ছেলের জন্মদিনে একসঙ্গে শাকিব-অপু



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছেলের জন্মদিনে একসঙ্গে শাকিব-অপু

ছেলের জন্মদিনে একসঙ্গে শাকিব-অপু

  • Font increase
  • Font Decrease

শাকিব-অপু পুত্র আব্রাম খান জয়ের জন্মদিন ছিল মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর)। ৬ বছর পূর্ণ হল জয়ের। সেই কারণে এক হয়েছেন ঢালিউডের এক সময়ের আলোচিত এই জুটি।

বিশেষ এই দিনে জয়কে শুভেচ্ছা জানিয়ে আবেগঘন একটি পোস্ট দেন বাবা শাকিব খান ও মা অপু বিশ্বাস।


অপু বিশ্বাস তার ফেসবুক পেজে আব্রাম খান জয়ের জন্মদিন উদযাপনের কিছু ছবি দেন।

যেখানে দেখা যাচ্ছে, ছেলেকে জন্মদিনের কেক খাইয়ে দিচ্ছেন শাকিব খান। আবার শাকিবকেও কেক খাইয়ে দিচ্ছে জয়। আর অপু বিশ্বাস ছেলেকে আদর করছেন।


ছবিতে জয়ের সঙ্গে শাকিব-অপু ছাড়া শাকিবের মা-বাবা, বোনকেও দেখা গেছে ।

ছবিগুলো আপলোড করে ক্যাপশনে অপু বিশ্বাস লিখেছেন, ‘সুখী পরিবারের কিছু মুহূর্ত। আমাদের জন্য সবাই দোয়া করবেন।’


উল্লেখ্য, শাকিব-অপু বিয়ে করেছিলেন ২০০৮ সালে। তবে ক্যারিয়ারের কথা বিবেচনা করে দুজনই খবরটি গোপন রাখেন। ২০১৭ সালে একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে শিশু আব্রামকে কোলে নিয়ে হাজির হন অপু। তখনই তাদের বিয়ে ও সন্তান জন্মদানের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতার একটি হাসপাতালে জয় জন্মগ্রহণ করে।

অরিজিৎ সিংয়ের ১০০ কোটি টাকা প্রয়োজন!



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
অরিজিৎ সিং

অরিজিৎ সিং

  • Font increase
  • Font Decrease

অরিজিৎ সিংয়ের গান শুনতে মুম্বাইয়ের জিও গার্ডেনে বহু মানুষের ভিড়। তবে গান গাওয়ার আগে নিজের হৃদয় থেকে কিছু কথা সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিলেন স্বল্পভাষী অরিজিৎ। নিজের জন্য নয়, অরিজিৎ সিং দেশবাসীর কাছে ১০০ কোটি টাকা চেয়েছেন সমাজ কল্যাণের কাজে তার একটি বড় স্বপ্ন পূরণ করার জন্য।

কনসার্টের টিকিটমূল্য নিয়ে চর্চায় ছিলেন অরিজিৎ সিং। স্টেজে পারফর্ম করতে মোটা টাকা নেন গায়ক, সেই টাকা দিয়ে কী করেন অরিজিৎ সিং? এমন প্রশ্নও ঘোরাফেরা করে নেটিজেনদের মনে। ঢাক পিটিয়ে নিজের প্রচার না করলেও অরিজিৎ সিং-এর জনসেবার কথা কারুর অজানা নয়। জিয়াগঞ্জের ছেলে জনসেবার আদর্শে বিশ্বাসী অরিজিৎ বড় হয়েছেন স্বামী বিবেকানন্দের আদর্শে। সম্প্রতি মুম্বাইয়ের কনসার্টে অরিজিৎ জানান, নিজের জীবনকে গুছিয়ে নিয়ে অন্যকে সাহায্য করাটাই মানবতা। মানুষের পাশে দাঁড়াতে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা খুলেছেন অরিজিৎ।

