কৃষকদের মাঝে ৪% মুনাফায় সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের কৃষি বিনিয়োগ বিতরণ



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
কৃষকদের মাঝে ৪% মুনাফায় সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের কৃষি বিনিয়োগ বিতরণ

কৃষকদের মাঝে ৪% মুনাফায় সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের কৃষি বিনিয়োগ বিতরণ

  • Font increase
  • Font Decrease

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড- এর উদ্যোগে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চার শতাধিক সয়াবিন ও মরিচ চাষির মাঝে ৪% মুনাফায় কৃষি বিনিয়োগ বিতরণ করা হয়েছে।

সম্প্রতি নোয়াখালী জেলার সুবর্ণচর উপজেলা কমপ্লেক্সে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই বিনিয়োগ বিতরণ করা হয়। ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী জনাব জাফর আলম-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী জেলা প্রশাসক জনাব দেওয়ান মাহবুবুর রহমান।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মুহাম্মদ ফোরকানুল্লাহ, চীফ রেমিট্যান্স কর্মকর্তা জনাব মো: মোশাররফ হোসাইন, নোয়াখালীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জনাব ইসরাত সাদমীন, সুবর্ণচর উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ এ.এইচ.এম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম, সুবর্ণচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব চৈতী সর্ববিদ্যা, সলিডারিড্যাড নেটওয়ার্ক এশিয়ার সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার ইন্দু ভূষণ রায়, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (নোয়াখালী)-এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা কৃষিবিদ ড. মুহাম্মদ মহীউদ্দিন চৌধুরী, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের মার্কেটিং এন্ড ব্র্যান্ড কমিউনিকেশনের প্রধান জনাব মো: মনিরুজ্জামান, এসএমই এন্ড এগ্রিকালচারাল ফাইন্যান্স ডিভিশনের প্রধান জনাব সাদাত আহমাদ খান সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও কৃষক-কৃষাণীরা।

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী জনাব জাফর আলম বলেন, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক নোয়াখালীর সুবর্ণচর অঞ্চলে ৪% মুনাফায় এবার চার শতাধিক কৃষকের মাঝে কৃষি বিনিয়োগ বিতরণ করেছে। খুব শীঘ্রই আরও শতাধিক কৃষককে বিনিয়োগ প্রদান করা হবে। পর্যায়ক্রমে নোয়াখালী সহ সারাদেশের কৃষকের মাঝে স্বল্প মুনাফায় বিনিয়োগ প্রদানের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

রাজস্ব আদায় বেড়েছে ৪০ হাজার কোটি টাকা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গত অর্থবছরের (২০২১-২২) তুলনায় চলতি অর্থবছর (২০২২-২৩) বৈদেশিক বাজেট সহায়তা কমছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

তিনি বলেছেন, গত অর্থবছরে বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগীদের কাছ থেকে সরকার ৩ দশমিক ২৬ বিলিয়ন ডলারের সমপরিমাণ বাজেট সহায়তা পেয়েছে। আর চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরে জন্য ২ দশমিক ২৩ বিলিয়ন ডলারের সমপরিমাণ বাজেট সহায়তা পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

আজ মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে নোয়াখালী-২ আসনের এমপি মোরশেদ আলমের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপিত হয়।

অর্থমন্ত্রী বলেন, দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়নের স্বার্থে সরকার বিভিন্ন ধরনের সংস্কারমূলক কার্যক্রম গ্রহণ করে থাকে। এসব সংস্কারমূলক কাজের বাস্তবায়নকে ত্বরান্বিত করার জন্য অনেক সময় আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠান সরকারকে ‘বাজেট সাপোর্ট’ শীর্ষক নীতি ঋণ বা পলিসি ক্রেডিট প্রদান করে। কাজেই, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সৃষ্ট বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটসহ জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকার বাজেট সাপোর্ট গ্রহণ করছে বিষয়টি এ রকম নয়। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া।

সরকারদলীয় এমপি এম আব্দুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে এনবিআর গত ২০২১-২২ অর্থবছরে আগের অর্থবছর থেকে প্রায় ৪০ হাজার কোটি টাকা বেশি রাজস্ব আদায় করেছে জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ২০২১-২২ অর্থবছরে এনবিআর রাজস্ব আদায় করেছে তিন লাখ এক হাজার ৬৩৩ দশমিক ৮৪ কোটি টাকা। এর আগের অর্থবছরে আদায় হয়েছে দুই লাখ ৬১ হাজার ৬৮৯ দশমিক ২০ কোটি টাকা। অর্থাৎ পূর্ববর্তী অর্থবছরের (২০২০-২১) তুলনায় ২০২১-২২ অর্থবছরে ৩৯ হাজার ৯৪৪ কোটি ৬৪ লাখ টাকা বেশি রাজস্ব আদায় হয়েছে।

