Alexa

নারী কিনছেন অলংকার, বিক্রি বেড়েছে ফেরিওয়ালাদের

নারী কিনছেন অলংকার, বিক্রি বেড়েছে ফেরিওয়ালাদের

ঈদে নিজেকে সাজাতে নারী কিনছেন অলংকার/ছবি: বার্তা২৪.কম

কেনাকাটা করতে কে না পছন্দ করে। এরমধ্যে নারীরা একটু বেশিই। আর যদি হয় কোনো উৎসব তাহলে তো কথাই নেই। তাই তো ঈদের শপিং করতে রাজধানীর শপিংমল থেকে শপিংমলে ছুটছেন নারীরা। কিনছেন নতুন নতুন জামা-শাড়ির-জুতা। এসব কিনেই ক্ষান্ত নন, কারণ নিজেকে সাজাতে হবে মনে মতো। তাই নারীরা কিনছেন পোশাকের সঙ্গে ম্যাচিং করে অলংকারও।

সোমবার (২৭ মে) নিউমার্কেট, চন্দ্রিমা উদ্যান, গাউছিয়া ও রাফিন প্লাজায় গলি আর রাস্তার আশেপাশের মনিহার ফেলিওয়ালাদের কাছ থেকে অলংকার কেনার ধুম পড়ছে সকল বয়সী নারীদের।

নিউমার্কেটের মসজিদ গলির পাশে অলংকার ব্যবসায়ী মো. রবিন বার্তা২৪.কম বলেন, ‘নতুন কাপড় কেনার পর মেয়েরা এসব কিনতে আসে। অন্যান্য সময়ে চেয়ে অনেক বেশি বেচাবিক্রি হয়।’

রবিনের মত নিউমার্কেটর এলাকায় আশেপাশে অনেক দোকান আছে; কেউ কেউ হাতে ধরে ফেরি করছে। আবারও কেউ দোকান নিয়ে বসে আছে গলিতে। কারও দোকান আবার গেটে।

এসব দোকানে থরে থরে সাজিয়ে রেখেছে জুয়েলারি পণ্য; নামও বাহারি। মেয়েদের গলায় পড়ার জন্য আছে গোল্ড প্লেটের গয়না, ক্রিস্টালের গয়না, লহরি মালার আর মাদুলি; কানের জন্য কানের দুল,কানপাশা, মাকড়ি, ঝুমকা, হাতের বালা, বাজু, হাঁসুলি, হরেক রকমের চুড়ি, আছে ব্যাসলেট আর আংটি।

স্টেশনারির দোকানের থেকে ফুটপাত ও ফেরিওয়ালাদের কাছে গয়নার দাম কম বলে জানায় বিক্রেতারা। বিক্রেতা রবিন জানান, ৪০ থেকে ২৫০ টাকা মধ্যে সকল প্রকার গয়না পাওয়া যাচ্ছে। কিন্তু এগুলোই যদি ভালো শপিংমলের দোকানে কিনতে যান তাহলে দাম বেশি পড়বে।

রাফিন প্লাজায় কানের দুল কিনছেন ইডেন মহিলা কলেজের ছাত্রী মালিহা মৌ। ঈদের বাড়ির যাওয়ার আগে  ছোট বোনের জন্য কিনছেন বলে জানান তিনি।

মালিহা মৌ বলেন, ‘নতুন কাপড় তো কিনেছি। মেয়েদের সাজের জন্য আরও অনেক কিছু লাগে। সেগুলো কিনতে এসেছি।

আপনার মতামত লিখুন :