Alexa

বিজিএমইএ নির্বাচন

পোলিং এজেন্ট নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

পোলিং এজেন্ট নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

পোলিং এজেন্ট নিয়ে গণমাধ্যমে অভিযোগ তুলছেন স্বাধীনতা পরিষদের নেতা মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (বামে) ও পরিষদ-ফোরামের পোলিং এজেন্ট সৈয়দ ফয়জুল এহসান/ ছবি: বার্তা২৪.কম

দেশের পোশাক শিল্পের মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ-এর নির্বাচনে ভোটগ্রহণের প্রথম প্রহরে পোলিং এজেন্ট নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ তুলছেন পরিষদ-ফোরাম ও স্বাধীনতা পরিষদের নেতারা।

শনিবার (৬ এপ্রিল) সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরুর পর পৌনে ৯টার দিকে স্বাধীনতা পরিষদের নেতা ইএসএল গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে পোলিং এজেন্ট নিয়ে অভিযোগ করেন।

একই সময় পরিষদ-ফোরাম জোটের পোলিং এজেন্ট সৈয়দ ফয়জুল এহসান গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে স্বাধীনতা পরিষদের অভিযোগকে মিথ্যাচার বলে দাবি করেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিজিএমইএ এর নির্বাচনের ভোট গ্রহনের শুরু থেকেই পরিষদ-ফোরাম জোট ও স্বাধীনতা পরিষদের মধ্যে বাক বিতণ্ডা শুরু হয়।

একদিকে স্বাধীনতা পরিষদ থেকে তাদের পোলিং এজেন্টকে ভেতরে ঢুকতে না দেওয়ার অভিযোগ তোলা হচ্ছে অন্যদিকে পরিষদ-ফোরাম থেকে মিথ্যাচারের অভিযোগ করা হচ্ছে।

ভোটগ্রহণের শুরুতে স্বাধীনতা পরিষদ এর কয়েকজন প্রার্থী ভোটগ্রহণ কক্ষে প্রবেশ করেন। তারা সেখানে পোলিং এজেন্টের জায়গায় বসেন। এ সময় পরিষদ-ফোরাম জোট থেকে নির্বাচন কমিশনের কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ করে বলেন, যে কিছুতেই কোনো প্রার্থী ভোটগ্রহণ কক্ষে থাকতে পারবে না।

এ সময় মোঃ জাহাঙ্গীর আলম অভিযোগ করেন, ‘আমাদের পোলিং এজেন্টকে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। তাই আমরা ভেতরে ছিলাম। এই নিয়ম আছে।’

এ সময় পরিষদ-ফোরাম জোটের পোলিং এজেন্ট সৈয়দ ফয়জুল এহসান বলেন, ‘আপনারা মিথ্যাচার করছেন। এ ধরণের কিছু হয়নি। তাদের পোলিং এজেন্ট সকালে ভোট দিয়ে বের হয়ে গেছেন। কিন্তু ভেতরে পোলিং এজেন্টদের জায়গায় না বসে বেড়িয়ে গেছেন। কোনো প্রার্থী ভেতরে অবস্থান নিতে পারবেন না। এটা নির্বাচন আচরণ বিধিতে নেই। তাহলে তারা কি করে অবস্থান নেয়?’

পাল্টাপাল্টি অভিযোগের কারণে উত্তপ্তকর পরিবেশ বিরাজ করছে পুরো বিজিএমইএ ভবনজুড়ে। এর ফলে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :