Barta24

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

নাম্বার গোপন রেখে রিচার্জ সুবিধা নিয়ে রবি'র বিশেষ প্যাকেজ

নাম্বার গোপন রেখে রিচার্জ সুবিধা নিয়ে রবি'র বিশেষ প্যাকেজ
ছবিঃ বার্তা২৪.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশে বিপুল পরিমাণ নারী জনগোষ্ঠী কে উন্নয়নের মূল ধারায় যুক্ত করতে রবি নিয়ে এসেছে বিশেষ প্যাকেজ ‘ ইচ্ছেডানা’। নিরাপত্তা ও সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে নারীদের জন্য চালু হওয়া এই প্যাকেজটি রবির যে কোন গ্রাহক বিনামূল্যে *১২৩*৮০# কোডটি ডায়াল করে এই সেবার জন্য নিবন্ধিত হতে পারবেন।থাকবে নাম্বার গোপ্ন রেখে ১২ ডিজিটের একটি ডামি নাম্বার দিয়ে যেকোন রিটেল পয়েন্ট থেকে রিচার্জ সুবিধা। 
শনিবার (১৫ জুন) রাজধানীর গুলশানে রবির কর্পোরেট অফিসে সেবাটির উদ্বোধন করা হয়। এসময় রবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, চিফ কমার্শিয়াল অফিসার প্রদীপ শ্রীবাস্তব , বিশেষ অতিথি হিসাবে চর্ম বিশেষজ্ঞ ও শিল্পী ঝুমু খান সহ কোম্পানির উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে মাহতাব উদ্দিন বলেন, টেকসই উন্নয়নের অন্যতম একটি স্তম্ভ হচ্ছে নারীদেরকে উন্নয়নের মূল ধারায় যুক্ত করা ।সেই কথা মাথায় রেখে নারীদের জন্য তৈরি এই প্যাকেজ রবি একটি প্রয়াস মাত্র।
তিনি আরো বলেন ডিজিটাল জীবনধারা বিকাশের সাথে মোবাইল নম্বর এখন কোন ব্যক্তি সনাক্তকরণের মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিভিন্ন ডিজিটাল জীবনধারা ভিত্তিক সেবা থেকে শুরু করে সরকারি সেবা গ্রহণে মোবাইল নাম্বারে বিকল্প নেই।
এর মাধ্যমে নারীরা তাদের পূর্ব নির্বাচিত তিনটি নম্বরে জরুরি প্রয়োজনে সাথে সাথে তাদের বর্তমান অবস্থান জানাতে পারবেন সেটি গ্রহণ করতে *৫৫৫# কোডটি ডায়াল করতে হবে । ফলে নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে যে সকল নারীরা ঘরের বাইরে যেতেও স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না তাদের জন্য এটি নিরাপত্তা বলয় তৈরি করে করবে এই সেবাটি।
এছাড়াও এই গ্রাহকরা প্রতি মাসে প্রয়োজনে দুইবার ১০ টাকা মিনিট বিনামূল্যে কথা বলার সুযোগ পাবেন ।সেবাটি গ্রহণের পূর্বে ইচ্ছেডানা ব্যবহারকারীদের ৬৫ টাকার ভয়েস কল সেবা গ্রহণ করতে হবে।
প্যাকেজটির অন্যতম সুবিধা হচ্ছে নাম্বার গোপন রেখে রিচার্জ করার সুবিধা । এর ফলে যেকোনো রিটেল পয়েন্ট থেকে নারীরা নাম্বার গোপন রেখে ১২ ডিজিটের ডামি নাম্বার দিয়েই তাদের মোবাইল ব্যালেন্স রিচার্জ করতে পারবেন। ।
নিবন্ধিত গ্রাহকরা প্রথম দু মাস যে কোন নাম্বারে, এবং একটি নাম্বারে আজীবন ৫০ পয়সা রেটে দিয়ে কথা বলার সুযোগ পাবেন, সাথে থাকবে ১৭ টাকায় ১ জিবি ফেসবুক ব্যবহারের সুবিধাও।

আপনার মতামত লিখুন :

৯০ শতাংশ সরকারি সেবা থাকবে হাতের মুঠোয়

৯০ শতাংশ সরকারি সেবা থাকবে হাতের মুঠোয়
'পরিচয়' অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিংয়ের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

'মানুষের এখন আর ভুয়া পরিচয়পত্র বানানো সম্ভব হবেনা। এখন থেকে খুব সহজেই বোঝা যাবে কে আসল পরিচয়পত্র বাহক। ৯০ শতাংশ সরকারি সেবা মানুষের হাতের নাগালে থাকবে'- বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

