সিনেটর বব মেনেনডেজের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
বব মেনেনডেজ। ছবি : সংগৃহীত

বব মেনেনডেজ। ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় সিনেটর বব মেনেনডেজ এবং তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বলে জানিয়েছে আল-জাজিরা।

ওই দুজনের বিরুদ্ধে মিশরকে সুবিধা পাইয়ে দিতে বৈদেশিক নীতিকে প্রভাবিত করাসহ বিভিন্ন দুর্নীতিমূলক কাজের মাধ্যমে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ তুলেছেন প্রসিকিউটররা।

ম্যানহাটনের অ্যাটর্নি অফিস শুক্রবার (২২ সেপ্টেম্বর) মেনেনডেজ এবং তার স্ত্রী নাদিনের বিরুদ্ধে নিউ জার্সির তিন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে মোটা অঙ্কের ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ করেছে।

ম্যানহাটনের অ্যাটর্নি অফিস তাদের অভিযোগে বলেছে, ‘ওই ঘুষের মধ্যে নগদ অর্থ, স্বর্ণ, একটি বাড়ির বন্ধকের জন্য অর্থপ্রদান, একটি কাজের জন্য ক্ষতিপূরণ, একটি বিলাসবহুল যানবাহন এবং অন্যান্য মূল্যবান জিনিস অন্তর্ভুক্ত ছিল।’

প্রসিকিউটররা বলেন, ওই সিনেটর দম্পতির বাড়িতে তল্লাশি করে সোনার বার এবং লুকানো নগদ ৪ লাখ ৮০ হাজার মার্কিন ডলার পাওয়া গেছে।

ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে মেনেনডেজ এবং তার স্ত্রী তিনটি ফৌজদারি মামলার মুখোমুখি হয়েছেন। সেগুলো হলো, ঘুষ নেওয়ার ষড়যন্ত্র, পরিষেবা জালিয়াতির ষড়যন্ত্র এবং সরকারি অধিকারের আড়ালে চাঁদাবাজি।

অভিযোগগুলো প্রকাশ্যে আসার পরে এক বিবৃতিতে, মেনেনডেজ বলেছেন, তিনি মিথ্যা এবং অপপ্রচারের শিকার।

তিনি প্রসিকিউটরদেরকে তার এবং তার স্ত্রী সম্পর্কে মিথ্যা দাবির জন্য অভিযুক্ত করে বলেন, বিরোধীরা প্রথম প্রজন্মের ল্যাটিনো আমেরিকান, যারা মার্কিন আইনসভায় সততার সঙ্গে কাজ করতে পারাটা মেনে নিতে পারে না।

তিনি এক বিবৃতিতে বলেন, ‘অভিযোগকারীরা কংগ্রেসনাল অফিসের স্বাভাবিক কাজকে ভুলভাবে উপস্থাপন করেছে। এ ছাড়াও, তারা শুধুমাত্র আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা দাবি করে সন্তুষ্ট নয়, তারা আমার স্ত্রীকেও আক্রমণ করেছে।’

প্রভাবশালী ইউএস সিনেট কমিটির পররাষ্ট্র সম্পর্ক বিষয়ক প্রধান ৬৯ বছর বয়সি সিনেটর মেনেনডেজের বিরুদ্ধে এর আগেও নিউ জার্সিতে সরকারি সুবিধার বিনিময়ে একজন ধনী পৃষ্ঠপোষকের কাছ থেকে ব্যক্তিগত ফ্লাইট, প্রচারাভিযানে অবদান এবং অন্যান্য ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ উঠেছিল।

২০০৬ সাল থেকে মার্কিন সিনেটে থাকা মেনেনডেজ যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম সিনেটর হিসেবে দেখা হচ্ছে, যাকে দুটি ফৌজদারি অপরাধমূলক অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

মেনেনডেজ প্রথম প্রকাশ্যে জানিয়েছিলেন যে, তিনি গত অক্টোবরে একটি নতুন ফেডারেল তদন্তের মুখোমুখি হয়েছিলেন।

