গুচ্ছ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির আবেদন শুরু ১৭ অক্টোবর



জবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গুচ্ছভুক্ত ২২ সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির আবেদন আগামী ১৭ অক্টোবর থেকে শুরুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আয়োজক কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেন উপাচার্যরা।

আবেদন শুরুর চার থেকে পাঁচদিন পূর্বে এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন।

তিনি বলেন, আগামী ১৭ অক্টোবর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য আবেদন গ্রহণ শুরু হবে। আগামী ১৩ অথবা ১৪ অক্টোবর পত্রিকায় ভর্তি সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। যারা গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় ৩০ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা আবেদন করতে পারবেন।

এছাড়া সভা সূত্রে জানা গেছে, এবার সব ধরনের কোটায় ভর্তির ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৩০ নম্বর। ৩০ নম্বর না পেলে কোটায় ভর্তি হওয়া যাবে না। এছাড়া প্রতি ইউনিটে আবেদন ফি ৫০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

এবারের গুচ্ছভুক্ত ২২ বিশ্ববিদ্যালয় হলো- জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়, শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়, কিশোরগঞ্জ এবং চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

আর্জেন্টিনার জয়ে রাত জুড়ে কুবিতে আনন্দ মিছিল



কুবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুমিল্লা
আর্জেন্টিনার জয়ে রাত জুড়ে কুবিতে আনন্দ মিছিল

আর্জেন্টিনার জয়ে রাত জুড়ে কুবিতে আনন্দ মিছিল

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বকাপ গ্রুপ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মেক্সিকোর সাথে ২-০ গোলে জয়ের পর রাত জুড়ে আনন্দ মিছিল করেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্জেন্টিনার সমর্থকরা।

শনিবার (২৭ নভেম্বর) রাত ৩টার দিকে খেলা শেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল থেকে শুরু করে পুরো ক্যাম্পাস জুড়ে এই আনন্দ মিছিল করেন তারা ।

খেলার শেষ পর্যায়ে রেফারির বাঁশির সাথে সাথে উল্লাসে ফেটে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্জেন্টাইন সমর্থক শিক্ষার্থীরা 'মেসি, মেসি' স্লোগানে মিছিলে নেমে পড়েন।

এই সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছেলেদের ৩টি আবাসিক হলের আর্জেন্টাইন সাপোর্টাররা পর পর আনন্দ মিছিল নিয়ে একসাথে প্রধান ফটকে মিলিত হয়।

জয়ের পর বঙ্গবন্ধু হলের আর্জেন্টিনা সমর্থক গোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাকিব হোসেন বলেন, আমরা আর্জেন্টিনা সমর্থকরা একবারের জন্যও আশা হারাইনি। আমাদের বিশ্বাস ছিল মেসির নেতৃত্বে আর্জেন্টিনা ভালো কিছুই করবে । মেক্সিকোর রক্ষণ ভাঙ্গা যখন দুঃসাধ্য মনে হচ্ছিল, তখন দুর্দান্ত এক গোল করলেন মেসি। পরে আরও একটা গোল করলেন এনজো ফার্নান্দেস। ফুটবলের জাদুকর মেসির শেষ বিশ্বকাপ হওয়ায় খুব করে চাই আর্জেন্টিনা চ্যাম্পিয়ন হোক।

এর আগে ২২ নভেম্বর গ্রুপ পর্বের ১ম ম্যাচে অপেক্ষাকৃত দূর্বল দল কাতারের সাথে ২-১ গোলের পরাজয়ে টানা ৩৬ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ডের ইতি হয় আলবিসেলেস্তেদের।

;

নেতাজী সুভাসচন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক পিস অ্যাওয়ার্ড পেলেন রাবির অধ্যাপক



রাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজশাহী
অধ্যাপক ড. হীরা সোবাহান

অধ্যাপক ড. হীরা সোবাহান

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশের শিক্ষা ও চারুকলায় বিশেষ অবদান রাখায় ‘নেতাজী সুভাসচন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক পিস অ্যাওয়ার্ড ২০২২’ পেয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) চিত্রকলা, প্রাচ্যকলা ও ছাপচিত্র বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. হীরা সোবাহান।

