রায় ৪ বছর ধরে অসুস্থ মানুষকে রক্ত সংগ্রহ করে দেয়ার এ কাজটি করে যাচ্ছি। এ পর্যন্ত প্রায় ৫ হাজার মানুষকে কোনো টাকা ছাড়াই রক্ত সংগ্রহ করে দিয়েছি। আমি নিজেই তিরিশ বার রক্ত দিয়েছি। মঙ্গলবার সারাদিনে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ৬ জন রোগীর জন্য ৬ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করে দিয়েছি।

তিনি আরও জানান, বিভিন্ন সময় অসুস্থ মানুষের রক্তের প্রয়োজন পড়ে। কোনো ব্যক্তি রক্তের প্রয়োজন জানালে বন্ধু, পরিচিতজন, নিকটাত্মীয়দের কাছে রক্তদানের জন্য অনুরোধে করি। সে ব্যক্তি সম্মতি হলে অসুস্থ ব্যক্তিকে রক্তদান করা হয়।


শামীম রানা জানান, রহিদ দীর্ঘ দিন ধরে মানুষকে বিনা টাকায় রক্ত দিয়ে সহযোগিতা করেন। তার এ কাজে আমরাও সহযোগিতার চেষ্টা করি।

সাংবাদিক এসএম জামাল জানান, রক্তদান স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। সাদিক হাসান রহিদ অনেক মানুষকে রক্ত সংগ্রহ করে দেন। এতে অনেক মানুষ উপকৃত হয়।

পরিবেশ ও পাখি নিয়ে কাজ করা সংগঠন মানুষ মানুষের জন্য সংগঠনের সভাপতি শাহাবুদ্দিন মিলন জানান, আমরা অনেক সময় দেখি হাসপাতালে অনেক মুমূর্ষু গরিব রোগীর রক্তের প্রয়োজন হয়। ওই সময় সাদিক হাসান রহিদকে জানানো মাত্র বিভিন্ন জায়গায় ফোন দিয়ে যোগাযোগ করে রক্ত সংগ্রহ করে দেন। এটি খুবই ভালো কাজ। রহিদের এই কাজ সত্যিই প্রশংসার দাবিদার।

তার সংগঠনের সকল কর্মকাণ্ড অংশগ্রহণ করেন। রহিদ তার সংগঠনের সাহায্যে অনেক মানুষের ফ্রিতে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করে দিয়েছেন। বিভিন্ন দিবস উদযাপন উপলক্ষে রহিদ ও তার বন্ধুরা মিলে ফ্রি রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করান।

রহিদ একজন প্রকৃত দেশপ্রেমিক। সব জাতীয় দিবস পালন করেন। সব স্বেচ্ছাসেবী কাজ করেন। বিভিন্নভাবে সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী কাজে যুক্ত।

রহিদ নিয়মিত তিন মাস পরপর রক্ত দান করেন। স্বপ্ন দেখে সুন্দর, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন এবং রক্তের কোন‌ অভাব থাকবে না বাংলাদেশে। সবাই রক্ত দানে উৎসাহিত হবে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া উপনির্বাচনে কেন্দ্রে পৌঁছেছে নির্বাচনী সামগ্রী



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ব্রাহ্মণবাড়িয়া উপনির্বাচনে কেন্দ্রে পৌঁছেছে নির্বাচনী সামগ্রী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া উপনির্বাচনে কেন্দ্রে পৌঁছেছে নির্বাচনী সামগ্রী

  • Font increase
  • Font Decrease

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) উপনির্বাচনের সকল প্রস্তুতি শেষ করে ইভিএম মেশিনসহ সকল নির্বাচনী মালামাল কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) সকাল থেকে প্রিজাইডিং কর্মকর্তাদের মাধ্যমে পাঠানো শুরু করে সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তারা। জেলার আশুগঞ্জ ও সরাইল উপজেলা পরিষদ থেকে এই মালামাল বিতরণ করা হয়।

আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা অরবিন্দ বিশ্বাস বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) উপ নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি শেষ করে ইভিএম মেশিনসহ সকল নির্বাচনী মালামাল কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। প্রিজাইডিং অফিসাররা এই মালামাল গ্রহণ করে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছেছে। ইতোমধ্যে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের জন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলা ও আশুগঞ্জ উপজেলার ১৭ টি ইউনিয়ন নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসন গঠিত। এর মধ্যে সরাইল উপজেলায় ৯ ইউনিয়ন ও আশুগঞ্জ উপজেলায় রয়েছে ৮ ইউনিয়ন। নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৭৩ হাজার ৩১৩ জন। এর মধ্যে সরাইল উপজেলায় ২ লাখ ৪১ হাজার ৭৯টি এবং আশুগঞ্জ উপজেলার মোট ভোটার ১ লাখ ৩২ হাজার। উপ নির্বাচনে মোট কেন্দ্র ১৩২টি। এর মধ্যে সরাইল উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ৮৪টি ও আশুগঞ্জ উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের ৪৮টি ভোট কেন্দ্র করা হয়েছে।

এদিকে সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে উপনির্বাচন করার লক্ষ্যে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে প্রশাসন। নির্বাচনে সংসদীয় আসনে অফিসারসহ ১ হাজার ১শ পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়াও থাকবে দুই প্লাটুন বিজিবি সদস্য, র‌্যাবের ৯টি টিম, পুলিশের ৯টি মোবাইল টিম ও ৪টি স্ট্রাইকিং টিম। প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করবে ৩ জন পুলিশ, অস্ত্রধারী ২ জন আনসার, লাঠিধারী ১০ জন আনসার ও ২ জন গ্রাম পুলিশ। উপনির্বাচনে ১৭টি ইউনিয়নে ১৭ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ২ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন।

এ ব্যাপারে জেলা নির্বাচন অফিসার ও উপ নির্বাচনে সহকারী রিটার্নিং অফিসার জিল্লুর রহমান বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। বুধবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার মো. শাখাওয়াত হোসেন বলেন, উপনির্বাচন উপলক্ষে আমরা ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা সহ্য করা হবে না। কেউ বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নির্বাচনে অফিসারসহ ১ হাজার ১শ পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়াও থাকবে বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশের একাধিক মোবাইল ও স্ট্রাইকিং ফোর্স। উপনির্বাচনে ১৭টি ইউনিয়নে ১৭ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ২ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন।

;

ফরিদপুরে ফসলি জমির মাটি বিক্রি, ২ জনের কারাদণ্ড



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ফরিদপুর
ফরিদপুরে ফসলি জমির মাটি বিক্রি: ২ জনের কারাদণ্ড

ফরিদপুরে ফসলি জমির মাটি বিক্রি: ২ জনের কারাদণ্ড

  • Font increase
  • Font Decrease

ফরিদপুরের নগরকান্দায় অননুমোদিতভাবে ফসলি জমির মাটি কেটে ইটভাটায় বিক্রির অপরাধে অভিযুক্ত দুই ব্যক্তিকে দশ দিনের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার (৩০ জানুয়ারি) বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজেলার ডাঙ্গী ইউনিয়নের বিলগোবিন্দপুর গ্রামে অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মঈনুল হক।

দণ্ডপ্রাপ্ত দুই ব্যক্তি হলেন- পার্শ্ববর্তী সদরপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামের মোঃ ইসলাম শেখ (২৪) ও অপরজন একই এলাকার কামরুল হাসান (২২)।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, অননুমোদিতভাবে কৃষিজমির মাটি কেটে ইট ভাটায় বিক্রির অপরাধে ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৩ মোতাবেক দুইজনকে দশ দিন করে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

