রাজশাহীতে আবারও ছড়াচ্ছে করোনা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজশাহী
রাজশাহীতে আবারও ছড়াচ্ছে করোনা

রাজশাহীতে আবারও ছড়াচ্ছে করোনা

  • Font increase
  • Font Decrease

 

রাজশাহীতে আবার করোনার সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। সবশেষ শনিবার রাজশাহীতে ৭২টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সংক্রমণের হার ২০ দশমিক ৮৩ শতাংশ। গত এক সপ্তাহ ধরেই রাজশাহীতে করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছে।

এরমধ্যে গত বৃহস্পতিবার নমুনা পরীক্ষায় এ জেলায় সংক্রমণের হার উঠে যায় ২৯ শতাংশে। এতে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে চিকিৎসা সংশ্লিষ্টদের মাঝে। তবে সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা তেমন দেখা যাচ্ছে না। এখনও মাস্ক ছাড়াই চলাচল করছেন মানুষ। মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ভাইরোলজি বিভাগের আরটি-পিসিআর ল্যাবের তথ্য অনুযায়ী, গত বৃহস্পতিবার রাজশাহীর ৬৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে ১৮ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় সংক্রমণের হার ২৮ দশমিক ৫৭ শতাংশ। আর শুক্রবার জেলার ৭২টি নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ হয়েছে ১৫টি। সংক্রমণের হার ২০ দশমিক ৮৩ শতাংশ। শনিবার ৭২টি নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছেন ১৫ জন। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় এ দিন সংক্রমণের হার ২০ দশমিক ৮৩ শতাংশ।

করোনার ডেলটা ধরনের সংক্রমণের সময় রাজশাহীতে প্রচুর মানুষ আক্রান্ত হন। অমিক্রন ধরনের সময়ও একই অবস্থা দেখা যায়। এরপর ধীরে ধীরে সংক্রমণের হার শূন্যে নেমে আসে। তাই বন্ধ করে দেওয়া হয় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিট। বন্ধ হয় করোনা রোগীদের জন্য নির্ধারিত নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রও (আইসিইউ)। কিন্তু জুনের প্রথম থেকেই দু’একজন করে আবার রোগী শনাক্ত হতে শুরু করেছে। এক সপ্তাহ ধরে বাড়ছে রোগী।

কিন্তু মানুষের মাঝে সচেতনতার কিছুই দেখা যাচ্ছে না। শহর ঘুরে দেখা গেছে, হাতে গোনা দু’একজন মানুষ ছাড়া কেউই এখন আর মাস্ক পরছেন না। সাধারণ মানুষ তো বটেই, সরকারি কর্মকর্তাদেরও বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দেখা যাচ্ছে মাস্ক ছাড়াই। ঘন ঘন হাত ধোয়া কিংবা হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের অভ্যাসও ভুলে গেছেন বেশিরভাগ মানুষ।

রামেক হাসপাতালের আইসিইউ-এর ইনচার্জ ডা. আবু হেনা মোস্তফা কামাল বলেন, ‘কয়দিন হলো আমার মোবাইলটা বেশি বাজতে শুরু করেছে। মানে হচ্ছে আবার শুরু হয়ে গেছে। এবার কোথায় গিয়ে থামবে কে জানে! সরকারিভাবে কী পদক্ষেপ নিলো সেটা না ভেবে নিজের এবং প্রিয়জনের জীবন বাঁচানোর জন্য এখনই সবার সাবধান হয়ে যাওয়া উচিত।’

তিনি বলেন, ‘কয়দিন আগেই ভারতে সংক্রমণের হার ছিল ৪৫ শতাংশ। এটা ছিল আমাদের জন্য অশনি সংকতে। তাই যাঁরা এখনও তিন ডোজ টিকা গ্রহণ করেননি, তাদের দেরি করার কোন সুযোগ নেই। মাস্ক পরতে হবে। হাত ধোয়ার অভ্যাসটা আবার গড়ে তুলতে হবে। অবিলম্বে সকল প্রকার জনসমাগম পরিহার করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে।’

রাজশাহীর সিভিল সার্জন ডা. আবু সাইদ মো. ফারুক বলেন, ‘করোনা আবার বাড়ছে। এখনও আমরা টিকাদানে জোর দিচ্ছি। যারা টিকা নেননি, তারা যেন দ্রুত তিন ডোজই নেন আমরা সে আহ্বান জানাচ্ছি। রোগী বেড়ে গেলে হাসপাতালও আবার প্রস্তুত হবে। তবে মানুষকেও সচেতন হতে হবে।’

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বলেন, ‘মানুষের মাঝে সচেতনতা কম। যারা টিকা নিয়েছেন এবং শারীরীকভাবে সুস্থ তারা এবার আক্রান্ত হলেও খুব একটা সমস্যা হবে না। তারা বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিলেই হবে। কিন্তু আগে থেকেই যারা জটিল রোগে আক্রান্ত তাদের সমস্যা হবে। এখনও পর্যন্ত হাসপাতালে রোগী আসেনি। তবে যদি আসেও তার জন্য আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি। প্রথমে তিনটি ওয়ার্ডে রোগী রাখার চিন্তাভাবনা আছে। তখন ওয়ার্ডগুলোর রোগীদের অন্যখানে সরানো হবে।’