গত ২৩ নভেম্বর বিকাল ৩টায় ভারতের কলকাতায় "মহাবোধি সোসাইটি" মিলনায়তনের অনুষ্ঠানে এই পুরস্কার পান তিনি।

ইন্ডিয়া-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ অ্যাসোসিয়েশন ও সাউথ এশিয়া বিজনেস পার্টনারশিপ এর যৌথ আয়োজনে ইন্ডিয়া ও বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে নেপাল ও বাংলাদেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গরা উপস্থিত ছিলেন। পুরস্কার প্রাপ্তির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, "নেতাজী সুভাষ বসু পুরস্কারের মধ্য দিয়ে আমি চারু শিক্ষার মান সমুন্নত এবং চারচর্চায় নিজেকে নিমগ্ন করতে আরো সচেষ্ট হবো। আমাকে এ পুরস্কারের জন্য মনোনীত করায় কর্তৃপক্ষকে অসংখ্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।"

;

ঢাবির জগন্নাথ হল ভবন থেকে পড়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) জগন্নাথ হলের সন্তোষ চন্দ্র ভট্টাচার্য ভবনের দশম তলা থেকে পড়ে এক আবাসিক ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের ভবন থেকে পড়ে এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। তার নাম লিমন কুমার রায় (২০)।’

লিমন কুমার রায় রংপুর জেলার বাসিন্দা এবং ঢাবির ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইআর) বিভাগের ছাত্র।

সে জগন্নাথ হলের সন্তোষ চন্দ্র ভট্টাচার্য ভবনের ৪০২১ নম্বর কক্ষের আবাসিক শিক্ষার্থী।

হল সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকাল ১০টার দিকে হলের সন্তোষ চন্দ্র ভট্টাচার্য ভবনের দশম তলা থেকে ঝাঁপ দেয় ওই শিক্ষার্থী। পরে কয়েকজন শিক্ষার্থী তাকে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

এ প্রসঙ্গে জগন্নাথ হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মিহির লাল সাহা বলেন, ‘সকাল ১০টার দিকে সন্তোষ চন্দ্র ভট্টাচার্য ভবন থেকে পড়ে যান লিমন নামের এক ছাত্র। শব্দ শুনে হলের শিক্ষার্থীরা তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।’

তবে তার মৃত্যু আত্মহত্যা কি না তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

;

ঢাবির জগন্নাথ হলের ছাদ থেকে পড়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
লিমন কুমার রায়

লিমন কুমার রায়

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) জগন্নাথ হলের ছাদ থেকে পড়ে এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। নিহত ওই শিক্ষার্থী লিমন কুমার রায় (২০) বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের স্নাতক ৩য় বর্ষের ছাত্র।

২০১৯-২০ শিক্ষা বর্ষের লিমন বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলে সন্তোষচন্দ্র ভট্টাচার্য ভবনের ৪০২১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। তাঁর বাড়ি নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার মাগুরা গ্রামে।

বুধবার (২৩ নভেম্বর) সকাল ১০টার দিকে হলটির সন্তোষ ভবনের ছাদ থেকে পড়ে আহত হলে লিমনকে তাঁর সহপাঠীরা উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে পৌনে ১১ টায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ মিহির লাল সাহা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, লিমন কীভাবে পড়েছে সেটা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

বর্তমানে ঢাবি শিক্ষার্থী লিমন কুমার রায়ের মরদেহ ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে, বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া।

এদিকে হলটির বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সকালে ওই ভবনের ছাদে ফোনে কারও সঙ্গে কথা বলতে দেখা গেছে। তবে ধারণা করা হচ্ছে কথা বলার এক পর্যায়ে সে ছাদ থেকে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। কেন না একবুক রেলিং বেয়ে নিচে পড়ার সম্ভাবনা কারও নেই। তাছাড়া ছাদে তাঁর রেখে যাওয়া জুতা জোড়া পাওয়া গেছে।

;