;

ভ্যালেন্টাইন ডে’র কেনাকাটা জমবে নগদ পেমেন্টে



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ভ্যালেন্টাইন ডে’র কেনাকাটা জমবে নগদ পেমেন্টে

ভ্যালেন্টাইন ডে’র কেনাকাটা জমবে নগদ পেমেন্টে

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষ্যে জমজমাট অফার নিয়ে এসেছে মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস নগদ। বিভিন্ন মার্চেন্ট থেকে কেনাকাটা করলে গ্রাহকেরা পাচ্ছেন সর্বোচ্চ ২৫ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশব্যাক। এ ছাড়া প্রতিদিন সর্বোচ্চ টাকার কেনাকাটা করা গ্রাহক পাবেন ঢাকা-কক্সবাজার-ঢাকা বিমানের কাপল টিকিট।

৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ভালোবাসা দিবস উপলক্ষ্যে নগদ-এর ক্যাশব্যাক ক্যাম্পেইন চলবে। এই ক্যাম্পেইন চলাকালীন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে কেনাকাটা করলে নগদ ব্যবহারকারীরা পাবেন সর্বোচ্চ ২৫ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশব্যাক। নগদ অ্যাপ অথবা *১৬৭* ডায়াল করে এই কেনাকাটা করা যাবে। পাশাপাশি অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমেও উপভোগ করা যাবে দারুণ এই ছাড়।

এ ছাড়াও ৭ থেকে ১৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রতিদিন সর্বোচ্চ কেনাকাটা করা গ্রাহক পাবেন ঢাকা-কক্সবাজার-ঢাকা বিমানের কাপল টিকিট। নির্দিষ্ট কিছু মার্চেন্টের ক্ষেত্রে ক্যাশব্যাক অফারটি ১৯ ফেব্রুয়ারি শেষ হয়ে যাবে।

সবমিলিয়ে ৯০টিরও বেশি মার্চেন্টে নগদ ব্যবহারকারীরা এই ছাড় পাবেন। এরমধ্যে বাটা, এপেক্স (অনলাইন), লোটো (অনলাইন), এসএসবি লেদার, শেফস টেবিল, রেমন্ড, কে ক্রাফট, মোনার্ক মার্ট-এর মতো মার্চেন্ট থাকছে এই ক্যাম্পেইনে। এই ৯০টিরও বেশি প্রতিষ্ঠানে কেনাকাটায় সর্বোচ্চ ২৫ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশব্যাক।

এই অফার নিয়ে নগদ-এর চিফ কমার্শিয়াল অফিসার মো. সিহাবউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘নগদ তারুণ্যের উৎসবকে আরও রঙ্গীন করতে চায়। বিশ্ব ভালোবাসা দিবস সব বয়সের মানুষের তরুণ মনের উৎসব। আমরা এই উৎসবে মানুষের আনন্দটা ডিজিটাল লেনদেনের মাধ্যমে আরও রাঙিয়ে দিতে চাই। সে জন্যই আমরা এই ক্যাম্পেইন নিয়ে এসেছি।’

প্রতিদিনের সর্বোচ্চ লেনদেন করা গ্রাহককে ফোন করে তার বিমানের টিকিট পাওয়ার ব্যাপারটি নিশ্চিত করা হবে। নগদ কাস্টমার কেয়ার থেকে তিনবার ফোন করা হবে। এরপরও ওই গ্রাহক ফোন রিসিভ না করলে সর্বোচ্চ লেনদেনকারী পরবর্তী গ্রাহককে বেছে নেওয়া হবে। গ্রাহকের পরিচয় নিশ্চিত করার জন্য তার কাছ থেকে জাতীয় পরিচয়পত্রসহ কিছু প্রমাণ চাইবেন কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধি। উল্লেখ্য, কোনোভাবেই পিন বা ওটিপি কেউ গ্রাহকের কাছে চাইবেন না। অন্য কেউ এই গোপন নম্বরসমূহ চাইলে সে ফাঁদে পা না দেওয়ার জন্য সতর্ক করছে নগদ কর্তৃপক্ষ।