নৌযানে ভাড়া সমন্বয়ে আট প্রস্তাব ওয়ার্কিং কমিটির



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জ্বালানি তেলের দাম পুনর্নির্ধারণের পরিপ্রেক্ষিতে নৌযানে যাত্রী ভাড়া সমন্বয়ের লক্ষ্যে আটটি প্রস্তাব দিয়েছে ওয়ার্কিং কমিটি। কমিটি ১৯, ২২, ২৫, ৩০, ৩৫, ৪০, ৪২ অথবা ৫০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর জন্য সরকারের কাছে প্রস্তাব দিয়েছে।

সোমবার (৮ আগস্ট) রাতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম খান সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে, দুপুরে সাত সদস্যের ওয়ার্কিং কমিটি গঠন করেন নৌ পরিবহন সচিব মো. মোস্তফা কামাল।

এর আগে, নৌপরিবহন সচিব জানিয়েছিলেন, মালিকদের প্রস্তাবিত ভাড়ার হার বেশি। এজন্য কমিটি করা হয়েছে। কেউ যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেজন্য কাজ করবে ওয়ার্কিং গ্রুপ। আজ কমিটি পুনরায় বসবে। যা ১০ তারিখের মধ্যে গেজেট প্রকাশ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রজ্ঞাপন হওয়ার আগ পর্যন্ত আগের ভাড়াতেই লঞ্চে যাত্রী পরিবহন করবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-চলাচল (যাত্রী পরিবহন) সংস্থার পক্ষ থেকে লঞ্চ ভাড়া ১০০ ভাগ বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রস্তাবনা নিয়ে মালিক সমিতির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে।

প্রস্তাবে বলা হয়েছে, সরকার কর্তৃক জ্বালানি তেলের (ডিজেল) মূল্য লিটার প্রতি ৩৪ টাকা বৃদ্ধি করায় এবং বিশ্ববাজারে ডলারের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় বাংলাদেশের খোলা বাজারে মবিলের মূল্য ৫০ শতাংশ, প্লেট, এঙ্গেল, ইঞ্জিনের খুচরা যন্ত্রাংশ, ওয়েল্ডিং রড ও গ্যাস সহ স্প্রে পার্সের মূল্য প্রায় ২০০ গুণ বৃদ্ধি পাওয়ায় লঞ্চের বর্তমান যাত্রীভাড়া ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত দূরত্বের জন্য প্রতি কিলোমিটার ২.৩০ টাকার স্থলে ২.৩০ টাকা বৃদ্ধি করে ৪.৬০ টাকা এবং ১০০ কিলোমিটারের ঊর্ধ্বে প্রতি কিলোমিটার দূরত্বের জন্য বর্তমান ২.০০ টাকার স্থলে ২.০০ টাকা বৃদ্ধি করে ৪.০০ টাকা নির্ধারণ করা।

;

অসুবিধা না হলে আইজিপি যুক্তরাষ্ট্রে যেতে পারবেন: পররাষ্ট্রসচিব



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন

পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন

  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিতব্য পুলিশ প্রধানদের সম্মেলনে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে জাতিসংঘ। মার্কিন নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও বেনজীর আহমেদ নিউইয়র্কের এই সম্মেলনে যেতে পারবেন কি-না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, কোনো রকম অসুবিধা না হলে আইজিপি সম্মেলনে অংশ নিতে পারবেন।

সোমবার (৮ আগস্ট) রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে ঢাকা সফররত মার্কিন আন্তর্জাতিক সংস্থাবিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী মিশেল জে সিসনের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি।

পররাষ্ট্রসচিব বলেন, এ রকম জাতিসংঘের মিটিংয়ে যেতে গেলে একটি কনভেশন আছে। তবে অতীতে আমরা এ নিয়মের ব্যতিক্রমও দেখেছি। আগে থেকে বলা মুশকিল।

আইজিপি যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, এ বিষয়ে আমরা এখনও যোগাযোগ করিনি। তবে সামনের দিনগুলোতে যোগাযোগ করব।

গত ৪ আগস্ট স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে বলা হয়েছে, ওই সম্মেলনে অংশ নেবেন বেনজীর আহমেদসহ ৬ সদস্যের প্রতিনিধি দল। আগামী ৩১ আগস্ট থেকে ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ সম্মেলন হবে। ৩০ আগস্ট তাদের ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের নেতৃত্বে ৬ সদস্যের এই দলে আরও রয়েছেন- স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের যুগ্ম সচিব আবু হেনা মোস্তফা জামান, মন্ত্রীর একান্ত সচিব (উপসচিব) মু. আসাদুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত ডিআইজি) নাশিয়ান ওয়াজেদ ও সহকারী পুলিশ মহাপরিদর্শক (এআইজি) মোহাম্মদ মাসুদ আলম।

