Barta24

শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

English

খালেদা জিয়া ভালো নেই, দাবি বিএনপি নেতাদের

খালেদা জিয়া ভালো নেই, দাবি বিএনপি নেতাদের
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া/ ছবি: সংগৃহীত
শিহাবুল ইসলাম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসা চলছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ প্রথম দিন থেকেই বলে আসছেন খালেদা জিয়া ভালো আছেন। তাঁর চিকিৎসা চলছে।

কিন্তু বিএনপির নেতারা বলছেন, খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা হচ্ছে না, তিনি ভালো নেই। দরকার আরও উন্নত চিকিৎসার। এমনকি সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর চিকিৎসা নিয়ে সরকার লুকোচুরি খেলছে বলেও মনে করেন দলটির নেতারা।

বিএনপি নেতারা বলেছেন, খালেদা জিয়ার অমতে তাঁকে বিএসএমএমইউ নেওয়া হয়। খালেদা জিয়ার পছন্দ ইউনাইটেড হাসপাতাল, কিন্তু সেখানে তাঁকে নেওয়া হয়নি।

নেতারা বলছেন, খালেদা জিয়ার সাথে কাউকে দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না, সবার কাছ থেকে তাকে আলাদা করে রাখা হয়েছে। এতে তিনি প্রকৃত পক্ষে কেমন আছেন তা জানতে পারছেন না।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'হাসপাতালের ভেতরে তো আমাদের যেতে দেয় না, তবে তাঁর (খালেদা জিয়ার) খুব একটা উন্নতি হয়েছে এরকম কিছু শুনি নাই। ডাক্তারদের মাধ্যমেও কিছু জানতে পারিনি। আমাদের জানামতে, খুব উন্নত কিছু হয়নি।’

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তো বলছেন, খালেদা জিয়া এখনকার চিকিৎসায় খুশি, ভালো আছেন- এই বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তারা (ডাক্তাররা) সবসময়ই এসব কথা বলেছেন।’

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা চিন্তা করে বিএনপি বাধ্য হয়েই খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউ-তে নিয়েছে জানিয়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, 'ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) আসলে খুব ভালো নেই। আমাদের বার বার বলার পরেও তাঁর পছন্দের হাসপাতালে নেওয়া হয় নাই। বাধ্য হয়েই বিএসএমএমইউ'তে নেওয়া হয়েছে। তার পছন্দের ডাক্তাদেরও চিকিৎসা দিতে দেওয়া হচ্ছে না। জোর করে সরকার সমর্থক চিকিৎসক দিয়ে তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।’

‘খালেদা জিয়ার পছন্দের চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসা দিতে সমস্যা কী? শেখ হাসিনাও (প্রধানমন্ত্রী) তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। সবার কাছ থেকে উনাকে (খালেদা জিয়া) আইসোলেটেড (আলাদা) করে রাখা হয়েছে।’

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বিএনপি নেতাদের সাথে কিছুটা ভিন্নমত পোষণ করেন। তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া সঠিক চিকিৎসা পাচ্ছেন, কিন্ত পর্যাপ্ত নয়। সরকারের উচিৎ মেডিক্যাল বোর্ডের আরও তিন জন চিকিৎসক অন্তর্ভুক্ত করা।’

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী বলেন, ‘খালেদা জিয়ার শরীর খুবই খারাপ। প্রতিদিন কী হচ্ছে রুটিন মাফিক এটা দেশবাসীকে জানানো হচ্ছে না, কিন্তু এটা জানানো উচিৎ। আমাদের প্রত্যাশা তাঁর পছন্দ মতো হাসপাতাল, যেখানে তিনি যেতে চেয়েছেন সেখানে নেওয়া হোক।’

ড্যাব-এর সদস্য ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন বলেন, 'ম্যাডাম অসুস্থ, হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে। নিউরোফিজিশিয়ান, ডায়াবেটিসের ডাক্তার, চোখের ডাক্তার উনাকে পরীক্ষা করেছেন। কিছু কিছু চিকিৎসায় পরিবর্তন এনেছে। উনার ব্যাথা কমছে না। ফিজিওথেরাপি দেওয়া হচ্ছে না। এজন্য মেডিক্যাল বোর্ড ফিজিওথেরাপিস্টদের সাথে কথা বলবেন।’

তিনি বলেন, ‘ম্যাডামের আরও উন্নত চিকিৎসা দরকার। কোনো হাসপাতালে সকল বিষয়ে সুচিকিৎসা দেওয়ার জন্য উপযুক্ত, এ কথা বলার কোনো বাস্তবতা নাই। আমাদের দেশে কিছু কিছু ক্ষেত্রে চিকিৎসার কমতি আছে। ইউনাইটেড হাসপাতাল সকল বিষয়ের জন্যই উপযুক্ত। সত্যিকার অর্থে সঠিক চিকিৎসা পেলে উনি হাঁটতে পারতেন, নিজের কাজ গুলো নিজেই করতে পারতেন।'

আপনার মতামত লিখুন :

শুভ শক্তির উত্থান ঘটাতে হবে: ফখরুল

শুভ শক্তির উত্থান ঘটাতে হবে: ফখরুল
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, পুরনো ছবি

জন্মাষ্টমী উপলক্ষে হিন্দু ধর্মের সকল মানুষকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেছেন, ‘ভগবান শ্রীকৃষ্ণ পৃথিবীতে আবির্ভূত হয়ে জনসমাজে বিরাজমান অন্যায়কে পরাস্ত করে শান্তি ও কল্যাণ স্থাপন করেন। বাংলাদেশেও অশুভ শক্তিকে পরাভূত করে গণতন্ত্রের শুভ শক্তির উত্থান ঘটাতে হবে।’

বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বাণীতে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষদের আরাধ্য ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মদিন, শুভ জন্মাষ্টমী অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব। সকল ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় উৎসবের মূলবাণী, মানুষে-মানুষে সম্প্রীতি, সৌহার্দ্য ও শুভেচ্ছাবোধ। সকল কালে, যুগে বিভিন্ন ধর্মের প্রবক্তাগণ মানুষকে সত্য, ন্যায় ও কল্যানের পথে চালিত হওয়ার উপদেশ দিয়েছেন। ভগবান শ্রীকৃষ্ণও একই উদ্দেশ্যে পৃথিবীতে আবির্ভূত হয়ে জনসমাজে বিরাজমান অন্যায়কে পরাস্ত করে শান্তি ও কল্যাণ স্থাপন করেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশ ঐতিহ্যগতভাবে ধর্মীয় সম্প্রীতির দেশ হিসেবে সকল ধর্মের মানুষের সঙ্গে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপনে বিশ্বাসী।’

‘আরও অনেক বিচারপতি দুর্নীতিতে জড়িত’

‘আরও অনেক বিচারপতি দুর্নীতিতে জড়িত’
ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন, ছবি: সংগৃহীত

কেবল তিন বিচারপতিই নন, আরও অনেক বিচারপতির বিরুদ্ধেও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন।

তিনি বলেছেন, ‘সুপ্রিম কোর্টের কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধেও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে। যা বিষয়টি প্রধান বিচারপতিকে অবহিত করেছি।’

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহীদ সফিউর রহমান মিলনায়তনে বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

আরও পড়ুন: ছুটিতে তিন বিচারপতি

মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্টের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা প্রকাশ্যে দুর্নীতি করেন। আইনজীবীরা তাদের কাছে প্রতিদিন হয়রানির শিকার হচ্ছেন। বিচারপ্রার্থীদের ন্যায়বিচার নিশ্চিত ও বিচার বিভাগের ভাবমূর্তি রক্ষায় পদক্ষেপ গ্রহণ জরুরি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের তিন বিচারপতির বিরুদ্ধে অভিযোগ তদন্ত করার বিষয়টিকে স্বাগত জানাই। তবে এ তদন্ত কারা করছে, তা স্পষ্ট করারও দাবি জানাচ্ছি।’

আরও পড়ুন: হাইকোর্টের ৩ বিচারপতিকে বেঞ্চ দেওয়া হয়নি

বিচারপতিদের অসদাচারণের অভিযোগ তদন্তে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল আবারও পুনরুজ্জীবিত হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের পর সুপ্রিম জুডিসিয়াল কাউন্সিল আবারও পুনরুজ্জীবিত হয়েছে। এখন এটির কার্যক্রম কি অবস্থায় রয়েছে আমরা জানি না। তাই এটি স্পষ্ট করা দরকার।’

নবম সংসদ বহাল থাকা অবস্থায় দশম সংসদের সদস্যদের শপথের বৈধতা রিটের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা এ বিষয়ে একটি রিট করেছিলাম। কিন্তু হাইকোর্ট রিটটি সরাসরি খারিজ করে দিয়েছেন। এখন হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করেছি। আর আপিলে ন্যায়বিচার পাওয়ার বিষয়ে আশা প্রকাশ করছি।’

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র