Barta24

বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

ভাইরাস ইনফেক্টেড ল্যাপটপের দাম ১ মিলিয়ন ডলার!

ভাইরাস ইনফেক্টেড ল্যাপটপের দাম ১ মিলিয়ন ডলার!
ভাইরাস আক্রান্ত ল্যাপটপ/ ছবি: সংগৃহীত
টেক ডেস্ক
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

একটি ল্যাপটপ যেখনে রয়েছে ছয়টির বেশি কুখ্যাত ভাইরাস, এর মধ্যে রয়েছে বহুল পরিচিত ভাইরাস ওয়ানাক্রাই ও আইলাভইউ। তেমনি একটি ল্যাপটপ শিল্প হিসাবে যুক্তরাষ্ট্রের এক নিলামে তোলা হয়েছে। এই আর্টিকেলটি লেখার সময় এর দাম উঠেছে এক দশমিক এক মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

তবে যুক্তরাষ্ট্রে ভাইরসাসযুক্ত বা ম্যালওয়্যার ইনফেকটেড কোন কিছু বিক্রি করা অবৈধ। তাই এই নিলামে এই শিল্প বিক্রির জন্য একটি নীতিমালা কারি করা হয়েছে। এই নীতিমালা অনুযায়ী বলছে, এই ল্যাপটপটি শুধুমাত্র শিল্প এবং শিক্ষার উদ্দেশ্যে ক্রয় করতে পারবেন।

এই প্রকল্পটি চিত্রশিল্পী গুও ও দং এবং ডিপ ইনস্টিংক্ট নামে একটি নিউ ইয়র্ক সাইবার নিরাপত্তা সংস্থার যৌথ উদ্যোগে এই নিলামের আয়োজন করা হয়েছে। তবে এরকম ভিন্নধর্মী নিদর্শন নিলামে উঠানোর বিষয়ে সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা এটা দেখে বিমোহিত হয়ে গেছেন।

যে ছয়টি ম্যালওয়ার ফাংশন এই ল্যাপটপে রয়েছে

১। ওয়ানাক্রাই- যা ২০১৭ সালে বিশ্বব্যাপী উইন্ডোজ ইউজারদের বেকায়দায় ফেলে দিয়েছিল।

২। আইলাভইউ- এই ভারসটি ২০০০ সালে প্রকাশ পায়, যা ৫০ মিলিয়ন কম্পিউটারে আঘাত হানে। এরমধ্যে গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ, পেন্টাগন এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের কম্পিউটারও আক্রান্ত হয়েছিল এই ভাইরসে।

৩। মাইডুম- ২০০৪ সালে উইন্ডোজ ইমেইল এ আঘাত হানে। যা ‘এরোর’ চিহ্ন দেখাতো।

৪। সো-বিগ- ২০০৩ সালে যখন এই ভাইরাস ছড়ায় তখন সিকিউরিটি কোম্পানি বলেছিল, এই ভাইরাসটি ইমেইল এর মাধ্যমে ভাইরাস ছড়ায়।

৫। ডার্কতাকিলা- এটি তৈরি করা হয়েছিল গ্রাহকদের আর্থিক লেনদেনের তথ্য চুরি করে নেওয়ার জন্য।

৬। ব্ল্যাকএনার্জি- ২০১৬ সালে ইউক্রেন এর পাওয়ার প্লান্টে এই ভাইরাস দিয়ে হামলা চালানো হয়েছিল।

সূত্র: বিবিসি

আপনার মতামত লিখুন :

উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের মাইক্রোসফটের সতর্কতা

উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের মাইক্রোসফটের সতর্কতা
উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে সাইবার হামলা, ছবি: সংগৃহীত

উইন্ডোজ ব্যবহারকারীরা ম্যালওয়্যার অ্যাটাক ‘ফ্লডঅ্যামির‍্যাট’ নামের সাইবার হামলার শিকার হতে পারেন বলে সতর্কতা জানিয়েছে মাইক্রোসফট।

