Alexa

উদ্ভট উটের পিঠে চলেছে বিএনপি?

উদ্ভট উটের পিঠে চলেছে বিএনপি?

জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া, তারেক রহমান ও মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ছবি: সংগৃহীত

দিকভ্রান্ত, পথহারা উটের দশা হয়েছে বিএনপির। বাংলাদেশের অন্যতম শক্তিশালী রাজনৈতিক দল বিএনপি তার জন্মের পর এতোটা অসহায় আর কখনোই হয়নি। কে চালাচ্ছে বিএনপি? কোন নীতিতে চলছে দল? কে কাকে মানছে? এসব প্রশ্নের সদুত্তর পাচ্ছে না দলের লক্ষ লক্ষ কর্মী-সমর্থক।

একের পর এক দ্বিধা ও দোদুল্যমানতা নিয়ে বিএনপি এসে দাঁড়িয়ে খাদের কিনারে। পুতুলের মতো লক্ষ লক্ষ কর্মী-সমর্থক তাকিয়ে আছে এক অদৃশ্য শীর্ষ নেতৃত্বের দিকে। যে নেতৃত্ব ঢাকায় অবস্থানকারী বিএনপি’র নেতা-কর্মীদের কাছেও অস্পষ্ট ও অধরা।

দলের কোনও কোনও নেতার পক্ষ থেকে বলা হলো, ‘তারেকের কথায় বিএনপি চলে না।’ আবার আরেক দলের মুখ দিয়ে বলানো হলো ‘তারেকের কথাতেই বিএনপি চলে'। ‘তারেকের কথাতেই সংসদ সদস্যরা শপথ নিয়ে অধিবেশনে যোগ দিয়েছেন।’ সেই যোগদানে সবাই এলেও এলেন না মহাসচিব মির্জা ফখরুল! তিনি তবে কার কথায় চলছেন?

শুধু শপথ বা সংসদে যোগদান প্রসঙ্গেই নয়, সামান্য যে কোনও বিষয়েও বিএনপিতে ঐক্য নেই, পরিষ্কার কর্মসূচি নেই, সুনির্দিষ্ট দিক-নির্দেশনা নেই। এখন ‘এইমত’ তো তখন ‘আরেক মত’ গ্রহণ করে বিএনপি অসংখ্য নেতা-কর্মী-সমর্থকদের চরম হতাশা ও দিকভ্রষ্টতার মধ্যে ফেলে দিচ্ছে। মনে হচ্ছে, রাজনীতির কঠিন পথ নয়, বিএনপি চলছে বিনোদনের পুতুলনাচের পুতুলের মতো। অদৃশ্য সুতার টানে এলোমেলো নেচেই যাচ্ছে দলটি।

দলের চরম হতাশাজনক পরিস্থিতি সম্পর্কে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) একজন বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'বিএনপির দুরবস্থার জন্য আমরা সরকারকে দোষ দিই। কিন্তু নিজেদের অযোগ্যতার জন্য কোনও আত্ম-সমালোচনা করতে পারি না। জিয়াউর রহমান প্রতিষ্ঠিত ও বহুবার ক্ষমতায় থাকা দলটি আদর্শহীন হওয়ার পেছনে কে দায়ী? অযোগ্য নেতৃত্বের বোঝা বৃদ্ধি করার দায়িত্ব কার? এসব প্রশ্নের উত্তর একদিন দিতে হবে।'

তবে এই বুদ্ধিজীবী মনে করেন, 'হতাশ হয়ে হাল ছেড়ে দেওয়ার কিছু নেই। যদি বিএনপি বিদ্যমান রাজনৈতিক বাস্তবতা অনুধাবন করে পদক্ষেপ নিতে পারে, তবে অচিরেই দলটি মাথা তুলে দাঁড়াবে।'

‍কিন্তু তিনি এ সংশয়ও প্রকাশ করেন যে, 'তৃণমূলের সঙ্গে সম্পর্কহীন, বাক্যবাগীশ ও অবিশ্বস্ত নেতাদের দিয়ে যে কাজের কাজ হবে না, লন্ডনে অবস্থান করে দলের বর্তমান শীর্ষ নেতা তারেক রহমান তা বুঝতে পারছেন না।'

ঢাবির এই শিক্ষক আশঙ্কা প্রকাশ করেন, 'তারেক রহমানের কথাকে দলের মধ্যে ঘাপটি মেরে থাকা সুবিধাবাদী মহল নিজ নিজ স্বার্থে ভুলভাবে তুলে ধরছে। কিংবা তাকে ভুল ধারণা দিয়ে বিপথে চালানো হচ্ছে। নেতৃত্বের ক্ষেত্রে এসব সমস্যার সমাধান করা না হলে বিএনপির অচলাবস্থা ও দিকভ্রান্তি চলতেই থাকবে।'

আপনার মতামত লিখুন :