ঘুষের অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রসিকিউটররা মেনেনডেজের নিউ জার্সির বাড়ি, একটি মার্সিডিজ বেঞ্জ, নগদ প্রায় ৫ লাখ ৬৬ হাজার মার্কিন ডলার, স্বর্ণের বার এবং ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে থাকা অর্থ বাজেয়াপ্ত করার চেষ্টা করছেন৷

ব্যবসায়ী ওয়ায়েল হানা, হোসে উরিবে এবং ফ্রেড ডাইবসকেও ঘুষ প্রদানের অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

প্রসিকিউটররা বলেন, হানা, যিনি মূলত মিশর থেকে ২০১৮ সালে মেনেনডেজ এবং মিশরীয় কর্মকর্তাদের মধ্যে নৈশভোজ এবং বৈঠকের ব্যবস্থা করেছিলেন। ওই বৈঠকে মিশরের কর্মকর্তারা মার্কিন সামরিক সহায়তার অবস্থা সম্পর্কে জানতে সিনেটরকে চাপ দিয়েছিলেন।

মিশর ওই সময় মার্কিন সামরিক সাহায্যের বৃহত্তম প্রাপকদের মধ্যে একটি ছিল। কিন্তু, স্টেট ডিপার্টমেন্ট ২০১৭ সালে দেশটিতে মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং গণতন্ত্রের উন্নতি না করা পর্যন্ত ওই সাহায্য বাতিল করে।

প্রসিকিউটররা বলেন, ২০১৮ সালে একটি সভায় মেনেনডেজ হানাকে সাহায্যের অবস্থা সম্পর্কে অপ্রকাশ্য তথ্য জানান। তারপরে হানা একজন মিশরীয় কর্মকর্তাকে টেক্সট করেছিলেন যে, মিশরে ছোট অস্ত্র ও গোলাবারুদের উপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে।

নৈতিকতা পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা সিটিজেনস ফর রেসপনসিবিলিটি অ্যান্ড এথিক্সের প্রেসিডেন্ট শুক্রবার এক বিবৃতিতে, মেনেনডেজের প্রতি পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন।

   

জিম্মি উদ্ধারে ইসরায়েলি প্রচেষ্টা প্রতিহতের দাবি হামাসের



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
গাজায় যুদ্ধরত ইসরায়েলি সেনারা। ছবি : সংগৃহীত

গাজায় যুদ্ধরত ইসরায়েলি সেনারা। ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

হামাসের সশস্ত্র শাখা শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) জানিয়েছে, তাদের যোদ্ধারা গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বিশেষ বাহিনীর দ্বারা জিম্মি উদ্ধারের একটি প্রচেষ্টা প্রতিহত করেছে।

হামাস জানিয়েছে, ওই সময় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে বেশ কয়েকজন ইসরায়েলি সেনা হতাহত হয়েছে এবং একজন জিম্মিও মারা গেছে।

কিন্তু হামাসের দাবি প্রত্যাখ্যান করে ইসরায়েল জানিয়েছে, ফিলিস্তিনের সশস্ত্র দলটি মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধের চেষ্টা করছে।

টেলিগ্রামে এক বিবৃতিতে হামাসের আল-কাসাম ব্রিগেড জানিয়েছে, তাদের যোদ্ধারা জিম্মিদের উদ্ধার প্রচেষ্টা চালানোর সময় ইসরায়েলি বাহিনীর একটি বিশেষ ইউনিটের ওপর আক্রমণ চালিয়ে বেশ কয়েকজন সেনাকে হত্যা ও আহত করেছে।

এনডিটিভি জানিয়েছে, ওই ঘটনার স্থান নির্দিষ্ট করে জানায়নি আল-কাসাম ব্রিগেড।

ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, সাহার বারুচ নামে ২৫ বছর বয়সি এক জিম্মি ইসরায়েলি সেনাকে হত্যা করা হয়েছে। ইসরায়েল কর্তৃক প্রকাশিত জিম্মিদের তালিকায় তাদের মধ্যে একজনকে সাহার বারুচ নামে শনাক্ত করা হয়েছে।

