বাঙালির ভাগ্যাকাশে নক্ষত্র হিসেবে আবির্ভূত হয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বাঙালির ভাগ্যাকাশে নক্ষত্র হিসেবে আবির্ভূত হয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু

বাঙালির ভাগ্যাকাশে নক্ষত্র হিসেবে আবির্ভূত হয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু

  • Font increase
  • Font Decrease

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ এর প্রো-ভাইস  চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. মাহবুবুল আলম জোয়ার্দার বলেছেন, যুগ যুগ ধরেই বিভাজনের রাজনীতির শিকার বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করার জন্য বাঙালির ভাগ্যাকাশে নক্ষত্র হিসেবে আবির্ভূত হয়েছিলেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করে একটি স্বাধীন ও সার্বভৌম  রাষ্ট্র উপহার দিয়েছেন। বাঙালির এই ঐক্য বিনষ্ট হয়েছে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নৃশংসভাবে হত্যা করার মাধ্যমে । 

মঙ্গলবার সকালে স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ কর্তৃক আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। 

প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর আরো বলেন, বাঙালি জাতিসত্তার চমৎকার বিষয় হচ্ছে আমরা পারি। আমাদের ঐক্যবদ্ধ করে পারতে শিখিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি আমাদের জাতিসত্তার পরিচয় এনে দিয়েছেন, নির্দিষ্ট ভূখণ্ড দিয়েছেন,আমাদের চিন্তার বিকাশ ঘটাতে শিখিয়েছেন,  নিজেদের সিদ্ধান্ত নিজেদের নিতে শিখিয়েছেন, সামাজিক এবং অর্থনৈতিক বৈষম্য দূর করতে শিখিয়েছেন,  অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে শিখিয়েছেন এবং এই প্রবৃদ্ধিকে সমাজের সবার সাথে ভাগাভাগি করতে শিখিয়েছেন।এটাই ছিলো আমাদের স্বাধীনতা। বর্তমানে, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে আমরা নিশ্চিত যে,আমরা পারি। আমাদের পদ্মা সেতু তার উজ্জল দৃষ্টান্ত। বাঙালি জাতি কোন দিকে যাবে সেই নির্দেশনা এখন তিনি দিচ্ছেন এবং তিনিই আমাদের দেখিয়ে দিয়েছেন যে,আমরা পারি।

আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি,বাংলাদেশ এর ট্রেজারার প্রফেসর ড.মোঃ আনোয়ার হোসেন ঐতিহাসিক তথ্যের আলোকে বলেন,এই জনপদের মানুষের চিন্তা,কর্ম ও চর্চার ভিন্নতা ও বিভাজনকে  ঐক্যবদ্ধ করে জাতিসত্তাকে সামনের দিকে এগিয়ে নেয়ার  লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু বাঙ্গালী জাতীয়তাবাদের ধারনাকে সামনে নিয়ে আসেন। এবং এই  ধারনার  ভিত্তিতেই ১৯৭১ সালে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে একটি স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন,তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সামছুদ্দীন আহমেদ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. আশরাফ উদ্দিন। আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ঢাবি ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ঢাবি ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা

ঢাবি ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শাখা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

শনিবার (৩ ডিসেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলন শেষে এ ঘোষণা দেন ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়।

তিনি বলেন, আজকের এই সম্মেলনের মাধ্যমে তাদের সফল কার্যক্রমের সমাপ্তি ঘটল। একইসঙ্গে আজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করছি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতৃত্ব প্রত্যাশী ২৪৫ জন নেতা সিভি জমা দিয়েছেন। আমরা মনে করি সবাই নেতৃত্ব পাওয়ার যোগ্য। তবুও সবকিছু বিবেচনা করে যোগ্যতার ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করবেন।

এদিকে সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, চিন্তার কোনো কারণ নেই। আগামী ৬ ডিসেম্বর ছাত্রলীগের জাতীয় সম্মেলনের পর কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ এবং মহানগরের (উত্তর-দক্ষিণ) কমিটি ঘোষণা করা হবে।

উল্লেখ্য, সোমবার (২১ নভেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় ৩০তম জাতীয় সম্মেলন সফলভাবে আয়োজন ও প্রস্তুতি উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আগামী ৩ ডিসেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার বিষয়টি ঘোষণা করা হয়।

২০১৮ সালের ২৯ এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মেলন হয়। সম্মেলনের আড়াই মাস পর ৩১ জুলাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হয়।

২০১৮ সালের ৩১ জুলাই এক বছর মেয়াদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের দায়িত্ব নেওয়ার পর পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতেই প্রায় ১০ মাস সময় নিয়েছেন সনজিত-সাদ্দাম। হল কমিটিগুলো করেছেন মেয়াদ শেষ হওয়ার আড়াই বছর পর।

;

‘নিজের ঘরে গণতন্ত্র নাই, গণতন্ত্র দেশে কিভাবে করবেন’



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
নিজের ঘরে গণতন্ত্র নাই, গণতন্ত্র দেশে কিভাবে করবেন

নিজের ঘরে গণতন্ত্র নাই, গণতন্ত্র দেশে কিভাবে করবেন

  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নাম টেনে এনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, নিজের ঘরে গণতন্ত্র নাই, গণতন্ত্র দেশে কিভাবে করবেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, কবে সম্মেলন করে জানে না। কোন শাখায় একটা সম্মেলনেও যান নি। ওয়ার্কিং কমিটির মিটিং কখনো করে নি। ৫০০-৬০০ লোকের জাম্বু-জেড মার্কা কমিটি ; বসবে কোথায়? লা মেরিডিয়ানে না’কি একটি মিটিং হয়েছে। ফখরুল, নিজের ঘরে গণতন্ত্র নাই, গণতন্ত্র দেশে কিভাবে করবেন। এ প্রশ্নের জবাব পাই না। কবে সম্মেলন হয়েছে ফখরুল জানে না।

