মুখের ত্বকে যা ব্যবহার করা অনুচিত

লেবু ত্বকে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে দেয়। ছবি: আসিফ

মুখের ত্বকের পরিচর্যা ও যত্নের জন্য ব্যবহার করা হয় ত্বকের জন্য উপকারি বেশ অনেকগুলো উপাদান।

যার মাঝে কিছু থাকে প্রাকৃতিক উপাদান ও কিছু প্রসাধনী সামগ্রী। তবে মুখের ত্বকে ব্যবহারের জন্য কোন জিনিসগুলো এড়িয়ে যাওয়া প্রয়োজন সেটা সম্পর্কে অনেকেই সচেতন নন। ফলে উপকারের বদলে দেখা দেয় নানান ধরণের ত্বকের সমস্যা।

আপনি হয়তো ভাবছেন, এই উপকরণটি ব্যবহার ত্বকের জন্য ভালো হতে পারে। আদতে তা ত্বকের জন্য বেশ ক্ষতিকর একটি উপকরণ! ত্বক সুস্থ রাখতে জেনে নিন মুখের ত্বকে কোন জিনিসগুলোর ব্যবহার এড়িয়ে চলবেন।

সাবান

আমেরিকান অ্যাকাডেমি অফ ডার্মাটোলজির মুখপাত্র এবং শিকাগো কসমেটিক সার্জারির চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ ওমর ইব্রাহিম জানান, মুখ পরিষ্কার করা খুবই স্পর্শকাতর ব্যাপার। মুখ পরিষ্কার ও মুখ থেকে বাড়তি তেল দূর করার জন্য কোন বিশেষ সামগ্রী দিয়ে মুখ ধোয়া প্রয়োজন। কিন্তু সাবান দিয়ে মুখ ধোয়ার ফলে মুখের বাড়তি তেলের সাথে প্রয়োজনীয় তেলও দূর হয়ে যায়। ফলে ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক হয়ে ওঠে। যা পক্ষান্তরে ত্বকের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। যে কারণে মুখ ধোয়ার জন্য সাবান ব্যবহার করতে চর্মরোগ বিশেষজ্ঞরা বিরত থাকতে বলেন।

আরো পড়ুন: মুখ ধোয়ার ক্ষেত্রে যে নিয়মগুলো অবশ্যই মেনে চলা প্রয়োজন!

লেবু

শারীরিক সুস্বাস্থ্যের জন্য লেবু উপকারি হলেও মুখের ত্বকের জন্য নয়। ডাঃ ধাভাল বানশালী জানান, লেবু কিংবা অন্য যেকোন সাইট্রাস ফল মুখের ত্বকে ব্যবহারে এক ধরণের কেমিক্যাল বার্ণ হয়। যাকে বলা হয় ফাইটোফটোডার্মাটাইটিস (Phytophotodermatities). মুখের ত্বকে কোনভাবেই লেবুর রস সরাসরি ব্যবহার করা যাবে না। অনেকেই অন্য কোন উপাদানের সাথে মিশিয়ে লেবুর রস ব্যবহার করে। সেক্ষেত্রেও সতর্ক থাকতে হবে।

নারিকেল তেল

মুখে নারিকেল তেল ব্যবহার করা একেবারেই বারণ। নারিকেল তেলে প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান সমূহ থাকলেও, এই উপাদানের অতিরিক্ত উপকারিতাগুলোই মুখে ব্যবহারের ক্ষেত্রে ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। ডাঃ ইব্রাহিম জানান, নারিকেল তেল অতিরিক্ত ঘন। ত্বকে ব্যবহার করলে ত্বক অতিরিক্ত তেল শোষণ করে নেয়। ফলে মুখের রোমকূপ বন্ধ হয়ে যায়। ত্বকের ব্যাকটেরিয়া ও ইষ্টের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। যা থেকে ব্রণ ও ইনফেকশন দেখা দেয়। এই কারণে মুখের ত্বক হালকা ঘরানার তেল যেমন অলিভ অয়েল ব্যবহার করতে হয়। তাও পরিমাণে খুব কম।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Sep/13/1536822086760.jpeg

মেয়াদোত্তীর্ণ সানস্ক্রিন

বাইরে প্রচন্ড রোদ দেখে গত বছরের সানস্ক্রিন ক্লজেট থেকে বের করে ব্যবহার করলেন। এতে ভালোর বদলে ক্ষতি হবার সম্ভবনাই বেশি। কেনো? ব্যাখ্যা করেছে ডাঃ ইব্রাহিম। তিনি জানান মেয়াদোত্তীর্ণ সানস্ক্রিনের কার্যকারতা নষ্ট হয়ে যায় একেবারেই। বরং তার কেমিক্যাল প্রভাব ত্বকের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে দেয়। যে কারণে অবশ্যই সানস্ক্রিনের মেয়াদ দেখে ব্যবহার করতে হবে।

বডি লোশন ও ক্রিম

বলুন তো, মুখের ত্বকে কতবার বডি লোশন ও ক্রিম ব্যবহার করেছেন? এ যাবতকাল পর্যন্ত যতবারই ব্যবহার করুন না কেন, এখন থেকে মুখের ত্বকে বডি লোশন ও ক্রিম ব্যবহার এড়িয়ে যেতে হবে। নারিকেল তেলের মতোই মুখের ত্বকে বডি লোশন ও ক্রিম নেতিবাচক প্রভাব ফেলে দেয়। কারণ বডি লোশন ও ক্রিম খুব ঘন ও ভারী হয়ে থাকে। যা একইভাবে মুখের ত্বকে ব্রণ ও ইনফেকশনের প্রাদুর্ভাব এনে দেয়।

লাইফস্টাইল এর আরও খবর

//election count down