Barta24

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ৩১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

খাবারের আদলে আইশ্যাডো প্যালেট!

খাবারের আদলে আইশ্যাডো প্যালেট!
ছবি: বার্তা২৪.কম
ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
লাইফস্টাইল


  • Font increase
  • Font Decrease

মেকআপের রাজ্যে অন্যতম একটি অনুষঙ্গ হলো আইশ্যাডো।

সাজের পরিপূর্ণতা আনতে পোশাকের সঙ্গে ম্যাচিং করে ব্যবহার করা হয় বাহারি রঙের আইশ্যাডো। আইশ্যাডো বক্স বা প্যালেট সাধারণত কেমন হয়ে থাকে সে সম্পর্কে সকলেরই ধারণা আছে।

তবে মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজির অংশ হিসেবে বেশ কিছু নামীদামী মেকআপ ব্র্যান্ড আইশ্যাডোর প্যালেট তৈরি করেছে নানান রকম মুখরোচক খাবারের আদলে। আজকের ফিচারে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেওয়া হবে এমন কয়েকটি ভিন্নমাত্রার আইশ্যাডো প্যালেটের সাথে।

কিটক্যাট আইশ্যাডো প্যালেট

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/23/1553336139187.JPG

সাম্প্রতিক সময়ে বিউটি ব্র্যান্ড Etuda House কিটক্যাটের আদলে দুইটি ভিন্ন আইশ্যাডো প্যালেট এনেছে বাজারে। রাল রঙের প্যালেটটির নাম ‘অরিজিনাল’ ও গোলাপি-সাদা প্যালেটটি হলো ‘স্ট্রবেরি তিরামিসু’। প্রতিটি প্যালেটেই রয়েছে ছয়টি করে ভিন্ন মাত্রার আইশ্যাডো। এই আইশ্যাডো প্যালেট ও আইশ্যাডোগুলো হুট করে দেখলে চকলেট বার ভেবে ভুল করবে যে কেউ। প্রতিটি আইশ্যাডো প্যালেটের মূল্য পড়বে ২৪ মার্কিন ডলার বা ২০১৪ টাকা।

ডোনাট আইশ্যাডো প্যালেট

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/23/1553336153434.jpg

I Heart Revolution খুবই মজার আইশ্যাডো এনেছে। হাতের তালুর সমান ছোট ডোনাটের আকৃতির আইশ্যাডো প্যালেট তৈরি করেছে এই বিউটি ব্র্যান্ড। পাঁচটি ভিন্ন ভিন্ন রঙের ও শেডের এই আইশ্যাডো প্যালেটগুলো দেখতে যতটা সুন্দর, আইশ্যাডো হিসেবেও বেশ চমৎকার। এই আইশ্যাডোগুলো প্রতিটির মূল্য ৫ মার্কিন ডলার বা ৪১৯ টাকা।

পিৎজা আইশ্যাডো প্যালেট

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/23/1553336186024.jpg

মিষ্টি ঘরানার খাবারের আদলে তৈরি আইশ্যাডো প্যালেটের কথা তো জানা হলো, এবার জেনে নিন ঝাল ও মজাদার খাবারের আদলে তৈরি আইশ্যাডো প্যালেটের কাহিনী। সুপরিচিত বিউটি ব্র্যান্ড Glamlite Cosmetics তৈরি করেছে মাঝারি আকৃতির পিৎজা আইশ্যাডো প্যালেট। এমনকি এই আইশ্যাডো প্যালেটটি প্যাকেটজাত করা হয়েছে রিয়েল টেকআউট বক্সের আদলে। তাই কেউ এই প্যালেটটি কিনলে দ্বিধায় পরে যাবেন, এটা সত্যিকারের পিৎজা নাকি আইশ্যাডো প্যালেট।

এক একটি আইশ্যাডো প্যালেটে থাকবে মোট ১৮টি ভিন্ন রঙ। এমনকি এই রঙগুলোর নামকরণও করা হয়েছে পিৎজা টপিং এর নামানুসারে। যেমন: পেপারনি, পাইনঅ্যাপেল, এক্সট্রা চীজ প্রভৃতি। বড় আকৃতির এই প্যালেটটির দাম ৪০ মার্কিন ডলার তথা ৩৩৫৬ টাকা।