একটি ম্যালাশিয়াস বা ত্রুটিপূর্ণ কোরিয়ান ভাষায় মেইলের মাধ্যমে কম্পিউটারে সাইবার হামলা ঘটে।

একজন ব্যবহাকারী জানান, মেইলের অ্যাটাচমেন্ট ফাইলটি ডাউনলোড করলে পুরো কম্পিউটারে অসংখ্য ম্যাক্রো ফাংশন ছড়িয়ে পড়ে। পরবর্তীতে একটি ডিজিটাল ফাইল কম্পিউটারে ডাউনলোড হয়ে সরাসরি কম্পিউটার সিস্টেম ও মেমোরি ড্রাইভে প্রভাব ফেলে। মেইলে যে ফাইলটি পাঠানো হয় তা কোনো ব্যবহারকারী একবার ডাউনলোড করে নিলে হ্যাকাররা তখন দূর থেকেই কম্পিউটারটি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে বলে জানায় মাইক্রোসফট।

মাইক্রোসফটের নিরাপত্তা কৌশল জানায়, এই হামলা সম্পর্কে তারা ইতোমধ্যে অবগত হয়েছেন।

মাইক্রোসফট এক বিবৃতিতে জানায়, ‘মাইক্রোসফট থ্রেট প্রোটেকশন’ গ্রাহকদেরকে এই সাইবার হামলা থেকে রক্ষা করেছে। অন্যদিকে ক্লাউড ভিত্তিক মেশিন লার্নিং প্রোটেকশন সিস্টেমে মাইক্রোসফট ডিফেন্ডার সাইবার হামলা থেকে প্রাথমিকভাবে নিরাপত্তা দিয়েছে।

সূত্র: গ্যাজটস নাও

ইন্টারনেট-সিম ছাড়াও কথা বলা যাবে ফোনে!

ইন্টারনেট-সিম ছাড়াও কথা বলা যাবে ফোনে!
অপোর ডিভাইসে নতুন ফিচার, ছবি: সংগৃহীত

শিরোনাম পড়ে নিশ্চয়ই অবাক হচ্ছেন? ওয়াইফাই এবং সিম ছাড়া কিভাবে ফোনে কথা বলা যাবে। কিন্তু অবিশ্বাস্য হলেও সত্যিই এমনটি করা যাবে বলে দাবি করছে চীনা মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অপো।

অপো বলছে, মোবাইল নেটওয়ার্ক, ওয়াইফাই এবং ব্লুটুথ সংযোগ ছাড়াই নির্দিষ্ট দূরত্বের মধ্যে দুজন ব্যক্তির কাছে অপো ডিভাইস থাকলে ফোন এবং মেসেজ করা যাবে।

এই নেটওয়ার্ক ব্যবস্থাকে ‘মেশ টক’ সার্ভিস বলছে অপো। যা তিন কিলোমিটার দূরত্বের মধ্যে যোগাযোগের জন্য একটি স্বাধীন নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা গড়ে তুলবে।

মূলত অপো ডিভাইসে যোগাযোগের জন্য নেটওয়ার্ক সিস্টেমে ‘অ্যাডহক’ লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক তৈরি করে অন্য অপো ডিভাইসটির সঙ্গে যুক্ত করবে। এরজন্য কোনো মোবাইল নেটওয়ার্ক স্টেশনের প্রয়োজন হবে না।

প্রতিষ্ঠানটি বলছে, ‘মেশ টক’ ব্যবহারে ফোনের ব্যাটারিতে বাড়তি কোনো চাপ পড়বে না। যা স্ট্যান্ডবাই ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত চলবে এবং স্বল্প চার্জেও জরুরি মূহুর্তে ব্যবহার করা যাবে।

তবে মেশ টক সার্ভিস ফিচারটি কবে আসবে এ বিষয়ে কিছু জানায়নি অপো।

গত সপ্তাহে চীনের সাংহাইতে মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে মেস টক সার্ভিস নিয়ে কথা বলে অপো।

সূত্র: দ্যা ভার্জ

 

     

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র