হামলার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে ইসরায়েলি সরকারের একজন মুখপাত্র আইলন লেভি এক ব্রিফিংয়ে বলেন, ‘হামাস ইসরায়েলের জনগণের বিরুদ্ধে যে মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে, সে বিষয়ে আমরা মন্তব্য করতে চাচ্ছি না।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা ওই জিম্মিদের নিরাপত্তা ও অসুস্থতার জন্য সম্পূর্ণরূপে হামাসকে দায়ী করি। জিম্মিদের পরিদর্শনের জন্য ইসরায়েলি দাবি এখনও পর্যন্ত পূর্ণ করতে পারেনি রেডক্রস।’

;

ইসরাইলের কঠোর সমালোচনা করলেন অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রথমবারের মতো ইসরাইলের ভূমিকার কড়া সমালোচনা করলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন।

বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) ওয়াশিংটনে ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের সঙ্গে বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেন ব্লিঙ্কেন। সেখানে বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষা নিশ্চিতে এবং হতাহতের ঘটনা এড়াতে ইসরাইল সরকার যে লক্ষ্যের কথা বলেছিল, তার সঙ্গে তাদের আচরণে ফারাক থেকে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের সঙ্গে বৈঠকের পর ওয়াশিংটনে এক সংবাদ সম্মেলনে ব্লিঙ্কেন এ মন্তব্য করেন।

দক্ষিণ গাজায় ইসরাইলি বাহিনী বেসামরিক নাগরিকদের সঙ্গে যে ধরনের আচরণ করছে, তার সমালোচনা করতে গিয়ে ব্লিঙ্কেন এমন মন্তব্য করেন বলে বার্তাসংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

হতাশা প্রকাশ করে তিনি বলেন, প্রায় এক সপ্তাহ ধরে দক্ষিণ গাজায় যে অভিযান চলছে, সেখানে বেসামরিক মানুষের সুরক্ষায় ইসরাইলের পদক্ষেপ নেওয়াটা অপরিহার্য। তবে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ব্যবস্থা নিচ্ছে না ইসরাইল।

এদিকে বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও আলাদা করে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ও জর্ডানের বাদশাহ আবদুল্লাহর সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন। তিনি বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা এবং হামাস থেকে বেসামরিক নাগরিকদের আলাদা করার ওপর জোর দিয়েছেন। সংঘাতের এলাকাগুলো থেকে যাতে সাধারণ মানুষ নিরাপদে সরে যেতে পারে, তা নিশ্চিত করার জন্যও আহ্বান জানিয়েছেন বাইডেন।

উল্লেখ্য, গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুসারে, ৭ অক্টোবর হামলা শুরুর পর থেকে ১৭ হাজার ১৭০ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত এবং ৪৬ হাজার আহত হয়েছেন। আর ইসরাইলি কর্তৃপক্ষের হিসাব অনুসারে, ৭ অক্টোবর ইসরাইলে হামাসের হামলায় ১ হাজার ২০০ মানুষ নিহত হয়েছেন।

;

লোকসভা থেকে তৃণমূল এমপি মহুয়া বহিষ্কৃত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

এথিক্স কমিটির সুপারিশের পর শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্য মহুয়া মৈত্রকে লোকসভা থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এদিন মহুয়ার এমপি পদ খারিজ করে দেওয়ার পর লোকসভায় মহুয়াকে তার নিজের বক্তব্য পেশ করারও সুযোগ দেওয়া হয়নি। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম  টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এর আগে মহুয়া মৈত্রর সংসদ সদস্যপদ খারিজের সুপারিশ করে ‘এথিকস কমিটি’। তার বিরুদ্ধে অর্থের বিনিময়ে সংসদে প্রশ্ন করার যে অভিযোগ বিজেপি করেছিল, তার ‘তদন্ত’ শেষ করে এথিকস কমিটি ওই সুপারিশ চূড়ান্ত করে। 

