Barta24

মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

আবদুল্লাহ আল মামুনের ৭৭তম জন্মবার্ষিকীতে ‘মেরাজ ফকিরের মা’ ২০০

আবদুল্লাহ আল মামুনের ৭৭তম জন্মবার্ষিকীতে ‘মেরাজ ফকিরের মা’ ২০০
আবদুল্লাহ আল মামুনের ৭৭তম জন্মবার্ষিকীতে ‘মেরাজ ফকিরের মা’ ২০০, ছবি: সংগৃহীত
বিনোদন ডেস্ক
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশের আধুনিক নাট্য আন্দোলনের প্রবাদপুরুষ ও বহুমাত্রিক শিল্পস্রষ্টা আবদুল্লাহ আল মামুনের ৭৭তম জন্মবার্ষিকী আগামী ১৩ জুলাই। দিনটিকে স্মরণীয় করতে তার রচিত ও নির্দেশিত জনপ্রিয় নাটক ‘মেরাজ ফকিরের মা’র ২০০তম প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।

ঢাকার নাট্যদল থিয়েটার ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি যৌথভাবে দুই দিনের ‘আবদুল্লাহ আল মামুন-এর ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন’ অনুষ্ঠান করবে। এর মাধ্যমে থিয়েটার-এর প্রতিষ্ঠাতা এই নাট্যব্যক্তিত্বকে স্মরণ করা হবে।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় আগামী ১২ জুলাই বিকেল ৫টা ও সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটে থাকছে ‘মেরাজ ফকিরের মা’ নাটকের ১৯৮তম ও ১৯৯তম প্রদর্শনী। পরদিন ১৩ জুলাই সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটে জাতীয় নাট্যশালায় রয়েছে এর ২০০তম মঞ্চায়ন।
২০০টি প্রদর্শনীতে টানা অভিনয়ের জন্য থিয়েটার নাটকটির তিন অভিনয়শিল্পী ফেরদৌসী মজুমদার, রামেন্দু মজুমদার ও মারুফ কবিরকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করবে।

‘মেরাজ ফকিরের মা’র ২০০তম প্রদর্শনীর আগে বিকেল সাড়ে ৪টায় শিল্পকলা একাডেমির সেমিনার কক্ষে ‘বর্তমান প্রেক্ষিতে নাট্য প্রযোজনা ও অভিনয়’ শীর্ষক আব্দুল্লাহ আল মামুন স্মারক বক্তৃতা প্রদান করবেন নাট্যব্যক্তিত্ব মামুনুর রশীদ।

আব্দুল্লাহ আল মামুন ১৯৪২ সালের ১৩ জুলাই জামালপুরে আমড়াপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। অসংখ্য নাটক রচনায় যেমন প্রতিভা আর শক্তির পরিচয় দিয়েছেন তিনি, তেমনি অপরিমেয় ক্ষমতার প্রমাণ রেখেছেন নির্দেশনা ও অভিনয়ে। দীর্ঘ রোগভোগের পর ২০০৮ সালের ২১ আগস্ট ঢাকার বারডেম হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন নাট্যামোদী মানুষের প্রিয় এই ব্যক্তি।

আপনার মতামত লিখুন :

চলচ্চিত্রে অনুদান বাড়ছে দ্বিগুণ

চলচ্চিত্রে অনুদান বাড়ছে দ্বিগুণ
‘পিস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০১৯’ -এর উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর

চলচ্চিত্রে বর্তমানে যে পরিমাণ অনুদান দেওয়া হয় তার থেকে দ্বিগুণ অর্থ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

সোমবার (২২ জুলাই) সন্ধ্যায় রাজধানীর গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে ‘ফিল্মস ফর পিস ফাউন্ডেশন’ আয়োজিত দুই দিনব্যাপী ‘পিস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০১৯’ -এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, 'চলচ্চিত্রে অনুদানের টাকা আমরা বৃদ্ধি করছি। আমরা এখন যে পরিমাণ অনুদান দেই এই অর্থ বছর থেকে আমরা তার দ্বিগুণ দেব। প্রতি সিনেমার জন্য অনুদানের যে অঙ্ক সেটিও আমরা বৃদ্ধি করার লক্ষ্যমাত্রা ও নীতিমালা এরই মধ্যে গ্রহণ করেছি।'

Film Festival

বেলুন ও কবুতর উড়িয়ে উৎসবের উদ্বোধন করেন মন্ত্রী। এসময় তিনি বলেন, ‘একটি ভালো চলচ্চিত্র সমাজে শান্তি বজায় রাখতে এবং মানবিকতার সুরক্ষায় অনবদ্য ভূমিকা রাখতে পারে।'

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে প্রথমবারের মত আয়োজিত এই উৎসব ২৫টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে। মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) বিকাল ৪টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই উৎসব চলবে। বিনামূল্য যে কেউ এসব চলচ্চিত্র দেখতে পারবেন।

মঙ্গলবার স্বল্পদৈর্ঘ্য ১০টি চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে। সোমবার রাত ৯টা পর্যন্ত স্বল্পদৈর্ঘ্য ১৫টি চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়েছে।

সিনেমা হল মালিকদের দীর্ঘমেয়াদী ঋণ দেবে সরকার

সিনেমা হল মালিকদের দীর্ঘমেয়াদী ঋণ দেবে সরকার
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

সরকার সিনেমা হল মালিকদের স্বল্প সুদে দীর্ঘমেয়াদী ঋণ দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে বলে জানিয়েছে তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

সোমবার (২২ জুলাই) সন্ধ্যায় রাজধানীর গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে দুই দিনব্যাপী পিস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০১৯-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান। ফিল্মস ফর পিস ফাউন্ডেশন এ ফেস্টিভ্যালের আয়োজন করে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিভিন্ন প্রেক্ষাপটে চলচ্চিত্রে অনেক সংকট তৈরি হয়েছে। আমি মনে করি আমাদের দেশে যে সংকট চরম পর্যায়ে পৌঁছেছিল, সেখান থেকে ধীরে ধীরে আমরা বের হয়ে এসেছি। বাংলাদেশের অনেক সিনেমা হল বন্ধ হয়েছে বটে, কিন্তু ইতোমধ্যে অনেকগুলো সিনেপ্লেক্স চালু হয়েছে। এবার আরও সিনেপ্লেক্স চালু হতে যাচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘যারা সিনেমা হলগুলো বন্ধ করে দিয়েছিলেন, সেগুলো যাতে আধুনিক করতে পারে সেজন্য আমরা সফট লোডের উদ্যোগ গ্রহণ করার ব্যবস্থা করেছি। অর্থাৎ স্বল্প সুদে দীর্ঘমেয়াদী লোনের ব্যবস্থা করা হবে।'

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/22/1563813162889.jpg

এর আগে ড. হাছান মাহমুদ বেলুন ও কবুতর উড়িয়ে পিস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০১৯-এর উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ফিল্মস ফর পিস ফাউন্ডেশনের পরিচালক রোকেয়া প্রাচীর, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের পরিচালক শাহীন আনাম, অধ্যাপক সি আর আবরার, চলচ্চিত্র নির্মাতা কাওসার আহমেদ চৌধুরী এবং সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক পারভেজ সিদ্দিকী।

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই পিস ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে শান্তির বার্তায় ২৫টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে। আগামী মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) বিকেল ৪টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে ফেস্টিভ্যালটি।

জানা গেছে, গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে মঙ্গলবারও ১০টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে। সোমবার রাত ৯টা পর্যন্ত প্রায় ১৫টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র