বুধবার (১৭ জুলাই) সহজে এবং দ্রুত জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) যাচাইয়ের গেটওয়ে 'www.porichoy.gov.bd' উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন তিনি।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ হাইটেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব এন এম জিয়াউল আলম, অতিরিক্ত সচিব পার্থ প্রতিম দেব  এবং অন্যান্য প্রকল্প পরিচালক ও কর্মকর্তারা।

অনুষ্ঠানে তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেন, 'আজ সরকারের অনন্য একটি সেবা উদ্বোধন করা হলো। এর মাধ্যমে দেশের সরকারি সেবায় একটি অন্য মাত্রা যুক্ত হলো।' 

'পরিচয়' এমন একটি অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং যা সরকারি-বেসরকারি বা ব্যক্তিগত যেকোনো সংস্থা গ্রাহকদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) যাচাই করে নিমিষেই সেবা দিতে পারবে। এনআইডি যাচাই করার জন্য এখন থেকে আর আগের মতো ৩-৫ কর্মদিবস অপেক্ষা করতে হবে না। 'পরিচয়' গেটওয়ে ব্যবহার করলে এনআইডি যাচাইয়ের জন্য বাড়তি কোনও জনবলের প্রয়োজন নেই। যেকোনো প্রতিষ্ঠান সফটওয়্যারের মাধ্যমে 'পরিচয়' এর সার্ভারের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করলে এনআইডি শনাক্তের ফলাফল স্বয়ংক্রিয়ভাবে পেয়ে যাবে।

এর ফলে এখন থেকে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলা, ডিজিটাল ওয়ালেট অ্যাকাউন্ট খোলা বা যে কাজগুলোতে জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধনের প্রয়োজন হয়, তা খুব সহজে করা যাবে । সময়ও সাশ্রয় হবে। নিজের নাম নিবন্ধন করে যাচাইয়ের জন্য আর ৪/৫ দিন অপেক্ষা করতে হবে না। ভোগান্তিও পোহাতে হবে না। এটি  জাল আইডিগুলো শনাক্ত করে জালিয়াতি প্রতিরোধ এবং পরিসেবাগুলোকে আরও নিরাপদ করবে।

এখনই দেশে আসছে না অ্যামাজন

এখনই দেশে আসছে না অ্যামাজন
তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের সঙ্গে অ্যামাজনের প্রতিনিধি দলের বৈঠক

এখনই বাংলাদেশে অফিস খুলতে রাজি নয় অ্যামাজন। তবে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে নিজেদের ওয়্যার হাউজগুলোতে বাংলাদেশের পণ্য নিতে চায় বলে জানিয়েছেন তথ্য-প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বুধবার (১৭ জুলাই) রাজধানীর আগারগাঁওয়ের আইসিটি টাওয়ারে তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের সঙ্গে অ্যামাজনের প্রতিনিধি দলের বৈঠক শেষে এ তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী।

পলক বলেন, অ্যামাজনের বৈশ্বিক প্ল্যাটফর্মে দেশের পণ্য বিক্রি করা গেলে ২০৩০ সালের মধ্যে দেশের রফতানি আয় দ্বিগুণ করা সম্ভব হবে। অ্যামাজন কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশের উদ্যোক্তাদের পণ্য আমেরিকা-ইউরোপের ওয়্যার হাউজগুলোতে নিয়ে নিজেদের বৈশ্বিক প্ল্যাটফর্মে বিক্রি করতে চাচ্ছে। এ বিষয়ে আমাদের নীতি ও কৌশল কেমন হবে সে বিষয়টি দেখছি আমরা।

বাংলাদেশে অ্যামাজন অফিস খুলবে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, তারা বাংলাদেশে আসবে কি না তা নির্ভর করবে তাদের ইচ্ছা ও আমাদের নীতির ওপর। তবে এখন পর্যন্ত আলোচনায় অ্যামাজন বাংলাদেশে অফিস খুলছে না।

বৈঠকে তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের পক্ষে নেতৃত্ব দেন তথ্য-প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এবং অ্যামাজনের কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধিত্ব করেন ইন্টারন্যাশনাল এক্সপানশন বিভাগের ক্যাটাগরি ম্যানেজার গগন দিপ সাগর।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের প্রজেক্ট ডিরেক্টর সৈয়দ মজিবুল হক। দেশীয় প্রতিষ্ঠান ওয়ালটনের পক্ষে ছিলেন এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মো. লিয়াকত আলী।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র