Barta24

বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

খালেদা জিয়ার মুক্তির পথ খুঁজতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠক

খালেদা জিয়ার মুক্তির পথ খুঁজতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠক
গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়/ ছবি: বার্তা২৪.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপি চেয়ারপারসন কারাবন্দি খালেদা জিয়ার মামলার গতি-প্রকৃতি পর্যালাচনা ও মুক্তির বিষয়ে করণীয় নিয়ে জরুরি বৈঠক করেছে দলটির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরামের সদস্যরা। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান স্কাইপিতে যুক্ত ছিলেন।

শনিবার (১৫ জুন) বিকাল সাড়ে ৫টা থেকে সন্ধ্যা পৌনে ৮টা পর্যন্ত বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। পরে এ কমিটির সদস্যরা খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

বৈঠকের পর উপস্থিত নেতারা কেউ সাংবাদিকদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো কথা বলেননি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/15/1560621058149.jpg

পরবর্তীতে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাড. জয়নুল আবেদিন বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'খালেদা জিয়ার মামলা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। মামলাগুলো কিভাবে কী করা যায়, কিভাবে তাকে মুক্ত করা যায়, কতগুলো মামলা আছে- এসব বিষয়ে কথা হয়েছে। কিভাবে সামনে আগানো যায়, আইনজীবীরা কে কী দায়িত্ব পালন করবেন, তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।'

বৈঠক শেষে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বেরিয়ে আসলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, 'খালেদা জিয়ার মামলার গতিপ্রকৃতি ও করণীয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এজন্যই আইনজীবীদের ডেকে আলোচনা করা হয়েছে। এ নিয়ে শীঘ্রই আবারো বসব। তখন গণমাধ্যমকে সব জানানো হবে।’

তিনি বলেন, ‘বৈঠকে জাতীয় সংসদ ও ঐক্য সম্প্রসারণের সার্বিক বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আলোচনা আরও হবে।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/15/1560621087729.jpg

প্রায় সাড়ে চার ঘণ্টার বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান ও আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

পরে আইনজীবীরা বৈঠকে যোগ দেন। তখন উপস্থিত ছিলেন বিএনপি'র ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাড. খন্দকার মাহবুব হোসেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক এটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী, অ্যাড. আবদুর রেজাক খান, আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, অ্যাড. মাসুদ আহমেদ তালুকদার ও ব্যারিস্টার মীর হেলাল।

আপনার মতামত লিখুন :

ধর্ষকের শাস্তি আমৃত্যু কারাদণ্ড হোক: বি. চৌধুরী

ধর্ষকের শাস্তি আমৃত্যু কারাদণ্ড হোক: বি. চৌধুরী
মানববন্ধনে বক্তব্য দেন অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

বাংলাদেশে ধর্ষকের শাস্তি যাবজ্জীবন থেকে আমৃত্যু কারাদণ্ড করার দাবি জানিয়েছেন বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট ও যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান এবং সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে নারী ও শিশু নির্যাতন আইন (২০০৩) প্রয়োগের দাবিতে এক মানববন্ধনে তিনি এ দাবি জানান। বিকল্পধারা বাংলাদেশ এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, ‘শিশুদের যারা ধর্ষণ করে তারা মানুষ হতে পারে না। আজকে ভারতবর্ষে আইন পাস করা হয়েছে ১২ বছরের নিচের শিশুদের যারা ধর্ষণ করবে তাদের একমাত্র শাস্তি হবে মৃত্যুদণ্ড। আমরা মৃত্যুদণ্ডের বিরোধী। কিন্তু যেখানে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড রয়েছে সেখানে যাবজ্জীবন কেটে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিতে হবে। এই ব্যবস্থা আপনি (প্রধানমন্ত্রী) করুন। সারাদেশের জনগণ আপনাকে সমর্থন করবে।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/18/1563439240641.jpg

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশে আজকে ধর্ষণের সংখ্যা বাড়ছে। এই লজ্জা সারা পৃথিবীর কাছে আমাদের মাথা হেট করে দিয়েছে। আজকে আমাদের মায়েরা, মেয়েরা, কন্যারা কেউ নিরাপদ নয়। স্কুলে তারা নিরাপদ নয়, বাড়িতে নিরাপদ নয়, বিশ্ববিদ্যালয়ে নিরাপদ নয়, এমনকি মাদরাসায়ও নিরাপদ নয়। এর চেয়ে বড় লজ্জার আর কি হতে পারে। প্রধানমন্ত্রী আপনি একজন নারী, আপনি একজন মা। সেই হিসেবে সারা দেশের সঙ্গে আমরা কণ্ঠ মিলিয়ে বলছি আমাদের দাবি মানতে হবে।’

যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান বলেন, ‘আজকে যে ধর্ষণের সংখ্যা বেড়েছে তা জাতির জন্য, ইতিহাসের জন্য বড় লজ্জার। ধর্ষণের জন্য বড় বড় আইন আছে, কিন্তু সেই আইনের প্রয়োগ আমরা দেখতে পাই না। যেভাবে আইন প্রয়োগ করার কথা ছিল সেভাবে আইন প্রয়োগ করা হচ্ছে না।’

মানববন্ধনে বিকল্পধারার সিনিয়র নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

পার্টির ফোরাম বিরোধী দলীয় নেতা নির্বাচন করবে

পার্টির ফোরাম বিরোধী দলীয় নেতা নির্বাচন করবে
সাংবাদিক সম্মেলনে জিএম কাদের/ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

পার্টির ফোরামে বসে বিরোধী দলীয় নেতা নির্বাচন করা হবে। বিষয়টি অনেকটা স্পিকারের উপর নির্ভরশীল, তবে জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে সুপারিশ দেওয়া হবে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) দুপুরে জাতীয় পার্টির বনানী কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা কে হবেন এমন প্রশ্নে জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

জিএম কাদের বলেন, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে প্রাকৃতিক দুর্যোগের সুদক্ষ ব্যবস্থাপক বলা হয়। উনি বেঁচে থাকলে আজকে বন্যা কবলিতদের পাশে ছুঁটে যেতেন। আমরা জাতীয় পার্টিরসহ সর্বস্তরের জনগণকে যার যার সামর্থ্য অনুযায়ী বন্যার্ত্যদের পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ করছি। পার্টির পক্ষ থেকে টিম গঠন করে অচিরেই বন্যার্ত্যদের পাশে দাঁড়ানো হবে।

ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকারকে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান জিএম কাদের।

রংপুরের উপনির্বাচন প্রশ্নে জিএম কাদের বলেন, এ বিষয়ে আমরা এখনও কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহন করিনি। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী বোর্ড চুড়ান্ত করবে প্রার্থী।

জিএম কাদের বলেন, মিডিয়ার ভূমিকার কারণে কোনো গুজব মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারেনি। দেশের মানুষ সঠিক তথ্য জানতে পেয়েছেন। একজন রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে উনি আপনাদের কাছে যা পেয়ে গেলেন এ দেশের ইতিহাসে এক বিরল ঘটনা হয়ে থাকবে। টানা ষোলো দিন উপস্থিত হয়ে, কোনো বরেন্দ্র ব্যক্তির স্বাস্থ্যগত অবস্থা সম্পর্কে এভাবে প্রচার হয়েছে বলে আমার মনে পড়ে না।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা, প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, সুনীল শুভরায়, এসএম ফয়সল চিশতী, মেজর (অব.) খালেদ আখতার, রেজাউল ইসলাম ভুইয়া প্রমুখ।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র