Barta24

বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

১৫ টি খাতে ভ্যাট পুনর্বিবেচনা অনুরোধ।

১৫ টি খাতে ভ্যাট পুনর্বিবেচনা  অনুরোধ।
ছবিঃ বার্তা২৪.কম
তাসকিন আল আনাস
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

২০১৯-২০ অর্থবছরে আইসিটির বিভিন্ন খাতে ভ্যাট পুনর্বিবেচনার আবেদন জানিয়েছেন খাত সংশ্লিষ্টরা । ডিজিটাল খাতকে বিকাশমান খাত বিবেচনা করে আইটিইএস, ফাইবার অপটিকস ক্যাবল, তথ্য প্রযুক্তি পণ্যের উপর থেকে আগাম কর প্রত্যাহার সহ মোট ১৫ টি খাত থেকে ভ্যাট প্রত্যাহারের অনুরোধ জানান তারা। এছাড়াও সারপ্রাইজ যেকোন ব্যবসার জন্য ক্ষতির কারণ দেখিয়ে আইসিটিখাতে দীর্ঘমেয়াদী কর নীতি প্রণয়নেরও দাবি জানান ব্যবসায়ী নেতারা।

রোববার (১৬ জুন ) রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত জাতীয় বাজেট ২০১৯-২০ এর উপর বেসিস এবং আইটি অ্যাসোসিয়েশন সমূহের মতামত শীর্ষক এক সংবাদ সম্মেলনে এ অনুরোধ জানান খাত সংশ্লিষ্টরা  ।

সংবাদ সম্মেলনে মূল বক্তব্য তুলে ধরে বেসিস সভাপতি আলমাস কবির বলেন,  সামগ্রিকভাবে বাজেট নিয়ে আমরা সন্তুষ্ট। আইসিটিখাতে আগের থেকে বরাদ্দ বেড়েছে, প্রথমবারের মতো স্টার্টআপ উদ্যোক্তাদের জন্য ১শ কোটি টাকার বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এগুলো প্রশংসার দাবিদার। আমরা কৃতজ্ঞ এবং সরকারকে ধন্যবাদ জানাই। তবে আইসিটিখাতের কিছু বিষয় নিয়ে আমাদের আপত্তি আছে। কিছু জায়গায় নতুন করে ভ্যাট ও অন্যান্য ট্যাক্স আরোপের সুপারিশ করা হয়েছে। আবার কিছু জায়গায় আগের থেকে করের হার বাড়ানো হয়েছে। সেগুলোর পরিবর্তন চাই আমরা।

টেকনিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রজেক্টের প্রসঙ্গে বেসিস সভাপতি বলেন, আমাদের ছেলেমেয়েরা এখন অনেক বড় বড় প্রজেক্টে কাজ করেছে। এগুলোর অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে অনুন্নত দেশগুলোকে আইটি সাহায্য দিতে পারে বাংলাদেশ। যেখানে আমাদের লোকেরাই কাজ করবে। এটা করতে পারলে বিশ্ব দরবারে আমাদের আইটি আইসিটি খাতের বড় একটা এক্সপোজার হবে। এজন্য ৫শ কোটি টাকার অর্থ বরাদ্দ চেয়ছিলাম আমরা সরকারের কাছে। বাজেটে সে ধরনের কিছু পায়নি। আমরা চাই সরকার এইখাতে বরাদ্দ দিক।

অন্যদিকে ২২ ইঞ্চি পর্যন্ত কম্পিউটার মনিটর মূসক মুক্ত রাখার ক্ষেত্রে মনিটরের আকার বাড়ানোর দাবি জানান বিসিএস’র সভাপতি শাহীদ উল মুনির। তিনি বলেন, বিশ্বে এখন আর কোনো কোম্পানি ২২ ইঞ্চি মনিটর উৎপাদন করছে না। ন্যূনতম আকারের মনিটর হবে ২৪ ইঞ্চি। তাই মূসক মুক্ত আওতায় ২৪ ইঞ্চি মনিটর সংযুক্ত করার দাবি জানাচ্ছি আমরা।

ফাইবার অপটিক এবং এনটিটিএন’র মাধ্যমে ডাটা ট্রান্সমিশন খরচের কারণে ঢাকার থেকে বাইরের অঞ্চলগুলোতে ইন্টারনেটের দাম বেশি উল্লেখ করে ফাইবার অপটিক ক্যাবল’র ওপর ৫ শতাংশ রেগুলেটরি ডিউটি এবং এনটিটিএন সংযোগের উপর থেকে ৫ শতাংশ মূসক প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন সংগঠনটির সভাপতি এম এ হাকিম বলেন।

তিনি বলেন  ব্রডব্যান্ড ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১০ শতাংশ বাড়ালে জিডিপিতে তা ১ শতাংশের বেশি অবদান রাখে। তাই সরকারের এই বিষয়টি পুনঃবিবেচনা করা উচিত।

আর জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কাছ থেকে হয়রানি ছাড়াই কর মওকুফ’র সনদ ও আইসিটিখাতে দীর্ঘমেয়াদী কর নীতি প্রণয়নেরও দাবি জানান খাত সংশ্লিষ্টরা। 

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্য) এর সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান শরীফ বলেন, বাংলাদেশের ডিজিটাল উন্নয়নে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার বিকল্প নেই। কিন্তু এর উপর আরোপিত কর সেই কার্যক্রমে বাধা দেবে।উপযুক্ত সময় অতিবাহিত হবার পর এই খাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের মত কর কাঠামো প্রণয়নের অনুরোধ জানান।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্য), বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস), বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস) এবং ইন্টারনেট সার্ভিসেস প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (আইএসপি এবি) শীর্ষ নেতারা অংশ নেন।