বার্গার আইশ্যাডো প্যালেট

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/23/1553336207046.JPG

শুধু পিৎজা লাভার নয়, বার্গার লাভারদের কথাও মাথায় রেখেছে Glamlite Cosmetics. তাইতো বিউটি ব্র্যান্ডটি তৈরি করেছে বার্গার আকৃতির আইশ্যাডো প্যালেট। ভিন্নধর্মী এই বার্গার প্যালেটে থাকবে ১৬টি ভিন্ন রঙের আইশ্যাডো। যার নামকরণ করা হয়েছে কেচাপ, মাস্টার্ড, লেটুস, টমেটো, পিকলস, অ্যাভকাডো, বেকন, চীজ প্রভৃতির নামানুসারে। মজার এই আইশ্যাডো প্যালেটটি কিনতে খরচ হবে ৪০ মার্কিন ডলার তথা ৩৩৫৬ টাকা।

আরও পড়ুন: ‘ডিজনিল্যান্ড ভিলেনস’ থিমে কালারপপ মেকআপ কালেকশন

আরও পড়ুন: পারফেক্ট সাজে আকর্ষণীয় আপনি!

আপনার মতামত লিখুন :

শারীরিক সুস্থতা পেতে গড়ুন ১০ অভ্যাস

শারীরিক সুস্থতা পেতে গড়ুন ১০ অভ্যাস
মানসিক অস্থিরতা কমাতে ডুব দিন প্রিয় বইয়ের পাতায়, ছবি: সংগৃহীত

কেবলমাত্র অসুস্থ হলেই সুস্থ থাকার মর্ম হাড়ে হাড়ে টের পাওয়া যায়।

শারীরিক অসুস্থতার জন্য ভুগতে হয়, কষ্ট পোহাতে হয় কেবলমাত্র নিজেকেই। কিন্তু অসুস্থতা ভালো হয়ে গেলেই আবারো সব ভুলে পুরনো অভ্যাসে ফেরা হয়। অথচ খুব চমৎকার ও সাধারণ নিত্যদিনের কিছু অভ্যাস গড়ে তুলতে পারলে শারীরিক সুস্থতা পাওয়া কঠিন কিছু নয়।

স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ, নিয়ম মেনে চলার পাশাপাশি নিজের মানসিক চাপ ও অশান্তিকেও নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। নতুবা কোন উপকারই পাওয়া যাবে না নিয়ম মেনে। খুবই উপকারী যে দশটি বিষয় মাথায় রাখা প্রয়োজন বয়স ও লিঙ্গ ভেদে সকলের, জেনে নিন সে বিষয়গুলো।

১. প্রতিদন নিয়ম করে ঠিক একই সময়ে সকাল, দুপুর ও রাতের খাবার গ্রহণ করুন। সময়ের পরিবর্তনে শরীরে চাপের সৃষ্টি হয়, যা থেকে স্ট্রেস হরমোন কর্টিসল নিঃসরণের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। এতে করে শরীরে ভারসাম্যের ব্যাঘাত ঘটে।

২. খুব বেশি মানসিক অশান্তি ও অস্থিরতায় আছেন? প্রিয় ও পছন্দের কোন বই পড়ুন। এতে করে মন অন্যদিকে কাজ করবে ও কর্টিসল নিঃসরণের মাত্রা কমে যাবে।

৩. চা পানের জন্য ফুটন্ত পানিতে টিব্যাগ ২-৩ মিনিটের বদলে ৫ মিনিট রাখুন। বিশেষত যদি গ্রিন টি পান করেন তবে অবশ্যই ৫ মিনিট রেখে এরপর সেই চা পান করবেন। এতে করে চায়ের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ভালোভাবে পানিতে মিশ্রিত হবে। গবেষক জানাচ্ছে, এই অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট হার্ট অ্যাটাক, ক্যানসার, টাইপ-২ ডায়বেটিস দেখা দেওয়ার হার কমাতে কাজ করে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/15/1563194079935.jpg

৪. অফিসে দীর্ঘসময়য়ের জন্য বসে থাকা হয় প্রায় প্রতিদিন। সেটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এখন থেকে চেষ্টা করবেন প্রতি দুই ঘণ্টা অন্তর বসা অবস্থা থেকে দাঁড়িয়ে যেতে ও বেশ কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকতে। দীর্ঘসময় বসে থাকার ফলে ট্রাইগ্লিসারাইডের মাত্রা বৃদ্ধি পায় ও ভালো কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে যায়। এতে করে হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকি বেড়ে যায় অনেকটা।

৫. খাদ্যাভ্যাসের মাঝে যদি কোন পরিবর্তন আনতে চান, তবে প্রথমেই মাংস গ্রহণের পরিমাণ কমিয়ে ফেলুন। উদাহরণস্বরূপ ধরা যাক, আপনি ৪ টুকরো মাংস খান। এখন থেকে চেষ্টা করুন ২ টুকরো খাওয়ার। বাকি দুই টুকরোর স্থানে রাখুন সবজি ও ফল।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/15/1563194093891.jpg