শনিবার (৩ ডিসেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে অনুষ্ঠিত ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, তত্ত্বাবধায়ক আর হবে না। সংবিধান পরিবর্তন হওয়ার কোন সুযোগ নেই। সংবিধানকে অনেক কচু কাটা করেছেন। আইন করে বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের বিচার বন্ধ করেছিলেন। এটাও সেই রকম আইন; সেই আইন আর হবে না। সংবিধানে হাত দেয়ার অধিকার কারো নেই। তাই তত্ত্বাবধায়ক নিয়ে দিবাস্বপ্ন ও রঙিন খোয়াব দেখে লাভ নেই।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ পল্টনকে ভয় পায় না, পায় আপনাদের আগুন সন্ত্রাসকে। আগুন সন্ত্রাস, লাঠি নিয়ে খেলাধুলা সেই বদ মতলব আপনাদের আছে। সেজন্য পল্টন দরকার; ওখানে সব মজুদ করবেন। আর সারা দেশ থেকে নেতা-কর্মী আনবেন।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলাম কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনসহ ১৮টি হলের নেতাকর্মীরাসহ বিভিন্ন অনুষদ এবং ইনস্টিটিউট নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বেলা দুপুর সাড়ে ৩ টায় শুরু হয় জাতীয় সংগীত ও দলীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে বার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধন করা হয়।

;

জাফরু'র সভাপতি রুহুল কুদ্দুস, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজ মিশু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
জাফরু'র সভাপতি রুহুল কুদ্দুস, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজ মিশু

জাফরু'র সভাপতি রুহুল কুদ্দুস, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজ মিশু

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থীদের সংগঠন জার্নালিজম অ্যালামনাই ফোরাম অব রাজশাহী ইউনিভার্সিটি-জাফরু এর নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এতে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন রুহুল কুদ্দুস খান সুমন (প্রথম ব্যাচ)। সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন মাহফুজ মিশু (নবম ব্যাচ)।

শুক্রবার ২ ডিসেম্বর রাজধানীর পল্টন টাওয়ারে ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরাম-ইআরএফ কার্যালয়ে জাফরু'র বার্ষিক সাধারণ সভায় এই নতুন কমিটি গঠন করা হয়।

এসময় সংগঠনটির ২৩ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থীদের নাম ঘোষণা করা হয়। কমিটির সহ-সভাপতি পদে শাহনাজ সিদ্দিকী সোমা ও আরেফিন অডেন; যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সরদার মহিউদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক এম এরশাদ আলী, অর্থ সম্পাদক আইনুদ বিন্থ জুবাইর সনি, মানবসম্পদ ও প্রশাসন বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আনিসুল আশেকীন রাসেল, যোগাযোগ ও উন্নয়ন সম্পাদক জুয়েল কিবরিয়া, ক্রীড়া সম্পাদক যোবায়ের শাওন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক শাহ আলী জয় এবং মানবকল্যাণ সম্পাদক হিসেবে ইমরান খান নাহিদ নির্বাচিত হয়েছেন।

কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন- সাজ্জাদ আলম শাহীন, সাজেদুল ইসলাম খান, হুমায়ুন কবির নয়ন, মঈনুদ্দীন মিয়া নয়ন, আকতারুল ইসলাম, মো. আখতারুজ্জামান, পারভেজ হাসান তরফদার, খায়রুল আলম মনি, ফেরদাউস মোবারক এবং দেবাশীষ রায়।

কমিটি গঠনের আগে জাফরুর বিদায়ী কমিটির সভাপতি সাজেদুল ইসলাম রুবেলের সভাপতিত্বে বার্ষিক সাধারণ সভা হয়। পারভেজ হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের বিভিন্ন ব্যাচের সাবেক শিক্ষার্থীরা।

;

ঢাবি ছাত্রলীগের সম্মেলন আজ



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রায় সাড়ে চার বছর পর আজ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলন। শনিবার (৩ ডিসেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এ সম্মেলন বেলা ৩টা নাগাদ শুরু হবার কথা রয়েছে।

এতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সম্মেলনে প্রধান অতিথি থাকবেন। ছাত্রলীগ সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক পরিবেশ সমুন্নত, পরিচ্ছন্ন ও নান্দনিক ক্যাম্পাসের স্বার্থে শাখা ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলন উপলক্ষ্যে লাগানো সকল ব্যানার-ফেস্টুন সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শাখা ছাত্রলীগ।

উল্লেখ্য, সোমবার (২১ নভেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় ৩০তম জাতীয় সম্মেলন সফলভাবে আয়োজন ও প্রস্তুতি উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আগামী ৩ ডিসেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার বিষয়টি ঘোষণা করা হয়।

২০১৮ সালের ২৯ এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মেলন হয়। সম্মেলনের আড়াই মাস পর ৩১ জুলাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হয়।

২০১৮ সালের ৩১ জুলাই এক বছর মেয়াদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের দায়িত্ব নেওয়ার পর পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতেই প্রায় ১০ মাস সময় নিয়েছেন সনজিত-সাদ্দাম। হল কমিটিগুলো করেছেন মেয়াদ শেষ হওয়ার আড়াই বছর পর।

;