Barta24

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

২৫ বাড়ির মালিক আমির!

২৫ বাড়ির মালিক আমির!
আমির খান
বিনোদন ডেস্ক


  • Font increase
  • Font Decrease

বলিউড সুপারস্টার আমির খান।

বাকি দুই খান সালমান ও শাহরুখের থেকেও তার জনপ্রিয়তা বেশি।

খুব চিন্তা-ভাবনা ছবির কাজ করেন।

বছরে মাত্র একটি ছবি মুক্তি পায় তার।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Sep/20/1537448693723.jpg

এ কারণে মিস্টার পারফেকশনিস্টও বলা হয় তাকে।

শুধু নামেই নয়, বাস্তবেও তিনি আমির বটে।

কোটি কোটি রুপির সম্পত্তি রয়েছে তার।

জানেন কী কী সম্পত্তি রয়েছে তার?

‘পিকে’খ্যাত এই তারকার বার্ষিক আয় ১৪৩ কোটি রুপি।

রয়েছে প্রায় ১৪০০ কোটির সম্পত্তি।

মহারাষ্ট্রের পঞ্চগনিতে ১৫ কোটি রুপির বাংলো রয়েছে আমির খানের।

উত্তরপ্রদেশের শাহাবাদে রয়েছে আমিরের পৈতৃক ভিটেবাড়ি।

সেখানেই নাকি তার ২২টি বাড়ির রয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Sep/20/1537448730616.jpg
আমির খানের মহারাষ্ট্রের পঞ্চগনির বাড়ি

 

বান্দ্রায় আমিরের যে অ্যাপার্টমেন্ট রয়েছে, সেই ফ্রিডা অ্যাপার্টমেন্টের মূল্য ৬৫ কোটি রুপির চেয়ে বেশি।

ফারলেঙ্কোর প্রায় দুই কোটি রুপির আসবাবপত্র রয়েছে তার এই বাড়িতে।

শেষ হয়নি,

আমেরিকার বেভারলি হিলসেও ৭৫ কোটি রুপির একটি বাংলো রয়েছে আমির খানের।

সব মিলিয়ে মোট ২৫টি বাড়ির মালিক তিনি।

শুধু বাড়ি নয়, বেশ কয়েকটি গাড়িও রয়েছে আমিরের।

বিএমডব্লিউ সিরিজের প্রায় দেড় কোটি রুপির একটি গাড়িও রয়েছে।

রয়েছে একটি রেঞ্জ রোভার গাড়িও। দাম প্রায় পৌনে দুই কোটি রুপি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Sep/20/1537448820139.jpg
বেভারলি হিলসেও রয়েছে আমির খানের বাংলো

 

বেন্টলের কন্টিনেন্টাল ফ্লাইং স্পার গাড়ি রয়েছে আমিরের।

দাম প্রায় ৩ কোটি ১০ লাখ রুপি।

আমিরের বুলেটপ্রুফ রোলস রয়েস গাড়িটির দাম প্রায় ৪ কোটি ৬০ লাখ রুপি।

আমির এখন ব্যস্ত ‘থাগস অব হিন্দুস্তান’ ছবির কাজ নিয়ে।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Sep/20/1537448880721.jpg

এটি পরিচালনা করছেন বিজয় কৃষ্ণ আচার্য।

প্রযোজনায় আছে যশরাজ ফিল্মস।

আপনার মতামত লিখুন :

এফডিসিতে ১৫ শিল্পী স্মরণে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল

এফডিসিতে ১৫ শিল্পী স্মরণে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

জুলাই মাস যেন শিল্পী হারানোর মাস। এই মাসে বাংলা সিনেমার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ১৫ জন শিল্পী পাড়ি জমিয়েছেন ওপারে।

বুলবুল আহমেদ, দিলদারসহ প্রয়াত এই ১৫ জন শিল্পীর স্মরণে সোমবার (১৫ জুলাই) এফডিসিতে বাদ আসর মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি।

বাদ আসর সমিতির স্টাডি রুমে এই মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে চিত্রনায়ক ফারুক, আলমগীরসহ শিল্পী ও কলাকুশলীরা অংশগ্রহণ করেন। এর আগে ১৫ জন শিল্পীর স্মরণে সকাল থেকে কোরআন খতম দেয়া হয়।

এই আয়োজনের ব্যাপারে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির পক্ষে অভিনেতা জায়েদ খান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, 'এই মাসে আমরা এতো শিল্পী হারিয়েছি যে সবার আলাদা করে দোয়ার অনুষ্ঠান করাটা কঠিন হয়ে যাবে। সে কারণে একদিনেই করলাম। এর বাইরে আমরা প্রতি মাসে একবার করে প্রয়াত শিল্পীদের স্মরণে এই আয়োজন করে থাকি। যাদের কাজ দেখে বড় হয়েছি, তাদের জন্য কিছু করতে পারলে ভালো লাগে। নতুনরাও অনুপ্রাণিত হয়। আর তাদের ব্যাপারে জানতে পারে।'

হাসপাতালে বসে সম্মাননা পদক পেলেন এটিএম শামসুজ্জামান

হাসপাতালে বসে সম্মাননা পদক পেলেন এটিএম শামসুজ্জামান
এটিএম শামসুজ্জামান

গত দুই মাস ধরে হাসপাতালে আছেন এটিএম শামসুজ্জামান। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি রয়েছেন। আর সেখানে বসেই সম্মাননা পদক পেলেন বাংলা সিনেমার এই গুণী অভিনেতা।

রোববার (১৪ জুলাই) বিকেলে হাসপাতালে গিয়ে বুলবুল আহমেদ স্মৃতি সম্মাননা পদক প্রদান করা হয় ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে। ফাউন্ডেশনের পক্ষে বুলবুল আহমেদের সহধর্মিণী ডেইজি আহমেদ ও কন্যা তাহসিন ফারজানা তিলোত্তমা পদক তুলে দেন এটিএম শামসুজ্জামানের হাতে।

সম্মাননা পদক পেয়ে এটিএম শামসুজ্জামান বলেন, ‘এখন যারা বুলবুল আহমেদকে সরাসরি পাবে না, তারা তার সিনেমা দেখো। তিনি ভালো মানুষ ছিলেন।’

আজ বুলবুল আহমেদের নবম মৃত্যুবার্ষিকী। ২০১০ সালের এই দিনে পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান তিনি। সেই থেকে তার স্মৃতিকে ধরে রাখতে এবং প্রবীণ বরণীয় শিল্পীদের স্মরণীয় করে রাখতে বুলবুল আহমেদের পরিবার ও বুলবুল আহমেদ ফাউন্ডেশনের পক্ষে প্রতি বছর সম্মাননা দেওয়ার আয়োজন করা হয়।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র