জিয়াগঞ্জের ভবিষ্যত প্রজন্ম যাতে পিছিয়ে না পরে তার জন্য স্পোকেন ইংলিশের ক্লাসের ব্যবস্থা করেছেন অরিজিৎ, মেয়েদের নার্সিং ট্রেনিং-এর স্কুল খুলেছেন, মেয়েদের আত্মনির্ভর করে তোলার ক্ষেত্রে কাজ করছে সেই সংস্থা। শুধু তাই নয় মাত্র ৩০ টাকার হোটেল খুলেছেন অরিজিৎ। সেখানে ভরপেট খাবার পাওয়া যায় এই টাকায়। অরিজিৎ জানালেন বদল আনতে হলে সেটা তোমার ঘর থেকেই শুরু করতে হবে।

অরিজিৎ জানান, বেসরকারি স্কুলে যেসকল সুযোগ-সুবিধা থাকে তেমনই একটি উন্নতমানের স্কুল গড়তে উদ্যোগী তিনি। এরপর জানাতে পারেন সেই সেলফ সাসটেন্ড স্কুল তৈরির খরচ ১০০ কোটি টাকা। অরিজিৎ কনসার্ট মঞ্চে গিটার হাতেই বলেন, ‘আমার এই কাজের জন্য দরকার ১০০ কোটি টাকা। কাজ শুরু করবার পর আমি সেটা জানতে পারি। আমি সেই টাকা জোগাড় করা শুরু করেছি। আমি আপনাদের পাশে চাই। আমি আপনাদের থেকে অর্থ সাহায্য চাইছি না, এই কাজে আপনারা আমার পার্টনার হোন। সৎভাবে পাশে থাকুন। মিউজিক যাঁরা শুনতে এসেছেন, তাঁদের সকলেরই একটা হৃদয় রয়েছে।’

অরিজিতের এই বক্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। গায়কের কথা মন ছুঁয়ে গিয়েছে তাঁর অনুরাগীদের। অরিজিতের মানসিকতাকে কুর্নিশ জানাচ্ছেন সকলে। আসলে শিকড়ের সঙ্গে জুড়ে থাকতে কেমনভাবে হয় সেটা জানেন অরিজিৎ। ভাবতে অবাক লাগলেও কাজের প্রয়োজন ছাড়া মুম্বাইয়ে যান না অরিজিৎ, অথচ আজ বলিউডের এক নম্বর গায়ক তিনি। জিয়াগঞ্জের স্কুলেই পড়াশোনা করছে তাঁর সন্তানেরা। সপরিবারে মুর্শিদাবাদেই বসবাস করেন অরিজিৎ।

;

‘স্টার সিনেপ্লেক্স’-এর চট্টগ্রাম শাখার উদ্বোধনীতে পরী-রাজ



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
রাজ-পরী

রাজ-পরী

  • Font increase
  • Font Decrease

বন্দর নগরী চট্টগ্রামে চালু হয়ে গেল দেশের জনপ্রিয় মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা হল ‘স্টার সিনেপ্লেক্স’-এর নতুন শাখা। শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) এটি যাত্রা শুরু করে । আর এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে হাজির হন শোবিজের আলোচিত দম্পতি শরিফুল রাজ ও পরীমণি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হন বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাজ-পরী ছাড়াও সাংস্কৃতিক ও গণমাধ্যম অঙ্গনের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গরা উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, ‘স্টার সিনেপ্লেক্স’ চট্টগ্রাম শাখা যাত্রা শুরু করে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষার দুটি ছবি দিয়ে। ২০১৯ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত তানিম রহমান অংশু পরিচালিত ‘ন ডরাই’ ও সম্প্রতি মুক্তিপ্রাপ্ত ইমরাউল রাফাত পরিচালিত ‘মেড ইন চিটাগং’ চলছে সিনেপ্লেক্সটিতে।

দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী খ্যাত চট্টগ্রাম নগরীতে একটি মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা হল ছিল সময়ের দাবি। এবার সেই দাবি পূরণ হতে যাচ্ছে। চট্টগ্রাম শহরের চকবাজার এলাকায় (নবাব সিরাজ উদ্দিন রোড) বালি আর্কেড শপিং কমপ্লেক্সে অবস্থিত সুপরিসর এই মাল্টিপ্লেক্সে তিনটি হল রয়েছে। আসন সংখ্যা যথাক্রমে ৮৬ (হল-১), ১৯৬ (হল-২) এবং ১২৫ (হল-৩)।