৬. প্রতিদিন একটি আপেল, চিকিৎসককে দূরে রাখতে সাহায্য করবে- বহু পুরনো এই কথাটাই নতুনভাবে আবারো মনে করিয়ে দেওয়া হলো। ফলের মাঝে আপেলের বিকল্প নেই। এই ফলের স্বাদ সবার কাছে ভালো না লাগলেও, এর স্বাস্থ্য উপকারিতা অতুলনীয়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/15/1563194106249.jpg

৭. প্রচণ্ড কাজের চাপ, মানসিক চাপ, চারদিকের সবকিছু খুব বেশি অস্থির করে তুলছে? বই পড়তে, গান শুনতেও ইচ্ছা করছে না? বাম হাত শক্তভাবে মুঠি করে কিছুক্ষণ রেখে দিন। আবার খুলুন, আবার বন্ধ করুন। খুব সহজ এই পদ্ধতিতেই খেলোয়াড়রা নিজেদের শান্ত রাখেন ও মস্তিষ্ককে প্রশান্ত করেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/15/1563194621626.jpg

৮. অফিসে কাজের পাহাড়ে হিমশিম খাচ্ছেন, অস্থিরতায় কর্টিসলের মাত্রা বেড়েই চলেছে। চটজলদি ইউটিউবে ফানি ক্যাট ভিডিও দেখে ফেলুন। পনের-বিশ মিনিট সময় ব্যয় করুন এমন মজার ভিডিও দেখে। এরপর আবারও কাজের সমুদ্রে ঝাঁপ দিন। সাইকোলজি টুডে জানাচ্ছে, গবেষণা থেকে দেখা গেছে যে বিড়ালের মজার ভিডিও মানসিক অস্থিরতা কমাতে কাজ করে ও আবারো কাজ করার উদ্যম ফিরিয়ে আনে।

৯. হুটহাট ছোটখাটো ক্ষুধাভাবকে তাড়াতে বেছে নিন বাদাম। স্বাস্থ্যকর ফ্যাট ও বিভিন্ন স্বাস্থ্য উপকারিতা সমৃদ্ধ বাদাম খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা ও প্রদাহ কমাতে কাজ করবে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/15/1563194123306.jpg

১০. সানস্ক্রিনকে ভুলে গেলে একেবারেই চলবে না। খুবই প্রয়োজনীয় এই জিনিসটিকে প্রতিদিনের ব্যবহার্য অনুষঙ্গের মাঝে অবশ্যই রাখতে হবে।

আরও পড়ুন: নিজের যত্নে অবহেলা নয়

আরও পড়ুন: যে অভ্যাসগুলো কমাবে বয়স বৃদ্ধির হার

দাঁতে নখ কাটার ৭ স্বাস্থ্য ঝুঁকি

দাঁতে নখ কাটার ৭ স্বাস্থ্য ঝুঁকি
বেশ কয়েক ধরনের স্বাস্থ্য ঝুঁকি দেখা দিতে পারে এই অভ্যাস থেকে, ছবি: সংগৃহীত

সারাদিনে সব কাজ করা হয় হাত দিয়েই।

অনেক সময় খেয়াল থাকে না কী করা হয়েছে এবং সেই নোংরা হাতের নখ বেখেয়ালে কাটেন অনেকেই। এর ফলে ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস সহ ময়লাগুলো শরীরে প্রবেশ করে অবলীলায়।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে নখ কাটা হয় স্বভাববশত। আবার কোন সমস্যা যেমন- কিছু ভাবলে, চিন্তা করলে, অন্যমনস্ক হলে, কারো সাথে কথা বলার সময়, বকা শুনলে, কোন কারণে রাগান্বিত হলে ইত্যাদি কারণেও নখ কাটা হতে পারে।   

অনেকেই ভাবেন দাঁতে নখ কাটার অভ্যাস কেনো কেউ নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনা, এটি জটিল কোন ব্যাপার তো নয়। Onychophagia একটি অনিয়ন্ত্রিত মৌখিক স্বাস্থ্যজনিত রোগ বা দাঁতে নখ কাটার অভ্যাস। অনেকেই এই সমস্যায় ভুক্তভোগী।

কিন্তু জেনে রাখা প্রয়োজন দাঁতে নখ কাটার ফলে দেখা দিতে পারে, কোন ৭ ধরণের স্বাস্থ্য ঝুঁকি। সেক্ষেত্রে নিজের এই বদঅভ্যাসটি নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ হবে।