ফোন করে নিশ্চিত করার ৭ দিনের মধ্যে ওই গ্রাহককে টিকিট বুঝিয়ে দেওয়া হবে। বিজয়ীরা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স-এর টিকিট পাবেন। ফলে টিকিট বিষয়ক সমস্ত দায়িত্ব বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ বহন করবে।

;

বসন্তের কেনাকাটায় বিকাশ পেমেন্টে 'ইনস্ট্যান্ট' ক্যাশব্যাক



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বসন্তের কেনাকাটায় বিকাশ পেমেন্টে 'ইনস্ট্যান্ট' ক্যাশব্যাক

বসন্তের কেনাকাটায় বিকাশ পেমেন্টে 'ইনস্ট্যান্ট' ক্যাশব্যাক

  • Font increase
  • Font Decrease

বসন্ত উপলক্ষে পছন্দের কেনাকাটায় দেশজুড়ে ১৬শ’র বেশি আউটলেট, ই-কমার্স ও এফ-কমার্স প্ল্যাটফর্মে গ্রাহকরা বিকাশ পেমেন্টে পাচ্ছেন ৫% থেকে ৩০% পর্যন্ত ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক। ৫ থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এই ক্যাম্পেইনে একজন গ্রাহক সর্বমোট ৪০০ টাকা ক্যাশব্যাক পেতে পারেন।

অফলাইন পেমেন্টে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা এবং অনলাইন পেমেন্টে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা মিলিয়ে দিনে মোট ২০০ টাকা ক্যাশব্যাক পাওয়ার সুযোগ রয়েছে। সুপরিচিত রেস্টুরেন্ট, পোশাক, জুতা, এক্সেসরিজের আউটলেট এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ও পরিসেবার অনলাইন প্ল্যাটফর্মে গ্রাহকরা এই সুবিধা পাবেন।

অফার সম্পর্কে বিস্তারিত এবং আউটলেট/অনলাইন শপের তালিকা জানতে ভিজিট করতে হবে https://www.bkash.com/campaign/boshonto-offer এবং https://www.bkash.com/campaign/boshonto-online-cashback – এই লিংকে।

বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে পেমেন্ট করার জন্য গ্রাহককে হোমস্ক্রিনের ‘মেক পেমেন্ট’ আইকনে ট্যাপ করে মার্চেন্ট নম্বর টাইপ করতে হবে অথবা মার্চেন্ট পয়েন্টের কিউআর কোড স্ক্যান করে খুব সহজেই পেমেন্ট করা যাবে। একইভাবে অনলাইন প্ল্যাটফর্মে বিকাশ পেমেন্ট গেটওয়ে ব্যবহার করে বিকাশ নম্বর, ওটিপি ও বিকাশ পিন দিয়ে পেমেন্ট করা যাবে। এছাড়া, ইউএসএসডি কোড *২৪৭# ডায়াল করেও পেমেন্ট করার সুযোগ থাকছে গ্রাহকদের জন্য।

;

ইসলামী ব্যাংকের বার্ষিক প্রীতিমিলনী ও বনভোজন অনুষ্ঠিত



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ইসলামী ব্যাংকের বার্ষিক প্রীতিমিলনী ও বনভোজন অনুষ্ঠিত

ইসলামী ব্যাংকের বার্ষিক প্রীতিমিলনী ও বনভোজন অনুষ্ঠিত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের প্রধান কার্যালয়ের নির্বাহী, কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের অংশগ্রহণে বার্ষিক প্রীতিমিলনী ও বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) নরসিংদীর ড্রিম হলিডে পার্কে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্যাংকের চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. নাজমুল হাসান।

ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মুহাম্মদ মুনিরুল মওলার সভাপতিত্বে আয়োজনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্যাংকের পরিচালক প্রফেসর ড. সিরাজুল করিম, মো. জয়নাল আবেদীন ও মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন।

এসময় ব্যাংকটির অ্যাডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর মুহাম্মদ কায়সার আলী, মো. ওমর ফারুক খান, জে কিউ এম হাবিবুল্লাহ, ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. নাইয়ার আজম, মো. সিদ্দিকুর রহমান ও মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন মজুমদার, ক্যামেলকো তাহের আহমেদ চৌধুরী এবং চিফ হিউম্যান রিসোর্সেস অফিসার মো. মোস্তাফিজুর রহমান সিদ্দিকীসহ প্রধান কার্যালয়ের ঊর্ধ্বতন নির্বাহী, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও তাদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

খেলাধুলা, র‌্যাফেল ড্র, মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পার্কের মনোরম পরিবেশে এ প্রীতিমিলনী ও বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়।

;