প্রায় ৫০০ পৃষ্ঠার রিপোর্টে মহুয়ার বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগের তদন্ত করতে সরকারকেও সুপারিশ করা হয়। এথিকস কমিটির ওই সুপারিশ গত ১০ নভেম্বর লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লার কাছে পেশ করা হয়। স্পিকার এ বিষয়ে ভোটাভুটির মাধ্যমে প্রস্তাব পাশ করান লোকসভায়। এরপর আজ তার সংসদ সদস্য পদ খারিজ করা হয়।

এদিকে লোকসভায় মহুয়াকে বলতে না দেওয়ার বিষয়ে স্পিকার বলেছেন, মহুয়া আগে নিজের বক্তব্য জানানোর সুযোগ পেয়েছিলেন। তাই আবার তাকে সুযোগ দেওয়া হবে না। পুরোনো উদাহরণ টেনে এই যুক্তি দেন স্পিকার। মহুয়া বলার জন্য একাধিক বার উঠে দাঁড়ালেও তাকে বসিয়ে দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, কয়েক মাস যাবৎ আদানি গোষ্ঠীর ব্যবসা–বাণিজ্য নিয়ে মহুয়া বেশ কিছু প্রশ্ন করছিলেন। ঝাড়খন্ড জেলার গোড্ডা কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত বিজেপির নিশিকান্ত দুবে স্পিকারকে চিঠি লিখে মহুয়ার বিরুদ্ধে ‘অনৈতিকতার’ অভিযোগ আনেন। 

অভিযোগে তিনি বলেন, শিল্পপতি দর্শন হিরানন্দানির কাছ থেকে নানাবিধ সুবিধা নিয়ে তার ব্যবসায়িক স্বার্থে মহুয়া প্রশ্ন তোলেছে। ই-মেইলের লগইন পাসওয়ার্ড পর্যন্ত ওই ব্যবসায়ীকে দিয়েছিলেন, যাতে তিনি সরাসরি প্রশ্ন পাঠাতে পারেন। দুবাইয়ে বসে হিরানন্দানি দেশের নিরাপত্তার পক্ষে বিপজ্জনক হবে এমন সব কাজ করেছেন।

;

হামাসের ৪৫০টি লক্ষ্যবস্তুতে হামলার দাবি ইসরায়েলের



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ইসরায়েলি হামলার চিত্র। ছবি : সংগৃহীত

ইসরায়েলি হামলার চিত্র। ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গাজা উপত্যকায় হামলা জোরদার করেছে ইসরায়েল। ওয়াশিংটন বলেছে, ওই হামলা গাজার বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষার জন্য ইসরায়েলি প্রতিশ্রুতির বিপরীত।

ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী (আইডিএফ) শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) জানিয়েছে, তারা গত ২৪ ঘন্টায় স্থল, সমুদ্র এবং আকাশ থেকে গাজায় হামাসের ৪৫০টিরও বেশি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করেছে।

এদিকে, গাজার সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশ এখন বাস্তুচ্যুত এবং কোনও সাহায্য পেতে অক্ষম বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

গাজার জাতিসংঘের সংশ্লিষ্ট সংস্থার প্রধান বলেছেন, হাসপাতালের জ্বালানি ও খাবার ফুরিয়ে যাচ্ছে। ছিটমহলটি সম্পূর্ণ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে।

স্থানীয় বাসিন্দারা এবং ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী উভয়ই উত্তরের এলাকাগুলোতে তীব্র লড়াইয়ের খবর জানিয়েছে।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) সেখানে ৩৫০ জন নিহত হওয়ার খবর দিয়েছে।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার ওয়াশিংটনে এক সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, ‘বেসামরিক নাগরিকদের রক্ষা করার অভিপ্রায়ের বিপরীতে আমরা যে ফলাফল দেখছি, তার মধ্যে একটি ব্যবধান রয়ে গেছে।’

;