ত্বকের ইনফেকশন

নিউ ইয়র্ক শহরের ত্বক-বিশেষজ্ঞ দেব্রা জলিমান এমডি স্বাস্থ্য সংস্থাকে জানান, দাঁতে নখ কাটার ফলে জীবাণু সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়। এমন একটি জীবাণু হলো, প্যারোনিচিয়া। যার ফলে ত্বক লাল হয়ে ফুলে যেতে পারে এবং নখের ভেতরে ইনফেকশন দেখা দিতে পারে।

আঙ্গুলের বিকলাঙ্গতা

ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিভেনশন রিসার্চ সেন্টারের পরিচালক ডেভিড কাটজ জানান, প্যারোনিচিয়া বা ব্যাকটেরিয়াজনিত ইনফেকশন যদি অতিমাত্রায় হয়ে যায় তাহলে তা হাতের হাড়ের বন্ধনীগুলোতেও ইনফেকশন ছড়িয়ে দিতে পারে। এটি সেপ্টিক আর্থথ্রিটিস নামক একটি অবস্থার ফলে হতে পারে, যা নিরাময় করা কঠিন এবং অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হতে পারে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/15/1563189891612.jpg

নখের আকৃতির বিকৃতি

চিকিৎসক জলিমান ব্যাখ্যা করেছেন, দীর্ঘদিন যাবৎ দাঁতে নখ কাটালে নখের নিচে থাকা টিস্যু নষ্ট হয়ে যেতে পারে ও এর ফলে নখের আকৃতির বিকৃতি দেখা দিতে পারে। এছাড়াও নখের শিরার সমস্যা হলে নখ বড় হওয়া বন্ধ হয়ে যায়।

হার্পিস ভাইরাস

ঠাণ্ডা-জ্বরের মাঝে দাঁতে নখ কাটলে মুখ ও ঠোঁটের মাধ্যমে হার্পিস নামক ভাইরাস নখে ইনফেকশন সৃষ্টি করতে পারে। ফলে ঠোঁট ও নখে ঠোসা জাতীয় ইনফেকশন হতে পারে।

দাঁতের সৌন্দর্য নষ্ট

একাডেমি অব জেনারেল ডেন্টিস্ট্রি সহ মেরিল্যান্ড-ভিত্তিক দন্তচিকিৎসক গিগি জানান, রোগীদের দাঁতে নখ কাটার ভফলে সবচেয়ে বড় সমস্যা হয় তাদের চিকন ও ভঙ্গুর দাঁতে। দাঁতে নখ কাটার ফলে জীবাণুগুলো দাঁতকে কালো, নষ্ট করে ফেলে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/15/1563189876237.jpg

দাঁতের স্থান পরিবর্তন

যারা সাধারণত দাঁতে নখ কাটেন, তারা নিয়মিত একটি নির্দিষ্ট দাঁতেই নখ কেটে থাকেন। এর ফলে দাঁতে বারংবার চাপ অরথোডন্টিক প্রয়োগের মতো কাজ করে। এতে দাঁতের স্থান সরে যেতে পারে।

মাড়ির সমস্যা

চিকিৎসক মাইনকে সতর্ক করেছেন, মাঝে মাঝে দাঁতে নখ কাটার ফলে নখের ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র টুকরোগুলো মাড়িতে গিয়ে আটকিয়ে যায়। এতে সৃষ্টি হয় মাড়ি ফোলা, রক্ত বের হওয়া, ব্যথা করা সহ নানান ইনফেকশন।

কিভাবে নখ কামড়ানোর অভ্যাস পরিত্যাগ করা যাবে?

১. নখ কেটে ছোট করে রাখতে হবে। নখ কাটটে হবে নখের মাংসের একটু নিচে, যাতে দাঁতের স্পর্শে না আসে। 

২. নারীরা নখে দামি নেইলপলিশ ব্যবহার করতে পারেন, তাহলে তা নষ্ট করতে না চাইলে নখ কামড়ানো থেকে বিরত থাকতে পারবেন।

৩. হাতে স্ট্রেস বল বা রাবার জাতীয় কিছু নিয়ে রাখতে পারেন।

সাথে নিজেও খুঁজে নিতে পারেন এমন কোন পদ্ধতি, যেটি আপনাকে দাঁতে নখ কাটা থেকে দূরে রাখবে।

আরও পড়ুন: প্যাসিভ স্মোকিংয়ে ক্যানসার ঝুঁকিতে আমরা সবাই!

আরও পড়ুন: সুস্থতার জন্যে বিশ্রাম ও ঘুম কতটা জরুরি?

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র