উল্লেখ্য, গত বছরের ডিসেম্বরে র‍্যাবের সাবেক মহাপরিচালক (ডিজি) ও বর্তমান আইজিপি বেনজীর আহমেদসহ ৭ কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় মার্কিন পররাষ্ট্র ও রাজস্ব বিভাগ।

;

ঘাঘটে ভেসে যাচ্ছিল বৃদ্ধের মরদেহ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
ঘাঘটে ভেসে যাচ্ছিল বৃদ্ধের মরদেহ

ঘাঘটে ভেসে যাচ্ছিল বৃদ্ধের মরদেহ

  • Font increase
  • Font Decrease

 

রংপুরের পীরগাছায় ঘাঘট নদী থেকে খবির উদ্দিন(৮০) নামে এক বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন ছিলেন বলে দাবি করেছে পরিবারের লোকজন।

সোমবার(৮ আগস্ট) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন পীরগাছা থানার ওসি মাসুমুর রহমান। এর আগে দুপুরে উপজেলার কৈকুড়ী ইউনিয়নের মকসুদ খাঁ গ্রামে ঘাঘট নদীর মান্নানের ঘাট এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়

নিহত খবির উদ্দিন পার্শ্ববর্তী মিঠাপুকুর উপজেলার জারুল্যাপুর সর্দারপাড়া গ্রামের মৃত বাসারত উল্ল্যার ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সকালে ঘাঘট নদীতে স্রোতে ভেসে যাচ্ছিল এক ব্যক্তির মরদেহ । এ সময় মরদেহটি মান্নানের ঘাট এলাকায় নদীর কিনারায় ভিড়িয়ে নেয় স্থানীয়রা। পরে তারা ৯৯৯ এ ফোন করে বিষয়টি জানালে দুপুরে অজ্ঞাত পরিচয়ের মরদেহটি উদ্ধার করে পীরগাছা থানা পুলিশ।  বিষয়টি জানাজানি হলে বিকেলে নিহতের ছেলে থানায় এসে পরিচয় সনাক্ত করেন।

নিহতের ছেলে রফিকুল ইসলাম বলেন, আমার বাবা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। সকালেও পাশের বাড়ির লোকজনের সঙ্গে গল্পে মেতেছিলেন। কখন ঘাঘট নদীতে গেছেন আমরা বুঝতে পারিনি।

পীরগাছা থানার ওসি মাসুমুর রহমান বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

;

সখীপুরে জমি নিয়ে সংঘর্ষে ছোট ভাই খুন, পাঁচজন আটক



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, টাঙ্গাইল
সখীপুরে জমি নিয়ে সংঘর্ষে ছোট ভাই খুন, পাঁচজন আটক

সখীপুরে জমি নিয়ে সংঘর্ষে ছোট ভাই খুন, পাঁচজন আটক

  • Font increase
  • Font Decrease

টাঙ্গাইলের সখীপুরে জমি নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে মারামারির ঘটনায় ছোট ভাই ফালু মিয়ার (৬০) খুন হয়েছে।

সোমবার(০৮ আগস্ট) সকালে উপজেলার কামালিয়াচালা মধ্যে পাড়ায় এ সংঘর্ষ ঘটেছে। এ সময় ফালু মিয়ার স্ত্রী আজিবন (৫০), ছেলে রিপন মিয়া (২৮), প্রতিবেশী মুঙ্গল আলী (৫২) ও তার স্ত্রী হালিমা আক্তার (৩৮) আহত হয়ে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছে।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বড় ভাই বাবর আলী (৬৫) ও ছেলে নাজিম (৩৮) সখীপুর থানায় উল্টো ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা করতে আসলে রোকেয়া (২৭), রহিম (৪০) ও তাহেরা (৪০)সহ পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানিয়ে খুন হওয়ার বিষয়ে মামলা দেয়ার প্রস্তুতি চলছে বলে জানায় পুলিশ।

এলাকাবাসী জানায়, ক্রয়কৃত জমিতে কাটা তারের বেড়া দিয়ে ফালু ও তার ছোট ভাই টিপু বাড়ি নির্মান করে। সেই জমির কাটা তার ভেঙ্গে বড় ভাই বাবর আলী ও তার ছেলে নাজিম ২০/২৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ চক্র নিয়ে জমি দখলের চেষ্টা চালায়। এ সময় বাঁধা দিতে গেলে সংবদ্ধ চক্রের দা, শাবলের আঘাতে ছোট ভাই ফালু মিয়া গুরুতর আহত হয়। তাকে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার সময় মারা যায়। এ সংঘর্ষে ফালুর মিয়া স্ত্রীর আজিবন নেছার হাত ভেঙ্গে যায়, তার ছেলে রিপনের মাথা ফেটে যায়। এ সময় প্রতিবেশী মুঙ্গল আলী ও তার স্ত্রী হালিমা গুরুতর আহত হয়ে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সখীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে।

;