এ ব্যাপারে নগরকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মঈনুল হক জানান, ‘ফসলি জমি নষ্ট করে অননুমোদিতভাবে মাটি বিক্রির বিরুদ্ধে এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

;

দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় ১২তম বাংলাদেশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশে দুর্নীতি বেড়েছে। বিশ্বের সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশ এখন ১২তম অবস্থানে রয়েছে।

মঙ্গলবার এ তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক এ তালিকা বাংলাদেশে প্রকাশ করে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের বাংলাদেশ (টিআইবি)।

এতে বলা হয়েছে, আগের বছর বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১৩তম। মানে এক ধাপ অবনমন হয়েছে। দুর্নীতির ধারনাসূচক ২০২২-এ এ তথ্য উঠে এসেছে।

এর আগে দুর্নীতির ধারণা সূচক (সিপিআই)-২০২১ অনুসারে বাংলাদেশের স্কোর ছিল ২৬। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের এক ধাপ এগিয়ে ১২তম অবস্থান থেকে ১৩তম অবস্থানে এসেছিল।

আর তালিকায় উপরের দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১৪৭তম। অবশ্য দুর্নীতির এই সূচকে বা স্কোরের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের কোনো অগ্রগতি হয়নি৷ এর আগের বছরের মতো একই স্কোর ছিল৷ চার বছর ধরেই একই স্কোর রয়েছে।

১৯৯৫ সাল থেকে বেসরকারি সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল দ্বারা প্রতি বছর এই সূচক প্রকাশ করা হয়।

 

;

সিরাজগঞ্জে পিকআপ চাপায় গৃহবধূ নিহত



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সিরাজগঞ্জ
সিরাজগঞ্জে পিকআপ চাপায় গৃহবধূ নিহত

সিরাজগঞ্জে পিকআপ চাপায় গৃহবধূ নিহত

  • Font increase
  • Font Decrease

গরু চুরিতে বাধা দেওয়ায় সিরাজগঞ্জের সয়দাবাদ ইউপিতে পিকআপ নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিল চোরের দল। টের পেয়ে বাড়ির গৃহবধূ ও তার ছেলে পিকআপের সামনে দাঁড়ায়। এসময় তাদের চাপা দিয়ে পালিয়ে যায় চোরেরা। এতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় গৃহবধূ সেলিনা খাতুনের (৪৫) এবং গুরুতর আহত হন তার ছেলে জুবায়ের (২২)।

মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) ভোর রাতে সদর উপজেলার সয়দাবাদ ইউনিয়নের পঞ্চসারটিয়ার চরে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে পালিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশের গাড়ি দেখে পিকআপ ও চুরি করা গরু রেখেই পালিয়ে যায় চোরের দল। নিহত সেলিনা খাতুন ওই গ্রামের আমির চাঁনের স্ত্রী। আহত জুবায়ের তাদের ছেলে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ুন কবির জানান, ভোর রাতে পঞ্চ সারটিয়ার আমির চাঁনের বাড়িতে গরু চুরি করতে যায় চোরের দল। গোয়াল থেকে গরু খুলে পিকআপে তোলার পর বাড়ির গৃহবধূ সেলিনা খাতুন ও তার ছেলে জুবায়ের টের পেয়ে বাইরে বেরিয়ে আসেন। তারা পিকআপের সামনে দাঁড়িয়ে চোর চোর বলে চিৎকার করতে থাকেন এবং থানায় ফোন করে পুলিশে খবর দেন। এ সময় পিকআপটি তাদের চাপা দিয়ে গরু দুটিসহ পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান সেলিনা খাতুন। তার ছেলে জুবায়ের আহত হয়েছেন।

এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাওয়ার সময় চর সারটিয়া এলাকায় পুলিশের গাড়ির সামনে পড়ে চোরদের পিকআপ। এ সময় তারা গরু ও পিকআপ রেখে পালিয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, পিকআপটি জব্দ করে চুরি যাওয়া গরু উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

;