Barta24

বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯, ৯ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

বাজেটে আয়-ব্যয়ের ভারসাম্য নেই: গণদল

বাজেটে আয়-ব্যয়ের ভারসাম্য নেই: গণদল
গণদলের চেয়ারম্যান এটিএম গোলাম মাওলা চৌধুরী/ ছবি: সংগৃহীত
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

গণদলের চেয়ারম্যান এটিএম গোলাম মাওলা চৌধুরী বলেছেন, `বিশাল বাজেট, কিন্তু তা কখনোই গণমানুষের কল্যাণ বয়ে আনবে না। আয়-ব্যয়ের ভারসাম্য নেই। এর চাপ পড়বে সাধারণ মানুষের উপর।'

শরিবার (১৫ জুন) রাজধানীর মৌচাকে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে প্রস্তাবিত বাজেটোত্তর যৌথসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ঐক্যফ্রন্ট নেতা গোলাম মাওলা বলেন, ‘ফের করের বোঝা বাড়ানো হয়েছে। ভ্যাট আইনে নতুন সংযোজন আনা হয়েছে। ভ্যাট আদায়ে নিশ্চয়তা নেই। মধ্যম ও নিম্ন পর্যায়ের ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তাদের ভ্যাটের চাপ নিতে হবে বেশি। এতে করে নতুন উদ্যোক্তারা পিছিয়ে পড়বে।’

তিনি বলেন, ‘প্রস্তাবিত বাজেট কার্যকর হবে আগামী ১ জুলাই থেকে, অথচ ১৩ জুন বাজেটে উপস্থাপনের পরপরই নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বেড়ে গেছে। কর আরোপ করে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য- চিনি, ভোজ্য তেল, গুড়ো দুধ, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়ানো হয়েছে। যা জনগণের জীবন-যাপনে বড় ধরনের আঘাত আনবে। কৃষক দেশের প্রাণ। তাদের বাঁচাতে ধান ক্রয়সহ অন্যান্য ক্ষেত্রে প্রণোদনা নেই।’

তিনি বলেন, ‘মোবাইল ফোন এখন আর বিলাসিতা নয়। এটি যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম। তাই মোবাইল ফোনে কথা বলার উপর আরোপিত শুল্ক কর জনগণের পকেট কাটা ছাড়া আর কিছুই নয়।’

মাওলা চৌধুরী বলেন, ‘সরকার ডিজিটাল উন্নয়নের কথা বলছেন, অথচ আইসিটি সেক্টরে ব্যবহৃত আইটেম সমূহে কর বৃদ্ধি করা হয়েছে। এ খাতে ধীরে ধীরে তরুণ প্রজন্ম ঝুঁকছে। বাড়ছে উদ্যোক্তা। কর আরোপের ফলে বাধাগ্রস্ত হবে নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টি, বন্ধ হবে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ।’

ফের ব্যাং.ক থেকে ঋণ বিরাজমান সংকটকে আরও ঘনীভূত করবে। এছাড়া কঠিন শর্তসহ বিদেশি ঋণ দেওয়া হয়। এসব ঋণের বোঝা বেশ ভারী হয়। ভবিষ্যতে এ ধরনের ঋণ দেশের অর্থনীতিতে দীর্ঘমেয়াদী নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। এ জন্য সরকারকে সর্তক পদক্ষেপ নিতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘মাথাপিচু আয় বেড়েছে দু’হাজার ডলার। কিন্তু ঋণের বোঝা বাড়ছে। আগামীকাল যে শিশুটি জন্ম নেবে, সে ৭০ হাজার টাকা ঋণের বোঝা নিয়ে পৃথিবীতে আসবে।’

যৌথসভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দলের মহাসচিব আবু সৈয়দ, ভাইস চেয়ারম্যান শাহ আলম হাওলাদার, যুগ্ম মহাসচিব নুরুল কাদের চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নেতা জহিরুল ইসলাম, মাওলানা নুরুল কাদের সিদ্দিকী, অ্যাড. মিজান, ডা. এনামুল হক, তাইফুর নাহার রোজি প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :

গুজব প্রতিরোধে সভা সমাবেশ করবে আ'লীগ

গুজব প্রতিরোধে সভা সমাবেশ করবে আ'লীগ
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