বরাবরের মত নান্দনিক পরিবেশ, সর্বাধুনিক প্রযুক্তিসম্বলিত সাউন্ড সিস্টেম, জায়ান্ট স্ক্রিনসহ বিশ্বমানের সিনেমা হলের যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা নিয়ে হলগুলো নির্মিত হয়েছে বলে জানান স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান রুহেল।

উল্লেখ্য, ২০০৪ সালের ৮ অক্টোবর রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে যাত্রা শুরু করে দেশের প্রথম মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা হল ‘স্টার সিনেপ্লেক্স’। বর্তমানে ঢাকায় ৫টি শাখা রয়েছে এর। ধানমন্ডির সীমান্ত সম্ভার (সাবেক রাইফেলস স্কয়ার), মহাখালীর এসকেএস (সেনা কল্যাণ সংস্থা) টাওয়ার, মিরপুরের সনি স্কয়ার এবং বিজয় সরনির সামরিক জাদুঘরে শাখাগুলো অবস্থিত।

;

সর্বকালের সেরা ১০০ ছবির তালিকায় ‘পথের পাঁচালী’!



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
সর্বকালের সেরা ১০০ ছবির তালিকায় ‘পথের পাঁচালী’!

সর্বকালের সেরা ১০০ ছবির তালিকায় ‘পথের পাঁচালী’!

  • Font increase
  • Font Decrease

সাইট অ্যান্ড সাউন্ড সর্বকালের সেরা ১০০ ছবির তালিকা প্রকাশ্যে আনল। এই ব্রিটিশ ম্যাগাজিন প্রকাশিত সেরা ১০০ ছবির তালিকায় প্রথম স্থানে জায়গা করে নিয়েছে বেলজিয়ান পরিচালক চাঁতাল অ্যাকারম্যানের ছবি ‘জিন ডিয়েলম্যান, ২৩ কুয়াই ডু কমার্স, ১০৮০ ব্রুক্সেলস’। এই ছবিটি ১৯৭৫ সালে মুক্তি পায়। এই তালিকায় একমাত্র ভারতীয় ছবি হিসেবে নাম রয়েছে সত্যজিৎ রায়ের ‘পথের পাঁচালী’।

১৯৫২ সাল থেকে আজ পর্যন্ত প্রতি দশ বছরে একবার করে ব্রিটিশ পত্রিকা ‘সাইট অ্যান্ড সাউন্ড’ এই তালিকা প্রকাশ করে। এবারের যে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে সেখানে ১৬৩৯ জনের ভোট নেওয়া হয়েছে। এই ১৬৩৯ জনের মধ্যে সিনেমার সমালোচক থেকে প্রোগ্রামার, কিউরেটর, অ্যাকাডেমিক্সসহ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা ছিলেন। যারা তাদের পছন্দ অনুযায়ী সেরা ১০ ছবির নাম লিখে ভোট দেন। তার ভিত্তিতেই প্রতিবারের মতো এবারও তালিকা প্রকাশ করা হলো।

এই তালিকা প্রথম প্রকাশ করা হয়েছিল ১৯৫২ সালে। সেবার ১০০টি ছবির মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করেছিল ভিত্তোরিও দে সিকার ‘বাইসাইকেল থিভস’। এরপর ১৯৬২ থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত এক টানা অরসন ওয়েলের ছবি ‘সিটিজেন কেন’ প্রথম স্থানে ছিল। ২০২২ সালের আগে শেষবার ২০১২ সালে এই তালিকা প্রকাশ করা হয়। তখন সিটিজেন কেনকে সরিয়ে প্রথম স্থানে উঠে আসে আলফ্রেড হিচককের ছবি ‘ভার্টিগো’।