আপনার মতামত লিখুন :

সুন্দরগঞ্জের নারী উদ্যোক্তাদের গরু দারাজে

সুন্দরগঞ্জের নারী উদ্যোক্তাদের গরু দারাজে
দারাজের ঈদ বিগ সেল

অনলাইন শপ দারাজ বাংলাদেশে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষ্যে তৃতীয়বারের মত আয়োজন করেছে ঈদ বিগ সেল। এই বছর ঈদ বিগ সেলের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ হিসেবে থাকছে দারাজ “অনলাইন গরুর হাট”, যা দ্বিতীয়বারের মতন আয়োজন করেছে দারাজ। এই হাটের বিশেষত্ব হল- প্রতিটি গরু শতভাগ অর্গানিক এবং গরুগুলো লালন-পালন করেছে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের নারী উদ্যোক্তারা।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) থেকে ১২ই আগস্ট পর্যন্ত চলাকালীন এই ঈদ শপিং ক্যাম্পেইনে থাকছে বিশাল মূল্যছাড়, অনলাইন গরুর হাট, টপ রেটেড প্রোডাক্ট, মেগা ডিল, শেক শেক ভাউচার, আই লাভ ভাউচার, রাশ আওয়ার ভাউচার, ফায়ার ভাউচার সহ আরও অনেক আকর্ষণীয় ঈদ অফার।

এবারের দারাজের অনলাইন গরুর হাটের গরুগুলো দারাজ নন্দিনীর উদ্যোগে অ্যাকশনএইড-এর সহায়তায় নিয়ে আসা হচ্ছে প্রত্যন্ত গাইবান্ধা থেকে। ক্রেতারা খুব সহজেই কোরবানির পশুর সকল বিস্তারিত বিষয় জেনে গরুর ভিডিও দেখে দারাজ অ্যাপে (daraz app) তা অর্ডার করতে পারবেন। ১০৭ টি গরুর সমারোহে সাজানো এই হাটে রয়েছে ৪২,০০০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ১,৩০,০০০ টাকার গরু। দারাজে গরু অর্ডার করার শেষ তারিখ ৫ই আগস্ট আর গরুগুলো ডেলিভারি শুরু হয়ে যাবে ৯ তারিখ থেকে।

তাছাড়াও ক্যাম্পেইনে ঈদের নিত্য প্রয়োজনীয় হোম ও কিচেন অ্যাপ্লায়েন্স সামগ্রী পাওয়া যাবে আকর্ষণীয় মূল্যে, যার মধ্যে রয়েছে এসি, ফ্রিজ, এয়ার কুলার ও মাইক্রোওয়েভ কালেকশন। আর ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে মোবাইল ফোন, টিভি, ডিএসএলআর ক্যামেরা ইত্যাদি।

এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য স্যামসাংয়ের বিশেষ ছাড়

এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য স্যামসাংয়ের বিশেষ ছাড়
ছবি: স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ

২০১৯ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের জন্য স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ শুরু করেছে এইচএসসি স্টুডেন্ট ক্যাম্পেইন। এই ক্যাম্পেইনের আওতায় শিক্ষার্থীরা স্যামসাংয়ের বিভিন্ন ডিভাইসের ওপর ১৫% পর্যন্ত ছাড় পাবে।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পেইন চলবে ২৮ জুলাই পর্যন্ত ।

এই ক্যাম্পেইন চলাকালে, শিক্ষার্থীরা  গ্যালাক্সি এ২কোর কিনতে পারবেন ৭,৫৯০ টাকার পরিবর্তে ৭,২১০ টাকায়, গ্যালাক্সি এম১০ পাওয়া যাবে ১১,৯৯৯ টাকার পরিবর্তে ১১,৪০০ টাকায় , গ্যালাক্সি এ১০ কেনা যাবে ১১,৯৯৯ টাকার পরিবর্তে ১১,৪০০ টাকায়,  গ্যালাক্সি এম২০ পাওয়া যাবে  ১৫,৯৯০ টাকার পরিবর্তে ১৫,১৯০ টাকায়, গ্যালাক্সি এ২০ কেনা  যাবে ১৫,৯৯০ টাকার পরিবর্তে ১৫,১৯০ টাকায়, গ্যালাক্সি এ৩০ কিনতে পারবেন ২২,৯৯০ টাকার পরিবর্তে ১৯,৯৪০ টাকায় ,  গ্যালাক্সি এ৫০ কিনতে পারবেন ২৬,৯৯০ টাকার পরিবর্তে ২৩,৭৪০ টাকায় , গ্যালাক্সি এ৭০ পাওয়া যাবে ৩৮,৯৯০ টাকার পরিবর্তে ৩৭,০৪০ টাকায় । এছাড়াও স্যামসাংয়ের অন্যান্য মডেলের হ্যান্ডসেটে কেনার ক্ষেত্রেও শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে ছাড়।

এছাড়া, বিকাশ ব্যবহারকারীরাও ডিভাইস ক্রয়ের ক্ষেত্রে ৫০০ টাকা পর্যন্ত অতিরিক্ত ৫% ক্যাশব্যাক পাবে। এই অফারটি শুধু স্যামসাংয়ের অনুমোদিত নির্দিষ্ট আউটলেটগুলোতে পাওয়া যাবে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র