Barta24

বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

English

অভিনেত্রী মায়া ঘোষ আর নেই

অভিনেত্রী মায়া ঘোষ আর নেই
মায়া ঘোষ
বিনোদন ডেস্ক
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

মরণব্যাধি ক্যান্সারের সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন অভিনেত্রী মায়া ঘোষ। রোববার (১৯ মে) সকাল পৌনে ৯টায় যশোরের কুইনস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৭০ বছর।

মায়া ঘোষের মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন তার বড় ছেলে দীপক ঘোষ ও শিল্প ঐক্যজোটের সাধারণ সম্পাদক জিএম সৈকত।

২০০০ সালে ক্যান্সারে আক্রান্ত হন মায়া ঘোষ। ২০০১ সালের ফেব্রুয়ারিতে কলকাতার সরোজ গুপ্ত ক্যান্সার হাসপাতালে শুরু হয় তার চিকিৎসা। কিন্তু ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে আবারও ক্যান্সার ধরা পড়ে তার শরীরে। চলতি বছরের জানুয়ারিতে তাকে পুনরায় কলকাতায় নেয়া হয়।

তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকলে গত ১৫ এপ্রিল তাকে দেশে আনা হয়। শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হলে তাকে যশোর কুইন্স হসপিটালে ভর্তি করা হয়।

১৯৪৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর যশোরের মণিরামপুর উপজেলার প্রতাপকাটি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মায়া ঘোষ। তার বাবার নাম শংকর প্রসাদ গাঙ্গুলী।

মঞ্চ নাটক, টিভি ও চলচ্চিত্র অঙ্গনে মায়া ঘোষের ছিল সরব উপস্থিতি। ১৯৮১ সালে ‘পাতাল বিজয়’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে অভিনয় শুরু করেন তিনি। সর্বশেষ ২০১৬ সালে এটিএন বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘ডিবি’-তে অভিনয় করেছেন এই অভিনেত্রী।

আপনার মতামত লিখুন :

নতুন ব্যোমকেশ হয়ে আসছেন পরমব্রত

নতুন ব্যোমকেশ হয়ে আসছেন পরমব্রত
পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়

কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়কে এবার দেখা যাবে ব্যোমকেশ চরিত্রে। সবকিছু ঠিক থাকলে আসছে পূজায় তিনি সত্যান্বেষী ব্যোমকেশ হয়ে হাজির হবেন বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

এবারের ব্যোমকেশ পরিচালনা করছেন সায়ন্তন ঘোষাল। ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর হিসেবে তাকে গাইড করছেন অঞ্জন দত্ত। ‘মগ্নমৈনাক’ অবলম্বনে সিনেমাটির চিত্রনাট্যও লিখেছেন অঞ্জন। এর নাম রাখা হচ্ছে ‘সত্যান্বেষী ব্যোমকেশ’।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566377301329.jpg

এর আগে শরদিন্দুর একই গল্প অবলম্বনে ২০০৯ সালে স্বপন ঘোষাল ব্যোমকেশকে নিয়ে সিনেমা তৈরি করেন। সেই সিনেমার নাম ছিলো ‘মগ্নমৈনাক’।

জানা গেছে, পরমের সঙ্গে ডা. অজিত চরিত্রে দেখা যাবে অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষকে। আরও আছেন নবাগতা আয়োশী তালুকদার ও সুপ্রভাত।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566377313741.jpg

ব্যোমকেশের চরিত্রে সুযোগ পেয়ে পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় গণমাধ্যমে জানিয়েছে, ‘প্রস্তুতি বলতে প্রথমে গল্পটা পড়া। দ্বিতীয়ত, অঞ্জনদার লেখা চিত্রনাট্য পড়ে চরিত্রটার দৃষ্টিভঙ্গি বোঝা। আর শেষ কয়েক বছরে দর্শক যেভাবে ব্যোমকেশকে দেখেছেন, সেই ভাবটার কাছাকাছি থেকেও নতুনত্ব বের করে আনা।’

নায়করাজ চলে যাওয়ার ২ বছর আজ

নায়করাজ চলে যাওয়ার ২ বছর আজ
রাজ্জাক

ঢাকাই চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাকের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০১৭ সালের ২১ আগস্ট বিকেলে বার্ধক্যজনিত অসুখে ভুগে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন এই কিংবদন্তি অভিনেতা।

১৯৪২ সালের ২৩ জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ কলকাতার টালিগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন আব্দুর রাজ্জাক। তাঁর পিতার নাম আকবর হোসেন ও মাতার নাম নিসারুননেছা। রাজ্জাকের পরিবার ছিলেন নাকতলা এলাকার জমিদার।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566371949965.jpg

পশ্চিম বাংলায় বেড়ে ওঠা রাজ্জাক ১৯৬৪ সালে ঢাকায় পা রেখেছিলেন পরিবারের হাত ধরে। জন্মস্থান কলকাতায় সপ্তম শ্রেণীতে অধ্যয়নরত অবস্থায় মঞ্চ নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে তাঁর অভিনয় জীবন শুরু করেন এবং ১৯৬৬ সালে ১৩ নম্বর ফেকু ওস্তাগার লেন চলচ্চিত্রে একটি ছোট চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশি চলচ্চিত্রে তাঁর অভিষেক ঘটে।

নায়ক হিসেব তার প্রথম চলচ্চিত্র হচ্ছে জহির রায়হান পরিচালিত ‘বেহুলা ’। সেই থেকে তিনি তিন শতাধিক চলচ্চিত্রে নায়ক হিসেবে অভিনয় করেছেন। ষাটের দশকের শেষ দিকে এবং সত্তর দশকে তাকে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পের প্রধান অভিনেতা হিসেবে বিবেচনা করা হতো। এর বাইরে প্রযোজনা ও পরিচালনা করেছেন ১৬টি সিনেমা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/21/1566371965341.jpg

২০১৫ সালে বাংলাদেশ সরকার সংস্কৃতিতে বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য তাকে স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত করে। ১৯৭৬, ১৯৭৮, ১৯৮২, ১৯৮৪ ও ১৯৮৮ সালে তিনি মোট পাঁচবার শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। ২০১৩ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে তাকে আজীবন সম্মাননা পুরস্কার প্রদান করা হয়। চলচ্চিত্র পত্রিকা চিত্রালীর সম্পাদক আহমদ জামান চৌধুরী তাকে নায়করাজ উপাধি দিয়েছিলেন।

ব্যক্তিজীবনে রাজলক্ষীর সঙ্গে সুখের দাম্পত্যে রাজ্জাক ছিলেন তিন পুত্র ও দুই কন্যার জনক।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র