সারাদেশে গুজব প্রতিরোধে সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের নেতারা সভা সমাবেশ করবেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বুধবার (২৪ জুলাই) বেলা ১২টায় সচিবালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, 'সারাদেশে গুজব থেকে অনেক দুঃখজনক ও মর্মান্তিক ঘটনা ঘটছে। আহত-নিহত হওয়ার মতোও ঘটনা ঘটেছে। গুজব রটিয়ে গণপিটুনির মতো ঘটনায় সরকার কঠোর অবস্থান নিয়েছেন। আমার বিশ্বাস বিষয়টি নিয়ন্ত্রণে আসবে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী-আইজিপির সঙ্গে আমার কথা হয়েছে, তারা যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছে।'

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা দলীয়ভাবেও নির্দেশ দিয়েছি, দলের নেতারা যেন সতর্কতামূলক সভা সমাবেশ করে। গুজব থেকে গণপিটুনির মতো দুঃখজনক ঘটনা না ঘটতে পারে সেজন্য দলীয়ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এমপিরাও যার যার এলাকায় গিয়ে সভা সমাবেশ করবেন। চিফ হুইপের মাধ্যমে এ সংক্রান্ত নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। যারা গুজব সৃষ্টি করবে তাদের বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আইন হাতে নেওয়ার অধিকার কারো নেই। এটি অপরাধ-অপকর্ম।

তিনি আরও বলেন, জড়িদের অনেকে গ্রেফতার হয়েছে। আমি সবার প্রতি অনুরোধ জানাই কেউ আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না, গুজব ছড়াবেন না এবং অপপ্রচারে বিভ্রান্ত হবেন না।

দোষীদের শাস্তির আওতায় আনার বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, কতগুলো ঘটনা ঘটছে, সেখানে যোগসূত্র আছে কিনা সেটি দেখা হচ্ছে। সবগুলো ঘটনার যোগসূত্র মিলিয়ে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির ষড়যন্ত্র কিনা তা গভীরভাবে খতিয়ে দেখছি। যেসব অপরাধী আটক হচ্ছে, রাতারাতি তো তাদের ফাঁসি দেওয়া যাবে না। আইন অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অপরাধী যেই হোক প্রত্যেককে আইনের আওতায় আসতে হবে। 

এরিকের সুরা পাঠে এরশাদের দোয়া মাহফিল

এরিকের সুরা পাঠে এরশাদের দোয়া মাহফিল
বাবার জন্য দোয়া করছে এরিক, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

বারিধারার বাসায় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের স্মরণে আয়োজিত দোয়া মাহফিলে সুরা পাঠ করলেন ছেলে এরিক এরশাদ।

তার দোয়া পাঠের মধ্য দিয়ে মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) বাদ আছর প্রেসিডেন্ট পার্কে পরিবারের পক্ষ থেকে আয়োজিত এ দোয়া মাহফিল শুরু হয়।

দোয়ার আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেন, ‘ওনার (এরশাদ) চারটি জানাজায় যে লোক সমাগম হয়েছে, তা অভূতপূর্ব। যেখানে যে জানাজা হয়েছে, সেখানকার লোক সেটাকে রেকর্ড বলেছেন। এটা ওনার প্রতি ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি চিঠি দিয়ে শোক প্রকাশ করেছেন। মোদি লিখেছেন, এরশাদ আমাদের অকৃত্রিম বন্ধু ছিলেন। তিনি বাংলাদেশের জন্য যা করে গেছেন, দেশের মানুষ ওনাকে চিরকাল স্মরণ রাখবে। আরো অনেক দেশ থেকে প্রশংসাসূচক চিঠি এসেছে।’

শুধু দেশে নয়, বিদেশেও সম্মান পেয়েছেন তিনি। শুধু গরিব নয়, বিত্তশালীরাও ওনার জন্য চোখের জল ফেলেছেন বলে মন্তব্য করেন জিএম কাদের।

দোয়া মাহফিলে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা ছাড়াও তার প্রতিবেশীরা অংশ নেন। মোনাজাতের প্রায় পুরোটা সময় ধরে চোখের জল ফেলেন এরিক।

সিনিয়র নেতাদের মধ্যে এ মাহফিলে অংশ নেন মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা, সাবেক মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান, আব্দুস সাত্তার, শেখ সিরাজুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান, সালমা ইসলাম এমপি, মেজর (অব.) খালেদ আখতার, ফখর উজ জামান জাহাঙ্গীর সৈয়দ দিদার বখত, রেজাউল ইসলাম ভুইয়া প্রমুখ।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র