সত্যজিৎ রায় পরিচালিত ‘অপুর ট্রিলজি’র প্রথম ভাগ ছিল ‘পথের পাঁচালী’। এই ছবিটি ১৯৫৫ সালে মুক্তি পায়। ২০২২ সালে যে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে সেখানে এই ছবি ৩৫ নম্বরে জায়গা করে নিয়েছে। এটা একমাত্র ভারতীয় ছবি যা এই তালিকায় রয়েছে। পথের পাঁচালী সম্পর্কে জানানো হয়েছে 'পথের পাঁচালী ছবিতে একটি মানবিক দিক পাওয়া গিয়েছে যেখানে কলকাতা কেন্দ্রিক ভারতীয় আর্ট ফিল্মের সুস্পষ্ট ছাপ ফুটে উঠেছে। আর এটা বলিউডের কমার্শিয়াল প্রোডাক্টের তুলনায় একদমই আলাদা।' একই সঙ্গে বলা হয়েছে এই ছবির অবিস্মরণীয় দৃশ্য হচ্ছে ধানক্ষেতের মধ্যে দিয়ে যখন অপু দুর্গা ট্রেন দেখতে ছুটছে।

সাইট অ্যান্ড সাউন্ডের ৭০ বছরের ইতিহাসে এই প্রথমবার কোনও নারী পরিচালকের ছবি প্রথম স্থান অধিকার করল। এবারের তালিকায় বেশ কিছু নতুন ছবিও জায়গা করে নিয়েছে যার মধ্যে ২০১৯ সালে মুক্তি প্রাপ্ত দুটি ছবি, ‘লেডি অন ফায়ার’, ‘প্যারাসাইট’ আছে, সঙ্গে আছে ২০১৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘মুনলাইট’, ইত্যাদি।

এবারের সেরা ১০-এ যে ছবিগুলো আছে সেগুলো হল:

১. জিন ডিয়েলম্যান, ২৩ কুয়াই ডু কমার্স, ১০৮০ ব্রুক্সেলস

২. ভার্টিগো

৩. সিটিজেন কেন

৪. টোকিও স্টোরি

৫. ইন দ্য মুড ফর লাভ

৬. ২০০১: এ স্পেস ওডিসি

৭. ব্যু ট্রাভেইল

৮. মুলহোল্যান্ড ড্রাইভ

৯. ম্যান উইথ আ মুভি ক্যামেরা

১০. সিংগিং ইন দ্য রেন

;

পবিত্র ওমরা পালন করলেন শাহরুখ খান



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
পবিত্র ওমরা পালন করলেন শাহরুখ খান

পবিত্র ওমরা পালন করলেন শাহরুখ খান

  • Font increase
  • Font Decrease

বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খান তার নতুন ছবি ‘ডানকি’ এর শ্যুটিং সৌদি আরবের জেদ্দায় শেষ করেছেন। এরই ফাঁকে তিনি মক্কায় ওমরা পালন করেছেন।

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) রাত থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে ইহরাম গায়ে শাহরুখের স্থিরচিত্র ও ভিডিও ছবি।

সৌদি আরবের মরূদ্যানে সিনেমার শুটিং শেষ হতেই কিং খান চলে গেলেন সোজা মক্কায়। নিয়ম মেনে সেখানকার ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানে অংশ নিতে দেখা গেল বাদশাহকে।  

শাহরুখ খান তার ভক্তদের 'ডানকি'-এর মোড়ক সম্পর্কে তথ্য জানানোর জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করার সঙ্গে সঙ্গে তার অনুসারীরা তাকে ওমরাহ করার পরামর্শ দিয়েছিলেন, কারণ তিনি পবিত্র শহর মক্কা থেকে মাত্র কয়েক ঘণ্টা দূরে ছিলেন।

তার এক ভক্ত লিখেছেন, আপনার ওমরা পালন দেখে সত্যিই আমি অনেক খুশি। এটা আমার হৃদয়ে ছুঁয়েছে। আল্লাহ আপনার ইবাদত কবুল করুন। আমিন।

এলোমেলো চুল, মুখে খোঁচা খোঁচা দাড়ি- এটাই তার ‘ডানকি’ লুক। তারই মধ্যে মক্কায় ওমরাহ পালনের লুকও কম আকর্ষণীয় নয়। হাজার হোক, তিনি তো আসলে শাহরুখ খান!

টুইটারে পোস্ট করা এক ভিডিওতে দেখা গেছে ওমরা পালনের জন্য তিনি নির্দিষ্ট পোশাক পড়েছেন। এবং কোভিড পরিস্থিতির জন্য মাস্কও পড়েছেন।

;